Leaderboard


Popular Content

Showing most liked content on 10/06/2015 in all areas

  1. 2 likes
    Buy Stop - Sell Limit, Buy Limit - Sell Stop এই চারটি অপশন হল পেন্ডিং অর্ডারের স্পেশাল চারটি কন্ডিশন। পেন্ডিং অর্ডার কি আমরা তা জানি, আপনার অপেক্ষামান অর্ডারগুলো কে মার্কেট ট্রেন্ডে আপনার শর্ত অনুযায়ী গ্র্যান্ড করে নেওয়ার চারটি উপায়। অর্থাৎ আপনি যদি ট্রেডে থাকতে না পারেন কিন্তু নির্দিষ্ট একটি প্রাইসে মার্কেট ক্লিক করলে আপনার যেকোন অর্ডার স্বয়ংক্রিয়ভাবে তৈরি করতে চান তখন আপনি এই চারটি অপশন ব্যাবহার করবেন। নিচের ফরম্যাটটি দেখুন খুব সহজে বুঝতে পারবেন ... Buy Stop Sell Limit || || || -- Current Price || || || Buy Limit Sell Stop আর বলতে হবে? আচ্ছা তারপরে ও সংক্ষেপে একটু বলি , আপনার অর্ডারটা যদি হয় লং এবং আপনার পেন্ডিং অর্ডার প্রাইস যদি বর্তমান মার্কেট প্রাইস এর বেশি হয় তখন আপনি But Stop আর কম হলে But Limit সিলেক্ট করে অর্ডার দিবেন। বিপরীতভাবে আপনার অর্ডারটা যদি হয় শর্ট এবং আপনার পেন্ডিং অর্ডার প্রাইস যদি বর্তমান মার্কেট প্রাইস এর বেশি হয় তখন আপনি Sell Limit আর কম হলে Sell Stop সিলেক্ট করে অর্ডার দিবেন। এই সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুনঃ এখানে
  2. 1 like
    স্টোকাস্টিক (Stochastic) ইন্ডিকেটর সম্পর্কে কিছু আলোচনা : স্টোকাস্টিক এর বাংলা হল সম্ভাব্যতার সূএাবলি। ট্রেন্ড কোথায় যেয়ে শেষ হবে, স্টোকাস্টিক আমাদের সেই ধারনা দিতে পারে। স্টোকাস্টিক এর ব্যাখ্যাকরন: %k period - ফাস্ট লাইন%D period – স্লো লাইনট্রিগার লেভেল - ৮০ এর উপর এবং ২০ এর নিচে।স্টোকাস্টিক মার্কেটে ওভারবট এবং ওভারসোল্ড কন্ডিশন নির্ধারন করতে সাহায্য করে। স্টোকাস্টিক দিয়ে যেসব তথ্য পাওয়া যায় তা হল: স্টোকাস্টিক লাইন ক্রস - ট্রেন্ড পরিবর্তনের ইঙ্গিত করে থাকে।স্টোকাস্টিক ৮০ লেভেলের উপরে - কারেন্সি পেয়ার ওভারবট।স্টোকাস্টিক ৮০ লেভেলের উপরে মুভ করতে থাকলে - আপট্রেন্ড ক্রমাগত শক্তিশালী হচ্ছে।স্টোকাস্টিক ৮০ লেভেল থেকে নিচে নামছে - ট্রেন্ডে কারেকশন অথবা ডাউনট্রেন্ডের শুরু আশা করতে পারেন।স্টোকাস্টিক ২০ লেভেলের নিচে - কারেন্সি পেয়ার ওভারসোল্ড।স্টোকাস্টিক ২০ লেভেলের নিচে মুভ করতে থাকলে - ডাউনট্রেন্ড ক্রমাগত শক্তিশালী হচ্ছে।স্টোকাস্টিক ২০ লেভেল থেকে উপরে উঠছে - ট্রেন্ডে কারেকশন অথবা আপট্রেন্ডের শুরু আশা করতে পারেন।আমরা ৩ পদ্ধতিতে স্টোকাস্টিক দিয়ে ট্রেড করতে পারি: *ক্রসওভার *ওভারসোল্ড এবং ওভারবট * ডাইভারজেন্স (পরবর্তীতে আলোচনা করা হবে) স্টোকাস্টিক ক্রসওভার : স্টোকাস্টিক ক্রসওভার মুভিং এ্যাভারেজ ক্রসওভারের মত কাজ করে থাকে। সেল সিগন্যাল দেয় যখন %k লাইন %D লাইনকে নিচের দিকে ক্রস করে। আর বাই সিগন্যাল দেয় যখন %k লাইন %D লাইনকে উপরের দিকে ক্রস করে। ট্রিগারলাইনে ক্রসওভার হলে সেটাকে শক্তিশালী সিগন্যাল হিসেবে ধরা হয়। যদি স্টোকাস্টিক ছোট টাইমফ্রেমে ব্যাবহার করা হয় তাহলে সেটাকে বারবার ক্রস করতে দেখা যাবে। ছোট টাইমফ্রেমে স্টোকাস্টিক ব্যাবহার না করাই ভাল । ওভারসোল্ড এবং ওভারবট ট্রেডিং : যখন স্টোকাস্টিক ট্রিগার লাইন থেকে বের হয় তখন ট্রেডে এন্ট্রি অথবা এক্সিট করতে পারেন। ফ্ল্যাট মার্কেটে সাবধান থাকবেন। স্টোকাস্টিক সহজেই আপনাকে ফলস সিগন্যাল দিবে। আবার ফ্ল্যাট মার্কেট আপনাকে আসন্ন ট্রেন্ডের জন্য ধারনাও দিতে পারে। আপনাকে চার্ট ভালোভাবে এ্যানালাইসিস করতে হবে ।
  3. 1 like