Bdforexpro.com will be sold with its all assets ! - (SEE DETAILS) Interested can Contact !

বিডিফরেক্সপ্রো' ফরেক্স সংক্রান্ত সব আলোচনা, মতামত এবং ফরেক্স শিক্ষা বিষয়ক এক উন্মক্ত এবং অনন্য স্থান। মান সম্মত আলোচনা, প্রতিনিয়ত গুরুত্তপুর্ন সব ট্রেডিং স্ট্রেটিজি এবং এনালাইসিসের মাধ্যমে সঠিক ট্রেডিং গাইডলাইন প্রদান বিডিফরেক্সপ্রো'র অন্যতম প্রধান বৈশিষ্ট। এই ফোরামে রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণ ফ্রী। পোস্ট এর পূর্বে অনুগ্রহ করে ফোরাম নিতিমালা গুলো পড়ে, বুঝে পোস্ট করুন। ধন্যবাদ;

3 posts in this topic

Average directional index(ADX) :


Adx মার্কেটের ট্রেন্ডের অবস্থা নির্দেশ করে। অর্থাৎ ট্রেন্ড চলতে থাকবে এবং এর ট্রেন্ড ধরে রাখার শক্তি এবং ট্রেন্ড তার অবস্থান পরিবর্তন করবে কিনা তা নির্দেশ করে।এই ইন্ডিকেটর থেকে প্রথম দেখেই ট্রেন্ড অবস্থা বুঝা যায় না তাই ট্রেডাররা এই ইন্ডিকেটর ব্যবহার না করে আরও বোধগম্য ইন্ডিকেটর ব্যবহার করেন।ট্রেডারদের ট্রেন্ড সবল বা দুর্বল সম্পর্কে ধারণা দেয় ।

Adx ট্রেড করার নিয়মঃ

এই ইন্ডিকেটরের দুটি লাইনঃ adx(সাদা),(সবুজ),(লাল) এবং দুটি হরাইজনটাল লাইন আঁকতে হবে ২০ লেভেল এবং ৪০ লেভেল।

১। মান ২০ নিচে নামলে বুঝতে হবে ট্রেন্ড দুর্বল এবং ট্রেন্ড দিক এখনো ঠিক হয় নাই।
এই সময় ননট্রেন্ড স্ট্রেটেজি ব্যবহার করতে হবে,তা না হলে ট্রেড লস হবার সম্ভাবনা বেশি।
চেনেল ট্রেডিং হচ্ছে নন ট্রেন্ড ট্রেডিং স্ট্রেটেজির উদাহরন।

২। adx মান যদি ২০ এবং ৪০ মধ্যে থাকে তবে ট্রেন্ড ট্রেডিং স্ট্রেটেজি ব্যবহার করতে হবে।
উদাহরনঃ পেরাবলিক ট্রেডিং বা মভিং এভারেজ ট্রেডিং।

৩। adx মান যদি ৪০ উপরে উঠে তবে মার্কেট ওভারবাই বা ওভারসেল অবস্থায় চলে গেছে। এই অবস্থায় ট্রেড বন্ধ করে দেয়া যেতে পারে বা স্টপ লস ব্যবহার করে কিছু প্রফিট ধরে রাখা যেতে পারে।

৪।+/-DI ট্রেড এন্ট্রি করার জন্য ব্যবহার করা হয় । যখন adx ২০ ক্রস করে উপরে উঠে এবং +DI , - DI কে ক্রস করে তখন বাই সিগনাল নিতে হবে।
সেলের ক্ষেত্রে এর উল্টা । - DI,+DI কে ক্রস করলে সেল সিগনাল বসাতে হবে। তবে adx লাইনের দিকে নজর রাখতে হবে।

Adx যখন ২০ লেভেল প্রথম ক্রস করে তখন লাইন ফ্ল্যাট দেখা যায় ।তখন ধারণা করা হয় নতুন ট্রেন্ড শুরু হচ্ছে এবং মার্কেট কিছুটা কারেকশন হচ্ছে। Adx সাথে অন্য ইন্ডিকেটর ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।যেমনঃ পেরাবলিক ।

 

Share this post


Link to post
Share on other sites

ধন্যবাদ ভাই গুরুত্তপুর্ন ইনডিকেটর টি শেয়ার করার জন্য, তবে ছবি সহকারে উদহারন এর মাধ্যমে আলোচনা করলে আরো বেশি বোধগম্য এবং সুবিধাদায়ক হত। আবারো ধন্যবাদ;

Share this post


Link to post
Share on other sites

ADX - niye motamoti jantam akhon aro janlam, thnx lekhok via k , ay rokom aro post diyen. 

Share this post


Link to post
Share on other sites

টপিকটিতে মন্তব্য করতে সাইন ইন করুন অথবা নতুন একাউন্ট করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই মেম্বার হতে হবে

একাউন্ট করুন

খুব সহজে একাউন্ট করুন


নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

সাইন ইন

ইতিমধ্যে একাউন্ট করেছেন ? সাইন ইন করুন


এখনি সাইন ইন করুন

  • Similar Content

    • By Mhafiz™
      ইন্ডিকেটর ইন্সটাল করার পদ্ধতি (একেবারে নতুনদের জন্য) - আপনার কম্পিউটারের Meta Trader এর Indicators ফোল্ডারের ভেতর অর্থাৎ C:Program FilesTrader Nameexpertsindicators এর ভেতর Paste করে দিবে হবে।

      ১. সাপোর্ট অ্যান্ড রেসিসটেন্সঃ

      নামঃ 3 Level ZZ

      নাম্বারিং এর মাধ্যমে সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স এর তিনটি লেভেল প্রদর্শন এর মাধ্যমে আপনাকে ইজ্ঞিত দেবে যে মার্কেট এখন কতটুকু লং বা কতটুকু শর্ট ট্রেড করেছে এবং আরো কতটুকু শর্ট বা লং ট্রেড করতে পারে। এই ক্ষেত্রে লেভেল সাপোর্ট 3 নির্দেশ করে মার্কেট মোটামুটি অনেকটুকু শর্ট ট্রেড হয়েছে এইবার হয়ত ট্রেন্ড পরিবর্তন হওয়ার সময় এসেছে বা এর শর্ট এ ট্রেড করবে না। বিপরীতভাবে রেসিস্টেনস 3 লেভেল নির্দেশ করে মার্কেট অনেকটুকুই লং ট্রেড হয়েছে এর বেশিদূর বায় ট্রেড করা যাবে না। ঠিক এইভাবে লেভেল 2 এবং 1 উভয়ভাবে সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স কে নির্দেশ করে যে মার্কেট কিছুটা বায় বা শর্ট ট্রেড করেছে এবং আরো অনেকদুর বায় বা সেল ট্রেড হতে পারে।
      সহজ কথা যখন লেভেল 1 নির্দেশ করবে তখন বুঝবেন ঐ ট্রেন্ডে আরো ট্রেড হবে এবং অপেক্ষা করবেন লেভেল 2 এর জন্য এবং শেষে লেভেল 3 নির্দেশ করবে ঐ ট্রেন্ডে ট্রেড আর বেশীদূর যাবে না।

      ২. শর্ট অ্যান্ড লং সিগনালঃ

      নামঃ BBand Stop

      খুব সিম্পল এই ইনডিকেটরটি ক্যান্ডেলের উপরে এবং নিচে মুভিং এর মাধ্যমে আপনাকে নির্দেশ দিবে যে বর্তমান মার্কেটটি এখন ঠিক কোন অবস্থায় আছে, সাধারনভাবে উপরের লাইন সিগনাল প্রকাশ করে শর্ট ট্রেড এবং নিচের লাইন সিগনাল প্রকাশ করে লং ট্রেড। এইভাবে আপনি খুব সহজে বায় এবং সেল ট্রেডে ঢুকতে পারেন। তবে এই সিগনালটি ১ ঘন্টার চার্টে ভালো কাজ দেয়। এবং লাইন এর মাঝখান থেকে ট্রেডে না ঢুকলে ট্রেডে রিস্ক কম থাকে। তবে শুধু এই ইনডিকেটরটি নিয়ে ট্রেড না করে অন্য কোন ইনডিকেটর এর সাথে এই ইনডিকেটরকে একত্রিত করে ট্রেড করলে ট্রেডে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়।

      ৩. ট্রেন্ড মজবুত করণঃ

      নামঃ Heiken Ashi

      এই ইনডিকেটরটি মুলত সরাসরি আপনাকে কোন সিগনাল দিবে না তবে আপনার রানিং ট্রেন্ডটি কত মুজবুত বা শক্তিশালী তা বুঝতে সাহায্য করবে। এটি ক্যান্ডেলস্টিক এর সাথে সম্পৃক্ত একটি ইনডিকেটর যা ক্যান্ডেলস্টিক বডিকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠে। যেমন এই ইনডিকেটরটি চার্টে আপ্লাই করার পর দেখবেন ক্যান্ডেলস্টিক এর লং আপার সেডো প্রকাশ করে বর্তমান লং ট্রেন্ডটি অনেক মুজবুত আবার ক্যান্ডেলস্টিক এর লং লাওয়ার শেডো প্রকাশ করে বর্তমান শর্ট ট্রেন্ডটি অনেক মুজবুত। এইবার আপনি আপনার স্ট্রেটিজির আলোকে ট্রেন্ড এর অবস্থান ভেদে ট্রেড করেন।




      ৪. ট্রেন্ড ট্রেডঃ

      নামঃ Parabolic SAR

      এটি খুব শক্তিশালী এবং কমন একটি ইনডিকেটর, অনেক ট্রেডাররা এই ইনডিকেটরটি তাদের প্রিয় লিস্টে রেখেছেন এর চমৎকার ইন্ডিকেশন এর জন্য। এই ইনডিকেটরটি ১ ঘন্টা বা তার বেশী টাইম ফ্রেম ট্রেডিং এ সুন্দর কাজ দেয়। সহজভাবে উপরের ডট নির্দেশ করে শর্ট ট্রেড এবং নিচের ডট নির্দেশ করে লং ট্রেড। তবে তবে হুট করে অথবা মাঝখান থেকে ট্রেডে ঢুকে যাবেননা। প্রতি পার্টে প্রথম তিনটি ডট এর পরে ট্রেডে ঢুকুন। এই ক্ষেত্রে ট্রেন্ডটি নিশ্চিত হওয়া যায়। এবং যখনি ডট রিভার্স করবে সাথে সাথে ট্রেড ক্লোজ করে নিন।

      ৫. স্ক্যাল্পিং

      নামঃ Fractal

      এই ইনডিকেটরকি আমি মনে করি সবারই জানা বিশেষ করে যারা স্কেল্পিং ট্রেডে আগ্রহি। যাহোক মুলত এটি খুব সামান্য উপযোগ সৃষ্টিকারি ইনডিকেটর যা বেশিরভাগ ট্রেডে লস করে, কারন এই ইন্ডিকেটরে আপনার ট্রেডের মেয়াদ হতে হবে সরবোচ্চ ১৫ মিনিট। আপ এরো হল সেল ইন্ডিকেশন এবং ডাউন এরো হল বায় ইন্ডিকেশন। তবে যে ইন্ডিকেশনে ট্রেড করেন না কেন প্রথম ক্যান্ডেলেই অরডার মেইক করবেন এবং ক্যান্ডেল শেষ এর সাথে সাথে ট্রেড থেকে বের হয়ে যাবেন। দ্বিতীয় বা তৃতীয় ক্যান্ডেলের অর্ডার নেগেটিভ হবে সম্ভাবনা ৯৫%।


      ডাউনলোড ইন্ডিকেটরঃ