Jump to content

Bdforexpro - ফরেক্স সংক্রান্ত আলোচনা,ফরেক্স শিক্ষা, ফরেক্স ট্রেডিং এবং এনালাইসিসের উন্মক্ত এবং অনন্য স্থান। এই ফোরামে রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণ ফ্রী। পোস্ট এর পূর্বে অনুগ্রহ করে ফোরাম নিতিমালা গুলো পড়ে, বুঝে পোস্ট করুন। ধন্যবাদ;

Search the Community

Showing results for tags 'EUR/USD analysis'.

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


  • সাধারণ ফরেক্স সহায়তা
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা, ট্রেডিং স্ট্রেটিজি, নিউজ এবং সিগন্যাল সম্পর্কিত
    • নিউজ, সিগনাল ও এনালাইসিস
    • প্রশ্ন ও উত্তর
    • ট্রেডিং স্ট্রেটিজি
    • ফরেক্স স্টাডি
    • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
    • ট্রেডিং সফটওয়্যার - মেটাট্রেডার, সি-ট্রেডার, ওয়েবট্রেডার
    • ফোরাম ও পোর্টাল সহায়তা
    • ফরেক্স ব্রোকার
  • ফরেক্স ব্রোকার সম্পর্কিত
  • বিজ্ঞাপন
  • অফ-টপিক

Categories

  • সাধারণ ফরেক্স বই
  • টেকনিক্যাল এনালাইসিস
  • ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস
  • ক্যান্ডলেস্টিক এনালাইসিস
  • ইনডিকেটর

Find results in...

Find results that contain...


Date Created

  • Start

    End


Last Updated

  • Start

    End


Filter by number of...

Joined

  • Start

    End


Group


ওয়েবসাইট URL


ইয়াহু(Yahoo)


স্কাইপ(Skype)


মোবাইল নং


ঠিকানা


ইচ্ছা/আগ্রহ/শখ


ব্রোকার নেইম


ট্রেড অভিজ্ঞতা

Found 3 results

  1. EUR/USD সর্বশেষ সাপোর্ট লেভেল – ১.২৩৫৬ অভিমতঃ প্রাইস ১.২৩৫৬ এর উপরে কারেকশনে লেভেলে লং পজিশনে যেতে পারেন ১.২৮০০ টার্গেট প্রফিট হতে পারে। অল্টারনেটিভঃ প্রাইস লেভেল ১.২৩৫৬ ব্রেকাউটে এই পেয়ারটি আরো শর্ট ট্রেডিং কন্টিনিউ করতে পারে। যা ১.২২৫০ পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে চলতি সপ্তাহে। বুলিশ ফর্ম কারেকশন লেভেল প্রাইস ১.২৪৬০ থেকে শুরু করে লং ফর্ম প্রাইস ১.২৫৯৮ পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে প্রথম দিকের মার্কেট। এই গতিতে মার্কেট এর ক্রমাগত ঊর্ধ্বগতি যদি কারেকশন লেভেল ১.২৩৫৬ প্রাইস ব্রেক না হয় তবে পুনরায় বুলিশ কারেকশন লেভেল কন্টিনিউ করতে শুরু করবে যা সপ্তাহের শেষে ১.২৮০০ পর্যন্ত পোঁছাতে সক্ষম। নিচের চিত্রে কারেকশন লেভেল থেকে শুরু করে মার্কেট লং এবং শর্ট প্রাইস রেঞ্জ বর্ণনা করা হয়েছে। তবে অবশ্যই শেষ সাপোর্ট লেভেল ধরে এগুতে হবে। GBP/USD সর্বশেষ সাপোর্ট লেভেল – ১.৫৭৩৫ অভিমতঃ এই পেয়ারটি শর্ট পজিশন মোটামুটি শেষের দিকে এবং লং পজিশনে উন্নতির দিকে। প্রাইস ১.৫৭৩৫ লেভেলের বায় ট্রেন্ড গতি ১.৫৯২০ পর্যন্ত হতে পারে। অল্টারনেটিভঃ শর্ট টাইম ট্রেডিং এর জন্য উক্ত পেয়ারটিতে সেল ট্রেড নিতে পারেন প্রাইস লেভেল ১.৫৭৩০ এর নিচে। উক্ত পেয়ারটি শেষ সাপোর্ট ব্রেকাউটে আরো শর্ট পজিশন নেওয়ার সম্ভাবনা অধিক। চিত্র অনুসারে প্রাইস লেভেল ১.৫৫৮৯ হল এই সপ্তাহের সম্ভব্য সর্বশেষ কারেকশন লেভেল তাই প্রথম বুলিশ কারেকশনে মার্কেট প্রাইস লেভেল ১.৫৬৪৩ পর্যন্ত আসতে পারে যা দ্বিতীয় পর্যায়ে ১.৫৭৩৩ থেকে শুরু করে ১.৬১৬০ পর্যন্ত পোঁছাতে পারে। USD/JPY : বেয়ারিশ কারেকশন হওয়ার সম্ভাবনা আছে এই সপ্তাহে। সর্বশেষ রেসিসটেন্স লেভেল –১১৯.০ অভিমতঃ এই পেয়ারটিতে শেষ রেসিসটেন্স লেভেল ১১৯.০ এর নিচে সেল ট্রেড নিতে পারেন যার প্রফিট প্রাইস লেভেল ১১৭.০ পর্যন্ত হতে পারে এই সপ্তাহে। অল্টারনেটিভঃ প্রাইস ১১৯.০ এর বুলিশ ব্রেকাউট লেভেলে আরো বেড়ে ১১৯.৫০-১২০.০ যেতে পারে। চিত্রে এই ট্রেন্ড এর শেষ লেভেল ১১৯.০ সম্পূর্ণ করেছে ১২০.০ পর্যন্ত বিস্তৃত রুপ নিতে পারে। বিপরীতভাবে আগামী সপ্তাহ নাগাদ যদি বুলিশ ব্রেকাউট না হয় বেয়ারিশ কারেকশন লেভেল তৈরি হয় তাহলে মার্কেট শর্ট ট্রেডিং উপযোগী হবে যা ১১৯.০ থেকে ১১৫.০ পর্যন্ত পোঁছাতে সক্ষম।
  2. ফান্ডামেন্টালঃ গত সপ্তাহে, তৃতীয় ৮৫ বিলিয়ন ডলারের বেলআউট কর্মসূচীর উপর সবশেষে আলোচনা শুরু করেছে গ্রিক। এবং সেপ্টেম্বরের দিকে প্রধানমন্ত্রী তাদের আন্তর্জাতিক ঋণদাতাদের সাথে আরেকটি বেলআউট চুক্তিতে জাবেন বলে আশা করা হচ্ছে, এতোসব কর্মসূচিতে গ্রীকের অর্থনৈতিক অবস্থাকে এখনও পুরোপুরি নিরাপদ বলা যাবে না। তবে IMF এটা স্পস্ট জানিয়েছে যে তারা গ্রীসের সাথে এই মুহূর্তে নতুন কোন বেলআউট চুক্তিতে যাবে না যতক্ষণ পর্যন্ত তারা ঋণ মুক্ত হতে পারে বা অর্থনৈতিক সংস্কার করতে সক্ষম হয়। এইদিকে জার্মান প্রধানমন্ত্রী গ্রিসকে সাময়িকভাবে ইউরোজোন থেকে প্রস্থানের প্রস্তাবনা রেখেছেন। ফলে এটা নিশ্চিত যে সামনের দিকে গ্রীক আলোচনা আরো কঠিন হবে। তাই এতে করে ইউরোর বুলিশ ড্রাইভিং খুব একটা শক্তিশালী বলা যাচ্ছে না। যেখানে USD ইউরো থেকে ভালো আবং শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে বর্তমানে। যেহেতু ইউরোজোনে কোন গুরুত্তপুর্ন ইভেন্টস নেই তাই আপাতত ইউরো চালিকা শক্তি খুব একটা ভালো নাও হতে পারে, তাই ফোকাস এখন USD রিলিজ উপর রাখতে হবে। লেভেল ১.০৮০০ – ১.১১০০ হচ্ছে এখনকার মত EUR/USD এর ট্রেডিং ভিউ, যার একটি উত্থান EUR কে নতুন ভাগ্য নির্ধারণে সাহায্য করবে। টেকনিকেলঃ পিভট পয়েন্ট লেভেলঃ ১.০৮০৫ চিত্র অনুসারে খেয়াল করুন, ফর্ম (i) (ii) অয়েব এ ডায়াগোনাল শেইপ এর জন্য ফর্ম (ii) ইতিমধ্যে সম্পূর্ণ হয়েছে দেখা যাচ্ছে, তাই টেকনিকেল এনালাইসিস এই সেইপে প্রাইস ক্রিটিকাল লেভেল ১.০৮০০ এর ব্রেকডাউন এর সম্ভাবনা কম এবং আশা করা হচ্ছে প্রাইস কন্টিনিউ রাইজ করে লেভেল ১.১২০০-১৪০০ পর্যন্ত পোছানোর সম্ভাবনা রাখে। ঠিক বিপরীতভাবে ক্রিটিকাল লেভেল অয়েব (ii) প্রাইস ১.০৮০০ ব্রেকডাউনে ফল করে প্রাইস লেভেল ১.০৭০০ পর্যন্ত যেতে পারে। তাই এমতবস্থায় এই পেয়ারে বায়/সেল এর আগে যার যেখানে ট্রেড আছে বা নতুন ট্রেড ওপেন করার ক্ষেত্রে ক্রিটিকাল লেভেল ১.০৮০৫ কে বেসড করে নতুন ট্রেড এর সিদ্ধান্ত নিন এবং পুরাতন ট্রেডের ক্ষেত্রে ক্রিটিকাল লেভেল এর ব্রেকডাউন বা কন্টিনিউ রাইস ট্রেণ্ড অনুসারে ট্রেড চালিয়ে যান। আশা করছি ভালো করবেন। Indicators Forecast: RSI(14) 50.209 Neutral STOCH(9,6) 28.210 Sell STOCHRSI(14) 20.938 Oversold MACD(12,26) 0.001 Buy ADX(14) 30.480 Sell Williams %R -67.708 Sell ধন্যবাদ সবাইকে, আশা করছি সুন্দর ভাবে চিন্তা করে বুঝে শুনে ট্রেড ওপেন করবেন এবং প্রফিট নিবেন, এলোমেলো ট্রেড করা থেকে বিরত থাকুন সুন্দর এনালাইসিস নির্ভর ট্রেড করার মাধ্যমে লং টাইম মার্কেটে আক্সিসট করুন। কিছু না বুঝলে কমেন্টের মাধ্যমে জানান, বুঝিতে দিতে চেস্টা করবো।
  3. আপনারা ডেইলি চার্ট এ দেখেছেন যে EUR/USD পেয়ারটি বর্তমানে তার আগের সাপোর্টকে ক্রস করে ১.৩৪৮০ পর্যন্ত গিয়ে মার্কেট ক্লোজ হয়েছে। আপনি যে টাইম ফ্রেমেই দেখেননা কেন (৪ঘন্টা/দিন) উক্ত পেয়ার ট্রেন্ড কিন্তু সেল/ব্যারিশ এ আছে। এতে টেকনিক্যাল এনালাইসিস এর মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে যে উক্ত পেয়ার এর ট্রেন্ড আগামী সপ্তাহেও সেল এ-ই থাকবে। তবে মার্কেট কারেকশান ও নিউজ এর কারনে কিছুটা (৮০-১৫০পিপস) বাই যেতে পারে। আসুন আমরা চিত্রের সাহায্যে উক্ত পেয়ার এর সাপোর্ট ও রেসিসট্যন্স পয়েন্টগুলো জেনে নেই এবং মার্কেট কোন রেট এ গেলে সেল এ ট্রেড ওপেন করবো তা দেখে নেইঃ উপরোক্ত চিত্রে আমার যা দেখতে পাচ্ছিঃ রেসিসট্যন্স সমুহঃ ১.৩৫২০, ১.৩৫৯৬, ১.৩৬৪৬, ১.৩৬৯৮ ও স্ট্রং রেসিস্টেন্স ১.৩৮৩২ এ। সাপোর্ট সমুহঃ ১.৩৩৯৫, ১.৩৩৪৫, ১.৩২৯৫ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.৩১৭০ এ। এই সপ্তাহে আপনি উক্ত কারেন্সিতে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ এ সপ্তাহে আপনার টার্গেট থাকবে সেল ট্রেড করা তবে নিউজ আওয়ার এ নয়। অবশ্যই মার্কেট যে কোনো একটা রেসিসট্যন্স এ গেলে তখন আপনি সেল ট্রেড ওপেন করবেন। আর সাপোর্ট/রেসিসট্যন্স দেখে অবশ্যই স্টপ লস ব্যবহার করবেন। সবার জন্য শুভ কামনা। বি.দ্রঃ ফরেন এক্সচেঞ্জ একটি হাই রিস্ক লেভেল ট্রেডিং মার্কেট যা সকল ইনভেস্টর বা ট্রেডারদের জন্য যথাযোগ্য নয়। কারেন্সি ট্রেডিং এ ট্রেডারদের ট্রেডের যেকোন রুপ পরিবর্তন ট্রেডাররা নিজ দায়িত্বে বহন করবেন। সেজন্য বিডিফরেক্সপ্রো" কোনভাবে দায়ি থাকবে না।
×
×
  • Create New...