Search the Community

Showing results for tags 'mental problem'.



More search options

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


  • সাধারণ ফরেক্স সহায়তা
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা, ট্রেডিং স্ট্রেটিজি, নিউজ এবং সিগন্যাল সম্পর্কিত
    • ফোরাম ও পোর্টাল সহায়তা
    • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
    • নিউজ, সিগনাল ও এনালাইসিস
    • প্রশ্ন ও উত্তর
    • ট্রেডিং স্ট্রেটিজি
    • ফরেক্স স্টাডি
  • ট্রেডিং সফটওয়্যার (প্লাটফর্ম-মেটা ট্রেডার)
    • টুলস, ইন্ডিকেটর
    • অটোসিস্টেম অ্যান্ড ট্রেডিং
    • মেটাট্রেডার, সি-ট্রেডার, ওয়েবট্রেডার
  • বিজ্ঞাপন
    • কমার্শিয়াল কন্টেন্ট
    • ক্রয়-বিক্রয়-এক্সচেঞ্জ
  • ফরেক্স ব্রোকার সম্পর্কিত
    • ফরেক্স ব্রোকার
    • ফরেক্স অফার
    • পেইমেন্ট মেথড
  • অফ-টপিক

Categories

  • সাধারণ ফরেক্স বই
  • টেকনিক্যাল এনালাইসিস
  • ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস
  • ক্যান্ডলেস্টিক এনালাইসিস
  • ইনডিকেটর

Group


ওয়েবসাইট URL


ইয়াহু(Yahoo)


স্কাইপ(Skype)


ঠিকানা


ইচ্ছা/আগ্রহ/শখ

Found 1 result

  1. মস্তিষ্ক: আমি একজন ফরেক্স ট্রেডার। সুতরাং আমাকে দেখে শুনে ভালো ভাবে ট্রেড করতে হবে। একজন ব্যবসায়ী সুযোগের অপেক্ষায় থাকে। সুতরাং ভালো ট্রেডের জন্য আমাকে সুযোগের অপেক্ষায় থাকতে হবে। মন: অবশ্যই তুই একজন ফরেক্স ট্রেডার। তাই তোকে ফরেক্স ট্রেডিং করতেই হবে। একটা ভালো সুযোগের জন্য কতক্ষণ বসে থাকবি? এখন তো মার্কেট নিচে নামছেই। সুতরাং বড় লটে একটা সেল মেরে দে। 8/10 পিপস পেলেই সারা মাসের প্রফিট একবারে পেয়ে যাবি। এটাকে কি সুযোগ বলবি না? সুযোগ হাতছাড়া করবি কেন? মস্তিষ্ক: না আমাকে রুলস ফলো করতে হবে। মেথডে না পড়লে আমি ট্রেড করব না। অনেকবার দেখেছি এভাবে হুটহাট করে ট্রেড করলে বড় লসই হয়ে যায়। এমনকি একাউন্ট জিরোও হয়ে যায়। মন: তোকে রুলস ফলো করতে নিষেধ করেছি নাকি? অবশ্যই মেথডে পড়লে ট্রেড করবি। মার্কেট এখন ট্রেন্ডে আছে। অার ট্রেন্ডই হলো সবচেয়ে বড় বন্ধু। এই মেথড সব মেথডের দাদা। শুধূ শুধু কথা বলে প্রাইসকে আরো নামাচ্ছিস। অযথা সুযোগটাকে হাতছাড়া করছিস! ভালো করে ভেবে দেখ, সব বড় বড় ট্রেডার এখন ধুমায়া মার্কেটে ঢুকছে আর সেল দিচ্ছে বলেই মার্কেট এভাবে পড়ছে। তুই কি বড় বড় ট্রেডারদের থেকেও বড় হয়ে গেলি নাকি? মস্তিষ্ক: আরে না। তাই বলে একটা ভালো রেসিসট্যান্স না দেখে সেল দেয়াটা কি ঠিক হবে? মন: ভালো রেসিসট্যান্স? ভালো রেসিসট্যান্সটাকে তো তুই হাতছাড়া করেছিস! তখন তো আমার কথা শুনিসনি। না শুনে এই ট্রেন্ডটার অর্ধেকটাই হাতছাড়া করেছিস। এখনো সময় আছে ভালো চাস তো, কিছু প্রফিট চাস তো সেল মেরে দে। মাত্র 8/10 পিপস বড় লটে তেমন কোনো ব্যাপার না। আমি কি তোর খারাপ চাই? মস্তিষ্ক: তাহলে একটু হায়ার টাইমফ্রেমগুলো চেক করে আসি। মন: বুঝেছি, তুই আসলে সময় নষ্ট করার চেষ্টা করছিস। হাই ভোলাটাইল মার্কেটে হায়ার টাইমফ্রেমের মেজর ট্রেন্ডগুলো কোন ছাই বেনিফিট দেবে? 8/10 পিপসের জন্য হায়ার টাইমফ্রেম? এমন গর্দভও আছে দুনিয়ায়? লোকে শুনলে হাসবে যে! মস্তিষ্ক: লটটা একটু কমিয়ে রাখি তাহলে। মন: যদি এক ট্রেডেই পুরো মাসের টার্গেট ফিল-আপ হয়ে যায়, তাহলে আর সারা মাস কোনো ট্রেড করার দরকার আছে? লট কমিয়ে ট্রেড দিলে কি আর সারা মাসের প্রফিট এক সাথে পাওয়া যায়? মস্তিষ্ক: না, তা যায় না। মন: তাহলে কি সারা মাস এভাবে পিসির সামনে চার্টের উপর উপুড় হয়েই বসে থাকতে চাস? মস্তিষ্ক: আরে, ফরেক্স করতে এসে বন্ধু-বান্ধব, সংসার সবই তো ভুলতে বসে আছি। আমারও তো মন চায় একটু বন্ধু-বান্ধবের সাথে আড্ডা-ফাড্ডা দিই। মন: তাহলে আর দেরি কিসের? সর্বোচ্চ লটে সেল মার আর 8/10 পিপস নিয়ে নে! মস্তিষ্ক: আল্লাহ ভরসা! তাহলে সেল নিয়েই নেই। মাত্র তো 8/10 পিপস। মার্কেট যেভাবে পড়ছে তাতে টিপি হিট করতে খুব বেশি হলে 2 মিনিট সময় লাগবে। বিসমিল্লাহ .... ঠুস্ (ট্রেড এন্ট্রি নেয়ার শব্দ)।........................ মস্তিষ্ক: ও আল্লাহ! মার্কেট তো উঠে যাচ্ছে! আল্লাহ! ও আল্লাহ এটা কি করছ! আমার সাথেই কেন এমন কর! আমি মার্কেটে ঢুকলেই মার্কেট আমার বিরুদ্ধে যায় কেন? আল্লাহ, আল্লাহ! হ্যাঁ, এইতো প্রাইস ব্যাক করছে, প্রায় ব্রেক ইভেনের কাছাকাছি। ব্রেক ইভেনে চলে এসেছে ...... হ্যাঁ এই তো প্রফিটেও চলে এসেছে। ........ আরে যে ভয় পেয়েছিলাম। মার্কেট তো নামছেই। মন: ভালোই প্রফিটে আছিস। আরেকটু প্রফিট হোক আর টিপি টা একটু বাড়িয়ে দে। মস্তিষ্ক: হ্যাঁ, তাই তো। আরো প্রফিট হবে বলে মনে হচ্ছে। টিপি টা আরেকটু বাড়িয়ে দেই। ঠুস্ (টিপি মডিফাই করার শব্দ) মস্তিষ্ক: আরে আরে একি!...... প্রাইস তো আবার উপড়ে উঠে যাচ্ছে! একি একি! .......এখন কি কোনো নিউজ ছিল?...... আল্লাহ বাঁচাও আমারে! আমার প্রতি কেন বারবার এমন কর! ........আমি কী এমন পাপ করেছি! সামান্য কয়টা ডলার প্রফিটই তো! তাও আমাকে দিবা না? ........ ইয়া আল্লা-আ-আ-আ! (অতঃপর কয়েক মিনিটের মধ্যেই একাউন্টটি মার্জিন কল খেয়ে ধরাশায়ী হলো।)