Search the Community

Showing results for tags 'eurusd trading signal'.



More search options

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


  • সাধারণ ফরেক্স সহায়তা
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা, ট্রেডিং স্ট্রেটিজি, নিউজ এবং সিগন্যাল সম্পর্কিত
    • ফোরাম ও পোর্টাল সহায়তা
    • সাধারণ ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
    • নিউজ, সিগনাল ও এনালাইসিস
    • প্রশ্ন ও উত্তর
    • ট্রেডিং স্ট্রেটিজি
    • ফরেক্স স্টাডি
  • বিজ্ঞাপন
    • কমার্শিয়াল কন্টেন্ট
    • ক্রয়-বিক্রয়-এক্সচেঞ্জ
  • ট্রেডিং সফটওয়্যার (প্লাটফর্ম-মেটা ট্রেডার)
    • ইন্ডিকেটর
    • অটোট্রেডিং
    • মেটাট্রেডার ৪, ৫
  • ফরেক্স ব্রোকার সম্পর্কিত
    • ফরেক্স ব্রোকার
    • ফরেক্স অফার
    • পেইমেন্ট মেথড
  • অফ-টপিক

Categories

  • সাধারণ ফরেক্স বই
  • টেকনিক্যাল এনালাইসিস
  • ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস
  • ক্যান্ডলেস্টিক এনালাইসিস
  • ইনডিকেটর

Group


ওয়েবসাইট URL


ইয়াহু(Yahoo)


স্কাইপ(Skype)


ঠিকানা


ইচ্ছা/আগ্রহ/শখ

Found 2 results

  1. EURUSD মার্কেট আউটলুক ২৯সেপ্টেম্বর থেকে ০৩অক্টোবর পর্যন্ত। বন্ধুরা, পেয়ারটির মার্কেট বিগত সপ্তাহে ২২৫পিপ্স এর মত সেলে গিয়ে ১.২৬৮২ মুল্যে মার্কেট ক্লোজ করে। বর্তমানে সবধরনের চার্টে পেয়ারটির মার্কেট এখনো সেল ইন্ডিকেট করছে। যেহেতু পেয়ারটির মার্কেট এখনো সেল ইন্ডিকেট করছে তাই টেকনিক্যাল এ্যনালাইসিসের দিকে ফলো করে ধারনা করা যে পেয়ারটি এ সপ্তাহেও সেলে-ই থাকবে তবে সেটা বেশীরভাগ নির্ভর করবে উভয় কারেন্সির নিউজগুলোর এ্যকচুয়্যাল রিপোর্ট এর উপর যেহেতু এ সপ্তাহে USD এর পাশাপাশি EUR কারেন্সিতেও কয়েকটি হাই ইমপ্যাক্ট এর নিউজ রয়েছে, তাই এ সপ্তাহে পেয়ারটি বাই/সেল এ যাওয়ার উভয় কারেন্সির নিউজগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে। এ সপ্তাহের জন্য পেয়ারটির সর্বনিম্ন সাপোর্ট হিসেবে ধরা যায় যথাক্রমে ১.২৫৪০ ও ১.২৪৯০ এবং সরবোচ্চ রেসিস্টেন্স হিসেবে ১.২৭৯০ ও ১.২৮৩০। যাইহোক, মার্কেট এ পরিস্থিতি থেকে এ সপ্তাহে বাই গেলে ১.২৭৭৫-১.২৮৩০ পর্যন্ত এবং সেল এ যাওয়ার জন্য ১.২৬৬০ সাপোর্ট মুল্য ক্রস করলে ১.২৫৪০-১.২৪৯০ পর্যন্ত যেতে পারে। যদি উক্ত পেয়ারটির USD কারেন্সির বেশীরভাগ নিউজ পজিটিভ হয় তাহলে এ সপ্তাহেও পেয়ারটি নিশ্চিত সেলে-ই থাকবে। তবে সেটা অধিকাংশ নির্ভর করবে নিউজের এ্যকচুয়্যাল রিপোর্টের উপর। আপনাদের যাতে এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে ট্রেড করতে সুবিধা হয় সেজন্য চিত্রের সাহায্যে পেয়ারটির সাপোর্ট, রেসিস্টেন্স, মার্কেট ট্রেন্ড ও ট্রেড আইডিয়া শেয়ার করলাম। দৈনিক চার্টে মার্কেট ট্রেন্ডঃ সাপোর্ট রেসিসটেন্স ও ট্রেড আইডিয়া চিত্রঃ উপরোক্ত চিত্রেঃ সম্পূর্ণ চার্ট আয়ত্তে না আসায় সকল সাপোর্টসমূহ গ্রাফের সাহায্যে দেখানো সম্ভব হয়নি। পিভট পয়েন্টঃ ১.২৭৪৩। রেসিসটেন্স সমুহঃ ১.২৬৯২, ১.২৭৪৯, ১.২৭৮৯, ১.২৮৩২, ১.২৮৭৭ ও স্ট্রং রেসিসটেন্স ১.২৯৮৭। সাপোর্ট সমুহঃ ১.২৬৬০, ১.২৫৯২, ১.২৫৪০, ১.২৪৯৬, ১.২৪৪১ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.২৩৩৬। এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে হাই ইম্প্যাক্ট যে নিউজগুলো আছে তা নিম্নরুপঃ ২৯ই সেপ্টেম্বর সোমবার – মার্কেট ওপেনের প্রথম দিনে পেয়ারটির EUR কারেন্সিতে German Prelim CPI m/m নিউজটি রয়েছে, তাই এ পেয়ারটি ট্রেডেবল হতে পারে। আর যদি নিউজটির এ্যকচুয়্যাল রিপোর্ট অত্যাদিক ভাল হয় তাহলে এ দিন পেয়ারটি বাই এর দিকে থাকবে। সারাদিন EUR German Prelim CPI m/m ৩০ই সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার – মার্কেট ওপেনের দ্বিতীয় দিনে পেয়ারটির উভয় কারেন্সিতে হাই ইম্প্যাক্টের দুটি নিউজ রয়েছে, তবে নিউজগুলোর মধ্যে EUR এর নিউজটি বেশী ইফেক্টিব হবে বলে মনে হয়, যেহেতু নিউজটি বাৎসরিক হারে প্রকাশ করা হয়। তাই এ দিন পেয়ারটির মার্কেট কম-বেশী ট্রেডেবল থাকার সম্ভাবনাই বেশী। দুপুর ৩.০০মিনিট EUR CPI Flash Estimate y/y রাত ৮.০০মিনিট USD CB Consumer Confidence ০১ই অক্টোবর বুধবার – সপ্তাহের এই দিনে পেয়ারটির USD কারেন্সিতে হাই ইমপ্যাক্ট এর দুটি নিউজ রয়েছে, নিউজগুলোর এ্যকচুয়্যাল রিপোর্ট ভাল হলে এদিন পেয়ারটি ট্রেডেবল হয়ে উঠবে এবং পেয়ারটির মার্কেট সেলের দিকে ধাবিত হবে। সন্ধ্যা ৬.১৫মিনিট USD ADP Non-Farm Employment Change রাত ৮.০০মিনিট USD ISM Manufacturing PMI ০২ই অক্টোবর বৃহস্পতিবার – সপ্তাহের এই দিনটিতে পেয়ারটির উভয় কারেন্সিতে কয়েকটি নিউজ রয়েছে তার মধ্যে EUR এর ECB Press Conference এবং USD এর Unemployment Claims নিউজ দুটি পেয়ারটির মার্কেটকে চাঙ্গা করে তুলবে আর এ দিন পেয়ারটি যেকোনো দিকে বড় ধরনের মোড় নিতে পারে। তাই এদিন পেয়ারটিতে নিউজ বুঝে ট্রেড করুন নতুবা লস গুনুন। বিকাল ৫.৪৫মিনিট EUR Minimum Bid Rate সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট EUR ECB Press Conference সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Claims ০৩ই অক্টোবর শুক্রবার – মার্কেট ক্লোজিং এর এ দিনে উক্ত পেয়ারের মেজর কারেন্সি USD তে-ই হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ এর কয়েকটি নিউজ রয়েছে। তাই এই দিন পেয়ারটি ট্রেডেবল থাকার সম্ভাবনা খুবই বেশী এবং এ দিন পেয়ারটি ভালো একটা মুবমেন্ট ঘটাতে পারে। তাই এ দিন পেয়ারটিতে নিউজ বুঝে ট্রেড করুন। সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Non-Farm Employment Change সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Trade Balance সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Rate রাত ৮.০০মিনিট USD ISM Non-Manufacturing PMI বন্ধুরা, উপরোক্ত নিউজগুলো দেখেই এতক্ষণে বুঝতে পারছেন যে, এ সপ্তাহে পেয়ারটি উভয় কারেন্সিতে অনেকগুলো হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ রয়েছে, তাই আশা করি এ সপ্তাহে পেয়ারটি ট্রেডেবল থাকবে। তবে এ সপ্তাহে যদি উভয় কারেন্সির নিউজগুলোর এ্যকচুয়্যাল রিপোর্ট ভালো হয় তাহলে আমার মনে হয় পেয়ারটি এ সপ্তাহে একটি নির্দিষ্ট গন্ডির মধ্যে(১০০-১৫০পিপ্স) ঘুরপাক করবে আর যদি EUR থেকে USD এর নিউজগুলোর এ্যকচুয়্যাল রিপোর্ট অধিক ভালো হয় তাহলে পেয়ারটির মুবমেন্ট এ সপ্তাহেও সেল এ থাকবে। তাই নিউজ পাবলিশ হওয়ার আগে বা নিউজ না বুঝে ট্রেড করা থেকে বিরত থাকুন। এ সপ্তাহে আপনি উক্ত পেয়ারটিতে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ সাধারন নিয়মে পেয়ারটির মার্কেট মূল্য ১.২৭৫০ ক্রস করলে বাই ট্রেড করুন স্টপ লস ১.২৬৯০ আর টেক প্রফিট দিন ৭০-১০০ পিপ্স এবং পেয়ারটির মার্কেট মুল্য যদি প্রথম সাপোর্ট ১.২৬৬০ ক্রস করে তাহলে সেল ট্রেড করুন আর এক্ষেত্রে টেক প্রফিট ৮০-১২০পিপ্স দিন এবং স্টপ লস দিন ১.২৭২০। আর যদি মার্কেট ওপেন হওয়ার পর পেয়ারটি বাই এ যায় তাহলে ১.২৮৫৫-১.২৮৭৫ এর মধ্যে সেল ট্রেড করুন এক্ষেত্রে স্টপ লস দিন ১.২৯০৫ এবং টেক প্রফিট দিন ৭০-৯০পিপ্স। আর পেয়ারটির মার্কেট মূল্য যদি সেল এ যায় তাহলে ১.২৫৫০-১.২৫১৫ এর মধ্যে বাই ট্রেড করুন এক্ষেত্রে স্টপ লস দিন ১.২৪৮৫ এবং টেক প্রফিট দিন ৮০-১১০পিপ্স। উপরোক্ত ট্রেডগুলোর টেক প্রফিট ও স্টপলস আপনি চাইলে আপনার মত করে দিতে পারেন। তবে স্টপলস এর ক্ষেত্রে অবশ্যই সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্স দেখে দিন। উপরোক্ত যে কোনো অর্ডার মেক করার পর যদি দেখেন যে আপনার ট্রেড প্রফিটে আছে কিন্তু নিউজ আপনার ট্রেড এর বিপরীতে তাহলে ঐই ট্রেডটি ক্লোজ করে দিবেন। ট্রেড এ উপস্থিত না থাকলে একটির বেশী পেন্ডিং অর্ডার দিবেন না। যদি আপনার একটি অর্ডার নিয়ে নেয় তাহলে সে অর্ডারটি ক্লোজ না করে আরেকটি অর্ডার দিবেন না। বিশেষ করে বাই সেল করে ট্রেড লক করবেন না। আর যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা আশা করি পেয়ারটিতে এ সপ্তাহে ভালো করতে পারবেন তবে এজন্য উভয় কারেন্সির নিউজগুলোর উপর অবশ্যই চোখ রাখবেন আর অবশ্যই ট্রেন্ড ফলো করবেন। হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আওয়ার এ দেখে ও বুঝে ট্রেড করবেন। এই এ্যনালাইসিস সাপ্তাহিক ট্রেডাররা ফলো করলে ভালো, তবে ডেইলি ট্রেডাররা লট সাইজ আনুপাতিক হারে কমিয়ে করতে পারেন। ধন্যবাদ। বিঃ দ্রঃ ফরেন এক্সচেঞ্জ একটি হাই রিস্ক লেভেল ট্রেডিং মার্কেট যা সকল ইনভেস্টর বা ট্রেডারদের জন্য যথাযোগ্য নয়। কারেন্সি ট্রেডিং এ ট্রেডারদের ট্রেড এর যে কোনরূপ পরিবর্তন ট্রেডাররা নিজ দায়িত্বে বহন করবে। সে জন্য বিডিফরেক্সপ্রো কোনো প্রকার দায়ী থাকিবে না।
  2. US Dollar এর উর্ধ্বগতি VS Others কারেন্সি ট্রেডিং Now. ফরেক্স মার্কেটে US Dollar অনেক কারেন্সির বিরুদ্ধে ঝড়ের গতিতে ছুটছে, যা অনেক ট্রেডারকেই বিপদের সম্মুখীন করছে, বিশেষ করে যারা US Dollar এর বিপরীতে ট্রেড করেছেন বা এখনো ট্রেডে আছেন। মেজর পেয়ারগুলোতে US Dollar এর আধিপত্য এখন তুঙ্গে। তাই যেসব পেয়ারে US Dollar তার আধিপত্য বিস্তার করে আছে (EUEUSD, GBPUSD, AUDUSD, NZDUSD ও USDJPY) তাদের কতিপয় কারেন্সিতে এখন US Dollar এর বিপরীতে ট্রেড করার সময় হয়ে এসেছে, তাহলে আসুন জেনে নেই বর্তমানে এই মেজর পেয়ারগুলো কোন দিকে মুব করলে কিভাবে ট্রেড করবো। EUEUSD : পেয়ারটি সকল ট্রেডারেরই পছন্দের একটি পেয়ার কিন্তু বিগত চার মাস ধরে পেয়ারটি ১.৩৯৯০ থেকে কয়েকটি স্ট্রং সাপোর্ট আর অনেক ট্রেডারের এ্যনালাইসিসের বাঁধ ভেঙ্গে বিগত বছরের এপ্রিল ও জুন মাসের ডাবল বটম লেভেল ১.২৭৫৫ ক্রস করে বর্তমানে ১.২৭৩০ এ অবস্থান করছে এবং ১.২৬৬০-১.২৬০০ (২০১১ ডিসেম্বরের স্ট্রং সাপোর্ট মুল্য) পেয়ারটির আগামী স্ট্রং সাপোর্ট লেভেল আর ১.২৮০০-১.২৯০০ কে আগামী রেসিস্টেন্স লেভেল হিসেবে চিন্তিত করা যায়। যদি আপনি পেয়ারটিতে এই মুহূর্তে লং ট্রেড করতে চান তাহলে করতে পারেন তবে অবশ্যই স্টপ লস ১.২৬০০ দিন বা একটি সুবিধাজনক রেট এ লং ট্রেড করার জন্য আরেকটু অপেক্ষা করতে পারেন, তা হল ১.২৭০০ মুল্য ক্রস করে নিচে নামলেই ১.২৬৬০ এর উপরে যে কোনো মুল্যে লং/বাই ট্রেড এ এন্ট্রি দিন। ১.২৬৬০ মুল্যের উপরে লং/বাই ট্রেড এ এন্ট্রি নেওয়ার নির্দিষ্ট একটি কারণ হলো বিগত তিন বছরে ১.২৬০০-১.২৬৬০ মুল্যে মার্কেট অনেকবারই এসেই আবার পুরোদমে বাই এ চলে গেছে তবে পেয়ারটি ২০১২ এর জুন মাসে ১.২৬৬০ সাপোর্টটি ক্রস করার পর এর মুল্য ১.২০০০ এ এসে দাঁড়ায়, তাই যদি দুর্ভাগ্যবশতঃ পেয়ারটি ১.২৬০০ ক্রস করে নামতে থাকে তাহলে সেল ট্রেড এ এন্ট্রি দিতে পারেন। GBPUSD : এ পেয়ারটিও অনেক ট্রেডারদের প্রিয় ট্রেডিং পেয়ারের একটি, কিন্তু এটিও বিগত তিন মাস ধরে ১.৭১৮০ মুল্য থেকে ক্রমেই সেল এর দিকে ধাবিত হচ্ছে এবং ১.৬২৭৫ পর্যন্ত সেল এ গিয়ে বর্তমানে ১.৬৩১০মুল্যে মাসিক চার্টে হ্যামার ক্যান্ডেল তৈরির প্রক্রিয়ায় আছে, তাই পেয়ারটিতে টেকনিক্যাল এ্যনালাইসিসমতে এখন লং/বাই ট্রেড এ এন্ট্রি দেওয়া যায় এক্ষেত্রে স্টপ লসের জন্য ফলো করুন ডিসেম্বর২০১৩ এর সাপোর্ট মুল্য ১.৬২০০কে, তবে আরকেটি কাজ করতে পারেন পেয়ারটির মুল্য ১.৬১০০এর কাছাকাছি বা তার নিছে নামলে ১.৬০৫০ এর উপরে যেকোনো মুল্যে স্বল্প স্টপ লসে (১.৬০০০০) লং/বাই ট্রেড এ এন্ট্রি দিতে পারেন, আর যদি ১.৬০৫০ মুল্য ক্রস করে পেয়ারটি সেল এ যায় তাহলে নবেম্বর২০১২ ও সেপ্টেম্বর, অক্টোবার২০১৩ এর সাপোর্ট মুল্য ১.৫৮৫০ এর কাছাকাছি আসতে পারে। AUDUSD : এ পেয়ারটিও ট্রেডারদেরকে কম নাচায়নি, চলতি মাসের আগের পাঁচ পাঁচটি মাস একটি নির্দিষ্ট গন্ডির মধ্যে(১৪০পিপ্স) ঘুরপাক করেছে এবং অনেক ট্রেডারের এ্যনালাসিসকে ফলস করে দিয়ে ট্রেড লস এ লক করে পেলেছে (যারা স্টপ লস ছাড়া ট্রেড করেন)। আপনি যদি পেয়ারটি মাসিক চার্টে দেখেন তাহলে আমার কথাগুলো বুঝবেন। চলতি মাসের প্রথম দিকেই পেয়ারটি ০.৯৪০০ থেকে হুট হুট করে বর্তমানে ০.৮৮১০ মুল্যে প্রায় ছয়’শ পিপ্স সেলে নামে, যা আসলেই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার মত, তবে আমার মতে পেয়ারটিতে লং/বাই ট্রেড করার সময় হয়ে এসেছে কারণ পেয়ারটির বর্তমান মুল্য(০.৮৮১০) ডিসেম্বর২০১৩ এর লো রেট(০.৮৬৫৯) এর কাছাকাছি। মাসিক ট্রেডার রা অবশ্যই এখন পেয়ারটিতে বাই ট্রেড এ এন্ট্রি দিবেন তবে পেয়ারটির মার্কেট মুল্য ০.৮৭৫০ এর কাছাকাছি আসলে এবং স্টপ লস হিসেবে জানুয়ারী২০১৪ এর লো রেট ০.৮৬৫০ দিন আর যদি পেয়ারটি .০৮৬৫০ মূল্যও ক্রস করে সেল ধাবিত হয় তাহলে ধরে নিন পেয়ারটি ফেব্রুয়ারী২০১০ এর লো রেট ০.৮৫০০ পর্যন্ত যেতে পারে। NZDUSD : এই মেজর পেয়ারটিও বিগত তিন মাস ধরে ০.৮৮৩৮ মুল্য থেকে একচেটিয়া সেলে প্রায় ৯০০পিপ্স নেমে আসে যা অনেক ট্রেডারের-ই অকল্পনীয়। অকল্পনীয় হবেই বা না কেন! কারণ যেখানে একটার পর একটা স্ট্রং সাপোর্ট ও ডাবল বটম আছে সেখানে এভাবে একচেটিয়া সেল কি করে সম্ভব কিন্তু পেয়ারটি কোনো স্ট্রং সাপোর্টকে তোয়াক্কা না করেই একচেটিয়া সেলে নামতেই থাকে, তবে এখন সময় হয়েছে পেয়ারটিতে লং/বাই এ ট্রেড করার, কারণ পেয়ারটির বর্তমান মুল্য ফেব্রুয়ারী২০১২ এর কাছাকাছি এবং এ মুল্যে মার্কেট বিগত কয়েক বছর ধরে এসেই ফিরে যায়। তাই পেয়ারটিতে ০.৭৮০০-০.৭৮৫০ এর মধ্যে যেকোনো মুল্যে বাই করতে পারেন তবে এই মুল্যে বাই করলে স্টপ লস অবশ্যই জুন-সেপ্টেম্বর২০১৩ এর লো রেট ০.৭৬৫০ দিন, আর যদি পেয়ারটি জুন-সেপ্টেম্বর২০১৩ এর লো রেট ০.৭৬৫০ ক্রস করে সেলে নামে তহলে ধরে নিন পেয়ারটি ০.৭৬৫০ মুল্য থেকে আরো ১৫০-২০০পিপ্স সেলে নামবে। USDJPY : কচ্ছপ গতির দূরদর্শী JPY কারেন্সির এই পেয়ারটি বিগত আগস্ট ও সেপেটেম্বর এর এ সপ্তাহের মধ্যে হাটি হাটি পা পা করে ১০১.৫০ থেকে বর্তমানে বাই এ ১০৯.২৬ মুল্যে অবস্থান করছে যা প্রায় ৮৫০পিপ্স এর মত, আশ্চর্য না? হ্যাঁ, আশ্চর্যই তো, এই মেজর পেয়ারটির যে গতি তা দেখে কখনো কারো মনে হবেনা যে পেয়ারটি একচেটিয়া এত দূর পর্যন্ত আসতে পারে। পেয়ারটি যদি বর্তমান দৈনিক রেসিস্টেন্স ১০৯.৪৫ ক্রস করে উপরে যায় তাহলে পেয়ারটি ২০০৮এর হাই রেসিস্টেন্স রেট ১১০.৬০ পর্যন্ত যাওয়ার পসিবিলিটি আছে তবে ওই রেট ক্রস করলে আরো ২০০-৩০০পিপ্স বাই যেতে পারে। তবে আমি মনে করি পেয়ারটিতে এখন সেল এন্ট্রি দেওয়ার সময় আপনি চাইলে ১০৯.২০-৪০ এর মধ্যে সেল এন্ট্রি দিন এবং ৩০পিপ্স ব্যবহার করুন। যদি পেয়ারটি আরো বাই এ যায় তাহলে ১১০.২০-১১০.৬০ এর মধ্যে যে কোনো মুল্যে আবার সেল এন্ট্রি দিন আর এক্ষেত্রে স্বল্প স্টপ লস ১১০.৭০ ব্যবহার করুন। উপরোক্ত ট্রেডিং এ্যনালাইসিসগুলো শুধুমাত্র লং টাইম(মাসিক) ট্রেডাররা ফলো করবেন আর যদি দৈনিক ও সাপ্তাহিক ট্রেডাররা ফলো করতে চান তাহলে অবশ্যই ট্রেড ভলিউম কমিয়ে করতে পারেন। তবে স্টপ লস সবার ক্ষেত্রে একই থাকবে। ধন্যবাদ।