Rayhan07

কিছু জরুরী শব্দ এবং তাদের মানে
Forex ব্যাবসার কিছু জরুরী শব্দ এবং তাদের মানে

3 posts in this topic

কিছু জরুরী শব্দ এবং তাদের মানে :
এই শব্দগুলোর মানে তাতক্ষনিক বের করতে পারাটাই একজন সাধারণ শিকারি এবং একজন মহান শিকারি’র মধ্যে তফাত গড়ে দেয়। এগুলিকে নিজের হাতের তালুর মতন জানতে হবে যদি একজন প্রসিদ্ধ শিকারি হতে চাও তো।
 দেখা যাক শব্দগুলো কি ?
 ১. অর্ডার’এর ধরন।

1. নতুন অর্ডার : লেনদেন সঙ্গে সঙ্গে হয়।
2. পেন্ডিং অর্ডার : লেনদেন তখনই হয় যখন দাম উদ্দসিত মাত্রায় পৌঁছয় ।
 ২. #Forex ব্যাবসা থেকে আমরা রোজগার করব কীভাবে ?
 এবারে সেই সময় যখন আপনি অবশেষে জানতে পারবেন #Forex বাজারের সবচাইতে প্রাথমিক নিয়ম। মানে যে কখন আপনি কিনবেন এবং কখন বেচবেন।
সবসময় মাথায় রাখবেন, সবসময় মুদ্রা জোড়ায় জোড়ায় কেনা বেচা করা হয় ।
 একটি উদাহরন দেখা যাক তাহলে।
 ইউরো/ইউএসডি
 বাঁ দিকে যে মুদ্রা’টা থাকে, কেনা এবং বেচা, তার হিসেবেই হয় ।
আপনি আগে থাকতেই খবর পেয়েছেন যে ডলার’এর দাম পড়তে চলেছে, কিন্তু এদিকে ইউরো এক’ই রকম থাকছে। এই হিসেবে দেখলে, ইউরো’র তুলনায়, ডলার পড়তে চলেছে। এর জন্য, আপনি ইউরো কিনেবেন  এই আশায় যে ডলার’এর তুলনায় তাদের দাম বাড়তে চলেছে। ধরুন আজকে ওগুলি কিনলেন ১.১০৪ করে এবং কিছু দিন বাদে বেচে দিলেন ১.১২৬ করে, সে ক্ষেত্রে আপনি লাভ করলেন। একইভাবে, আপনার কাছে খবর আছে যে ইউরো’র তুলনায় ডলার উঠতে চলেছে।  
আপনি এবার ঠিক করলেন যে ইউরো বেচে দেবেন ডলার’এর তুলনায়। মানে হল এই যে আপনি এই আশায় বেচছেন যে কিছু দিন বাদে এদের দাম কমে যাবে। যেহেতু আপনি লোকসান ঠেকালেন, এটিও এক রকমের লাভ’ই বটে। ভেবে দেখুন, সাশ্রয়’টাও এক রকমের রোজগার’ই বটে। সেই দিক থেকে দেখলে, আপনি যখনই লোকসান ঠেকাবেন, তখন সেটাও এক রকমের লাভ’ই ধরা যায়।

 

566fca8197d32_Balancescale-1.jpg.299c573   566fca91afc7d_Balancescale2.JPG.0bc62b33 

৩. মারজিন ট্রেডিং:
 আপনারা নিশ্চয় ভাবছেন যে এই যে লাভ’ এর পরিমাণ, তাতে আদেও আখেরে কোনো লাভ হবে কিনা। ঠিক’ই ভেবেছেন, এই পরিমাণ কিছুই না। 
এর জন্যই #Forex মার্কেট’এ মুদ্রাজোড়া সবসময় জোড়ায় জোড়ায় বিক্রি হয়। নির্দিষ্ট মাপ হল মাইক্রো (১০০০ জোড়া), মিনি (১০০০০ জোড়া) এবং স্ট্যান্ডার্ড (১০০০০০ জোড়া)। এগুলো মনে রাখবেন।
এখন আপনি নিশ্চয় ভাবছেন যে সাধারণ মানুষ এত টাকা কোথা থেকে পাবে। নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন, এখানেই মারজিন #Trading কাজে আসে। 
মারজিন #Trading এ আপনি ব্যাবসা করেন ধার করা টাকা দিয়ে। এর ফলে, আপনি অনেক বড় পরিমাণ’এর লেনদেন করতে পারবেন নিজের সামান্য ধন খরচা করে। ধরুন যে আপনি একটা পাক্কা খবর পেয়েছেন যে অস্ট্রেলিয়ান ডলারের তুলনায় জাপানিস ইয়েন নামতে চলেছে। 
আপনি একটি মিনি লট (১০০০০) কিনলেন AUD/JPY‘এর, ৩ % মারজিন’এ এবং খবর সত্যি হবার অপেক্ষায় থাকলেন। 
আপনি প্রত্যেকটি কিনলেন ১.১২৩ করে।
আপনার সম্মিলিত দাম পড়ল – ১.১২৩ * ১০০০০ = $ ১১২৩০
অথচ মারজিন’এর দরকার ছিল মাত্র ৩%। 
যার জন্য আপনার বাস্তবিক খরচা পরছে মাত্র $ ৩৩৬.৯। আপনার অ্যাকাউন্ট’এ যা টাকা আছে, তার থেকে মাত্র এই পরিমাণ’টা সুনির্দিষ্ট করে রাখা হবে এই খরচ’এর জন্য। মানে এই দাঁড়াল যে মাত্র $৩৩৬.`৯ দিয়ে আপনি $১১২৩০ সঞ্চালন করছেন। ভালো লাগছে, তাই না ?
আর এর পর পর’ই পৃথিবীর সেরা জিনিস’টা হল। আপনি টাকা কামালেন। মুদ্রাজোড়া’র দাম বেড়ে হল $১.১৬৫। যার ফলে আপনার হাতে এখন ১.১৬৫*১০০০০ = $১১৬৫০ আছে। আপনার লাভ এর পরিমাণ = $১১৬৫০ – $১১২৩০ = $৪২০এবারে হয়ত আপনি #Forex মার্কেট’এর সেরা সুবিধে’টি বুঝলেন। আপনি খুব সামান্য টাকা দিয়ে অনেক বেশী টাকা সঞ্চালন করতে পারেন এবং বড় মাপ’এর লাভ করতে পারেন।আয়নায় নিজের হাঁসি’টা দেখুন একবার।
 ৪. সোঅ্যাপ (Swap):
 আমরা যখনই টাকার লেনদেন করি, আমাদের একটা সোঅ্যাপ চার্জ দিতে হয়। এটা আর কিছুই না। যে মুদ্রা আমরা কিনছি, তার ওপর একটা সুদ দিই, আর যেটা বেচছি, সেটার ওপরে সুদ পাই। সোঅ্যাপ তার পার্থক্য টুকু। এদের পরিমাপ’এর ওপর নির্ধারিত হয়ে আমরা হয় সোঅ্যাপ কামাই বা সোঅ্যাপ দিই। অবশ্য, অধিকাংশ ব্রকের’রাই সোঅ্যাপ-ফ্রী ভাবে আপনাকে ব্যাবসা করতে দেয়। এর ফলে আপনাকে সোঅ্যাপ দিতেও হবে না বা আপনি সোঅ্যাপ পাবেন’ও না। 

566fcacfc96cb_StopLoss-Cartoon.jpg.187fd


 ৫. পিপস:
 এটি পরিমাপ’এর ক্ষুদ্রতম অংশ যেটা একটি মুদ্রাজোড়া’র দাম বদল’এর জানান দেয়। মানে যদি EUR/USD ১.১০৩৪ থেকে ১.১০৩৫ এ যায়, সেটি ১ পিপ এর বদল।
 ৬. লিভারেজ:
লিভারেজ #Trading #Forex মার্কেট’এর একটা আকর্ষণ। #Forex broker’রা সাধারনত ১:১০০ থেকে ১:২০০০ অব্দি লিভারেজ দেয়। এর মানে এই দাঁড়ায় যে আপনি যদি মাত্র $১০ দেন এবং আপনার লিভারেজ পরিমাণ ১:১০০, তাহলে আপনি $২০০০ এর সমান ট্রেড করতে পারবেন। লাভ এবং লোকসান সেই মতন হিসেব করে নেওয়া হবে। ব্যাপক, তাই না ? তবে এটা সবসময় মাথায় রাখবেন যে যেমনি ভাবে আপনার কাছে বেশী লাভ’এর সুযোগ করে দিচ্ছে, একই ভাবে তত বেশী লোকসানও হতে পারে আপনার। এটা সবসময় মাথায় রাখবেন যখনই লিভারেজ #Trading করবেন।
 ৭. ইকুইটি:
এটি আপনার ডেপোসিট করা টাকার নিরাপদ অংশ টুকু, যেটার হিসেব করা হয় ওপেন অবস্থান, সঙ্গে ব্যালেন্স এবং ফ্লটিং রেট (লাভ/লোকসান) ধরে। 
ঈকুইটি = ব্যালেন্স + ফ্লটিং রেট + সোঅ্যাপ + ক্রেডিট (যদি থাকে)
ক্রেডিট = ক্লায়েন্ট এর টাকা + ওপেন অবস্থান এর লাভ - ওপেন অবস্থান এর লোকসান।
 ৮. ফ্রী মারজিন:
এটি টাকার সেই অংশটা যেটা অবস্থান নিরাপদ রাখার জন্য প্রয়োজন হয় না। 
ফ্রী মারজিন = ঈকুইটি – মারজিন
 ৯. মারজিন লেভেল:
 এটার হিসেব হল (ঈকুইটি/মারজিন) * ১০০ %
 ১০. স্প্রেড :
বিড প্রাইস এবং আস্ক প্রাইস এর যে তফাত, সেটাই স্প্রেড হিসেবে ধরা হয়।
উদাহারন: যদি EUR/USD এর রেট থাকে ১১০.৪৫/১১০.৪৮, তাহলে, সেটা বলা হবে ৪৫/৪৮ হিসেবে এবং জানানো হবে যে এটার ৩ পিপ স্প্রেড আছে।
 ১১. স্টপ লস / টেক প্রফিট:
একটা অর্ডার যেটা একটা নির্দিষ্ট দামে পৌঁছলে নিজে থেকেই বন্ধ হয়ে যায়, সেটাকে স্টপ লস অর্ডার বলা হয়। এটা লোকসান কমাতে সাহায্য করে।
একইভাবে, যখন একটা নির্দিষ্ট লাভ এর পরে অর্ডার নিজে থেকে বন্ধ হয়ে যায়, তখন সেটাকে টেক প্রফিট বলে। আশাকরি সবাই বুঝবেন খুব সহজ করেই লেখার চেষ্টা করেছি সবার কাছে একটা অনুরোধ আমার এই কষ্টার্জিত লেখা পড়ে যদি কারো ভালো লাগে অবশ্যই লাইক দিবেন । 

_________________
The disclaimer:

CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার
বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷ 

https://goo.gl/T3pHGT

Share this post


Link to post
Share on other sites

''আশাকরি সবাই বুঝবেন খুব সহজ করেই লেখার চেষ্টা করেছি সবার কাছে একটা অনুরোধ আমার এই কষ্টার্জিত লেখা পড়ে যদি কারো ভালো লাগে অবশ্যই লাইক দিবেন । ''

এটি ফরেক্স ক্যাম্পিং এর লেখা ,আপনার নয়। মূল সোর্স উল্লেখ করে লাইক চাইতে পারেন অন্যথায় কপি রাইট আইন ভঙ্গ হবে এবং এই ডোমেইনটি পর্যন্ত ব্লক হতে পারে ।  পোস্ট করা অন্য লেখার প্রতি ও তা প্রযোজ্য

 

Share this post


Link to post
Share on other sites

ভাই আপনি হয়তো জানেন না যে আমার অনেক লেখা অনেকে কপি করে নিয়ে গেছে । আমার অনেক লেখা অনেক ফোরাম সাইট কপি করে নিয়ে গেছে । আমি ভাই ফোরামে কাজ করি আরো প্রায় 5 বছর আগে থেকে । আমি 100% চ্যালেন্জ দিয়ে বলতে পারি যে লেখাগুলো আমার । আমার লেখাগুলো কেউ যদি কপি করে নিয়ে নিজের ফোরামে নিয়ে নিজের বলে চালিয়ে দেয় কি করার? আমার অনেক প্রমান আছে । 

Share this post


Link to post
Share on other sites

টপিকটিতে মন্তব্য করতে সাইন ইন করুন অথবা নতুন একাউন্ট করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই মেম্বার হতে হবে

একাউন্ট করুন

খুব সহজে একাউন্ট করুন


নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

সাইন ইন

ইতিমধ্যে একাউন্ট করেছেন ? সাইন ইন করুন


এখনি সাইন ইন করুন