Search the Community

Showing results for tags 'forex broker'.



More search options

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


  • সাধারণ ফরেক্স সহায়তা
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা, ট্রেডিং স্ট্রেটিজি, নিউজ এবং সিগন্যাল সম্পর্কিত
    • ফোরাম ও পোর্টাল সহায়তা
    • সাধারণ ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
    • নিউজ, সিগনাল ও এনালাইসিস
    • প্রশ্ন ও উত্তর
    • ট্রেডিং স্ট্রেটিজি
    • ফরেক্স স্টাডি
  • বিজ্ঞাপন
    • কমার্শিয়াল কন্টেন্ট
    • ক্রয়-বিক্রয়-এক্সচেঞ্জ
  • ট্রেডিং সফটওয়্যার (প্লাটফর্ম-মেটা ট্রেডার)
    • ইন্ডিকেটর
    • অটোট্রেডিং
    • মেটাট্রেডার ৪, ৫
  • ফরেক্স ব্রোকার সম্পর্কিত
    • ফরেক্স ব্রোকার
    • ফরেক্স অফার
    • পেইমেন্ট মেথড
  • অফ-টপিক

Categories

  • সাধারণ ফরেক্স বই
  • টেকনিক্যাল এনালাইসিস
  • ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস
  • ক্যান্ডলেস্টিক এনালাইসিস
  • ইনডিকেটর

Group


ওয়েবসাইট URL


ইয়াহু(Yahoo)


স্কাইপ(Skype)


ঠিকানা


ইচ্ছা/আগ্রহ/শখ

Found 9 results

  1. ফরেক্স ট্রেডিং এর অন্যতম গুরুত্তপুর্ন একটি বিষয় হল সঠিক একটি ব্রোকার নির্বাচন। ইতিমধ্যে অনেক ট্রেডার ব্রোকার নিয়ে অনেক সমস্যায় পড়েছেন কেউ কেউ না বুঝে ভালো ব্রোকার নির্বাচন করতে না পেরে ইনভেস্ট নিয়ে সমস্যায় পড়ে গেছেন। আবার কাউকে দেখা গেছে ভালো ট্রেড করেও ব্রোকারের নানা রকম বেড়াজালে পড়ে টাকা উত্তোলন করতে পারছেন না । এই রকম উদহারন অনেক আছে। তাই আজকে আলোচনা করব সঠিক একটি ব্রোকার কিভাবে নির্বাচন করবেন এবং কিভাবে নিশ্চিত হবেন যে এই ব্রোকারের কাছে আপনার ইনভেস্টমেন্ট কতটুকু নিরাপদ কিংবা ইনভেস্টমেন্ট কতটুকু হওয়া উচিত ইত্যাদি ভিবিন্ন বিষয় নিয়ে। যেসব ব্রোকারে নিম্নের পয়েন্টস গুলো পাবেন সেই ব্রোকারে ট্রেড করা থেকে বিরত থাকুন। স্লিপেজঃ আপনি যে প্রাইসে ট্রেড ওপেন করতে চেয়েছেন এবং যে প্রাইসে ট্রেড ওপেন করতে পেরেছেন তার মধ্যবর্তী পার্থক্যই হল স্লিপেজ। এই ক্ষেত্রে আপনি কখনো ইন্সটেন্ট অর্ডারে একচুয়েল প্রাইসে ট্রেড ওপেন কিংবা ক্লোজ করতে পারবেন না। সলিড এবং নো ডিলিং ডেস্ক ব্রোকারে স্লিপেজ থাকে না। নতুন ব্রোকারঃ এটা বলছি না যে নতুন ব্রোকারে ট্রেড করা যাবে না, তবে অনেক নতুন ব্রোকার আছে যারা কয়েকমাস মার্কেটে একজিস্ট করে আপনার মূলধন নিয়ে গায়েব হয়ে যায় তেমনি একটি ব্রোকার হল Kiwifxbank তাই নতুন ব্রোকারে ইনভেস্টমেন্ট সচেতন হউন। নগদ ক্যাশ বা পণ্য ওফারঃ অনেক ব্রোকার নতুন লাইভ একাউন্ট খুলে কেশ পুরষ্কার সহ নানা রকম আকর্ষণীয় পণ্য যেমন আইফোন, এন্ড্রয়িড ইত্যাদি অফার করে প্রকৃতপক্ষে এইগুলো হল আপনাকে ইনভেস্ট করানোর এক একটি ফাঁদ। এই সব ব্রোকার থেকে সচেতন থাকুন। ফিস্কাল পেরাডাইসঃ যদি আপনার ব্রোকারটি ফিস্কাল পেরাডাইস টাইপের ব্রোকার হয়ে থাকে তাহলে ইনভেস্ট করার আগে কয়েকবার ভাবুন। যে আপনি যখন টাকা উত্তোলন করতে যাবেন বা সরাসরি তাদের অফিস ভিজিট করতে যাবেন তাদের কাউকে আসলে সেখানে পাবেন তো ! আননোউন অথোরিটিঃ ব্রোকার গুলো যখন মার্কেটে আসে তখন ন্যূনত্বম একটি অথোরিটি নিয়ে আসে তবে সেই ক্ষেত্রে ও কিছু বিষয় স্পষ্ট হতে হবে আপনাকে। যেমন ব্রোকারটি যে অথোরাইজড নাম্বার ব্যাবহার করছে সেটি আসলে তার কোম্পানির অথোনটিকেশন নাকি ভায়া। যেমন Kiwifxbank নামক ব্রোকারটি এই ধরনের একটি কাজ করেছিল তারা Vault Market Pvt নামক একটি প্রতিষ্ঠানের Sister Concern হয়ে Kiwifxbank নামে কাজ শুরু করেছিল কিন্তু প্রকৃতপক্ষে Kiwifxbank কোন অথোরাইজেশন ছিল না। আসুন এইবার জেনে নেয় একটি সলিড ব্রোকার কিভাবে নির্বাচন করবেন। রিভিউ/রেপুটেশনঃ একটি ব্রোকার যখন কাজ শুরু করে তখন ঐ ব্রোকারের ভালো/মন্দ, সুবিধা/অসুবিধা নিয়ে ফরেক্স বিসয়ক অনেক সাইটে লিখালিখি হয়। যেমন এই ব্রোকারটি কেমন, তার লেনদেন কতটা স্বচ্ছ, তার ভালো দিক কি এবং খারাপ দিকগুলোই কি কি , ইত্যাদি। ঐখানে ভিবিন্ন ট্রেডার উক্ত ব্রোকার সম্পর্কে তাদের নিজ নিজ মতামত লিখে যা আপনাকে সাহায্য করতে ঐ ব্রোকার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে। যখন অনেক ট্রেডার মতামত দেয় যে ব্রোকারটিতে স্লিপেজ আছে, রিকোট হয় কিংবা টাকা উত্তোলনে সমস্যা তখন ঐ ব্রোকারে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। সময়কালঃ সোজাভাবে ব্রোকারের বয়স যত বেশি ট্রেডিং এর ক্ষেত্রে সেই ব্রোকারে আপনার নির্ভরতা তত বেশি। প্রতি বছর অনেক ব্রোকার আসে যায়, তাই ব্রোকারটিকে স্টাডি করে দেখুন তার সময়কাল কত, মোটামুটি ৩ বছরের সময় ধরে যারা ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে তাদের ক্ষেত্রে পজেটিভ পারস্পেক্টিভে এগুতে পারেন। রেগুলেশনঃ আগেই বলেছি ব্রোকার রেগুলেশন খুব গুরুত্তপুর্ন একটি ফ্যাক্ট। ব্রোকার বাছাই ক্ষেত্রে দেখে নিন ন্যূনত্বম তার ঐ দেশীয় স্টক এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন সহ ন্যাশনাল অথোরিটি আছে কি না। যেমন US ব্রোকারের ক্ষেত্রে দেখে নিন CFTC/NFA এবং UK ব্রোকারের ক্ষেত্রে FSA রেগুলেটেড কিনা। Virgin Islands রেগুলেটেড ব্রোকারে ট্রেড করাটা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। হেডকোয়াটার লোকেশনঃ সলিড এবং রিয়েল ব্রোকার তাদের শারীরিক অস্তিত্ব নিয়ে ব্যবসা করে কারন এই প্রকার ফিনেনশিয়াল ব্যবসা ফিস্কাল পেরাডাইসে সম্ভব না। তাই ব্রোকারের অফিস লোকেশন নিশ্চিত হউন। ECN নাকি ডিলিং ডেস্ক/ মার্কেট মেকারঃ ব্রোকার সাধারণত দুপ্রকার, মার্কেট মেকার যারা আপনার প্রতিটি ট্রেডের বিপরীতে আরেকটি ট্রেড ওপেন করে এবং নিজেরা একটি মার্কেট তৈরি করে আপনাকে মুল মার্কেট বায়ার সেলার থেকে দূরে রেখে নিজেরা লাভবান হয়। আর ECN – Electronic Communication Network ব্রোকার হল রিয়েল ব্রোকার যারা মুলত সরাসরি বায়ার এবং সেলারকে কানেক্ট করে ট্রেড পরিচালনা করে।( ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার এবং ECN ব্রোকার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমার এই পোস্টটি পড়ুন। ) এছাড়া ও ব্রোকার স্প্রেড, কাস্টোমার সাপোর্ট সহ আরো কিছু খুটিনাটি বিষয় পরিস্কার জেনে ব্রোকার নির্বাচন করতে পারেন এবং ট্রেড শুরু করতে ।
  2. প্রিয় বিডিফরেক্সপ্রো' ধন্যবাদ জানাই সুন্দর একটি ফরেক্স কমিউনিটী সাইটের মাধ্যমে ফরেক্স সম্পরকে প্রতিনিয়ত আমাদের আপডেট রাখার জন্য এবং নানা রকম স্ট্রেটিজি দিয়ে ট্রেডকে আরো শক্তিশালি করার জন্য। তারাই ধারাবাহিকতায় নতুন একটি ব্রোকার সম্পর্কে জানতে চাই। তাহল http://www.forextime.com/ এই ব্রোকার টী সম্পরকে বিস্তারিত জানালে উপক্রত হতাম। ধন্যবাদ আবারো।
  3. IronFX স্ক্যাম ব্রোকার, সাবধান! IronFX একটি স্ক্যাম ব্রোকার । ২০১৪ সাল থেকে চাইনিজ ইনভেস্টররা তাদের ইনভেস্টেড টাকা পাচ্ছে না, উইথড্র করতে গেলে তাদের একাউণ্ট ব্লক করে দেওয়া হচ্ছে। চাইনা’র সব IronFX অফিস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।এবং ম্যানেজাররা headquarter in Cyprus পালিয়ে গিয়েছে। কিছু কিছু ইনভেস্টর অনেক হয়রানির পর কিছু টাকা পেয়েছে। চাইনিজ এক বেক্তি তাদের অফিস থেকে মারামারি করে টাকা নিত সক্ষম হয়েছে। এই ব্রোকারে যারা ইতিমধ্যে ইনভেস্ট করেছেন তাদের ভবিষ্যৎ কি জানিনা, আর যারা ইনভেস্ট করবেন বলে চিন্তা করছেন। তাদেরকে সতর্ক করছি সাবধান। উপরের ছবিটি সেই কথাই বলে। সুত্রঃ লিঙ্ক
  4. FxNet Ltd হল সাইপ্রাস ভিত্তিক একটি সম্পূর্ণ আন্তর্জাতিক EU রেগুলেটেডড Over the Counter (OTC) online Forex and commodities ব্রোকার। এই ব্রোকারটি অর্থবাজারে প্রায় ১০ বছরের অভিজ্ঞতা নিয়ে বিশাল প্রফেশনাল টিম নিয়ে পরিচালিত হচ্ছে। অন্যান্য ফরেক্স ব্রোকারের মত এই ব্রোকারের রয়েছে কিছু লোভনীয় সুবিধা যা অনেকে রিসিভ করে নিজেদের ট্রেডিংকে প্লাটফর্মকে করতে পারেন আরো সুন্দর।এক নজরে তাদের সুবিধাগুলো দেখেনি...ভিবিন্ন সাধারন সুবিধা সমূহঃ Fixed spreads 24/5No Re-quotes, No Rejections!True STP Broker100% Deposit BonusClient Funds kept at reputable Global BanksRegister and start trading in under 1 minuteFlexible Leverage up to 1:50024/5 SupportPersonal Forex ManagerNo Commissions or hidden feesFREE Forex Tools and EducationUnlimited and no obligation Real & Demo AccountsEA friendlyCounterparty with Interbank LiquidityHedging, Scalping and News Trading PermittedLimited Risk - No Negative Balance প্লাটফর্ম এবং একাউন্ট সংক্রান্ত সুবিধাঃSimpleTrader Platform - Unique, simple to master platformMT4 Trading PlatformTrade from Web, Android mobile, ipad, iphoneIslamic friendly accountsMAM Accounts ফান্ডিং এবং সিকিউরিটি সংক্রান্ত সুবিধাঃEU Regulated, by CySEC and MiFID compliantVariety of Deposit MethodsInstant DepositsFast WithdrawalsNo minimum Deposit লাইসেন্সঃUnited Kingdom – FSA (Financial Services Authority)Germany – BaFin (Bundesanstalt für Finanzdienstleistungsaufsicht)France – ACP (Autorite de Controle Prudentiel)Spain – CNMV (The Comisión Nacional del Mercado de Valores)Norway – FINANSTILSYNET (Financial Supervisory Authority of Norway)Netherlands – AFM (Autoriteit Financiële Markten) রেগুলেটরিঃCySEC (Cyprus Securities and Exchange Commission) প্রফেশনাল এবং গভমেন্ট অথরিটিঃMiFID (Markets in Financial Instruments Directive)ICF (Investors Compensation Fund)
  5. # ফরেক্স ব্রোকার পরিচিতি : ব্রোকার টাইপঃ ব্রোকার কোম্পানিদের মূল উদ্দেশ্য হল ক্রেতা এবং বিক্রেতার সন্নিবেশনে স্প্রেড এর মাধ্যমে কমিশন আয় করা। # ফরেক্সে ২ প্রকার ব্রোকার বিদ্যমানঃ ১। ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার (Market Maker Broker) ২। নো-ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার (NDD Broker) ডিলিং ডেস্ক (Market Maker) ব্রোকারঃ এই প্রকার ব্রোকার Route তথা একটি Way’র মাধ্যমে আপনার ট্রেডটি ওপেন করে, এবং তাদের স্প্রেড সিস্টেম সাধারণভাবে ফিক্সড করা থাকে। ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার মূলত স্প্রেডের মাধ্যমে ইনকাম করে এবং ট্রেডারদের প্রত্যেকটি ট্রেড ওপেন এর বিপরীতে নিজেরা আরেকটি ট্রেড ওপেন করে থাকে। এই ব্রোকারকে Market Maker Broker ও বলা হয়ে থাকে কারন তারা ‘মার্কেট মেইক’ করে অর্থাৎ যদি কোন ট্রেডার কোন কারেন্সি বায় অর্ডার করে তখন ব্রোকার ঐ কারেন্সির আরেকটি সেল (বিপরীত) অর্ডার করে এবং ট্রেডার যখন সেল অর্ডার করে তখন ব্রোকার তার বিপরীত বা বায় অর্ডারটি করে। এই নিয়মে ট্রেডাররা প্রতিনিয়ত একটা প্রাইস চেঞ্জ এর মধ্যে থাকে বা ট্রেডাররা বেশিরভাগ সময়ে রিয়েল কৌওটে অর্ডার করতে পারে না। তাই অর্ডার এর ক্ষেত্রে অনেক হয়ত লক্ষ্য করেছেন যে Re-Quote কথাটি আসে। মূলত এরা হল রিটেইল ব্রোকার আর এই সকল ব্রোকার আমাদেরকে কম ইনভেস্টমেন্টে ট্রেড করার সুবিধা দিচ্ছে বলে ওরাও বিনিময়ে কিছু নিয়ে যাচ্ছে। তবে এইসব ব্রোকাররা সব সময় চেষ্টা করে ট্রেডারদের রিয়েল কৌওটে অর্ডার মেইক করে দিতে। এই নিয়মে অর্থাৎ Hedge এর মাধ্যমে ট্রেডার এবং ব্রোকার উভয় সুবিধা লাভ করে থাকে। নো-ডিলিং ডেস্ক (NDD) ব্রোকারঃ এটা সাধারণ নিয়ম যেখানে ব্রোকাররা ট্রেডার এর ট্রেড এর বিপরীতে কোন ট্রেড ওপেন করে না শুধুমাত্র ওপেনকৃত ট্রেড থেকে কমিশন লাভ করে থাকে। তাই এইসকল ব্রোকারের ট্রেড অর্ডারে অতিরিক্ত কোন সময় লাগে না এবং Re-Quote করতে হয় না ট্রেডার রিয়েল কৌওটে অর্ডার মেইক করতে পারে। অনেকের মনে এখন প্রশ্ন জাগছে তাহলে আমরা NDD ব্রোকারে কেন ট্রেড করি না। আসলে NDD ব্রোকারগুলোর ট্রেডিং ইনভেস্টমেন্ট মোটামুটি হাই থাকে যার কারনে আমাদের মত লো-ইনভেস্টমেন্ট যাদের তারা ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার ছাড়া কিছু চিন্তা করি না। তবে বিষয়টাতে খুব চিন্তার কিছু নাই কারন আপনি ভালো ট্রেডার হয়ে গেলে এই সব পার্থক্য আপনাকে খুব একটা ভাবাবে না। নো-ডিলিং ডেস্ক ব্রোকারের মধ্যে আবার ২ ধরণের ব্রোকার আছেঃ ১। Electronic Communications Network(ECN) ২। Straight Through Processing (STP) ECN: নো-ডিলিং ডেস্ক ব্রোকারের একটি টাইপ হল ECN ব্রোকার। আসলে ট্রেডিং মেকানিসম এর পার্থক্যর কারনে এইসব ব্রোকারের সৃষ্টি, এই প্রকার ব্রোকার অর্ডার মেইক করে ডিরেক্টলি ক্লায়েন্ট টু ক্লায়েন্ট রিস্পন্স কনসেপ্টে। STP: আর এই প্রকার ব্রোকার অর্ডার মেইক করে ইন্টারব্যাংক প্রাইস আক্সিস্টিং লেভেলের মাধ্যমে সরাসরি ক্লায়েন্ট টু ব্যাংক তথা লিকুডিটি প্রোভাইডারদের মাধ্যমে। # ফরেক্স ব্রোকার : ট্রেড শুরু করতে একাউন্ট অপেন করা জন্য প্রয়োজন হয় একটি ব্রোকাররের। # ফরেক্স মার্কেটের অসংখ্য ব্রোকাররের মধ্য থেকে কোন ব্রোকারটি কেমন, কার সুবিধা কেমন, কিংবা কার কি অসুবিধা, কোন ব্রোকার লেনদেন এর দিক দিয়ে কতটা স্বচ্ছ বা কোন ব্রোকারটি রেগুলেটেড ইত্যাদি নানা বিষয় জেনে শুনে ব্রোকার সিলেক্ট করতে হয়। আপনি নতুন কিংবা পুরাতন যেমন ট্রেডার হোন না কেন, বিষয়টির উপর নির্ভর করছে আপনার ট্রেডিং স্বচ্ছতা। তাই এখন আমরা দেখব একটি ব্রোকার এর কি কি সুবিধা এবং স্বচ্ছতা থাকলে তাকে রিয়েল ব্রোকার বলা যায়। কোন ব্রোকার কে রিয়েল প্রমাণিত করতে চাইলে সেই ব্রোকার এর নিম্নোক্ত বিষয়গুলোর স্বচ্ছতা অনুধাবন একান্ত প্রয়োজন। ১। ব্রোকারটি রেগুলেটেড (Regulated)?: ব্রোকার নির্বাচনে আপনার প্রথম প্রশ্নটি হল আপনি যে ব্রোকারটি সেলেক্ট করতে যাচ্ছেন তা ব্রোকার নিয়ন্ত্রক অর্গানাইজেশন বা অথোরিটি থেকে রেগুলেটেড কিনা। কারন প্রত্যেকটি রেগুলেটেড ব্রোকার কে তার ফাইনেনশিয়াল রিপোর্ট সাবমিট করতে হয় রেগুলেটরি অথোরিটির কাছে। আর যখন কোন ব্রোকার তা সাবমিট করতে অপারগ হয় বা সাবমিট করে না তখন রেগুলেটরি অথোরিটি ঐ ব্রোকার চার্জ করে বা তার মেম্বারশীপ বাতিল করে। দেশ ভিত্তিক ব্রোকার রেগুলেটরি অথোরিটি ভিন্ন হতে পারে। যেমনঃ আমেরিকান (U.S. based) ব্রোকার হলে তাকে লোকাল অথোরিটি NFA (National Futures Association) এবং CFTC (Commodity futures Trading Commission) করতিক অথোরাইজড হতে হবে। আবার সুয়িস বেসড(Swiss Based) ব্রোকার হলে তাকে অবশ্যই FDF (Federal Department of Finance) এবং U.K. বেসড ব্রোকার হলে তাকে FSA করতিক অথোরাইজড হতে হবে। তাই আপনি যে ব্রোকারকে সিলেক্ট করছেন তার এই স্বচ্ছতা গুলো দেখে নিশ্চিত হতে পারেন। ২। ট্রেডিং কন্ডিশন(Trading Conditions): আপনি দ্বিতীয় যে বিষয় গুলো দেখবেন তা হল ঐ ব্রোকার আর ট্রেডিং সুবিধাগুলো। যেসব বিষয় আপনি দেখবেন সেগুলো হলঃ ক) Spread: অবশ্যই দেখবেন কারেন্সি পেয়ারে অন্যদের তুলনায় স্প্রেড কত কম, স্প্রেড যত কম হবে আপনার ট্রেডিং ক্যাপাবিলিটি তত ভালো হবে। খ) Platform Execution: অর্থাৎ আপনি দেখবেন ঐ ব্রোকারের ট্রেডিং এক্সিকিউশন কত ফাস্ট। অর্থাৎ আপনি যখন কোন অর্ডার মেইক করেন তখন কত দ্রুত আপনার অর্ডারটি মেইক হচ্ছে। গ) Fractional Trading: আপনি যদি মিনি লট বা মাইক্রো লট ট্রেডিং ট্রেডার হোন তাহলে দেখতে হবে ঐ ব্রোকারের Fractional Trading সুবিধাটা আছে কিনা। কারন সব ব্রোকার মাইক্রো লট বা Fractional Trading সাপোর্ট করে না। ঘ) Safety of Funds: আপনাকে আরো নিশিত হতে হবে আপনার ইনভেস্টিং এমাউন্টটি কত সেইফ বা নিরাপদ। ব্রোকাররা তাদের একটি Segregated Account সুবিধার মাধ্যমে তা নিশিত করে। ঙ) Trading Platform: সহজভাবে ব্যাবহার সুবিধা দেখবেন, এটি সব ব্রোকারের ক্ষেত্রে ডিফল্ট হয়ে থাকে তাই চিন্তার তেমন কোন কারন নাই। চ) Minimum Investment: এই বিষয়টি ও খুব গুরুত্তপূর্ণ অর্থাৎ ঐ ব্রোকার সর্বনিম্ন কত এমাউন্ট ডেপোজিটে ট্রেডিং সুবিধা প্রদান করছে। ছ) Margin(Leverage): এই ক্ষেত্রে বিবেচ্য বিষয় হল আপনার চাহিদা অনুসারে ব্রোকার ঐ পরিমান মার্জিন সুবিধা দিচ্চে কিনা তবে মোটামুটি এখন প্রায় ব্রোকার ১-৬০০ লিভারেজ দিচ্ছে। জ) One Click Dealing: যদি আপনার ট্রেডিং স্টাইল হয় খুব স্বল্প সময়ের এবং আপনি যদি দ্রুততার সাথে মার্কেটে প্রবেশ করতে চান এই অপশনটি আপনার জন্য। ঝ) Advanced type of orders: কখনো আপনি আপনার ট্রেডিং স্ট্রেটিজিতে দুটি অর্ডার করতে পারেন শর্ত হলে একটি যেকোন একটি অর্ডার এক্সিকিউট হলে অপর অর্ডারটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে কেনসেল (OCO) হয়ে যাবে । তাই আপনার ট্রেডিং স্ট্রেটিজি অনুসারে ব্রোকারের এই সুবিধাটিও দেখতে পারেন। এছাড়া GTC(Good till Canceled), GFD(Good for the Day) নামক কিছু অর্ডার সুবিধা ব্রোকাররা দিয়ে থাকে। ঞ) Support for Handheld, Mobile and other device: এই সুবিধাটি না উল্লেখ করলেও আপনি অনুভব করতে পারতেন, আপনার পকেট ডিভাইস সাপোর্ট প্লাটফর্ম হলে কতখানি সুবিধা তা আশা করছি আর বিস্তারিত বলেতে হবে না। ট) Trade Directly from the chart: অনেক ট্রেডার আছে যারা সরাসরি চার্ট থেকে ট্রেড করতে চায়। তাই চার্ট থেকে ট্রেডিং কৌওট পেনেল সুবিধাটিও আপনার প্রয়োজন হতে পারে। ঠ) Trailing Stop: এটি # ফরেক্স মার্কেটের খুবই সুন্দর একটি সুবিধা যা ব্যাবহার এর মাধ্যমে মার্কেট আপনার অনুকুলে আপনি আপনার প্রফিটকে লক করার মাধ্যমে বাড়াতে পারেন। এছাড়া ও ট্রেড শুরু করলে আপনি আরো বিভিন্ন ধরনের সুবিধা অনুভব করবেন এবং ব্রোকার অভারভিউ পর্যবেক্ষণ এর মাধমে আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত ব্রোকারকে সিলেক্ট করে নিবেন। ৩। অধ্যবসায় (Diligence): আশা করছি ইতিমধ্যে আপনি ২-৩টি ব্রোকারকে প্রাথমিক ভাবে সিলেক্ট করে ফেলেছেন। এবং ট্রেড করার জন্য তাদেরকে ফাইনাল লিস্টে নিয়েছেন। আপনি সঠিক এবং স্বচ্ছ ব্রোকার সিলেক্ট করেছেন কিনা তা নিশ্চিত হতে ভিবিন্ন রকম # ফরেক্স ফোরামে (যেমন: www.bdforexpro.com, forexfactory, forexnews, babypips ইত্যাদি)একটি পোস্ট দিন আপনার প্রশ্নের উত্তর চেয়ে, দেখবেন অনেক এক্সপার্ট ট্রেডার এবং অভিজ্ঞও যারা আছে তারা আপনার পোস্টের সঠিক রিপ্লাই দিবে এতে করে আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন যে আপনার সিদ্ধান্ত কতটুকু সঠিক ছিল। এছাড়াও আপনি যেসব বিষয়গুলো নিশিত হয়ে ব্রোকার সিলেক্ট করতে পারেন তা হলঃ ১। Customer Service: এই বিষয়টি একজন ট্রেডারের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ঐ ব্রোকারটি কি কাস্টোমারের প্রতি সদয়? তারা কি কাস্টোমারকে প্রতিনিয়ত সাহায্য করতে ইচ্ছুক? ২। Slippage: এটি এমন একটি বিষয় যা নির্দেশ করে যে, আপনার অর্ডার করা একচুয়েল ভেলুতে কি অর্ডারটি সম্পূর্ণ হয়েছে? এবং আপনার টেক প্রফিট এবং স্টপ লস মোতাবেক অর্ডারটি সম্পূর্ণ হয়েছে কিনা ইত্যাদি। ৩। Manual Execution: কিছু ব্রোকার আছে যারা স্কেল্পিং বা অটোট্রেডিং পছন্দ করে না। আর ঐসব ব্রোকারে যখন কোন ট্রেডার তা করতে যায় তখন ব্রোকার থেকে ম্যানুয়াল ট্রেডিং করতে ফোরস করে হয়। অর্থাৎ ঐ ব্রোকারে হিউম্যান ট্রেড ছাড়া অন্য কোন রোবটিক ট্রেড এক্সিকিউট করবে না। ৪। Re-Quotes: এটা ঘটে যখন আপনি বায় অথবা সেল বাটন ক্লিক করছেন কিন্তু ফ্লাটফর্ম বা মেটা ট্রেডার আপনার অর্ডারটি এক্সিকিউট করছে না। ৪। Testing: এইবার ব্রোকার কনফার্ম করার পালা, অর্থাৎ এতক্ষণের আলোচনায় আপনি যে ব্রোকারকে আপনার ট্রেডিং আর জন্য স্যুট মনে করছেন প্রথমে তাকে ডেমো একাউন্টের মাধ্যমে আপনার সবগুলো ট্রেডিং স্টাইল টেস্ট করুন এবং যদি সেটিসফেক্টরি রেসাল্ট পান তাহলে ঐ নির্দিষ্ট ব্রোকারকে ফাইনাল করুন। তাই উপরোক্ত বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণ আর মাধ্যমে আপনি একটি পারফেক্ট ব্রোকার সিলেক্ট করে আপনার ট্রেডিং পরিচালনা করতে পারেন সাফল্যমণ্ডিতভাবে। ভিবিন্ন ব্রোকার রেগুলেটরি অথোরিটি এবং রিভিউ সাইট ডিসকাশন লিঙ্কঃ Regulatory Agencies website and link : NFA – National Futures Association - http://www.nfa.futures.org/ CFTC – Commodity Futures Trading Commission - http://www.cftc.gov/ FSA – Financial Services Authority - http://www.fsa.gov.uk/ Review Sites: # ForexAnonymous – http://www.forexanonymous.com/search.php?id=17 The # ForexReviewer – http://www.theforexreviewer.com/forexreviews/forex-broker-reviews/ # Forex4Noobs - http://www.forex4noobs.com/product_reviews.php # ForexBastards – http://www.forexpeacearmy.com/public/forex_broker_reviews Forums with Broker Discussions: # Forex Broker Discussion at ForexFactory http://www.forexfactory.com/forumdisplay.php?f=74 Rate my Broker at BabyPips http://forums.babypips.com/rate-my-broker/ # Forex Brokers at Trade2Win Forums http://www.trade2win.com/boards/forex-brokers/ # Forex broker নিয়ে আজকে অনেক আলোচনা করলাম আশাকরি যারা নতুন ট্রেডার বা যারা নতুন ট্রেডার হবেন # ফরেক্স ব্যাবসায় নামার জন্য প্রস্তুত যারা ভালো একটি নির্ভরযোগ্য ব্রোকার খুজছেন সবার জন্য বলি আমি অনেক বছর এই # ফরেক্স ব্যাবসার সাথে জড়িত অনেক ব্রোকার নিয়ে রিসার্চ করেছি অনেক ব্রোকার নিয়ে গবেষনা এ্যানালাইসিস করেছি তার ভিতর থেকে সেরা 100% সিকিউরেটেড Reliable নির্ভরযোগ্য ব্রোকার পেয়েছি তার নাম হলো # Exness broker ।আমি দীর্ঘ ৫ বছর কাটিয়ে দিয়েছি শুধু এই ব্রোকারের সাথে । এখন পর্যন্ত কোনো সমস্যা ফেস করি নাই ।এই # Exness broker এর গ্রাহক সেবা সপ্তাহে ৭ দিন ২৪ ঘন্টা দ্রুত সমস্যা সমাধান ও Instant withdraw and Deposit কোনো কমিশন ছাড়া এটা আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে ও মনে করি এক ইতিবাচক দিক ।এই ব্রোকারের রেগুলেশন খুব শক্তীশালী । তাই আমি মনে করি আপনারা যারা # ফরেক্স ব্যাবসার সাথে জড়িত বা যারা ভালো বিশ্বস্ত ব্রোকার খুজছেন তারা নিশ্চিন্তে # Exness broker এ ট্রেড করতে পারেন । আপনারা কিভাবে ভালো ব্রোকার খুজে পাবেন তার সব কিছুই নিয়ে আমি আলোচনা করেছি ও ভালো ব্রোকার নির্বাচনের জন্য সমস্ত তথ্য ও দিক নির্নয়ের জন্য সব কিছু দিয়েছি আপনারা নিজেরাই খুজে বের করতে পারবেন আশাকরি ।আপনার নিজেরাই পরীক্ষা করে দেখুন ।
  6. একজন ট্রেডার হিসেবে আমরা সবাই চাই ভালো একটি ব্রোকার এ ট্রেড করতে, যে ব্রোকার এ কোনো প্রকার দুর্নীতি থাকবেনা, কিন্তু বেশীরভাগ ট্রেডার-ই যাচাই না করে পরিচিত জনের কথায় বা যেকোনো মাধ্যেমে হুট করেই লাইভ একাউন্ট করে ট্রেড শুরু করে এবং যে কোনো এক সময় এসে সে ব্রোকারের যাবতীয় দুর্নীতির খপ্পরে পড়ে নিঃস্ব হয়ে যায় বা যাবতীয় সমস্যার সম্মুখীন হয়। এক্ষেত্রে আমি বলবো এটা সম্পূর্ণই আপনার দোষ, কারণ যে কোনো ব্রোকার এ ট্রেড করার আগে আপনাকে অবশ্যই সে ব্রোকারকে যাচাই করে নেওয়া উচিৎ। হ্যাঁ বন্ধুরা আজকে আপনাদের সাথে কিভাবে একটি সঠিক ব্রোকার নির্বাচন করবেন তা নিয়েই আলোচনা করবো, যাতে করে কেউ কোনো দুর্নীতিগ্রস্থ ব্রোকারের খপ্পরে না পড়েন। তাহলে আসুন জেনে নেই কিভাবে সঠিক ব্রোকার নির্বাচন করবেনঃ ১. ব্রোকারটি রেগুলেটেড কি নাঃ ফরেক্স এ ট্রেড করার আগে আপনার পছন্দের ব্রোকারটি কোনো নিয়ন্ত্রন সংস্থা দ্বারা নিবন্ধিত কিনা সর্বপ্রথম অবশ্যই সেটা যাচাই করা উচিৎ। যেমন- যুক্তরাষ্ট ভিত্তিক National Futures Association (NFA), U.S. Commodity Futures Trading Commission (CFTC) বা United Kingdom এর Financial Service Authority (FSA) দ্বারা নিয়ন্ত্রিত কিনা তা দেখে নিবেন। এই নিয়ন্ত্রন সংস্থাগুলো ছাড়াও অনেক ব্রোকার Hong Kong: SFC, Japan: FFAJ, Spain: CNMV, Sweden: FI, Switzerland: ARIF, FDF, GSCGI দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে। যদি আপানর পছন্দের ব্রোকারটি উপরোক্ত একটি সংস্থা দ্বারাও নিবন্ধিত না হয় তাহলে উক্ত ব্রোকার থেকে দূরে থাকুন। কারণ এ ধরণের ব্রোকার যে কোনো সময় আপনাকে নিঃস্ব করে দিতে পারে আর আপনার মূলধন এদের কাছে মোটেও নিরাপদ নয়। আপনার ব্রোকারকে যাচাই করার জন্য এই লিংকগুলোতে যানঃ NFA- National Futures Association www.nfa.futures.org/ CFTC- U.S. Commodity Futures Trading Commission www.cftc.gov/ FSA- Financial Service Authority www.fsa.gov.uk/ ২. লিভারেজ/লোনঃ ফরেক্স এ ট্রেড করার জন্য প্রতিটি ব্রোকার-ই লিভারেজ/লোন দিয়ে থাকে। যার পরিমাণ ১ঃ৫০-১ঃ১০০০ পর্যন্ত হয়ে থাকে। আপনার বাছাইকৃত ব্রোকারটি লিভারেজ/লোন সুবিধা দিচ্ছে কিনা এবং দিলে তা কি পরিমাণ তা জেনে নিন। তবে মনে রাখবেন যত বেশী লিভারেজ/লোন নিবেন ততোই আপনার জন্য খারাপ। কারণ লিভারেজ হলো দু-দিকে ধার যুক্ত তলোয়ারের ন্যায়। ৩. স্প্রেড ও কমিশনঃ প্রতিটি ব্রোকার-ই ট্রেড এর বিনিময়ে তার গ্রাহক থেকে স্প্রেড বা কমিশন নিয়ে থাকে কারণ এটাই তাদের ইনকাম। তবে আপনাকে যাচাই করতে হবে যে আপনার নির্বাচিত ব্রোকারটি প্রতি লট ট্রেড এ কি পরিমাণ স্প্রেড/কমিশন নিয়ে থাকেন। আমরা জানি যে মেজর পেয়ার এ বেশীরভাগ ব্রোকার-ই ২-৩পিপ্স স্প্রেড নিয়ে থাকে। আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে ব্রোকার স্প্রেড যত কম হবে আপনার জন্য ততই ভাল হবে। ৪. সহজ বিনিয়োগ ও উত্তোলনের সুযোগঃ অর্থ বিনিয়োগ ও উত্তোলনের বেপারে প্রতিটি ব্রোকারের কিছু নির্দিষ্ট পথ ও নীতিমালা থাকে। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে আপনাকে অবশ্যই সেদিক বিবেচনা করে ব্রোকার নির্বাচন করতে হবে। যেমনঃ যে কোনো সময় সহজেই যেন ইলেক্ট্রোনিক মিডিয়ার মাধ্যেমে বিনিয়োগ ও উত্তোলন করা যায়।ইন্টারন্যাশেনাল মাস্টার, ভিসা, ও ক্রেডিট কার্ড দিয়ে যেন বিনিয়োগ ও উত্তোলন করা যায়।আমাদের দেশীয় ব্যাংকের মাধ্যেমে বিনিয়োগ ও উত্তোলন থাকলেও ভালো। এবং দৈনিক উত্তোলনের পরিমাণ কত।ব্রোকার নির্বাচনে এ সকল বিষয় অত্যন্ত জরুরী ভুমিকা রাখে। ৫. গ্রাহক সেবাঃ ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে অবশ্যই যাচাই করবেন যে, আপনার পছন্দের ব্রোকারটি সঠিক সময়ে সঠিক গ্রাহক সেবা দিচ্ছে কিনা। কারণ অনেক ট্রেডার তার সমস্যার কথা ব্রোকারকে জানালে তার উত্তর পেতে পেতে হয়ত কয়েকদিন লেগে যায়। যা একজন ট্রেডারের জন্য বিপদজনক কারণ আপনি হয়ত তার উত্তর পেতে পেতে অনেকটা সময় (ট্রেডেবল) বা অর্থ হারিয়ে পেলেছেন। ৬. ট্রেডিং প্লাটফর্মঃ ফরেক্স মার্কেট এ ট্রেড করার জন্য প্রত্যেকটি ব্রোকারের ট্রেডিং প্লাটফর্ম থাকে, যে প্লাটফর্ম এর মাধ্যেমে ট্রেডার বাই, সেল, পেন্ডিং অর্ডার, অর্ডারগুলোকে মডিফাই ও ক্লোজ করতে পারে। এক্ষেত্রে আপনার পছন্দের ব্রোকারটি কোন ট্রেডিং প্লাটফর্ম এ ট্রেড করার সুযোগ দিচ্ছে তা যাচাই করে নিন। ৭. হেজিং ও নিউজ ট্রেডঃ পৃথিবীর সকল ট্রেডার-ই হেজিং ও নিউজ ট্রেড করে থাকেন। এ ধরণের ট্রেড এর ক্ষেত্রে অনেক ব্রোকার নিয়ম জুড়ে দেয়। ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে অবশ্যই এ ধরণের ট্রেড এর উপর কোনো প্রকার নিয়ম বা নিষেধাজ্ঞা আছে কিনা তা দেখে নিবেন। নতুবা আপনি পরে ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন। ৮. ডেমো একাউন্ট এ ট্রেডঃ প্রতিটি ব্রোকার-ই গ্রাহকদের চর্চার জন্য ডেমো একাউন্ট এ ট্রেড করার সুবিধা রেখেছে, আপনি আপনার পছন্দের ব্রোকার এ লাইভ ট্রেড করার পূর্বে ডেমোতে চর্চা করে যাচাই করে নিন বা আপনার পছন্দের ব্রোকার ও অন্য একটি ব্রোকার এ একই সাথে ট্রেড করে যাচাই করে নিন যে আপনার পছন্দের ব্রোকারটির সাথে অন্য ব্রোকারের মুভমেন্ট ও পিপ্স মুল্যে একই কিনা। ৯. বিভিন্ন ধরণের একাউন্টঃ ফরেক্স মার্কেট এর ব্রোকারগুলো তাদের গ্রাহকদের সুবিধার জন্য বিভিন্ন ধরণের ৪ও৫ ডিজিট এর একাউন্ট রেখেছেন। যেমনঃ স্ট্যান্ডার্ড একাউন্ট, মিনি একাউন্ট ও মাইক্রো একাউন্ট। আপনার পছন্দের ব্রোকার এ আপনার পছন্দের একাউন্ট টাইপ বা একাধিক ধরণের একাউন্ট পলিসি আছে কিনা তা জেনে নিন। যেন পরবর্তীতে আপনি চাইলে আপনার পছন্দমত একাউন্ট এ ট্রেড করতে পারেন। ১০. অন্যান্যঃ সঠিক ব্রোকার নির্বাচন এর জন্য উপরোক্ত পয়েন্টগুলো ছাড়াও আরো কিছু পয়েন্ট আছে সেগুলো হলঃ আপনার পছন্দের ব্রোকারটি কত বছর ধরে ব্যবসা করছে।এই ব্রোকারটি কোন দেশের এবং কে বা কারা পরিচালনা করে ও তাদের অভিজ্ঞতাই বা কেমন।উক্ত ব্রোকারটির সাথে কোন কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংকের ভাল ব্যবসায়িক সম্পর্ক আছে কিনা।আপনার পছন্দের ব্রোকারে কি পরিমাণ ট্রেডার ট্রেড করে ও উক্ত ব্রোকারে মাসে কত ভলিউম ট্রেড হয়ে থাকে।আপনি যদি আপনার ট্রেডটি একদিনের বেশী বা কয়েকদিন রেখে দিতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার পছন্দের ব্রোকারটির রোলওভার নীতি কি? আপনার পছন্দের ব্রোকারটি মাল্টি ট্রেড করার সুবিধা রেখেছে কিনা। যেমন- একই পেয়ার এ একই সময়ে একাধিক বাই ও সেল এর সুযোগ আছে কিনা। ফরেক্স ট্রেড করার ক্ষেত্রে একটি ব্রোকার নির্বাচনের জন্য উপরোক্ত বিষয়গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। উপরোক্ত বিষয়গুলো যাচাই করে যদি দেখেন যে আপনার পছন্দের ব্রোকারটি সবদিক দিয়ে ঠিক আছে তবেই আপনি সে ব্রোকার এ ট্রেড করতে পারেন। আর একাউন্ট ওপেন করার সময় ঐই ব্রোকার এর নীতিমালাগুলো অবশ্যই পড়ে নিবেন যেন কোনো লুকানো নিয়ম নীতি আপনাকে পরবর্তীতে ঠকাতে বা ঠেকাতে না পারে। ধন্যবাদ সবাইকে।
  7. ট্রেড শুরু করার আগে অনেকেই একটি বিষয় নিয়ে খুব দুশ্চিন্তার মধ্যে পড়ে যায় তা হল কোন ব্রোকারে ট্রেড শুরু করবেন, কার ট্রান্সেকশন কত ভালো , টাকার নিরাপত্তা কি? এইগুলো ছাড়া ও আপনি অনেকভাবে স্ক্যাম এর স্বীকার হতে পারেন। যা হয়ত কখনোই আপনার চোখে পড়বে না, কিংবা আপনি বুঝতেই পারবেন না কিভাবে ব্রোকার স্ক্যাম করে। তাই বিষটি অনেক গুরুত্তের সাথেই দেখতে হবে এবং জেনে বুঝে ব্রোকার নির্বাচন করতে হবে। সঠিক ব্রোকার নির্বাচন নিয়ে আগেও আমি পোস্ট করেছি, আবারো আরো কিছু তথ্য নিয়ে ব্রোকার সম্পর্কে লিখতে কারন বিষয়টি আমার কাছে খুব গুররুপুর্ন এবং ট্রেডার হিসেবে আপনিও সেটা বুঝতে পারছেন। ব্রোকার স্ক্যামঃ যে যত রকম সুবিধার কথা বলুক না কেন ভালো ব্রোকারের পাশাপাশি অনেক স্ক্যাম ব্রোকার ও রয়েছে যা প্রতিনিয়ত মনিটরিং বোর্ড নিয়ন্ত্রণ করছে এবং ব্ল্যাক লিস্টেট হচ্ছে, কিন্তু তারপর ও আপনার ব্যাক্তিগত সাবধানতার প্রয়োজন আছে। একটি বিষয় আমরা অনেক ক্ষেত্রেই ব্রোকার নির্বাচনে খুব বেশি নরজে নেই না তা হল, স্প্রেড সিস্টেম। সাধারণভাবে মেজর কারেন্সিতে স্প্রেড থাকে ২-৩ পিপস। কিন্তু স্ক্যাম ব্রোকারের প্রথম ফাঁদ হচ্ছে আস্ক/বিড স্প্রেড মেনুপুলেশন। যেখানে তারা ৭-৮ পিপস পর্যন্ত স্প্রেড সেট করে সুযোগ তৈরি করে। আর ৭-৮ পিপ্স বাদ দিয়ে আপনার প্রফিট কতটুকু আপনার অনুকুলে থাকবে তা ভালোই বুঝতে পারছেন। তবে এইসব ক্ষেত্রে রেগুলেটর বোর্ড এই রকম অনেক ব্রোকারকে ক্র্যাক করেছে। ব্রোকার রেগুলেশন এর ক্ষেত্রে সাধারণত দুটি বোর্ড ব্রোকারকে অথোরাইজ করে থাকে, U.S. Regulatory AgenciesForeign Regulatory Agencies ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে আপনাকে উপরোক্ত অথোরিটি দ্বারা রেজিস্টার্ড ব্রোকার পছন্দ করতে হবে ট্রেডের ক্ষেত্রে। এই দুটি বোর্ড সব সময় ফ্রড এবং স্ক্যাম ব্রোকার কে খুজে বের করে তাদের কে ক্র্যাক করে থাকে। তবে, এটাও সত্যি যে আপনার পক্ষে রেগুলেটেড এবং আনরেগুলেটেড এর পার্থক্য বের করাটাও অনেক কঠিন একটা ব্যাপার। আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা হল যে রেগুলেটেড অথোরিটি সময় এবং বাজারের অবস্থার উপর ভিত্তি করে দরকার হলে কিছু নিতিমালার পরিবর্তন আনে যে গুলোর সাথে অনেক ব্রোকারই আপডেট থাকে না, আর যার কারন ব্রোকার আগের পলিসিতে কোন রকম স্ক্যাম করলে আপনার আর ক্ল্যাম করার কোন সুযোগ থাকে না। U.S. Regulatory Agencies এই রেগুলেশন বোর্ডের দুটি অথোরিটি হচ্ছে, Commodities Futures Trade Commission (CFTC) ব্রোকারের প্রথম রেগুলেশন হল CFTC এর অনুমোদ্ন। ১৯৭৪ সালে গঠিত এই বোর্ডটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, ফিউচার কমোডিটি মার্কেট তথা কারেন্সি মার্কেট সঠিকভাবে পরিচালনার নিতিনির্ধারক ফোরাম হিসেবে। এই প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য হচ্ছে ব্রোকার স্ক্যাম এবং ফ্রড থেকে ট্রেডারকে রক্ষা করা। তাই এই অথোরিটির অনুমোদনের মাধ্যমে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে আপনি সঠিক ব্রোকারে আছেন। আপনি চাইলে এই অথরিটির অফিসিয়াল অয়েব সাইটের মাধ্যমে সঠিক ব্রোকার লিস্ট দেখতে পারেনঃ http://www.cftc.gov/index.htm এবং আপনার যদি কোন ব্রোকার সম্পর্কে কোন কমপ্লেন থাকে তাও জানাতে পারেনঃ http://www.cftc.gov/consumerprotection/redressreparations/index.htm National Futures Association (NFA)একই উদ্দেশ্যে এই বোর্ডটি প্রতিষ্ঠিত ১৯৮২ সালে, CFTC বোর্ডকে ব্রোকার বিগ ব্রাদার বলা হয়ে থাকে। আর NFA কে সেই হিসেবে লিটল বিগ ব্রাদার বলা হয়ে থাকে কারন CFTC এর তত্ত্বাবধানে NFA তার কার্যবিধি চালিয়ে থাকে। NFA মুলত ইন্ডাস্টি বিস্তৃত এবং ব্যাক্তিগতভাবে চালিত প্রতিষ্ঠানের রেগুলেশন নিয়ে কাজ করে। তাই এই দুটি অথরিটির রেগুলেশন আর মাধ্যমে সঠিক ব্রোকার নির্বাচনে আপনার কোন জটিলতা থাকে না। এই বোর্ড দ্বারা অনুমোদিত ব্রোকার সম্পর্কে জানতে পারেন আপনি তাদের অফিসিয়াল সাইট থেকেঃ http://www.nfa.futures.org/basicnet/ USA এর বাইরের বেশিরভাগ ব্রোকার CFTC, USA রেগুলেশন নিয়ে অথোরাইড হয় না, তারা CFTC , NFA ছাড়াও অন্য কিছু Foreign Regulatory Agencies এর মাধ্যমে রেগেলেটেড হয়ে থাকে। আগামি দিন আলোচনা করব ফরেন রেগুলেটরি এজেন্সি নিয়ে।
  8. সম্মানিত গ্রাহকগন! আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে ফরেক্সের সাথে জড়িত সুইস ফ্রাঙ্কের ঘটনা দ্বারা FBS এর অবস্থার কোন পরিবর্তন আসেনি। সুইস ন্যাশনাল ব্যাংক কতৃক ইউরোর বিপরীতে ফ্রাঙ্কের পেগ বর্জন করাটা EUR/CHF এর জন্য প্রচন্ড রকমের একটি ধাক্কা ছিল যাতে মার্কেট বৃহস্পতিবার ৩০% নিচে নেমে এসেছিলো। অনেক ফরেক্স ব্রোকার বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে কারন তাদের ক্লায়েন্টদের পজিশন ধ্বংস হয়ে গিয়েছিলো। তাসত্ত্বেও, FBS অফিসিয়ালি ঘোষণা দিচ্ছে যে আমরা আমাদের কার্যকলাপ অব্যাহত রাখবো। এধরনের ঘটনায় FBS এর কোন প্রতিক্রিয়া নেই কারন হচ্ছে কোম্পানির সমীচীন রিস্ক ম্যানেজমেন্ট এবং বর্তমানে আমরা নিজেদের কাজ দায়িত্তের সাথে করি এবং রেগুলেটরি প্রতিষ্ঠান দ্বারা আরোপিত চাহিদা পূরণ করি। FBS কে বেছে নিন এবং নির্ভরযোগ্য ব্রোকারের সাথে ট্রেড করুন!
  9. Kiwifxbank ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠিত অস্ট্রেলিয়ান NDD ব্রোকার। ভল্ট মার্কেট টীম এর নতুন আরেকটি স্বচ্ছ সংযোজন হল kiwifxbank নামক এই ফরেক্স ব্রোকারেজ প্রতিষ্ঠান। kiwifxbank তাদের ক্লাইন্ট এর ফান্ড নিরাপত্তার স্বার্থে ওয়ার্ল্ড AA ক্লাস রেইটেড ব্যাংক Westpac bank Australia. এর মাধ্যমে ফান্ড পরিচালনা করে থাকে তাই এই ব্রোকারে ট্রেড করার মাধ্যমে আপনার ফান্ড থাকবে ১০০% নিরাপদ। অস্ট্রেলিয়ান ASIC এর মাধ্যমে নিবন্ধিত kiwifxbank এর Company Number: 164 458 511 এবং Business Number : 88 164 458 511 ভিন্ন ধর্মী একই ব্রোকারে ৪ ডিজিট এবং ৫ ডিজিট ট্রেডিং এর জন্য এই ব্রোকার সাজিয়েছে ক্লাইন্ট এর পছন্দ অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন ৫টি একাউন্ট টাইপ। মানি মেথড এর দিক দিয়েও এই ব্রোকার অতুলনীয় প্রায় সব মানি মিডিয়াতেই আপনি লেনদেন করতে পারবেন। ট্রেডিং প্লাটফর্মে এনেছে নতুনত্ব , MT4 এর পাশাপাশি আপনি পাচ্ছেন Ctrader নামক আরেক ট্রেডিং প্লাটফর্ম যা আপনার ট্রেডিং অভিজ্ঞতাকে সম্পূর্ণ পাল্টে দিবে। ট্রেডকে করবে আরো বৈচিত্রপূর্ণ এবং আধুনিক। লেনদেনের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন সময়ে আপনি আপনার লেনদেন সম্পূর্ণ করতে পারবেন ৪-৬ ঘন্টার মধ্যে। ৩০% অটো ক্রেডিট বোনাস এর মাধ্যমে একাউন্ট বুস্ট করে ট্রেড করতে পারবেন আরো দিগুন গতিতে। ফ্রেশ যামেলাহীন ট্রেডিং সিস্টেম হিসেবে বেঁচে নিতে পারেন Kiwifxbank ব্রোকারকে। সম্পূর্ণ NDD ব্রোকার হওয়াতে আপনার ট্রেডে থাকবেনা কোন Requote অথবা Slippage তাই আপনার প্রতিটি ট্রেড Execution হবে ইনস্ট্যান্ট এবং রাইট পয়েন্টে। ওয়ালেট এর মাধ্যমে আপনার অর্জিত ডলার ট্র্যান্সফার করতে পারবেন এক একাউন্ট থেকে আরেক একাউন্টে খুব সহজে। নানা রকম ট্রেডিং সুবিধার মধ্য এক নজরে দেখে নিন এই ব্রোকারের ভিবিন্ন সুবিধাগুলোঃ [*]কারেন্সি পেয়ার : 29 [*]স্প্রেডঃ 0.6 – 3p [*]ডেমো আকাউন্ট: Account type based Individual demo test [*]পেইমেন্ট মেথড WireTransfer ,Moneybookers(Skrill), Perfect Money, Neteller, OK Pay, U kash, Cash U, Master Card, VISA [*]একাউন্ট টাইপঃ 5 types of different account: [*]Cent Account [*]Fixed Account [*]Starter ECN [*]Standard Fixed [*]Professional ECN [*]ইসলামিক একাউন্ট ইকোয়েল সোয়াপ সিস্টেম [*]কাস্টমার সাপোর্ট ২৪/৭ [*]মিনিমাম ডেপোজিট $1 [*]বোনাস : 15- 30% on each deposit(auto) [*]লিভারেজ 1:1000 [*]দেশঃ Australia [*]ট্রান্সেকশন কারেন্সি USD [*]ব্রোকার টাইপঃ NDD/ECN [*]রেগুলেশনঃ ASIC Regulated [*]স্কেল্পিংঃ Yes [*]হেজিংঃ Yes [*]প্ল্যাটফর্মঃ CTrader and MT4 Kiwifxbank – এ একাউন্ট ওপেন করুনঃ