Rayhan07

Members
  • Content count

    285
  • Joined

  • Last visited

  • Days Won

    27

Rayhan07 last won the day on June 30 2016

Rayhan07 had the most liked content!

3 Followers

About Rayhan07

  • Rank
    Exness Bangla
  • Birthday 10/01/1980

বিস্তারিত প্রোফাইল তথ্য

  • লিঙ্গ
    পুরুষ

যোগাযোগের ভিবিন্ন মাধ্যম

  • স্কাইপ(Skype)
    rayhanxy

Recent Profile Visitors

3,078 profile views
  1. খুব সুন্দর কথা। ধন্যবাদ।

  2. For : Urgent-Sell Dollar Type : Moneybookers (Skrill) Dollar Amount: 200$ Dollar Rate: 76 Taka bdt Payment Way: face to face/ Brac Bank Location: khulna, Bagerhat Contact: 01717744636/ খুব জরুরী ভিত্তিতে 200 ডলার মানিবুকারস ডলার সেল করতে চাই । 76 টাকা রেট কারো দরকার হলে যোগাযোগ করুন ।
  3. #Forex হ্যামার এবং হ্যাঙ্গিং ম্যান সম্পর্কে কিছু আলোচনা : হ্যামার এবং হ্যাঙ্গিং ম্যান ব্যাবহার করবো কেন ? দাম যখন পড়তে শুরু করে, হ্যামার তখন সিগনাল দেয় যে নীচের অংশ কাছে চলে আসছে এবং খুব শীঘ্রই দাম আবার ওপরে উঠতে শুরু করবে। লম্বাটে নীচের শ্যাডোগুলো ঈশারা করে যে বিক্রেতারা দাম আরো নিচে ঠেলে দিয়েছিলো, কিন্তু ক্রেতারা সেটা ঠ্যাকাতে পেড়েছিলও বলেই দাম’টা ওপেন ভ্যালু’র কাছাকাছি বন্ধ হয়। হ্যামার এবং হ্যাঙ্গিং ম্যান: যদিও এরা দেখতে একেবারে একইরকমের, তবে, অভূতপূর্ব প্রাইস ওঠানামার ওপর নির্ভর করে এদের বৈশিষ্ট্য একদমই আলাদা হয়। সবারই একটা ছোট বডি আছে (সাদা বা কালো), লম্বা নীচের শ্যাডো এবং কিছু ক্ষেত্রে, অনুপস্থিত ওপরের শ্যাডো। হ্যামার মানে হাতুড়ি। এই নামটা আসে এই বৈশিষ্ট্য থেকে যে মার্কেট হাতুড়ি মেরে বটম’তা থিতু করছে। ডাউনট্রেন্ড’এর সময় বুলিশ রিভারসাল প্যাটার্ন তৈরি হয়। হ্যামার চিনব কী করে ? ১. লম্বা শ্যাডো’তাই রিয়েল বডি’র তুলনায় ২ থেকে ৩ গুন হয়। ২. ওপরের শ্যাডো অত্যন্ত ছোটো। ৩. #Trading রেঞ্জ’এর ওপরের দিকে রিয়েল বডি’টা পাওয়া যায়। রিয়েল বডি’র রঙ সেরম একটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। এতক্ষণে হেডল্যাম্প, মেটাল ডিটেক্টার, কোদাল ইত্যাদি পেরিয়ে এসেছি। হ্যাঙ্গিং ম্যান কাকে বলে ? এটি সেই বেয়ারিশ রিভারসাল প্যাটার্ন যেটা টপ’টা চিহ্নিত করে দেয় বা একটা মজবুত রেসিস্তান্স’এর প্রতি ঈশারা করে। দাম বাড়ার সময়ে, হ্যাঙ্গিং ম্যান যদি তৈরি হয়, তার মানে বিক্রেতা’রা, ক্রেতাদের সংখ্যায় বেশী। নীচের লম্বা শ্যাডো বোঝায় যে বিক্রেতারা সেশান চলাকালীন দাম’টা ঠেলে নামানোর চেষ্টা করছিলো। আবার, ক্রেতারা দাম’টাকে ঠেলে কিছুটা ওপরে ওঠাতে পেরেছে। হ্যাঙ্গিং ম্যান চিনবো কী করে ? ১. লম্বা শ্যাডো’তাই রিয়েল বডি’র তুলনায় ২ থেকে ৩ গুন হয়। ২. ওপরের শ্যাডো অত্যন্ত ছোটো। ৩. #Trading রেঞ্জ’এর ওপরের দিকে রিয়েল বডি’টা পাওয়া যায়। ৪. যদিও রিয়েল বডি’র রঙ সেরম একটা গুরুত্বপূর্ণ নয়, তাও একটা কালো বডি’কে একটা সাদা বডি’র তুলনায় বেশী বেয়ারিশ মানা হয়। আশাকরি সবাই বুঝেছেন । আমার এই লেখাটা অনেক পুরানো আরো ৪ বছর আগে লিখেছিলাম এই লেখাটা । আজ হঠাত মনে পড়ল তাই আবার লিখলাম । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  4. #Forex ডাইন্যামিক সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স: আমরা মুভিং আভারেজ’কে ডাইন্যামিক সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স’এর মাত্রা হিসেবেও ব্যাবহার করতে পারি । 1. সাধারনত ব্যাবহার হওয়া সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স থেকে এগুলি বেশ আলাদা । 2. নিকটতম প্রাইস’এর ওপর নির্ভর করে, এরা সবসময় পালটাতে থাকে । কিছু ট্রেডার অত্যন্ত বেশি নির্ভরশীল এই মুভিং আভারেজ’কে সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স হিসেবে ব্যাবহার করা নিয়ে । যখন দাম পড়ে যায়, তখন ওরা কেনে এবং মুভিং আভারেজ’টা পরীক্ষা করে দেখে । আবার যদি দাম বাড়ে এবং মুভিং আভারেজ’টার সঙ্গে ছোঁয়া লাগে, তখন বেচতে শুরু করে । আপনি লক্ষ্য করবেন যে যখনি EMA’এ পরীক্ষা হয়, সেতি রেসিস্তান্স হিসেবে কাজ করে এবং দাম নেমে আসে । 1. এগুলি আর বাকি সাধারন সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স’এর মতনই । 2. দাম সবসময় মুভিং আভারেজ থেকে বাউন্স করে ফেরে না, অনেক সময় উলটে দাম সেটাকে ভেদ করে আরও এগিয়ে যায় এবং তারপরে আবার ট্রেন্ড’এর দিকে ফিরে আসে । 3. আবার কখনো, এটাও দেখবেন যে দাম ওটা ছাড়িয়ে অনেক এগিয়ে গেছে । 4. কিছু ট্রেডার একসঙ্গে দুটো মুভিং আভারেজ ব্যাবহার করে এবং ট্রেড তখনই করে যখন দাম ওই দুতর মাঝখানে হয় । ডাইন্যামিক সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স ভাঙা : মুভিং আভারেজ’গুলি সম্ভাব্য সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স হিসেবে কাজ করতে পারে । তবে, কখনো সখোনো এগুলি ডাইন্যামিক সাপোর্ট এবং রেসিস্তান্স হিসেবেও কাজ করে । মুভিং আভারেজ বদলাতেই থাকে এবং এরজন্নই, আপনি চার্ট’এর ওপরে ওটাকে নিজের মতন ছেড়ে দিতে পারেন । এটি এর একটা বিরাট গুণ । তবে, মুস্কিল হল বাছাই করা যে কোন মুভিং আভারেজ’টা ব্যাবহার করবেন । আশাকরি সবাই বুঝেছেন । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  5. #Forex ব্যাবসাতে বাউন্স এবং ব্রেক: ১. বাউন্স নাম থেকেই বোঝা যায়। এটা একটা ধারণা যে দাম’টা সাপোর্ট বা রেসিস্তান্স’এর ওপরে বাউন্স করবে। অনেক ট্রেডার একটা ভুল করে বসে যে ওরা সম্পূর্ণ ভাবে সাপোর্ট বা রেসিস্তান্স’এর ওপরে নির্ভরশীল হয় এই বিশ্বাসে যে ওদের মাত্রাগুলি স্থির থাকবে। কিন্তু ভেবে দেখুন তো, দাম যদি সেই মাত্রাতেই না পৌঁছায়, তখন ? এরম প্রায়শই হয়ে থাকে। ২. ব্রেক এটা ব্যাবহার করার দুটো উপায় আছে। ক) আগ্রেসিভ এখানে, যে মুহূর্তে দাম সরল ভাবে সাপোর্ট বা রেসিস্তান্স’এর ভেতর দিয়ে পেরিয়ে যাবে, সে মুহূর্তেই আপনি ট্রেড করতে পারবেন। এর ফলে, এটাকে আপনি একটা ঈশারা হিসেবে ধরতে পারেন ট্রেড শুরু করবার জন্যে। খ) কন্সারভেটিভ কিছু ট্রেডার, সাপোর্ট ভেঙে জাওয়ার পরেও তাদের পসিশান ছাড়ে না, যদিও তাদের ক্ষতি ওদিকে বেড়েই চলেছে। আপনি যদি “না লাভ – না লোকসান” এরম জায়গায় বেচতে চান, সেক্ষেত্রে আপনি ট্রেডের অপর দিকে পৌঁছে যাবেন। সাপোর্ট ভাঙার পরেও যদি খুব বেশি বিক্রি শুরু হয়, সে ক্ষেত্রে দাম পালটি খায় এবং আবার পড়তে শুরু করে। এটা যখন হয়, ভাঙ্গা সাপোর্ট তখন রেসিস্তান্স হয়ে যায়। আশাকরি সবাই বুঝেছেন । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  6. #Forex মার্কেটের বিভিন্ন ধরনের অর্ডার: আপনার ব্রোকার আপনাকে বিভিন্নভাবে ট্রেড অর্ডার প্লেস করার সুযোগ দিবে। এখানে অর্ডার মানে আপনি কিভাবে ট্রেড শুরু ও শেষ করবেন তা বুঝায়। চলুন দেখি মার্কেটে কি কি ভাবে অর্ডার ব্যাবহার করার ব্যাবস্থা আছে: অর্ডার টেবিল : Symbol - আপনি কোন কারেন্সি পেয়ার ট্রেড করতে চান সেটা এখানে দেখায়। Volume - আমরা যে লট ( ১ লট= ১০০,০০০ ইউনিট) পড়েছিলাম সেটাকে Volume বলে। Stop Loss - প্রাইস যদি একটা নির্দিস্ট পরিমান লস খায় তাহলে ট্রেড নিজে নিজেই ক্লোজ হয়ে যাবে। Take Profit - প্রাইস যদি একটা নির্দিস্ট পরিমান লাভ পায় তাহলে ট্রেড নিজে নিজেই ক্লোজ হয়ে যাবে। Comment - আপনি যদি আপনার ট্রেডে কোন নোট করতে চান তাহলে তা এখানে করতে পারবেন। Type - এখানে ২ রকম অর্ডার প্লেস করতে পারবেন। নিম্নে এগুলো বিস্তারিত দেয়া হয়েছে। Sell & Buy Button - এই বাটন ২ টি দিয়ে বাই অথবা সেল দেয়া হয়। ইনস্ট্যান্ট এক্সিকিউশন আপনি যদি বর্তমান মার্কেট মূল্যে অর্ডার প্লেস করতে চান তাহলে সেটা ইনস্ট্যান্ট এক্সিকিউশনে করতে হয় । ধরুন বিড এবং আসক প্রাইস দেয়া আছে। আপনি বাই/সেল যেকোন বাটনে ক্লিক করলে সঙ্গে সঙ্গে ট্রেড শুরু হয়ে যাবে। পেন্ডিং অর্ডার যদি প্রাইস একটা নির্দিষ্ট পর্যায়ে গেলে আপনি ট্রেড শুরু করতে চান তাহলে আপনাকে পেন্ডিং অর্ডার ব্যাবহার করতে হবে। পেন্ডিং অর্ডারের আবার ধরন আছে। লিমিট অর্ডার সেল লিমিট: যখন আপনি বর্তমান প্রাইসের চেয়ে বেশি ভ্যালুতে সেল করতে চান, তখন এটা ব্যাবহার করেন। ধরুন EUR/USD এর বর্তমান প্রাইস ১.০৯৬৫। আপনি সেল করতে চান যখন প্রাইস ১.১০১৫ এ যাবে। তখন আপনি সেল লিমিট অর্ডার দেবেন। বাই লিমিট: যখন আপনি বর্তমান প্রাইসের চেয়ে কম ভ্যালুতে বাই করতে চান, তখন এটা ব্যাবহার করেন। ধরুন EUR/USD এর বর্তমান প্রাইস ১.০৯৬৫। আপনি বাই করতে চান যখন প্রাইস ১.০৮৩১ এ যাবে। তখন আপনি বাই লিমিট অর্ডার দেবেন। স্টপ অর্ডার বাই স্টপ: যখন আপনি বর্তমান প্রাইসের চেয়ে বেশি ভ্যালুতে বাই করতে চান, তখন এটা ব্যাবহার করেন। ধরুন EUR/USD এর বর্তমান প্রাইস ১.০৯৬৫। আপনি বাই করতে চান যখন প্রাইস ১.১০১৫ এ যাবে। তখন আপনি বাই স্টপ অর্ডার দেবেন। সেল স্টপ: যখন আপনি বর্তমান প্রাইসের চেয়ে কম ভ্যালুতে সেল করতে চান, তখন এটা ব্যাবহার করেন। ধরুন EUR/USD এর বর্তমান প্রাইস ১.০৯৬৫। আপনি সেল করতে চান যখন প্রাইস ১.০৯৩১ এ যাবে। তখন আপনি সেল স্টপ অর্ডার দিবেন। ট্রেইলিং স্টপ এটা অর্ডার বক্সে পাবেন না। যখন আপনার অর্ডার প্লেস করা হবে তখন সেই অর্ডারটিতে রাইট মাউস বাটর ক্লিক করুন। সেখানে ট্রেইলিং স্টপ দেখবেন। ট্রেইলিং স্টপ আপনার ট্রেডের স্টপ লস পরিবর্তন করতে থাকে যখন আপনার ট্রেড লাভে খাকে। ধরুন আপনার EUR/USD সেল ট্রেড ১.০৯৩১ এ শুরু হল। আপনার স্টপ লস ছিল ১.০৯৬১। আপনি ট্রেইলিং স্টপ ২০ পয়েন্ট দিলেন। তাহলে দেখবেন যখনই আপনার ট্রেড বর্তমান স্টপ লস থেকে ২০ পিপের বেশি যায় তখনই আপনার স্টপ লস পরিবর্তন হতে দেখা যায়। আশাকরি সবাই বুঝেছেন আমার কম্পিউটারে কিছু সমস্যা থাকার কারনে আমি নতুন কোন অর্ডার টেবিল এর ইমেজ আপলোড দিবার জন্য screen short দিতে পারলামনা এই জন্য দু:খিত আমি অনেক পুরানো একটা আগের টেবিল অর্ডার এর ইমেজ দিলাম আশাকরি আপনারা সবাই বুঝে নিবেন । শুধু উদাহারন দিবার জন্য দিলাম । আপনারা যদি আমার এই নেচে দেওয়া ইমেজ ছবি এর সাথে মিলিয়ে নিতে চান তাহলে আপনারা শুধু আমার উপরের লেখা উল্লেখিত বর্তমান প্রাইসটা মনে মনে পরিবর্তন করে নিবেন ধরে নিবেন যে বর্তমান প্রাইস আছে যেমন ইমেজে আছে Sell-1.2902 আর Buy-তে আছে 1.2903 তাহলে আপনি মনে মনে ধরে নিতে পারেন বর্তমান প্রাইস ১.০৯৬৫ । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  7. 2015 সালে #Exness Broker এর অতুলনীয় সাফল্য : *IRBR অংশীদারিত্ব দিয়ে 2015 এর শুভ আরম্ভ *রুশ ভাষায় কথা বলা গ্রাহকদের জন্য ওয়েবিনার চালু করা হল *WWF এর সাহায্যে মেরু অঞ্চলের সাদা ভল্লুকদের সুরক্ষিত করা হল *SEA অংশীদাররা F1 মালয়েশিয়া গ্র্যান্ড প্রিক্স প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত উপভোগ করলেন *জেনারেল পার্টনার হিসাবে FX কংগ্রেস II এ অংশগ্রহণ করা হল *চিনের অংশীদাররা F1 চিনা গ্র্যান্ড প্রিক্সে উপস্থিত থাকলেন *থাই এবং ভিয়েতনামীতে 24/7 গ্রাহক সহায়তার ব্যবস্থা করা হল *আর্থিক পরিষেবা বিভাগে ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক কনফারেন্সে টাইটেল উদ্যোক্তার ভূমিকা নেওয়া হল *#Exness গ্রুপ $232 বিলিয়নের রেকর্ড #ট্রেডিং পরিমাণ হাসিল করল *Neteller, #Exness (Cy) Ltd গ্রাহকদের কাছে উপলব্ধ করানো হল *#Exness গ্রুপের সাংঘাই প্রতিনিধির অফিস মহা সমারোহে খোলা হল *লাভের অর্থরাশি ক্রেডিট কার্ডে তোলার ব্যবস্থা উপলব্ধ করানো হল *আরবী WebTV অ্যানালাইটিক্স চালু করা হল *#Exness গ্রুপের চঘংশা প্রতিনিধির অফিস মহা সমারোহে খোলা হল *180BPM প্রতিযোগিতার বিজেতার নাম ঘোষণা করা হল *#Exness, STC সুরাবায়ার লাইভ #ট্রেডিং কর্মশালায় অংশগ্রহণ করল *#Exness, FXIC #Forex সাংঘাইতে অংশগ্রহণ করল । #Exness Broker সেরা সাফল্য নিয়ে কিছু সংক্ষিপ্ত আলোচনা করলাম । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  8. ধন্যবাদ ভাই,হ্যা ভাই নতুন একটি ভালো বোনাস অফার আছে এই মুহুর্তে শতকরা ৮০% পর্যন্ত বোনাস ।আমি বিস্তারিত আপনাকে পর্যায়ক্রমে বলছি #Exness Broker এর ম্যাজিক্যাল বোনাস গ্রহন করতে পারেন : এই হলিডে সিজনে মজা উপভোগ করুন। সর্বমোট #Trading পরিমাণ যত বেশী হবে, তত বেশী বোনাস পাবেন৷ কর্মসূচির বিষয়ে: হলিডে সিজন এখন আপনার কাছে উপস্থিত! এই বছরের ম্যাজিক্যাল সেলিব্রেশনে, #Exness আপনার জন্য সানন্দে উপহার হিসাবে এক বাক্স বোনাস নিয়ে এসেছে । #Exness এর কাছে, আপনার সঙ্গে নতুন বছরের কাউন্ট ডাউন মানে বিশাল ব্যাপার। #Exness এই নতুন বছর আপনার জন্য আনন্দময় করে তুলতে চাায় । নিজের সারণী অনুসারে ম্যাজিক্যাল বোনাস শতকরা হার বেড়ে ১২% থেকে ৮০% হতে পারে। গুরুত্বপূর্ণ! মোট অর্থরাশি জমা ও #Trading পরিমাণের পরিবর্তনের ভিত্তিতে বোনাস পুনরায় গণনা করা হবে। সর্বশেষ লেনদেন বা অর্থরাশি জমা/তোলার 4 ঘন্টার ভিতরে বোনাসের শতকরা হার এবং পরিমাণ আপডেট করা হয়। সর্বমোট #Trading পরিমাণ গণনার সময়ে কেবলমাত্র বন্ধ পজিশনগুলিকে বিবেচনা করা হয়। বোনাস গণনার উদাহরণ: প্রতিটি দিকে বন্ধ পজিশনের জন্য (এক অভিমুখে) কোন অ্যাকাউন্টে সর্বমোট #Trading ভলিউম হল 450,000 EUR। EUR/USD হার =1.25000 । নেট জমা হল 100 USD, যা 0.1 হাজার USD এর সমান। এই অবস্থার অনুরুপ বোনাস গণনা করতে: #ট্রেডিং পরিমাণকে USD-তে রূপান্তর করুন: 450,000 EUR = 450,000 x 1.25000 = 562,500 USD = 0.5625 mln USD। মোট জমা করা অর্থরাশি থেকে #ট্রেডিং পরিমাণের অনুপাত খুঁজুন: 0.5625 / 0.100 = 5.625 । টেবিলের মধ্যে থাকা পরিসংখ্যানের সঙ্গে ফলাফলের তুলনা করুন এবং বোনাসের পরিমাণ নির্ধারণ করুন: 5.0 < 5.625 < 8.0, সুতরাং, বোনাসের পরিমাণ 40.0% বা 40.0 USD 100 USD নেট জমার জন্য। বোনাস প্রোগ্রামের শর্ত : অ্যাকাউন্টের ধরন-----------Mini রেজিস্ট্রিকরণের মেয়াদ----------10.12.2015 — 10.01.2016 -এর অধীনে খোলা নতুন অ্যাকাউন্টগুলোর জন্য উপলব্ধ----------------#EXNESS LIMITED বোনাস----------------আপনার #ট্রেডিং পরিমাণের উপর নির্ভর করে বোনাসের মেয়াদ------------#EXNESS LIMITED দ্বারা সমাপ্ত না করা পর্যন্ত অসীমিত। অর্থরাশি তোলার শর্তাদি:-------------এই বোনাস প্রোগ্রামের আওতায় পাওয়া অর্থরাশি তুলতে পারবেন না। #ট্রেডিং পরিমাণ এর অর্থ হল ক্লোজ হওয়া পজিশনের সর্বমোট #ট্রেডিং ভলিউমের মান একই অভিমুখে রয়েছে। আশাকরি ভাই আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে গেছেন । আরো কিছু জানার থাকলে প্রশ্ন করতে পারেন । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  9. লট/ভলিউম সম্পর্কে কিছু আলোচনা করা হল: লট ব্যাপারটি অনেক সহজ। কিন্তু আপনি যখন ইউনিটের হিসাবে যাবেন, তখন তা আপনার কাছে জটিল মনে হবে। তাই আমি এখানে ইউনিটের হিসাবে যাব না বরং সহজ ভাবে বোঝানোর চেষ্টা করবো। #Forex মার্কেটে আমরা প্রতি পিপস মুভমেন্টে লাভ করতে পারি। অর্থাত প্রাইস ১.১০১০ থেকে ১.১০২০ এ গেলে আমাদের ১০ পিপস লাভ বা লস হবে। লট/ভলিউমের মাধ্যমে আমরা নির্ধারণ করে দিবো যে প্রতি পিপস আমাদের অনুকূলে বা প্রতিকূলে গেলে আমাদের কি পরিমান লাভ বা লস হবে। #Forex ব্রোকারদের আমরা সুবিধার জন্য ৩ ভাগে ভাগ করছি। স্ট্যান্ডার্ড লট ব্রোকার মিনি লট ব্রোকার মাইক্রো লট ব্রোকার স্ট্যান্ডার্ড লট ব্রোকারে ১ লট = $১০/পিপস। কিন্তু মিনি লট ব্রোকারে ১ লট = $১/পিপস। আর মাইক্রো লট ব্রোকারে ১০ লট = $১/পিপস। তারমানে, আপনি স্ট্যান্ডার্ড লট ব্রোকারে যদি ১ লট দিয়ে একটি ট্রেড ওপেন করেন এবং ১০ পিপস আপনার অনুকুলে যায় তবে আপনার লাভ হচ্ছে $১০x১০=$১০০. অনুরুপ লস হলেও $১০০ হবে। কিন্তু, আপনি মিনি লট ব্রোকারে যদি ১ লট দিয়ে একটি ট্রেড ওপেন করেন এবং ১০ পিপস আপনার অনুকুলে যায় তবে আপনার লাভ হচ্ছে $১x১০=$১০. অনুরুপ লস হলেও $১০ হবে। আর, আপনি মাইক্রো লট ব্রোকারে যদি ১ লট দিয়ে একটি ট্রেড ওপেন করেন এবং ১০ পিপস আপনার অনুকুলে যায় তবে আপনার লাভ হচ্ছে $০.১x১০=$১. অনুরুপ লস হলেও $১ হবে। স্ট্যান্ডার্ড লট ব্রোকারেঃ ১ স্ট্যান্ডার্ড লট = $১০/পিপস ০.১ স্ট্যান্ডার্ড লট = $১/পিপস ০.০১ স্ট্যান্ডার্ড লট = $০.১০/পিপস ১০ স্ট্যান্ডার্ড লট = $১০০/পিপস মিনি লট ব্রোকারেঃ ১ মিনি লট = $১/পিপস ০.১ মিনি লট = $০.১০/পিপস ০.০১ মিনি লট = $০.০১/পিপস ১০ মিনি লট = $১০/পিপস মাইক্রো লট ব্রোকারেঃ ১ মাইক্রো লট = $০.১০/পিপস ০.১ মাইক্রো লট = $০.০১/পিপস ০.০১ মাইক্রো লট = $০.০০১/পিপস ১০ মাইক্রো লট = $১/পিপস নিশ্চয়ই বুঝে গেছেন স্ট্যান্ডার্ড লট, মিনি লট এবং মাইক্রো লটের পার্থক্য। ব্রোকাররা তাদের সুবিধা মত লট সাইজ ঠিক করে। অধিকাংশ ব্রোকার আপনাকে সর্বনিম্ন ০.০১ লটে ট্রেড করতে দিবে। অর্থাত, স্ট্যান্ডার্ড লট ব্রোকারে আপনি সর্বনিম্ন পিপ ভ্যালু নিতে পারবেন ১০ সেন্ট। কিন্তু মিনি লট ব্রোকারে আপনি সর্বনিম্ন পিপ ভ্যালু নিতে পারবেন ১ সেন্ট। আর মাইক্রো লট ব্রোকারে আপনি সর্বনিম্ন পিপ ভ্যালু নিতে পারবেন ০.১ সেন্ট। সুতরাং আপনার ক্যাপিটাল যদি কম হয়ে থাকে, তাহলে আপনি মিনি লট বা মাইক্রো লট ব্রোকারে কম রিস্ক নিয়ে ট্রেড করতে পারবেন। শুধু যে আপনি ১ লট, ০.১ লট অথবা ০.০১ লটে ট্রেড করতে পারবেন তাই নয়, আপনি চাইলে ২.৫ লট, ১.৩ লট এরকম কাস্টম লটেও ট্রেড করতে পারেন। কিভাবে বুঝবো আমার ব্রোকারটি মাইক্রো লট, মিনি লট না স্ট্যান্ডার্ড লট? #Trading পয়েন্টের মাইক্রো অ্যাকাউন্টে আপনি মাইক্রো লটে ট্রেড করতে পারবেন। আপনি যদি না জানেন আপনার ব্রোকারটি মাইক্রো লট, মিনি লট না ষ্ট্যাণ্ডার্ড লট, তাহলে ব্রোকারের লাইভ সাপোর্টে প্রশ্ন করুন। অনেক সময় তাদের ওয়েবসাইটেও দেয়া থাকে। অথবা তাদের সাথে একটি ডেমো অ্যাকাউন্ট খুলে ১ লট দিয়ে একটি ট্রেড ওপেন করুন। যদি দেখেন যে প্রতি পিপস পরিবর্তনে $১০ ডলার করে লাভ বা লস হচ্ছে তবে বুঝবেন এটা স্ট্যান্ডার্ড লট ব্রোকার। আর যদি দেখেন যে $১ ডলার করে পরিবর্তন হচ্ছে, তাহলে বুঝবেন এটা মিনি লট ব্রোকার। ১০ সেন্ট করে পরিবর্তন হলে বুঝবেন তা মাইক্রো লট ব্রোকার। কিন্তু কিছু কিছু ব্রোকারের একেক অ্যাকাউন্ট টাইপে একেক রকম লট সাইজ থাকে। _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  10. ট্রেন্ড স্পট করা : - মার্কেট কোন ডায়রেকশনে যাচ্ছে, এটা জানা কি জরুরী? - আপনার কি মনে হয় যে আপনার #Trading সিস্টেম ফালতু? মাঝেমধ্যে #Trading সিস্টেম খারাপ হতে পারে, আবার কোন ভালো #Trading সিস্টেম খারাপভাবে ব্যাবহার হতে পারে। অবশ্যই #Trading সিস্টেম যদি খারাপ পারফর্মেন্স দেয়, তাহলে দোষ #Trading সিস্টেমের। আপনার কোন দোষই হতে পারে না, তাই না? কোন #Trading মেথডই ভালো হবে না, যদি সেটা সঠিক ডায়রেকশনে ট্রেড না করে থাকেন। যদি মার্কেট কোন ডায়রেকশনে যাচ্ছে তা ধরতে পারেন, তাহলে একটা এভারেজ #Trading সিস্টেমও আপনাকে লাভ দিতে পারে। একসময় না একসময় আমরা ভিন্ন ধরনের মার্কেট এনভাইরনমেন্টে প্রবেশ করে থাকি। সেগুলোকে তিন ভাগে ভাগ করা যায়ঃ - আপট্রেন্ড - ডাউনট্রেন্ড - রেঞ্জিং/ফ্ল্যাট ভিন্ন ভিন্ন টাইমফ্রেমে #Forex মার্কেট অনেক সুযোগ দেয় যেখানে রেঞ্জিং এবং ট্রেন্ডিং মার্কেটে বিভিন্ন স্ট্রাটেজি খাটানো যায়। যদি জানতে পারেন যে কোন মার্কেটে কোন স্ট্রাটেজি উপযুক্ত, আপনি আপনার #Trading ট্যুলবক্স থেকে সেগুলো ব্যবহার করে মার্কেট থেকে লাভ নিয়ে নিতে পারবেন। আজ এই পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত আলোচনা করলাম । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  11. #Forex ট্রেড করার সুবিধাঃ - আগের দিনে শুধুমাত্র বিশাল ধনী অথবা ব্যাংকগুলো #Forex মার্কেটে ট্রেড করার সুযোগ পেত। কিন্তু বর্তমানে সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে বিভিন্ন #Forex ব্রোকারের আবির্ভাব ও প্রতিযোগিতা বৃদ্ধির কারনে যে কেউই পৃথিবীর যে কোনো দেশ থেকে #Forex মার্কেটে ট্রেড করতে পারে। - মাত্র ১ ডলার দিয়ে #Forex ট্রেড শুরু করা সম্ভভ। তাছারা প্রায় সব ব্রোকারই আপনাকে ফ্রী ডেমো ট্রেড করার সুবিধা দেবে, অর্থাত ভার্চুয়াল মানি দিয়ে। তাই প্রথমে আপনি নিখরচায় ডেমো ট্রেড করে নিজেকে প্রস্তুত করে নিতে পারেন এবং ডেমো ট্রেড করে সাফল্য পেলে ডিপোজিট করে রিয়েল ট্রেড শুরু করতে পারেন। - #Forex মার্কেট পরিধি অনেক বড় এবং এই মার্কেটকে ম্যানিপুলেট করা সম্ভভ না। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় স্টক মার্কেট হচ্ছে নিউইয়র্ক স্টক মার্কেট এবং #Forex মার্কেটের আকার তার থেকেও ২৫ গুন বেশি। মনে রাখবেন,ডলার বা ইউরো এর মূল্য কোন দেশের মূল্য কোনো দেশের সরকার নির্ধারণ করে দেয় না। বিভিন্ন দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ও আর্থিক ঘটনাবলীর প্রেক্ষিতে বিভিন্ন দেশের মুদ্রার মূল্য নিজে নিজেই পরিবর্তিত হয়। আপনি যে দামে ডলার বা ইউরো কিনবেন, সেই একই দামে পৃথিবীর সব দেশে ডলার বা ইউরো ক্রয়-বিক্রয় হবে। - #Forex মার্কেট এ ট্রেড করার ক্ষেত্রে বড় ধরনের লিভারেজ বা লোন সুবিধা পাওয়া যায়, আর তাই খুব অল্প মার্কেট মুভমেন্ট থেকেই আপনি ভাল প্রফিট করতে পারবেন। - স্ক্যালপিং #Forex এ খুব জনপ্রিয় একটি শব্দ। এর মানে হচ্ছে খুব অল্প সময়ের জন্য খোলা ট্রেড। #Forex মার্কেটের খুব অল্প পরিবর্তনেও ভাল লাভ করা সম্ভভ। অনেকেই ১০ বা ১৫ সেকেন্ডের জন্য একটি ট্রেড ওপেন করে এবং প্রফিট পেলে তা নিয়ে ট্রেড থেকে বের হয়ে যায়। - #Forex মার্কেট সোম থেকে শুক্র, সপ্তাহের ৫ দিনই দিবা-রাত্রি ২৪ ঘণ্টার জন্য খোলা থাকে। আর তাই, আপনি ব্যাবসায়ি হোন বা চাকুরিজীবী, #Forex মার্কেটে আপনি আপনার সুবিধামত ট্রেড করতে পারবেন। - #Forex #trading আপনি বাসায় বসেই করতে পারবেন, বাইরে যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। আর তাই পরিবারকে প্রচুর পরিমানে সময় দিতে পারবেন। - #Forex মার্কেটে ট্রেড করার জন্য আপনাকে সব কিছু অনলাইনে করতে হবে আর অ্যাকাউন্ট ওপেনিং থেকে শুরু করে অ্যাকাউন্টে ডিপোজিট বা উইথড্র করাও অনেক সহজ। - আপনি যদি ভাল ট্রেড করতে পারেন, তাহলে অনেকেই আপনার সাথে ডিপোজিট করতে উৎসাহিত হবে এবং সেক্ষেত্রে আপনি তাদের ট্রেড পরিচালনা করতে পারেন এবং তাদের লাভের একটি অংশ আপনি পাবেন। - সর্বোপরি একজন সফল ও দক্ষ #Forex ট্রেডার এই মার্কেট থেকে প্রচুর পরিমানে আয় করতে পারবেন। উল্লেখ করা বাঞ্ছনীয়, একজন দক্ষ ও সফল ট্রেডার হতে হলে আপনাকে #Forex মার্কেট সম্পর্কে প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে, নিজেকে এই মার্কেটের যোগ্য করে তুলতে হবে। #Forex মার্কেট থেকে যে কেউই কোন কিছু না জেনেও হয়ত প্রথম দিকে অনেক আয় করতে পারেন। মনে রাখবেন, #Forex মার্কেট স্টক মার্কেটের মতই চ্যালেঞ্জিং। না জেনে হয়ত প্রাথমিকভাবে সফল হওয়া যাবে যেটা স্টক মার্কেটও অনেকেও অনেকে হয়। তবে দীর্ঘসময়ের জন্য টিকে থাকতে হলে, এক্সপার্ট হওয়া ছাড়া কোন বিকল্প নেই। আর একটি কথা, #Forex মার্কেটে মন্দা বলে কিছু নেই। কারন স্টক মার্কেটে আপনি শুধু buy করতে পারেন, #Forex মার্কেটে buy বা sell উভয়ই করতে পারবেন। _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  12. ভাই আপনি হয়তো জানেন না যে আমার অনেক লেখা অনেকে কপি করে নিয়ে গেছে । আমার অনেক লেখা অনেক ফোরাম সাইট কপি করে নিয়ে গেছে । আমি ভাই ফোরামে কাজ করি আরো প্রায় 5 বছর আগে থেকে । আমি 100% চ্যালেন্জ দিয়ে বলতে পারি যে লেখাগুলো আমার । আমার লেখাগুলো কেউ যদি কপি করে নিয়ে নিজের ফোরামে নিয়ে নিজের বলে চালিয়ে দেয় কি করার? আমার অনেক প্রমান আছে ।
  13. #Exness Broker একটি ম্যাজিক্যাল নতুন বছর উদযাপন করছে : প্রিয় গ্রাহক ও সহযোগীগণ, #Exness এর উপরে আপনার আস্থা, ভরসা রাখার এবং সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ। গত বছরে কোম্পানি মুখ্য মাইলফলক অর্জন করেছে, এর মধ্যে #Trading পরিমাণে 232 বিলিয়ন USD অর্জন, চিনে দুইটি নতুন প্রতিনিধি কার্যালয় খোলা, প্রধান আন্তর্জাতিক #Forex কনফারেন্স এবং সেমিনারে অংশগ্রহণ যেমন মস্কোতে FX Congress II এবং সাংঘাইতে FXIC এবং ইনফিনিটি রেড বুল রেসিং (IRBR) এর সঙ্গে #Exness অংশীদারিত্বকে নবরূপ দেওয়া অন্তর্ভুক্ত। আপনারা ছাড়া #Exness এর পক্ষে এই অর্জনগুলি সম্ভব হত না। আপনার সাথে আর এক সফল বছরের সমাপ্তি উদযাপনের এই মুহূর্তে আপনার কঠোর পরিশ্রমের স্বীকৃতিস্বরূপ #Exness আপনার কাছে ম্যাজিক্যাল বোনাস-কে খুশির সাথে উপস্থিত করছে । #Exness আনন্দের সাথে নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর মুহূর্তে, তারা 2016 সালে আপনার আরো বড় সাফল্যের শুভ কামনা করছে এবং আগামী বছরেও #Exness এর সাফল্যের অংশীদার হয়ে থাকার শুভেচ্ছা জানাচ্ছে । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  14. #Forex– এর মানে কি ? আমি চিরকাল’ই জানতে চেয়েছি যে #Forex’এর মানে কি, এটা কিসের বিবরণী। আমাকে এইটা শেখানো হয়েছিল। সোজা ভাষায়, এটা সেই বাজার যেখানে এক মুদ্রার তুলনায় আর এক মুদ্রার ক্রয় বা বিক্রয় হয়। তো, যখনই এই ক্রয় বা বিক্রয়’তে আমরা সক্রিয় ভুমিকা নিচ্ছি, তখনই আমরা এই বাজারের ক্রেতা’র ভুমিকা পালন করছি। এর থেকে বড় জঙ্গল জিবনে দেখবে না, এর মূল্য দৈনিক $১.`৫ ট্রিলিয়ন !! কি কেনা-বেচা হয় ? এতো বার্তালাপ শুনে আমি উলটে আরো বেশি চমকে গেছিলাম। আমি কিছুই বুঝছিলাম না যে কেনা বেচার জন্য টাকা আসবে কোথা থেকে। অবশেষে, সাহস জুগিয়ে আমি পিপ্পিনো সাহেব এর কাছে আমার প্রশ্ন রাখলাম, “ কি এমন কেনা-বেচা করি যার থেকে আমরা আয় করি ?” ওনার উত্তরের সরলতায় আমিও মুগ্ধ হয়ে গেছিলাম। উনি আমাকে বোঝালেন যে স্রেফ টাকা’ই একে অপরের বিনিময়ে কেনা বেচা করা হয়। একটা দেশ’এর মুদ্রা’র দাম জড়িয়ে আছে দেশ’এর রাজনীতি, অর্থনীতি, ব্যাবসা-বাণিজ্য ইত্যাদির সঙ্গে। একটা দেশ’এর মূল্য অতটাই যতটা তার সমস্ত মুদ্রার সম্মিলিত মূল্য। তাই, যখনই আমরা একটা দেশ’এর মুদ্রা কিনছি, আমরা সেই দেশ’এর একটা অংশ কিনছি। ওনার বক্তব্য শেষ হওয়ার পরে যেন ওনার চোখে একটা ঝিলিক দেখতে পেলাম। জানিনা সেদিন আমার কি হয়েছিল, কিন্তু আমার চোখটাও চকচক করে উঠেছিলো। পৃথিবীতে সব চাইতে বেশি কেনা বেচা, কোন মুদ্রা গুলি হয় ? “আমার কোথা শোনো জো, গুপ্তধন মানেই সোনা বা রুপোর থালা-বাটি নয়, এতি অনেক আকারে নিজেকে প্রকাণ্ড করতে পারে। আজকের আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি মাথায় রেখে বিচার করলে, আগামি মুদ্রা’গুলকেই সবচাইতে মূল্যবান গুপ্তধন মনে করে উচিত।“ নিশ্বাস ফেললেন পিপ্পিনো বাবু। আমেরিকান ডলার (USD), ইউরো (EUR), জাপানের ইয়েন (JPY), সুইস ফ্রাঙ্ক (CHF) এবং ব্রিটিশ পাউন্ড (GBP) দের’কেই বহুমূল্য ধরা হয়। আমি এটাও জানতে পারলাম যে একসঙ্গে ধরলে, এরা পৃথিবীর মুদ্রা বাজারের ৯০% ব্যাবসা টেনে দেয়। গুপ্তধন চিনবে কি করে ? তোমরা নিশ্চয় ভাবছ যে এই গুপ্তধন গুলোকে চিনবে কি করে ? খুবই সোজা, স্রেফ তিন অক্ষরের নিয়ম’টা মনে রাখো। প্রথম দুটি অক্ষর দেশ’কে চেনায় এবং অন্তিম’টি মুদ্রা’র নাম থেকে নেওয়া। যেমন ধরো GBP । GB গ্রেট ব্রিটেন’কে চেনায় এবং P চেনায় পাউন্ড’কে। মুদ্রা কি স্রেফ জোড়ায় কেনা বেচা হয় ? সময় এসেছে এক রহস্য ভেদ করার। #Forex জঙ্গল একটি ক্ষমাহীন জায়গা, একমাত্র সঠিক অস্ত্র থাকলে তবেই টিকে থাকা যাবে। এই মুহূর্ত থেকে মুদ্রা-জোড়াই আমাদের সেরা অস্ত্র হতে চলেছে। আর যে কোনও কেনাবেচার মতই এখানেও একটার পরিবর্তে আরেকটা আসে। এই জঙ্গলে মুদ্রা সব সময় জোড়ায় জোড়ায় কেনা বেচা হয়। মানে এই যে, একটা বেচে আরেকটা কেনেন বা একটা কিনে আরেকটা বেচেন। একজন #Forex-broker দুই পক্ষের মধ্যে আলাপ করিয়ে দেয় কেনা বেচা করবার জন্য এবং এর পরিবর্তে আমরা তাকে সামান্য একটু অনুমদন দক্ষিণা দী। সবচাইতে বেশী বিক্রিত জোড়াগুলি হল গিয়ে ইউরো/ইউএসডি, পাউন্ড/ইউরো ইত্যাদি। কি সেই ধন যার পেছনে সবাই দৌড়চ্ছে ? আমার মাথাতেও এই একই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছিল। আমি আখেরে আমার গুরু কে জিগ্যেস করেই বসলাম, “কি সেই বিদেশি মুদ্রা যা বাচ্চা থেকে খুড়ো, সকলে চেনে ? আমার চোখে মুখে স্পষ্ট যে প্রশ্নের ছাপ দেখা যাচ্ছিল, হয়ত সেটা দেখেই পিপ্পিনো বাবু তার মুখ খুললেন। এরম হাড় হিম করে দেওয়া আওয়াজে কথা বলতে আমি তাকে খুব কম’ই শুনেছিলাম। আজ অব্দি আমি সেই কণ্ঠস্বর ভুলতে পারিনি। যে যাই বলুকনা কেন, আখেরে পিপ্পিনো বাবু একজন অত্যন্ত অভিজ্ঞ লোক। তাই তিনি যখন কিছু বলেন, সেটাকে পাথরে খোদাই’এর বরাবর মানা উচিত। “ জো, সবসময় ডলার’এর মহিমায় স্তম্ভিত থাকবে। মুদ্রাজোড়ার একটি মুদ্রা যখনি ডলার হয়, তখন সেটাকে মেজর মুদ্রাজোড়া বলা হয়। পৃথিবী’তে সবচাইতে বেশী এই মুদ্রাজোড়ার ক্রয়-বিক্রয় হয়, এবং তাই সেরম নাম, মেজর জোড়া।“ মেজর জোড়া আছে যখন, মাইনর জোড়াও আছে নাকি ? অবশ্যই ভাববার বিষয়, মেজর আছে যখন, তখন মাইনর’অ তো থাকা উচিত। এক্কেবারে সঠিক ভেবেছেন। মাইনর হল সেই মুদ্রা জোড়া যার কোনওদিকে ডলার নেই। অনেকসময় এদেরকে ক্রস জোড়া বলেও ডাকা হয়। প্রমুখ যে ডলার বাদে মুদ্রাগুলি আছে, সেগুলি দিয়েই মাইনর জোড়া তৈরি হয়। ইউরো, পাউন্ড, ইয়েন ইত্যাদি। এক্সতিক মুদ্রা জোড়া। সমুদ্র, ফলে সাজানো থালা, সূর্যের আলো, রৌদ্রস্নান, এইসব মনে পরছে কি ? দুঃখের খবর, আপনি এখনো জঙ্গলেই থাকবেন, কিন্তু চিন্তা করবেন না, এক শিকারির জীবন আপনাকে অবশ্যই সেখানে নিয়ে যাবে। ওপরে যার যার কথা মনে পড়ছিল, সব কিছুই ব্রাজিল’এ পাওয়া যায়, তাই না ? মোটামুটি এক্সতিক জোড়াও সেরমি বলতে পারেন। মুদ্রা জোড়ার একদিকে যদি উদয়ান্ত অর্থনীতি’র কোন দেশ থাকে, যেমন হাঙ্গারি, মেক্সিকো বা ব্রাজিল, সে ক্ষেত্রে তাদেরকে এক্সতিক মুদ্রা জোড়া বলা হয়। গুপ্তধনটি লোকানো কোথায় ? অফিস’এর কথা ভাবলেই মাথায় আগে একটা টেবিল, কয়েকটা চেয়ার, একটা বড় ডেস্ক, এইসব ভাবনা চিন্তা আসে। কিন্তু পিপ্পিনো বাবু আমার চিন্তাধারা ভঙ্গ করলেন। ঊনি বোঝালেন যে #Forex মার্কেট’এর কোনো স্থিতিশীল ঠিকানা বা কোনো নির্দিষ্ট বাড়ি নেই। একদিক দিয়ে ভেবে দেখলে এটাই #Forex’ এর সেরা সুবিধে। কেন ভাবছেন ? পুরো ব্যাবসা’টাই বিদ্যুতিন মাধ্যমে একটা নেটওয়ার্ক’এর ওপরে চলে। ব্যাঙ্ক’এর সাহায্যে সম্পূর্ণ নেটওয়ার্ক’টা চলে ২৪ ঘণ্টা ধরে। যার ফলে কোনো একটি নির্দিষ্ট স্থান’এর ওপরে এটি নির্ভরশীল নয়। ব্যাপক না ? তাই, আপনি যতই জঙ্গলে ঘুরে বেরান না কেনো, কোথাও’ই আপনি “এক্স” নিশানি’টা খুঁজে পাবেন না। “এক্স” নিশানি সবসময় গুপ্তধন’এর ঠিকানা’টা জানান দিয়ে দেয়, এই ক্ষেত্রে তবে ব্যাপারটা আলাদা ডলার পৃথিবী’র সবথেকে দামী ধন। আমি আমার গুরু’কে জিগ্যেস করেছিলাম যে ডলার এত মূল্যবান কেন ? আমার মনে একটা খচখচানি ছিল যে ডলার এত সম্মান পায় কেনো ? “ ডলার অধিকাংশ লেনদেনে জড়িত থাকে। মেজর মুদ্রা জোড়া সমস্ত লেনদেনের ৭৫% দখল করে আছে। অধিকাংশ আন্তর্জাতিক লেনদেন’অ ডলার’এ তেই হয়। আমেরিকা’র মজবুত অর্থনৈতিক পরিকাঠামোর জোরে, মুদ্রার রাজা ধরা হয় ডলার’কে।“ ঘোষণা রাখলেন পিপ্পিনো বাবু। এতো জঙ্গল থাকতে #Forex জঙ্গলেই ঢুকতে যাব কেন ? 1. এই মার্কেট ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে এবং তার ফলে নতুন কোন আকস্মিক খবর এলে, আপনি সঙ্গে সঙ্গে তার ফায়দা তুলে ট্রেড করতে পারবেন। 2. একুইটী মার্কেট’এর তুলনায় এখানে ১০০ গুন বেশী পরিমাণ’এর ব্যাবসা হয়। 3. রোজকার লেনদেন’এর পরিমাণ $ ১.৫ ট্রিলিয়ন। ধারে কাছেও আর কোনো মার্কেট আসে না। 4. অধিকাংশ #Forex লেনদেন’এর ওয়েবসাইট আপনাকে বিনামুল্যে ব্যাবসা করতে দেয়। 5. অত্যন্ত সোজা সাপটা হিসেবনিকেশ। 6. অন্যান্য মার্কেট’এর তুলনায় অনেক বেশী লিভারেজ দেওয়া হয়, যার ফলে আপনার লাভ’এর পরিমাণ’টাও বেড়ে যায়। 7. এই মার্কেট যখন নিম্নমুখী, আপনি তখনো লাভ করতে পারেন। বাবুমশাই’রা, আপনাদের মধ্যে কেউ কম্পাস ব্যাবহার করবে আবার কেউ করবে জিপিএস। সবারি নিজস্ব পদ্ধতি থাকে, কোনটাই ভুল নয়। জরুরি ব্যাপারটা হল যে জানতে হবে গুপ্তধন’টা কোথায় লোকানো এবং সেটাকে খুঁজে বের করা। _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT
  15. #Forex-এর একটি সংক্ষিপ্ত বিবরন : এখানে আলোচনা করবো #Forex মার্কেটে শিকার কিভাবে করতে হয়, কখন করতে হয় এবং সবথেকে জরুরি, শিকারের সেরা উপায় সম্পর্কে । আপনাকে আপনার উদ্দেশ্যর একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণী দেওয়া হবে, সেটা সবসময় মাথায় রাখবেন, কেননা একজন ভালো শিকারি কখনও তার শিক্ষা ভোলে না এবং তার উদ্দেশ্য কে সর্বদা চোখের কোনে কোনে রাখে । আপনাকে একটা আন্দাজ দেওয়া যাক যে #Forex মার্কেট আখেরে কি । কেননা আর যাই হোক না কেনো, কোথাও যাওয়ার আগে একবার তার নকশা দেখে নেওয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ । ভাবুন যে আপনি প্যারিস’এ থাকেন এইফেল টাওয়ার’এর সামনে । আপনার পকেটে ইউরো ঠাঁসা এবং আপনার ইচ্ছে হল একবার হলিউড ঘুরে আসার । তো সর্বপ্রথম আপনি কি করবেন ? আপনার দরকার ডলার । (সেই সবুজ কাগজ’টা যার অতুলনিয় গন্ধ ) এখানে মন দিয়ে ব্যাপারটা বুঝুন । নয়ত যতই মানচিত্র ভেদ করুন বা অন্য শিকারিদের হারান, এই ব্যাপারটার গভীরতার কাছে সেটা কিছুই নয় । এই যে হিসেব’টা বুঝবেন, এটাই #Forex শিকারিদের ধর্মগ্রন্থ’র মতন । এটা বুঝতে না পারলে বাকি সব কিছুই বৃথা । তবে চিন্তার কিছু নেই, এতা নিতান্তই সোজা । আপনার পকেটে ১০০০ ইউরো আছে । বর্তমান হিসেব অনুযায়ী প্রত্যেক ইউরো’র জন্য আপনি ১.৫ ডলার করে পাবেন । এবার ধৈর্য দিন । ১ ইউরো = ১.৫ ডলার (আজকে) ১০০ ইউরো = ১৫০ ডলার (আজকে) ১০০০ ইউরো = ১৫০০ ডলার (আজকে) আপনি হলিউড পাড়ি দিলেন পকেটে ১৫০০ ডলার নিয়ে । আমেরিকা’তে ভালোই সময় কাটালেন, এবার ফিরবেন বলে মনস্থির করলেন এবং এই সেই মুহূর্ত যখন আপনার প্রথম অভিজ্ঞতা হল #Forex মার্কেট’এর । আপনি সেই জঙ্গল’এর সীমানা’য় পা রাখলেন । সময় এসেছে যে আপনি একটা ছেলে থেকে শিকারি’তে পরিবর্তিত হবেন । আপনি কাগজ’এ পড়লেন যে ইউরো’র দাম পড়ে যাচ্ছে । আপনি মনে মনে ভাবলেন যে ভালোই হচ্ছে, হয়ত তাহলে ডলারের কিছু দাম পাওয়া যাবে । একটা দেশের মুদ্রার দাম পড়ে যাওয়া মানে আগের তুলনায় এখন তুলনামুলক কম দাম পাবেন আরেক মুদ্রার হিসেবে । তাই এখন আগের তুলনায় প্রতি ইউরো’তে তুলনামুলক কম ডলার পাবেন । এতদিনে আপনি $১০০০ খরচা করে ফেলেছেন ইতিমধ্যে, বাকি আছে আর $৫০০। ফিরে এসে আপনি এবারে এই হিসেব’টা পেলেন । ১ ইউরো নেমে এসে দাঁড়িয়েছে $১.`২ তে আগে ছিল ১ ইউরো = ১.৫ ডলার তাহলে ৫০০ ইউরো’র জন্য আপনি ৫০০/১.৫ = ৩৩৩.৩৩ ইউরো পেতেন । কিন্তু দাম পড়ে যাওয়াতে আপনি এখন পাচ্ছেন ৫০০/১.২ = ৪১৬.৬৭ ইউরো । হিসেব করে দেখুন, ইউরো’র দাম পড়ে গেছে বলে আপনি এদিকে ৪১৬.৬৭ – ৩৩৩.৩৩ = ৮৩.৮৪ ইউরো রোজগার করলেন । ভেবে দেখুন, স্রেফ মুদ্রাস্ফীতি’র দৌলতে আপনি একটা ছোট্ট ধনরাশি লাভ করলেন । এটা আপনাকে ভাবতে বাধ্য করবে কেননা স্রেফ টাকা দেওয়া – নেওয়া করেই আপনি টাকা কামাতে পারলেন । ঠিক এই কথাটাই আপনাদের আমি বোঝাতে চাইছি যে এটা একটা অপূর্ব সুযোগ । এই উপায়ে প্রচুর গুপ্তধন কামানো যাবে, স্রেফ আপনাকে জানতে হবে যে কীভাবে সেটার হদিস পাওয়া যাবে । হয়ত এইটা বুঝতে গিয়ে একটু বিরক্ত লাগছিল কিন্তু ভেবে দেখুন, এবার আপনি খেলাটা বুঝে গেছেন । তৈরি হওয়া যাক তাহলে । শিকারিরা, সকলে এবার নিজের নিজের বাক্স-প্যাঁটরা গুছিয়ে নাও । “সর্বদা মাথায় রাখবেন যে জঙ্গল বা পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, স্রেফ সেরার জিত হয় সবসময়”; পিপ্পিনো বাবু বললেন । আগে নিজেকে সব রকমের অস্ত্র এবং পারিপার্শ্বিক জিনিস পত্তর’এর সাথে নিজের পরিচিতি করিয়ে নিন । এগুলো দিয়েই গুপ্তধন খুঁজতে হবে এবং এর সাহায্যেই সেটা খুঁড়ে বের করতে হবে । পরবর্তীতে আরো আলোচনা করবো আমার #Forex এর কাটানো দিনগুলোর কাহিনী । আমি আপনাদের সঙ্গে আমার এবং পিপ্পিনো বাবুর সাথে কাটানো দিনগুলোর অভিজ্ঞতা ব্যাক্ত করতে চলেছি । আশা রাখছি আপনারাও অতটাই উত্তেজিত এই অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানবার যতটা উত্তেজনা আমার হয়েছিল সেটা অর্জন করতে । অপেক্ষা করুন ? পরবর্তীতে আগামীতে আলোচনা করবো । _________________ The disclaimer: CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ https://goo.gl/T3pHGT