Jump to content

Bdforexpro - ফরেক্স সংক্রান্ত আলোচনা,ফরেক্স শিক্ষা, ফরেক্স ট্রেডিং এবং এনালাইসিসের উন্মক্ত এবং অনন্য স্থান। এই ফোরামে রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণ ফ্রী। পোস্ট এর পূর্বে অনুগ্রহ করে ফোরাম নিতিমালা গুলো পড়ে, বুঝে পোস্ট করুন। ধন্যবাদ;

forexmaster

Members
  • Posts

    5
  • Joined

  • Last visited

  • Days Won

    2

forexmaster last won the day on December 25 2015

forexmaster had the most liked content!

বিস্তারিত প্রোফাইল তথ্য

  • লিঙ্গ
    বলতে চাই না

Recent Profile Visitors

1,133 profile views

forexmaster's Achievements

Newbie

Newbie (1/14)

6

Reputation

  1. Adx মার্কেটের ট্রেন্ডের অবস্থা নির্দেশ করে। অর্থাৎ ট্রেন্ড চলতে থাকবে এবং এর ত্রেন্দ ধরে রাখার শক্তি এবং ত্রেন্দ তার অবস্থান পরিবর্তন করবে কিনা তা নির্দেশ করে।এই ইনডিকেটর থেকে প্রথম দেখেই ট্রেন্ড অবস্থা বুঝা যায় না তাই ট্রেডাররা এই ইনডিকেটর ব্যবহার না করে আরও বোধগম্য ইনডিকেটর ব্যবহার করেন।ট্রেডারদের ট্রেন্ড সবল বা দুর্বল সম্পর্কে ধারণা দেয় । Adx ট্রেড করার নিয়মঃ এই ইনডিকেটরের দুটি লাইনঃ adx(সাদা),(সবুজ),(লাল) এবং দুটি হরাইজনটাল লাইন আঁকতে হবে ২০ লেভেল এবং ৪০ লেভেল। ১। মান ২০ নিচে নামলে বুঝতে হবে ট্রেন্ড দুর্বল এবং ত্রেন্দের দিক এখনো ঠিক হয় নাই। এই সময় ননট্রেন্ড স্ত্রাটেজি ব্যবহার করতে হবে,তা না হলে ট্রেড লস হবার সম্ভাবনা বেশি। চেনেল ট্রেডিং হচ্ছে নন ট্রেন্ড ট্রেডিং স্ত্রাতেজির উদাহরন। ২। adx মান যদি ২০ এবং ৪০ মধ্যে থাকে তবে ট্রেন্ড ট্রেডিং স্ত্রাতেজি ব্যবহার করতে হবে। উদাহরনঃ পেরাবলিক ট্রেডিং বা মভিং এভারেজ ট্রেডিং। ৩। adx মান যদি ৪০ উপরে উঠে তবে মার্কেট ওভারবাই বা ওভারসেল অবস্থায় চলে গেছে। এই অবস্থায় ট্রেড বন্ধ করে দেয়া যেতে পারে বা স্টপ লস ব্যবহার করে কিছু প্রফিট ধরে রাখা যেতে পারে। ৪।+/-DI ট্রেড এন্ট্রি করার জন্য ব্যবহার করা হয় । যখন adx ২০ ক্রস করে উপরে উঠে এবং +DI , - DI কে ক্রস করে তখন বাই সিগনাল নিতে হবে।সেলের ক্ষেত্রে এর উল্টা । - DI,+DI কে ক্রস করলে সেল সিগনাল বসাতে হবে। তবে adx লাইনের দিকে নজর রাখতে হবে। Adx যখন ২০ লেভেল প্রথম ক্রস করে তখন লাইন ফ্ল্যাট দেখা যায় ।তখন ধারণা করা হয় নতুন ট্রেন্ড শুরু হচ্ছে এবং মার্কেট কিছুটা কারেকশন হচ্ছে। Adx সাথে অন্য ইনডিকেটর ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।যেমনঃ পেরাবলিক ।
  2. আমি এখানে আমার ফরেক্স সিগনাল গুলো দেবার চেষ্টা করবো। ৯.১০.২০১২: euro/usd: buy signal entry:1.2980 exit :1.3010 stop loss : 1.2930 gbp/usd : buy signal entry:1.6040 exit :1.6080 stop loss: 1.6000
  3. আমার মতে, ডেমোর চেয়ে লাইভে সেন্ট একাউণ্টে ডিপোসিট করলে অনেক বেশী শেখা যাবে।কারন ডেমো তে যেই ট্রেড বসানো হবে তাই প্রফিট হবে ।এই পারফর্মেন্স দেখে লাইভে বেশী ইনভেস্ট করলে লস খাওয়ার সম্ভাবনা বেশী। কারন ডেমো তে সাইকোলজি কাজ করে না কিন্তু লাইভ একাউন্টে সাইকোলজি কাজ করে। সেন্টে ট্রেড করলে লট অবশ্যই কম বসাতে হবে । এতে লস কম হবে এবং লস কেন হল এইটা বুঝা যাবে ।সাথে সাথে লাইভ ট্রেডিং র সাইকোলজি কন্ট্রোল করতে পারা যাবে।
  4. ফরেক্স মার্কেটে টিকে থাকতে হলে তিনটি বিষয়ে অবশ্যই দক্ষ হতে হবে। প্রথমটি হল কনটেণ্ট। অর্থাৎ আপনাকে ফরেক্স মার্কেটের ভিতর এবং বাইরের সব তথ্য জানতে হবে। যেমনঃ লট,স্প্রেড,এক কারেন্সির উপর আরেক কারেন্সির প্রভাব। আমাদের অবশ্যই আভ্যন্তরীণ তথ্য সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে। যেহেতু আমরা আমাদের ট্রেডিং সিদ্ধান্ত বর্তমান কালে নিব তাই মার্কেটের সময় এবং কারেন্সি রেট সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। প্রতিদিন ট্রেড করার জন্য প্রতিমুহূর্তের খবর আমাদের ট্রেডিং প্লাটফর্ম বা অন্য কোন ভাবে জানতে হবে। দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হল মেকানিক্স। অর্থাৎ আপনাকে একটা ট্রেডিং পদ্ধতি তৈরি করতে হবে, যার মাধ্যমে আপনি আপনার ট্রেড বসাবেন এবং ট্রেড বন্ধ করবেন। ট্রেডিং পদ্ধতির সামান্য ভুলে আপনার হাজার ডলার নষ্ট হয়ে যেতে পারে।নেটে অনেক ট্রেডিং সিস্টেম পাবেন। ট্রেডিং সিস্টেমে ট্রেড বসানো বা বন্ধ করার সাথে সাথে মানি ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে আপনার ধারণা থাকতে হবে। তৃতীয় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে নিয়মানুবর্তিতা(discipline) । প্রতিটি ট্রেডে আপনাকে ১০০ ভাগ ডিসিপ্লিন মেনে চলতে হবে। আপনার ডিসিপ্লিনের উপর আপনার লাভ/ ক্ষতি নির্ভর করবে। কিছু ট্রেডিং নিয়ম যা আপনাকে উন্নতির শিখরে নিয়ে যেতে পারেঃ ১। মার্কেটে আপনাকে ডিসিপ্লিন মেনে চলতে হবে। ডিসিপ্লিন আপনাকে বেশি লাভ দিবে এবং আপনার পকেট থেকে কম টাকা যেতে সাহায্য করবে। ফরেক্স মার্কেটে সাফল্যের সূত্রঃ ডিসিপ্লিন= অতিরিক্ত লাভ। ২। প্রতি ট্রেডে আপনাকে ডিসিপ্লিন মেনে চলতে হবে। কোন ট্রেডে আপনি ১০০ ভাগ নিশ্চিত না হয়ে ট্রেড বসাবেন না। ৩। যদি আপনার একাউণ্টে ডলার কম থাকে সে ক্ষেত্রে লট কমিয়ে দেবেন। যেমনঃ আপনার ৫০০$ ব্যালেন্স নেমে ১০০$ হয়েছে ,তখন অবশ্যই ০.০৫ লট ট্রেড করবেন না ,০.১ ব্যবহার করতে পারেন। এতে আপনার মার্জিন কল খাবার সম্ভাবনা কমে যাবে। ৪। আপনার ট্রেডে ১০০ পিপ প্রফিট আছে । এখন অতি লোভে ট্রেড ধরে রাখলেন। যা আপনার ট্রেডিং সিস্টেমের সাথে যায় না। সেক্ষেত্রে মার্কেট বিপরীত দিকে যাওয়া শুরু করলে আপনার লাভের ট্রেড লস হয়ে যাবে। এই অবস্থায় আমরা সবাই কোন না কোন সময়ে পরি। এই ধরনের অবস্থা থেকে মুক্তির চেষ্টা করতে হবে। কম প্রফিট ধরে রাখলে পরবর্তী ট্রেডে আপনি লাভ করতে পারবেন। ৫। ধরুন আপনি এক ট্রেডে ৫০ পিপ প্রফিট করলেন। এখন আবার ট্রেড ওপেন করলে আপনার লস অবশ্যই ৫০ পিপের নিচে যাতে না যায় সেদিকে নজর রাখতে হবে। দুটি ট্রেডের গড় যদি লস হয় তবে ঐদিনের ট্রেড খুবই খারাপ হয়েছে ধরে নিতে হবে। এক্ষেত্রে স্টপ লস ব্যবহার করতে পারেন।প্রতিদিনের প্রফিট প্রতিদিন ধরে রাখতে হবে। ৬। সহজ ট্রেডিং সিস্টেম তৈরি করুন এবং কোনভাবেই ট্রেডিং সিস্টেম পরিবর্তন করবেন না। আপনার সিস্টেম যদি বলে ১০ পিপ প্রফিট তবে তাই ধরতে হবে ,যদিও ঐদিন আপনি ধরে রাখলে ৫০ পিপ প্রফিট হত।সঠিক সময়ে ট্রেড বন্ধ করলে লসের পরিমান কমে যাবে। ৭। আপনি অবশ্যই আপনার উপর আস্থা রাখবেন। আপনি যে সিদ্ধান্ত নিবেন তাই ঠিক মনে করবেন। আমরা ট্রেড করার সময় আরেকজনের সিগনাল অনুসরন করি। এতে হয়ত কিছু ট্রেড লাভ করবেন কিন্তু আপনি দ্রুত পঙ্গুত্ব বরন করবেন। কারন ট্রেডিং আপনাকেই করতে হবে।আরেকজনের ট্রেড অনুসরন করলে লস খাউয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। ৮। যদি আপনি একদিনে দুইটি বা তিনটি ট্রেড লস করেন তবে ঐ দিন আর মার্কেটে না বসাই ভালো। ধরুন আপনার ১০,০০০$ আছে, সেক্ষেত্রে আপনার প্রতিদিনের লস কোন ভাবেই ৫০০$ নিচে নামানো যাবে না।ট্রেড লস খেলে হতাশ না হয়ে পরের দিন আবার বসেন। তাহলে প্রফিট করবেন। আমাদের ট্রেডারদের বড় সমস্যা হচ্ছে তারা প্রতিদিনকার লস প্রতিদিন তুলতে চায়।এতে অনেক লস হয়ে যায়। আমার মতে, প্রতিদিন দুইটি ট্রেড লস খেলে সাথে সাথে পিসি অফ করে দিবেন, পরের দিন বসবেন। ৯। লস নিয়ন্ত্রণ করা শিখতে হবে। আপনার কিছু ট্রেড লস হবেই। তাই লস যতটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন ততই আপনি মার্কেটে টিকে থাকতে পারবেন। ১০। অনুমানের উপর নির্ভর করে ট্রেড করবেন না। আমি আমার অভিজ্ঞতায় দেখেছি যখন অনুমানের উপর নির্ভর করে ট্রেড ওপেন করেছি তখন প্রতি ট্রেডে ৫০ পিপ প্রফিট হয়েছে। কিন্তু কিছুদিন পর দেখি আর ৫০ পিপ যায় না। স্টপ লস ব্যবহার না করার ফলে লস অনেক বেশি হয়ে যায়।বেশিরভাগ ট্রেডারদের ক্ষেত্রে এরকম ঘটে। আপনি আপনার ট্রেডিং সিস্টেম যা বলে তাই করবেন। ১১। টাকা খোয়ানোর জন্য সবসময় প্রস্তুত থাকবেন। কারন আপনার কিছু ট্রেড লস হবেই। কিন্তু টাকা খোয়ানোর জন্য প্রস্তুত থাকলে মানসিক শান্তি আসবে। ১২।প্রতিদিন অল্প অল্প করে প্রফিট করবেন।একবারে সব খেতে চাইলে সব হারাবেন। ফরেক্স মার্কেটে মানুষ টিকতে পারে না অতিলোভের কারনে। লোভ সংবরণ করুন কোটিপতি হন। ১৩। একই ধরনের ট্রেড প্রতিদিন করুন। মানে হচ্ছে আপনি যে সব নিয়ম মেনে ট্রেড করেন সেইগুলো অনুসরন করুন প্রতি ট্রেডে। প্রতিটি নিয়ম প্রতিদিন অনুশীলন করুন। আমার ৮ নাম্বার নিয়ম শিখতে ৪ মাস লেগেছে। ১৪। কখনও অতিরিক্ত এনালাইসিস করবেন না।দ্বিধা করবেন না।আপনি ট্রেড বসাতে একটু দেরী করলে দেখবেন আপনার প্রফিট অনেক কমে গেছে। অনেকেই আছেন মার্কেট দেখছেন উপরে উঠছে কিন্তু অপেক্ষা করছেন কখন তার ইপ্সিত রেট আসবে তখন ট্রেড বসাবেন। কিন্তু এতে অনেক দেরী হয়ে যাবে। যেমনঃ আপনার হেইকেন আসি বার সবুজ দেখাচ্ছে ,কিন্তু আপনি অপেক্ষা করছেন আরেকটা বার উঠুক ।কিন্তু এতে আপনার অনেক দেরী হয়ে যেতে পারে ।আপনি যেই বারে বসাতে চাইছেন সেই বার থেকে মার্কেট উল্টাদিকে বাক নিতে পারে। তাই দ্বিধা করবেন না। ১৫। স্টপ লস ব্যবহার করবেন। আমার মতে, ২৫ বা ৩০ পিপ। ১৬। মার্কেট আপনার আমার জন্য বসে থাকবে না। সে তার আপন গতিতে চলবে এবং যে দিকে যাবে সেটাই সঠিক দিক । মার্কেট কে সম্মান করতে হবে। আশা করছি, এই নিয়মগুলো অনুসরন করলে ট্রেড লস খাওয়ার পরিমান কমে যাবে। এই নিয়মগুলো আমি আমার প্রতি ট্রেডে অনুসরন করার চেষ্টা করি। সবগুলো এখনো তুলতে পারিনাই। চেষ্টা করছি। সবশেষে ওয়ারেন বাফেটের ট্রেডিং নিয়ম দিয়ে শেষ করছি, আমার মতে স্টক মার্কেটে টিকে থাকার সবচেয়ে সহজ সূত্র। "Rule No.1 is never lose money. Rule No.2 is never forget rule number one."
×
×
  • Create New...