Bdforexpro.com will be sold with its all assets ! - (SEE DETAILS) Interested can Contact !

বিডিফরেক্সপ্রো' ফরেক্স সংক্রান্ত সব আলোচনা, মতামত এবং ফরেক্স শিক্ষা বিষয়ক এক উন্মক্ত এবং অনন্য স্থান। মান সম্মত আলোচনা, প্রতিনিয়ত গুরুত্তপুর্ন সব ট্রেডিং স্ট্রেটিজি এবং এনালাইসিসের মাধ্যমে সঠিক ট্রেডিং গাইডলাইন প্রদান বিডিফরেক্সপ্রো'র অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট। এই ফোরামে রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণ ফ্রী। পোস্ট এর পূর্বে অনুগ্রহ করে ফোরাম নিতিমালা গুলো পড়ে, বুঝে পোস্ট করুন। ধন্যবাদ;

Search the Community

Showing results for tags 'eurusd trade'.



More search options

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


  • সাধারণ ফরেক্স সহায়তা
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা, ট্রেডিং স্ট্রেটিজি, নিউজ এবং সিগন্যাল সম্পর্কিত
    • ফোরাম ও পোর্টাল সহায়তা
    • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
    • নিউজ, সিগনাল ও এনালাইসিস
    • প্রশ্ন ও উত্তর
    • ট্রেডিং স্ট্রেটিজি
    • ফরেক্স স্টাডি
  • ট্রেডিং সফটওয়্যার (প্লাটফর্ম-মেটা ট্রেডার)
    • টুলস, ইন্ডিকেটর
    • অটোসিস্টেম অ্যান্ড ট্রেডিং
    • মেটাট্রেডার, সি-ট্রেডার, ওয়েবট্রেডার
  • বিজ্ঞাপন
    • কমার্শিয়াল কন্টেন্ট
    • ক্রয়-বিক্রয়-এক্সচেঞ্জ
  • ফরেক্স ব্রোকার সম্পর্কিত
    • ফরেক্স ব্রোকার
    • ফরেক্স অফার
    • পেইমেন্ট মেথড
  • অফ-টপিক

Categories

  • সাধারণ ফরেক্স বই
  • টেকনিক্যাল এনালাইসিস
  • ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস
  • ক্যান্ডলেস্টিক এনালাইসিস
  • ইনডিকেটর

Group


ওয়েবসাইট URL


ইয়াহু(Yahoo)


স্কাইপ(Skype)


ঠিকানা


ইচ্ছা/আগ্রহ/শখ

Found 6 results

  1. EURUSD মার্কেট আউটলুক জুলাই ২১ থেকে ২৫ পর্যন্ত। বন্ধুরা, পেয়ারটির মার্কেট গত সপ্তাহে ১.৩৫০২ সাপোর্ট ক্রস করে তার (দৈনিক চার্টে) মার্কেট ট্রেন্ড ব্রেক করে ১.৩৪৯০ পর্যন্ত সেল এ আসে এবং ১.৩৫২৩ এ মার্কেট ক্লোজ করে। যেহেতু পেয়ারটি তার দৈনিক চার্টের ১.৩৫০২ সাপোর্ট ক্রস করেছে এবং বর্তমানে বেশীরভাগ ইন্ডিকেটর ও পেয়ারটির মার্কেট ট্রেন্ড সেল দেখাচ্ছে, তাই টেকনিক্যাল এ্যনালাইসিস ভিউ থেকে বলা যায় পেয়ারটি এ সপ্তাহে আরো সেলে যাবে। এ সপ্তাহের জন্য পেয়ারটির সাপোর্ট ধরা যায় ১.৩৪৭৬ ও ১.৩৪০০ এবং রেসিস্টেন্স হিসেবে ১.৩৫৭৫ ও ১.৩৭২০ কে, তবে এ্যকচুয়্যাল নিউজ এসব সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্সকে অনেক সময় কোনো তোয়াক্কাই করে না। যাইহোক, মার্কেট এ পরিস্থিতি থেকে বাই এ মোড় নেওয়ার জন্য ১.৩৫৭৬ রেসিস্টেন্স এবং সেল এ যাওয়ার জন্য ১.৩৫০২ সাপোর্ট মুল্য ক্রস করতে হবে, যদিও দৈনিক চার্টে পেয়ারটির ট্রেন্ড ১.৩৫০২ সাপোর্ট ক্রস করে বর্তমানে ১.৩৫২৩ মুল্যে সেল এর দিকে তবে সেটা অতটা স্ট্রং নয়। তাই এ সপ্তাহে পেয়ারটির ঊর্ধ্ব বা নিম্ন গতির ভাগ্য নির্ভর করবে EUR এর French Flash Manufacturing PMI, German Flash Manufacturing PMI, German Ifo Business Climate এবং USD এর যাবতীয় নিউজগুলোর উপর আর যদি উক্ত পেয়ারটির USD কারেন্সির বেশীরভাগ নিউজ পজিটিভ হয় এবং EUR কারেন্সির নিউজগুলো নেগেটিভ বা দুর্বল হয় তাহলে এ সপ্তাহে পেয়ারটি নিশ্চিত সেল এ-ই থাকবে। আপনাদের যাতে এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে ট্রেড করতে সুবিধা হয় সেজন্য চিত্রের সাহায্যে পেয়ারটির সাপোর্ট, রেসিস্টেন্স, মার্কেট ট্রেন্ড ও ট্রেড আইডিয়া শেয়ার করলাম। দৈনিক চার্টে মার্কেট ট্রেন্ডঃ সাপোর্ট রেসিসটেন্স ও ট্রেড আইডিয়া চিত্রঃ উপরোক্ত চিত্রেঃ সম্পূর্ণ চার্ট আয়ত্তে না আসায় সকল সাপোর্টসমুহ গ্রাফের সাহায্যে দেখানো সম্ভব হয়নি। রেসিসটেন্স সমুহঃ ১.৩৫৪৭, ১.৩৫৮৭, ১.৩৬১৬, ১.৩৬৭৭ ও স্ট্রং রেসিসটেন্স ১.৩৭৩৮। সাপোর্ট সমুহঃ ১.৩৫০২, ১.৩৪৭৬, ১.৩৪৪৯, ১.৩৪০০, ১.৩৩৫৩ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.৩৩২৪। এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে হাই ইম্প্যাক্ট যে নিউজগুলো আছে তা নিম্নরুপঃ ২১ই জুলাই সোমবার – মার্কেট ওপেনের এই দিনে উক্ত পেয়ারটির কোনো কারেন্সিতে হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ নেই। সুতারাং এ দিন আপনারা সাবধানে ট্রেড করবেন। ২২ই জুলাই মঙ্গলবার – মার্কেট ওপেনের দ্বিতীয় দিনে উক্ত পেয়ারের শুধুমাত্র USD কারন্সিতে হাই ইমপ্যাক্ট এর দুটি নিউজই আছে যার মধ্যে Existing Home Sales নিউজটি অত্যাধিক গুরুত্বপূর্ণ, তাই আমরা অনুমান করতে পারি যে, যদি USD কারেন্সির দুটি নিউজই পজিটিভ হয় তাহলে EURUSD পেয়ারটি এ দিন সেল থাকবে এবং ট্রেডেবল হবে। সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Core CPI m/m রাত ৮.০০মিনিট USD Existing Home Sales ২৩ই জুলাই বুধবার – এ দিন উক্ত পেয়ারে হাই ইমপ্যাক্ট নিউজের সংখ্যা শূন্য। সুতারাং এ দিন টেকনিক্যাল এ্যনালাইসিস ফলো করে ছোট ছোট ট্রেড করতে পারেন, তবে ট্রেন্ড যেদিকে থাকবে সেদিকে এবং সাবধানে। ২৪ই জুলাই বৃহস্পতিবার – সপ্তাহের এই দিনটিতে EURUSD পেয়ারটিতে হাই ইমপ্যাক্ট নিউজের সংখ্যা বেশী এবং এ সপ্তাহের জন্য EUR এর যে নিউজগুলো হাই ভোল্টেজের ধরা হয় সেগুলোও এ দিনই রিলিজ হবে, অপরদিকে USD এর নিউজগুলোও এ দিন মার্কেটে বেশ ভালো প্রভাব রাখবে বলে মনে হয়। তাই এ দিন উক্ত পেয়ারটিতে উভয় পেয়ারের নিউজ থাকায় হয়তো পেয়ারটিতে এ দিন স্ক্যাল্পিং টাপের মুবমেন্ট হবে নতুবা যে কোনো একদিকে ছুটবে। তবে যাই বলি এ দিন পেয়ারটি ট্রেডেবল থাকবে। দুপুর ১.০০মিনিট EUR French Flash Manufacturing PMI দুপুর ১.৩০মিনিট EUR German Flash Manufacturing PMI সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Claims রাত ৮.০০মিনিট USD New Home Sales ২৫ই জুলাই শুক্রবার – মার্কেট ক্লোজিং এর এ দিনে EUR এবং USD এর নিউজ দুটি পেয়ারটিকে চাঙ্গা রাখবে বলে আশা করা যায়, তবে এ সবই নির্ভর করবে এ্যাকচুয়্যল নিউজের উপর। আর এর আগের দিন যেহেতু অনেকগুলো হাই ইমপ্যাক্টের নিউজ ছিল তাই মার্কেট ক্লোজিং ডে হিসেবে আগের দিনের নিউজের রেশ থাকলে এ দিনেও পেয়ারটিতে ভালো একটা মুবমেন্ট হতে পারে। দুপুর ২.০০মিনিট EUR German Ifo Business Climate সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Core Durable Goods Orders m/m যেহেতু এ সপ্তাহে পেয়ারটিতে EUR এর থেকে USD কারেন্সির নিউজের পরিমান বেশী এবং পেয়ারটির মার্কেট ট্রেন্ডও বর্তমানে সেল এ, তাহলে আমরা ন্যাচারেলি ধরে নিতে পারি যে উক্ত পেয়ারটির মার্কেট এ সপ্তাহে সেল এ থাকার সম্ভাবনা আছে, তবে সে জন্য USD কারেন্সির নিউজগুলো অবশ্যই পজিটিভ হতে হবে। যাইহোক এ সপ্তাহে পেয়ারটির ভাগ্য বেশীরভাগ নির্ভর করবে USD কারেন্সির নিউজগুলোর উপর। এ সপ্তাহে আপনি উক্ত পেয়ারটিতে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ (১)পেয়ারটির মার্কেট মূল্য প্রথম সাপোর্ট ক্রস করলে ১.৩৫০০ এ সেল ট্রেড করুন এবং স্টপ লস ১.৩৫৫৩ টেক প্রফিট ৭০-৯০পিপ্স দিন। (২) মার্কেট ওপেন হওয়ার পর ১.৩৫১০-১.৩৫৩৫ এর মধ্যে বাই ট্রেড করুন স্টপ লস ১.৩৪৮৫ আর টেক প্রফিট দিন ৬০-৮০ পিপ্স। (৩) ১.৩৫৯০-১.৩৬২০ এর মধ্যে সেল ট্রেড এ এন্ট্রি দিন, এ ক্ষেত্রে স্টপ লস ১.৩৬৬০ এবং টেক প্রফিট দিন ৭০-১২০ পিপ্স। যদি আপনার একটি ট্রেড মার্কেটে থাকে তাহলে ওই ট্রেডটি ক্লোজ না করে আরেকটি ট্রেড ওপেন করবেন না যদি করে থাকেন তাহলে ট্রেড ভলিউম কমিয়ে/মানি ম্যানেজমেন্ট করে করুন। আর যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা আশা করি পেয়ারটিতে এ সপ্তাহে ভালো করতে পারবেন তবে ট্রেন্ড ও নিউজ বান্ধব স্ক্যাল্পিং করুন না হলে আপনি লসের সম্মুখীন হতে পারেন। ধন্যবাদ। বিঃ দ্রঃ ফরেন এক্সচেঞ্জ একটি হাই রিস্ক লেভেল ট্রেডিং মার্কেট যা সকল ইনভেস্টর বা ট্রেডারদের জন্য যথাযোগ্য নয়। কারেন্সি ট্রেডিং এ ট্রেডারদের ট্রেড এর যে কোনরূপ পরিবর্তন ট্রেডাররা নিজ দায়িত্বে বহন করবে। সে জন্য বিডিফরেক্সপ্রো কোনো প্রকার দায়ী থাকিবে না।
  2. EURUSD মার্কেট আউটলুক জুলাই ১৪ থেকে ১৮ পর্যন্ত। বন্ধুরা, পেয়ারটির মার্কেট গত সপ্তাহে খুব একটা ভাল মুবমেন্ট করেনি এবং অনেক টাইট পজিশন এ ১.৩৬০৬ মুল্যে পেয়ারটি মার্কেট ক্লোজ করে, এটা আপনারা সবাই দেখেছেন, কারন গত সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে নিউজের পরিমান যথেষ্ট কম ছিল আর যে নিউজগুলো ছিল সেগুলোর এ্যকচুয়্যলটাও ভাল না আসায় পেয়ারটি নিদ্দিষ্ট একটা গন্ডির মধ্যেই মুবমেন্ট করেছে। যার ফলে পেয়ারটির মার্কেট একচেটিয়া বাই বা সেল কোনো দিকেই যায়নি, তবে নিদ্দিষ্ট একটি গন্ডির মধ্যে থাকায় যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা হয়তো ভালো করেছেন কারন এ ধরণের মার্কেট পরিস্থিতিতে ভালো স্ক্যাল্পিং করা যায়, অপরদিকে যারা দৈনিক বা সাপ্তাহিক ট্রেড করে থাকেন তারা কোনো সুবিধা করতে পারেননি। যাইহোক, মার্কেট এ পরিস্থিতি থেকে বাই এ মোড় নেওয়ার জন্য ১.৩৬৫০ রেসিস্টেন্স এবং সেল এ যাওয়ার জন্য ১.৩৬০০ সাপোর্ট মুল্য ক্রস করতে হবে, যদিও দৈনিক চার্টে পেয়ারটির ট্রেন্ড বাই এর দিকে তবে সেটা অতটা স্ট্রং নয়। তাই এ সপ্তাহে পেয়ারটির ঊর্ধ্ব বা নিম্ন গতির ভাগ্য নির্ভর করবে EUR এর Industrial production, Draghi’s testimony, German ZEW Economic Sentiment and ZEW Economic Sentiment, inflation data ও USD সহ যাবতীয় নিউজগুলোর উপর। তাহলে এখন কি বলা যাবে যে পেয়ারটি বাই বা সেল মোড় নিবে? এটা অবশ্যই বলা মুশকিল, কারন ডে চার্ট দেখলে বুঝবেন যে পেয়ারটির মার্কেট এখন টাইট পজিশন এ আছে, এখান থেকে মার্কেট যেকোনো দিকে যাওয়ার পসিবিলিটি আছে। তাই আমি স্বাভাবিকভাবে বলবো মার্কেট ১.৩৫০০-১.৩৫৪০ এর কাছাকাছি আসলে লং টাইম ট্রেডাররা বাই করতে পারেন এবং মার্কেট ওপেন হয়ে কোনো গ্যাপ না দিলে সেল ট্রেড এ থাকুন। তবে সেল ট্রেড এর টেক প্রফিট দেখে ও বুঝে ১.৩৫০০ এর উপরে দিন। কারন পেয়ারটির মার্কেট এর নিচে না ও আসতে পারে। আপনাদের যাতে এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে ট্রেড করতে সুবিধা হয় সেজন্য চিত্রের সাহায্যে পেয়ারটির সাপোর্ট, রেসিস্টেন্স, মার্কেট ট্রেন্ড ও ট্রেড আইডিয়া শেয়ার করলাম। দৈনিক চার্টে মার্কেট ট্রেন্ডঃ সাপোর্ট রেসিসটেন্স ও ট্রেড আইডিয়া চিত্রঃ উপরোক্ত চিত্রেঃ সম্পূর্ণ চার্ট আয়ত্তে না আসায় সকল সাপোর্টসমুহ গ্রাফের সাহায্যে দেখানো সম্ভব হয়নি। রেসিসটেন্স সমুহঃ ১.৩৬১৪, ১.৩৬৫০, ১.৩৬৭৭, ১.৩৭২২, ১.৩৭৫৬, ১.৩৮৩২ ও স্ট্রং রেসিসটেন্স ১.৩৮৯৬। সাপোর্ট সমুহঃ ১.৩৫৮৫, ১.৩৫৪৭, ১.৩৫০২, ১.৩৪৪৯, ১.৩৪০৮ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.৩৩২৪। এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে হাই ইম্প্যাক্ট যে নিউজগুলো আছে তা নিম্নরুপঃ ১৪ই জুলাই সোমবার – মার্কেট ওপেন এর এই দিনে শুধুমাত্র EUR কারেন্সিতে একটি নিউজ আছে ECB President Draghi Speaks, এ নিউজটি পাবলিশ হওয়ার পর বেশীরভাগ সময় মার্কেট মুবমেন্ট বেশ ভালোভাবে চাঙ্গা হয়ে উঠে, অপরদিকে এ দিন EUR এর French Bank Holiday। রাত ১১.০০মিনিট EUR ECB President Draghi Speaks ১৫ই জুলাই মঙ্গলবার – নিচে আপনারা দেখতে পাচ্ছেন যে, এ দিনের হাই ইমপ্যাক্ট নিউজগুলোর মধ্যে EUR থেকে USD এর নিউজ সংখ্যাই বেশী, নিউজগুলো পাবলিশ হওয়ার পরই বলা যাবে এ দিন পেয়ারটি কোন দিকে থাকবে। দুপুর ৩.০০মিনিট EUR German ZEW Economic Sentiment সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Core Retail Sales m/m সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Retail Sales m/m রাত ৮.০০মিনিট USD Fed Chair Yellen Testifies ১৬ই জুলাই বুধবার – এ দিনও শুধুমাত্র মেজর কারেন্সি USD এর দুটি হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আছে। তবে USD এর দুটি হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আছে। তবে USD এর নিউজগুলো যদি পজিটিভ হয় তাহলে বলা যায় যে, এ দিন মার্কেটে ভাল একটা মুবমেন্ট হতে পারে। বিশেষ করে EURUSD পেয়ারটির মার্কেট এ দিন চাঙ্গা থাকতে পারে। সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD PPI m/m রাত ৮.০০মিনিট USD Fed Chair Yellen Testifies ১৭ই জুলাই বৃহস্পতিবার – সপ্তাহের এই দিনটিতে শুধুমাত্র USD কারেন্সিতে হাই ইমপ্যাক্ট এর তিনটি নিউজ আছে। যদি নিম্মোক্ত নিউজগুলোর এ্যকচুয়্যাল পজিটিভ হয় তাহলে নিশ্চিত করে বলা যায় যে, উক্ত পেয়ারটি এ দিন অবশ্যই ট্রেডেবল থাকবে এবং যেকোনো একদিকে ভালোভাবে মোড় নিতে পারে। সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Building Permits সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Claims রাত ৮.০০মিনিট USD Philly Fed Manufacturing Index ১৮ই জুলাই শুক্রবার – মার্কেট ক্লোজিং এর এ দিনে পেয়ারটির শুধুমাত্র USD কারেন্সির একটি হাই ইমপ্যাক্টের নিউজ আছে, USD কারেন্সির নিউজটি যদি অত্যাদিক পজিটিভ হয় এবং মার্কেট ক্লোজিং ডে হিসেবে আগের দিনের নিউজের রেশ থাকলে এ দিনও পেয়ারটি ট্রেডেবল থাকবে। রাত ৭.৫৫মিনিট USD Prelim UoM Consumer Sentiment যেহেতু এ সপ্তাহে পেয়ারটিতে EUR থেকে USD কারেন্সির নিউজের পরিমান অনেক বেশী তাহলে আমরা ন্যাচারেলি ধরে নিতে পারি যে উক্ত পেয়ারটির মার্কেট এ সপ্তাহে সেল এ থাকার সম্ভাবনা আছে, তবে সে জন্য USD কারেন্সির নিউজগুলো অবশ্যই পজিটিভ হতে হবে। যাইহোক এ সপ্তাহে পেয়ারটির ভাগ্য বেশীরভাগ নির্ভর করবে USD কারেন্সির নিউজগুলোর উপর। এ সপ্তাহে আপনি উক্ত পেয়ারটিতে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ পেয়ারটির মার্কেট মূল্য প্রথম সাপোর্ট ক্রস করলে ১.৩৫৮০ তে সেল ট্রেড করুন আর দ্বিতীয় রেসিসটেন্স ক্রস করলে ১.৩৬৫৫ তে বাই ট্রেড করুন। সাপোর্ট রেসিসটেন্স দেখে স্টপলস দিন আর টেক প্রফিট ৭০-১১০পিপ্স দিন। আর যারা পেয়ারটিতে লং পজিশনে ট্রেড করতে চান তারা ১.৩৫৫০-১.৩৫১০ এ লং ট্রেড এন্ট্রি দিন স্টপ লস দিন ১.৩৪৯০ টেক প্রফিট দিন ১২০-১৫০ পিপ্স এবং যদি আপনার একটি ট্রেড মার্কেটে থাকে তাহলে ওই ট্রেডটি ক্লোজ না করে আরেকটি ট্রেড ওপেন করবেন না। আর যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা এ সপ্তাহের ট্রেন্ড বান্ধব স্ক্যাল্পিং করুন না হলে আপনি লসের সম্মুখীন হতে পারেন। ধন্যবাদ। বিঃ দ্রঃ ফরেন এক্সচেঞ্জ একটি হাই রিস্ক লেভেল ট্রেডিং মার্কেট যা সকল ইনভেস্টর বা ট্রেডারদের জন্য যথাযোগ্য নয়। কারেন্সি ট্রেডিং এ ট্রেডারদের ট্রেড এর যে কোনরূপ পরিবর্তন ট্রেডাররা নিজ দায়িত্বে বহন করবে। সে জন্য বিডিফরেক্সপ্রো কোনো প্রকার দায়ী থাকিবে না।
  3. EURUSD মার্কেট আউটলুক জুলাই ০৭ থেকে ১১ পর্যন্ত। বন্ধুরা, পেয়ারটি গত সপ্তাহের শেষ দিনে হিংস্র হয়ে উঠেছিল, তা আপনারা সবাই দেখেছেন এবং অনেকে হয়তো ভালো লাভও করেছেন। যেহেতু বলা বাহুল্য আমেরিকানরা সেদিন তাদের স্বাধীনতা দিবস পালন করেছিল। যাইহোক, মার্কেটে তারল্যের জন্য যে কোনো একটি ভাল নিউজ বা বিশেষ কোনো মুহূর্তে এ ধরনের মুবমেন্ট সংঘটিত হয়। পেয়ারটি এর আগের সপ্তাহেও বাই যাওয়ার প্রবণতায় ছিল কিন্তু শুক্রবার ঘটনাক্রমে নিচের দিকে আচড়ে পড়ে। যেহেতু এ সপ্তাহে জার্মানি ও ফ্রান্সের ট্রেড ও মুদ্রাস্ফীতি EUR এর জন্য হাইলাইটেড নিউজ আর USD এর তো কয়েকটি নিউজ আছেই যেগুলোর মধ্যে FOMC এর নিউজটি অত্যাধিক গুরুত্বপূর্ণ। যদিও বেশীরভাগ টেকনিক্যাল এ্যনালাইসিস পেয়ারটির ট্রেন্ড সেল পজেটিভ বলছে, তাহলে এ সপ্তাহে পেয়ারটির ট্রেন্ড কোন দিকে যাবে? এটা অবশ্যই বলা মুশকিল, কারন ডে চার্ট দেখলে বুঝবেন যে পেয়ারটির মার্কেট এখন টাইট পজিশন এ আছে, এখান থেকে মার্কেট যেকোনো দিকে যাওয়ার পসিবিলিটি আছে। তাই আমি স্বাভাবিকভাবে বলবো মার্কেট ১.৩৫০০ এর কাছাকাছি আসলে লং টাইম ট্রেডাররা বাই করতে পারেন এবং মার্কেট ওপেন হয়ে কোনো গ্যাপ না দিলে সেল ট্রেড এ থাকুন। তবে সেল ট্রেড এর টেক প্রফিট দেখে ও বুঝে ১.৩৫০০ এর উপরে দিন। কারন পেয়ারটির মার্কেট এর নিচে না ও আসতে পারে। তাই আপনাদের যাতে এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে ট্রেড করতে সুবিধা হয় সেজন্য চিত্রের সাহায্যে পেয়ারটির সাপোর্ট, রেসিস্টেন্স, মার্কেট ট্রেন্ড ও ট্রেড আইডিয়া শেয়ার করলাম। দৈনিক চার্টে মার্কেট ট্রেন্ডঃ সাপোর্ট রেসিসটেন্স ও ট্রেড আইডিয়া চিত্রঃ উপরোক্ত চিত্রেঃ সম্পূর্ণ চার্ট আয়ত্তে না আসায় সকল সাপোর্টসমুহ গ্রাফের সাহায্যে দেখানো সম্ভব হয়নি। রেসিসটেন্স সমুহঃ ১.৩৬৩৭, ১৩৬৯৯, ১.৩৭৪০, ১.৩৭৮৮, ১.৩৮৩০ ও স্ট্রং রেসিসটেন্স ১.৩৮৯৬। সাপোর্ট সমুহঃ ১.৩৫৬৪, ১.৩৫৩০, ১.৩৫০২, ১.৩৪৪৯, ১.৩৪০৮ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.৩৩২৫। এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারটিতে হাই ইম্প্যাক্ট যে নিউজগুলো আছে তা নিম্নরুপঃ ১০ই জুলাই বৃহস্পতিবার – এ সপ্তাহের শুধুমাত্র এই দিনটিতে উক্ত পেয়ারটির USD কারেন্সিতে দুটি হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আছে। আর EUR কারেন্সিতে এ সপ্তাহে হাই ইম্প্যাক্ট নিউজ না থাকলে কি হবে হাইলাইটেড নিউজ হিসেবে জার্মানি ও ফ্রান্সের ট্রেড ও মুদ্রাস্ফীতির দুটি নিউজ আছে। রাত ১২.০০মিনিট(AM) USD FOMC Meeting Minutes সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Claims যেহেতু এ সপ্তাহে পেয়ারটিতে USD কারেন্সির দুটি নিউজ ছাড়া আর কোনো হাই ইম্প্যাক্ট নিউজ নেই তাই এ সপ্তাহে পেয়ারটির মুবমেন্ট নির্ভর করবে USD এর নিউজ দুটির উপর। নিউজ পাবলিশ এর আগে পর্যন্ত আপনারা উক্ত পেয়ারটিতে টেকনিক্যাল এ্যনালাইসিস ফলো করুন। এ সপ্তাহে আপনি উক্ত পেয়ারটিতে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ পেয়ারটির মার্কেট মূল্য প্রথম সাপোর্ট ক্রস করলে ১.৩৫৫৭ তে সেল ট্রেড করুন আর প্রথম রেসিসটেন্স ক্রস করলে ১.৩৬৪৫ তে বাই ট্রেড করুন। সাপোর্ট রেসিসটেন্স দেখে স্টপলস দিন আর টেক প্রফিট ৭০-১১০পিপ্স দিন। এবং যদি আপনার একটি ট্রেড মার্কেটে থাকে তাহলে ওই ট্রেডটি ক্লোজ না করে আরেকটি ট্রেড ওপেন করবেন না। আর যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা বৃহস্পতিবারে একটু সাবধানে ট্রেড করবেন কারন এ দিন মার্কেট যে কোনো দিকে ভাল একটা মুবমেন্ট হতে পারে তখন আপনি লসের সম্মুখীন হতে পারেন। ধন্যবাদ।
  4. বন্ধুরা, EURUSD পেয়ারটি গত সপ্তাহে ১.৩৫৯৯ রেট এ লসে এবং সাপ্তাহিক ৪৬% প্রফিটে মার্কেট ক্লোজ করে। বর্তমানে দৈনিক চার্ট দেখলে দেখবেন যে পেয়ারটির ট্রেন্ড সেল এ আছে। যদি পেয়ারটি সেল এ আসে তাহলে হয়তো ১.৩৫৩০/২০ থেকে বাই এর দিকে মোড় নিতে পারে। এ সপ্তাহে পেয়ারটির সম্ভাব্য সাপোর্ট হিসেবে ১.৩৫৩০ থেকে ১.৩৪০০ এবং রেসিস্টেন্স হিসেবে প্রথমে ১.৩৬৬৫ ও মেজর রেসিস্টেন্স হিসেবে পূর্বের সুইং টপ বা বিগত তিন মাসের এভারেজ রেসিস্টেন্স ১.৩৭৪০ কে ধরা যায়। এ সপ্তাহে উক্ত পেয়ারের দুটি কারেন্সিতেই অনেকগুলো হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আছে। এ সপ্তাহে EURUSD পেয়ার এ যেন ট্রেড করতে আপনাদের সুবিধা হয় সে জন্য চিত্রের সাহায্যে উক্ত পেয়ারটির মার্কেট ট্রেন্ড, সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্সগুলো জেনে নিন এবং ছোট্ট একটা ট্রেড আইডিয়া দেখে নিনঃ EUR/USD পেয়ারটির দৈনিক চার্টের ট্রেন্ড চিত্রঃ EUR/USD পেয়ারটির সাপোর্ট, রেসিস্টেন্স ও ট্রেড আইডিয়া চিত্রঃ উপরোক্ত চিত্রে সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্স সমুহঃ উপরের চিত্র দেখে EURUSD পেয়ার এর ট্রেন্ড ও সাপোর্ট রেসিস্টেন্স সমূহ নিশ্চয়ই বুঝেছেন। চিত্রে ট্রেডিং টার্মিনালের গ্রাফে ডে চার্ট এর নিচের দিক দেখা না যাওয়াতে চিত্রের মাধ্যমে সাপোর্টগুলো দেখানো সম্ভব হয়নি। রেসিস্টেন্স সমুহঃ ১.৩৬৬৫, ১.৩৭২২, ১.৩৭৭১, ১.৩৮১০ ও স্ট্রং রেসিস্টেন্স ১.৩৮৫০। সাপোর্ট সমুহঃ ১.৩৫৬০, ১.৩৫০২, ১.৩৪৪৩, ১.৩৪১৭, ১.৩৩৫৯ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.৩২০৫। EUR-USD পেয়ার এর এ সপ্তাহে হাই ইমপ্যাক্ট যে নিউজগুলো আছে তা নিম্নরুপঃ ২৩ই জুন সোমবার দুপুর ১.০০মিনিট EUR French Flash Manufacturing PMI দুপুর ১.৩০মিনিট EUR German Flash Manufacturing PMI রাত ৮.০০মিনিট USD Existing Home Sales ২৪ই জুন মঙ্গলবার দুপুর ২.০০মিনিট EUR German Ifo Business Climate রাত ৮.০০মিনিট USD CB Consumer Confidence রাত ৮.০০মিনিট USD New Home Sales ২৫ই জুন বুধবার সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Core Durable Goods Orders m/m ২৬ই জুন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Claims ২৭ই জুন শুক্রবার All Day EUR German Prelim CPI m/m এ সপ্তাহে পেয়ারটি আশা করি আরেকটু সেল এ যাবে তবে এখন সময় হয়েছে বাই এ যাওয়ার। যেহেতু পেয়ারটি বিগত মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে বিগত সপ্তাহ পর্যন্ত সেল ছিল এবং ১.৩৫০০ সাপোর্ট লেভেলকে ক্রস করতে পারেনি, তাই আমি মনে করি পেয়ারটি বাই এ মোড় নেওয়ার সময় হয়েছে এখন। যাই হোক সেটা নির্ভর করবে পেয়ারটির এ সপ্তাহের নিউজগুলোর উপর। আমি শুধু আমার এ্যনালাইসিস এর কথা বললাম। EUR-USD পেয়ারটিতে এ সপ্তাহে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ চিত্রমতে দ্বিতীয় সাপোর্ট(১.৩৫০২) লেবেল ক্রস করলে ১.৩৪৯০ তে সেল আর ১.৩৬৩০ এ বাই ট্রেড করুন, যেহেতু পেয়ারটি বাই যাওয়ার একটি পসিবিলিটি আছে তাই ১.৩৫৫৫-১.৩৫৩০ এ আরেকটি বাই পেন্ডিং দিন। সাপোর্ট এবং রেসিস্টেন্স দেখে বা আপনি আপনার মত এ্যনালাইসিস করে স্টফ লস দিন এবং টেক প্রোফিট দিন ৭০(টিপি১) থেকে ১২০(টিপি২) পিপ্স বা আপনি আপনার মত করে দিন। আর যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা অবশ্যই এ সপ্তাহে সাবধানে ট্রেড করবেন, যেহেতু উক্ত পেয়ারের দুটি কারেন্সিতেই নিউজ আছে। হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আওয়ার এ দেখে ও বুঝে ট্রেড করুন। এই এ্যনালাইসিস সাপ্তাহিক ট্রেডাররা ফলো করলে ভালো, তবে ডেইলি ট্রেডাররা লট সাইজ আনুপাতিক হারে কমিয়ে করতে পারেন। গুডলাক। ধন্যবাদ সবাইকে। বিঃ দ্রঃ ফরেন এক্সচেঞ্জ একটি হাই রিস্ক লেভেল ট্রেডিং মার্কেট যা সকল ইনভেস্টর বা ট্রেডারদের জন্য যথাযোগ্য নয়। কারেন্সি ট্রেডিং এ ট্রেডারদের ট্রেড এর যে কোনরূপ পরিবর্তন ট্রেডাররা নিজ দায়িত্বে বহন করবে। সে জন্য বিডিফরেক্সপ্রো কোনো প্রকার দায়ী থাকিবে না।
  5. বন্ধুরা, EURUSD পেয়ারটি গত সপ্তাহে ১.৩৫০০ সাপোর্ট লেভেল টাচ করে ১.৩৫৩৯ রেট এ লসে মার্কেট ক্লোজ করে। চার ঘন্টা ও ডেইলি চার্ট এ প্রাইস প্যাটার্ন এখনো বেয়ারিশ ইন্ডিকেট করছে হয়তোবা বাই এ কিছুটা কারেকশন করে এ সপ্তাহেও সেলে মোড় নিবে, কারণ এ সপ্তাহে EUR এর তেমন কোনো নিউজ নেই অপরদিকে USD এর বেশ কিছু হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আছে যেগুলোর মধ্যে FOMC, Unemployment Claims ও Building Permits নিউজগুলো খুবই ইপেক্টিব। তবেএ সপ্তাহে EUR এর একমাত্র হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ German ZEW Economic Sentiment নিউজটি বাই ট্রেড এর জন্য সুফল বয়ে আনতে পারে। এ সপ্তাহে পেয়ারটির সাপোর্ট হিসেবে ১.৩৪২০ থেকে ১.৩২৯৬ এবং রেসিস্টেন্স হিসেবে প্রথমে ১.৩৬১৫ ও মেজর রেসিস্টেন্স হিসেবে পূর্বের সুইং টপ বা বিগত তিন মাসের এভারেজ রেসিস্টেন্স ১.৩৭৪০ কে ধরা যায়। যেহেতু এ সপ্তাহে EUR এর কোনো হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ নেই সেজন্য উক্ত পেয়ারে ট্রেড করার জন্য এ সপ্তাহে USD এর নিউজ এবং টেকনিক্যাল এনালাইসিস ফলো করা উচিৎ। এ সপ্তাহে EURUSD পেয়ার এ যেন ট্রেড করতে আপনাদের সুবিধা হয় সে জন্য চিত্রের সাহায্যে উক্ত পেয়ারটির মার্কেট ট্রেন্ড, সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্সগুলো জেনে নিন এবং ছোট্ট একটা ট্রেড আইডিয়া দেখে নিনঃ EUR/USD পেয়ারটির ৪ঘন্টা ও দৈনিক চার্টের ট্রেন্ড চিত্রঃ EUR/USD পেয়ারটির সাপোর্ট, রেসিস্টেন্স ও ট্রেড আইডিয়া চিত্রঃ উপরোক্ত চিত্রে সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্স সমুহঃ রেসিস্টেন্স সমুহঃ ১.৩৫৮৭, ১.৩৬৫০, ১.৩৭৩৫, ১.৩৭৭৮ ও স্ট্রং রেসিস্টেন্স ১.৩৮৫০। সাপোর্ট সমুহঃ ১.৩৫০২, ১.৩৪৪৬, ১.৩৪১৩, ১.৩৩৫৬, ১.৩২৯৪ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.৩২০৫। EUR-USD পেয়ার এর এ সপ্তাহে হাই ইমপ্যাক্ট যে নিউজগুলো আছে তা নিম্নরুপঃ ১৭ জুন মঙ্গলবার – এই দিন EUR এর এ সপ্তাহের একমাত্র নিউজটি আছে। দুপুর ৩.০০মিনিট EUR German ZEW Economic Sentiment সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Building Permits সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Core CPI m/m ১৮ই জুন বুধবার – এই পেয়ারটির কোনো নিউজ নেই। ১৯ই জুন বৃহস্পতিবার – বৃহস্পতিবার দিনের শুরুতেই এই পেয়ারটিতে মেজর একটি মুবমেন্ট হয়ে যেতে পারে, তাই সবাই এই দিন সাবধান এবং সজাগ থাকার চেষ্টা করবেন। কারণ ঐই সময় অন্য কোন নিউজ নয় FOMC এর কয়েকটি নিউজ আছে আর এটা সবাই জানেন যে FOMC এর নিউজ মানেই ১০০থেকে১৫০পিপ্স এর পরিবর্তন। রাত ১২.০০মিনিট(AM) USD FOMC Economic Projections রাত ১২.০০মিনিট(AM) USD FOMC Statement রাত ১২.৩০মিনিট(AM) USD FOMC Press Conference সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Claims রাত ৮.০০মিনিট USD Philly Fed Manufacturing Index ২০ই জুন শুক্রবার – এই পেয়ারটির কোনো নিউজ নেই। EUR-USD পেয়ারটিতে এ সপ্তাহে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ এ সপ্তাহে পেয়ারটি আশা করি আরো সেল এ যাবে তার আগে বাই এ কিছুটা কারেকশন হতে পারে। চিত্রমতে প্রথম সাপোর্ট লেবেল ক্রস করলে ১.৩৪৯০ তে সেল আর ১.৩৬১৫ এ বাই ট্রেড করুন, সাপোর্ট এবং রেসিস্টেন্স দেখে বা আপনি আপনার মত এ্যনালাইসিস করে স্টফ লস দিন এবং টেক প্রোফিট দিন ৮০ থেকে ১২০পিপ্স বা আপনি আপনার মত করে দিন। আর যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা অবশ্যই ট্রেন্ড ফলো করবেন। হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ আওয়ার এ দেখে ও বুঝে ট্রেড করুন। এই এ্যনালাইসিস সাপ্তাহিক ট্রেডাররা ফলো করলে ভালো, তবে ডেইলি ট্রেডাররা লট সাইজ আনুপাতিক হারে কমিয়ে করতে পারেন। গুডলাক। ধন্যবাদ সবাইকে। বিঃ দ্রঃ ফরেন এক্সচেঞ্জ একটি হাই রিস্ক লেভেল ট্রেডিং মার্কেট যা সকল ইনভেস্টর বা ট্রেডারদের জন্য যথাযোগ্য নয়। কারেন্সি ট্রেডিং এ ট্রেডারদের ট্রেড এর যে কোনরূপ পরিবর্তন ট্রেডাররা নিজ দায়িত্বে বহন করবে। সে জন্য বিডিফরেক্সপ্রো কোনো প্রকার দায়ী থাকিবে না।
  6. বন্ধুরা, ব্যাক্তিগত ব্যস্ততার কারণে এ সপ্তাহের EUR/USD পেয়ার এর মার্কেট আউটলুকটি দিতে দেরী হয়ে গেল, সে জন্য আগেই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। যাইহোক, আপনারা হয়তো উক্ত পেয়ার এ ট্রেড প্ল্যান সাজিয়ে ফেলেছেন, দেরী হওয়া সত্যেও আপনার ট্রেড প্ল্যানকে আরেকটু স্ট্রং করে সাজানোর জন্যই EURUSD মার্কেট আউটলুক লিখাটি দেরিতে হলেও ০৮ থেকে ১১ তারিখ পর্যন্ত লিখলাম। EUR/USD পেয়ারটি গত সপ্তাহে ১.৩৭০১ রেট এ ০.৩৭% লস এ মার্কেট ক্লোজ করে। উক্ত পেয়ারটির গত তিন মাসের এভারেজ হিসেব করলে মমেন্টাম ইন্ডিকেটর এ এখনো সেল এ আছে। কারণ মোটামুটি বেশীরভাগ দৈনিক ক্লোজিং রেট-ই ১.৩৭০০ এর নিচে, তারমানে টেকনিক্যাল এনালাইসিস মতে পরিস্কার সেল ইন্ডিকেট করছে যদিও বাই এ কিছুটা কারেকশন করতে পারে। আর সবচেয়ে বড় কথা হল এ সপ্তাহে EUR এর কোনো হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ নেই। তাহলে আমরা টেকনিক্যাল এনালাইসিস ৮০% ফলো করতে পারি। পেয়ারটি এ সপ্তাহে যদিও বাই এ যায় তাহলে সরবোচ্চ গত ১মাসের এভারেজ রেসিস্টেন্স ১.৩৮১০ বা ১.৩৮৩২ এ যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। যেহেতু টেকনিক্যাল এনালাইসিস মতে সেল পজিটিভ, তাহলে এই পেয়ারটি সেল এ আসলে ১.৩৫৪৮ বা ১.৩৪৭৬ এ আসার সম্ভাবনা খুব বেশী, যেহেতু বৃহস্পতিবার USD এর FOMC Meeting Minutes নিউজটি আছে। EUR/USD পেয়ারটির দৈনিক ও সাপ্তাহিক চিত্রের ইন্ডিকেটর ভিউঃ উপরোক্ত চিত্রগুলো দেখেই বুঝতে পারছেন যে, EURUSD পেয়ার এর মুভমেন্ট কোনদিকে আছে। এ সপ্তাহে EURUSD পেয়ার এ যেন ট্রেড করতে আপনাদের সুবিধা হয় সে জন্য চিত্রের সাহায্যে উক্ত পেয়ারটির মার্কেট ট্রেন্ড, সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্সগুলো জেনে নিন এবং ছোট্ট একটা ট্রেড আইডিয়া দেখে নিনঃ উপরোক্ত চিত্রে সাপোর্ট ও রেসিস্টেন্স সমুহঃ রেসিস্টেন্স সমুহঃ ১.৩৭৪০, ১.৩৮১০, ১.৩৮৩২, ১.৩৮৭৮, ১.৩৯৩৬ ও স্ট্রং রেসিস্টেন্স ১.৪১৭১। সাপোর্ট সমুহঃ ১.৩৬৯৮, ১.৩৬৫১, ১.৩৫৯৬, ১.৩৫৪৮, ১.৩৪৭৬ ও স্ট্রং সাপোর্ট ১.৩৪১৫। উপরের চিত্র দেখে EURUSD পেয়ার এর ট্রেন্ড ও সাপোর্ট রেসিস্টেন্স সমূহ বুঝতে নিশ্চয়ই আপনার অসুবিধা হচ্ছে না। EUR-USD পেয়ার এর এ সপ্তাহে হাই ইমপ্যাক্ট যে নিউজগুলো আছে তা নিম্নরুপঃ তারিখ বার ও বাংলাদেশ সময় কারেন্সি হাই ইমপ্যাক্ট নিউজ ৮ই এপ্রিল মঙ্গলবার রাত ৮.০০মিনিট USD JOLTS Job Openings ১০ই এপ্রিল বৃহস্পতিবার রাত ১২.০০(এএম)মিনিট USD FOMC Meeting Minutes ১০ই এপ্রিল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD Unemployment Claims ১০ই এপ্রিল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট ALL Currency(Day1) G20 Meetings ১১ই এপ্রিল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬.৩০মিনিট USD PPI m/m ১১ই এপ্রিল শুক্রবার রাত ৭.৫৫মিনিট USD Prelim UoM Consumer Sentiment ১১ই এপ্রিল শুক্রবার রাত ৭.৫৫মিনিট ALL Currency(Day2) G20 Meetings EUR-USD পেয়ারটি এই সপ্তাহে আশা করি সেল এ থাকবে। আপনারা অবশ্যই উক্ত পেয়ারটির অন্যান্য নিউজ ছাড়া বিশেষ করে বৃহস্পতিবার রাত ১২.০০(AM) এ FOMC Meeting Minutes নিউজটির উপর নজর রাখবেন কারণ নিউজটি এমন সময় যখন হয়ত অনেকেই ঘুমিয়ে পড়েন, যারা জানেন নিউজটির প্রভাব কেমন তারাতো অবশ্যই বুঝবেন আর যারা জানেন না তারা জেনে রাখুন যে এই নিউজটির প্রভাবে মার্কেট ১০০পিপ্স এর উপরে পরিবর্তন হয়ে থাকে। EUR-USD পেয়ারটিতে এ সপ্তাহে যেভাবে ট্রেড করবেনঃ এ সপ্তাহে পেয়ারটি আশা করি সেল এ থাকবে, যদি টেকনিক্যাল এনালাইসিসমতে ট্রেড করতে চান তাহলে আমি সাজেস্ট করবো সেল এ ট্রেড করুন, সে জন্য চিত্রে এন্ট্রি পয়েন্টগুলো স্টপ লস ও টেক প্রফিট সহ দেখানো হয়েছে, তারপর ও আরেক বার বলে দেই। পেয়ার মূল্য যদি ১.৩৭৪১ ক্রস করে ১.৩৭৬০-১.৩৭৯০ এর মধ্যে যায় তাহলে সেল ট্রেড করুন এবং স্টপ লস ৭০পিপ্স বা রেসিস্টেন্স দেখে দিন আর যদি ১.৩৭৪১ থেকে নিচের দিকে চলে আসে তাহলে ১.৩৬৯৫ তে সেল পেন্ডিং দিন এবং স্টপ লস ৬০পিপ্স বা রেসিস্টেন্স দেখে দিন আর উভয় ধরণের এন্ট্রিতে টেক প্রফিট দিন ১২০-১৫০পিপ্স। সবার জন্য শুভ কামনা রইলো। ধন্যবাদ সবাইকে। বিঃ দ্রঃ ফরেন এক্সচেঞ্জ একটি হাই রিস্ক লেভেল ট্রেডিং মার্কেট যা সকল ইনভেস্টর বা ট্রেডারদের জন্য যথাযোগ্য নয়। কারেন্সি ট্রেডিং এ ট্রেডারদের ট্রেড এর যে কোনরূপ পরিবর্তন ট্রেডাররা নিজ দায়িত্বে বহন করবে। সে জন্য বিডিফরেক্সপ্রো কোনো প্রকার দায়ী থাকিবে না।