Rayhan07

Forex এর মানে কি

1 post in this topic

#Forex– এর মানে কি ?
আমি চিরকাল’ই জানতে চেয়েছি যে #Forex’এর মানে কি, এটা কিসের বিবরণী। আমাকে এইটা শেখানো হয়েছিল।
সোজা ভাষায়, এটা সেই বাজার যেখানে এক মুদ্রার তুলনায় আর এক মুদ্রার ক্রয় বা বিক্রয় হয়। তো, যখনই এই ক্রয় বা বিক্রয়’তে আমরা সক্রিয় ভুমিকা নিচ্ছি, তখনই আমরা এই বাজারের ক্রেতা’র ভুমিকা পালন করছি। এর থেকে বড় জঙ্গল জিবনে দেখবে না, এর মূল্য দৈনিক $১.`৫ ট্রিলিয়ন !!
কি কেনা-বেচা হয় ?
এতো বার্তালাপ শুনে আমি উলটে আরো বেশি চমকে গেছিলাম। আমি কিছুই বুঝছিলাম না যে কেনা বেচার জন্য টাকা আসবে কোথা থেকে। অবশেষে, সাহস জুগিয়ে আমি পিপ্পিনো সাহেব এর কাছে আমার প্রশ্ন রাখলাম, “ কি এমন কেনা-বেচা করি যার থেকে আমরা আয় করি ?”
ওনার উত্তরের সরলতায় আমিও মুগ্ধ হয়ে গেছিলাম। উনি আমাকে বোঝালেন যে স্রেফ টাকা’ই একে অপরের বিনিময়ে কেনা বেচা করা হয়। একটা দেশ’এর মুদ্রা’র দাম জড়িয়ে আছে দেশ’এর রাজনীতি, অর্থনীতি, ব্যাবসা-বাণিজ্য ইত্যাদির সঙ্গে। একটা দেশ’এর মূল্য অতটাই যতটা তার সমস্ত মুদ্রার সম্মিলিত মূল্য। তাই, যখনই আমরা একটা দেশ’এর মুদ্রা কিনছি, আমরা সেই দেশ’এর একটা অংশ কিনছি। ওনার বক্তব্য শেষ হওয়ার পরে যেন ওনার চোখে একটা ঝিলিক দেখতে পেলাম। জানিনা সেদিন আমার কি হয়েছিল, কিন্তু আমার চোখটাও চকচক করে উঠেছিলো। 
পৃথিবীতে সব চাইতে বেশি কেনা বেচা, কোন মুদ্রা গুলি হয় ?
“আমার কোথা শোনো জো, গুপ্তধন মানেই সোনা বা রুপোর থালা-বাটি নয়, এতি অনেক আকারে নিজেকে প্রকাণ্ড করতে পারে। আজকের আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি মাথায় রেখে বিচার করলে, আগামি মুদ্রা’গুলকেই সবচাইতে মূল্যবান গুপ্তধন মনে করে উচিত।“ নিশ্বাস ফেললেন পিপ্পিনো বাবু।
আমেরিকান ডলার (USD),  ইউরো (EUR), জাপানের ইয়েন (JPY), সুইস ফ্রাঙ্ক (CHF) এবং ব্রিটিশ পাউন্ড (GBP) দের’কেই বহুমূল্য ধরা হয়। আমি এটাও জানতে পারলাম যে একসঙ্গে ধরলে, এরা পৃথিবীর মুদ্রা বাজারের ৯০% ব্যাবসা টেনে দেয়। 
গুপ্তধন চিনবে কি করে ?
তোমরা নিশ্চয় ভাবছ যে এই গুপ্তধন গুলোকে চিনবে কি করে ?
খুবই সোজা, স্রেফ তিন অক্ষরের নিয়ম’টা মনে রাখো।
প্রথম দুটি অক্ষর দেশ’কে চেনায় এবং অন্তিম’টি মুদ্রা’র নাম থেকে নেওয়া। যেমন ধরো GBP । GB গ্রেট ব্রিটেন’কে চেনায় এবং P চেনায় পাউন্ড’কে। 
মুদ্রা কি স্রেফ জোড়ায় কেনা বেচা হয় ?
সময় এসেছে এক রহস্য ভেদ করার। #Forex জঙ্গল একটি ক্ষমাহীন জায়গা, একমাত্র সঠিক অস্ত্র থাকলে তবেই টিকে থাকা যাবে। এই মুহূর্ত থেকে মুদ্রা-জোড়াই আমাদের সেরা অস্ত্র হতে চলেছে। আর যে কোনও কেনাবেচার মতই এখানেও একটার পরিবর্তে আরেকটা আসে। এই জঙ্গলে মুদ্রা সব সময় জোড়ায় জোড়ায় কেনা বেচা হয়। মানে এই যে, একটা বেচে আরেকটা কেনেন বা একটা কিনে আরেকটা বেচেন। একজন #Forex-broker দুই পক্ষের মধ্যে আলাপ করিয়ে দেয় কেনা বেচা করবার জন্য এবং এর পরিবর্তে আমরা তাকে সামান্য একটু অনুমদন দক্ষিণা দী। সবচাইতে বেশী বিক্রিত জোড়াগুলি হল গিয়ে ইউরো/ইউএসডি, পাউন্ড/ইউরো ইত্যাদি।
কি সেই ধন যার পেছনে সবাই দৌড়চ্ছে ?
আমার মাথাতেও এই একই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছিল। আমি আখেরে আমার গুরু কে জিগ্যেস করেই বসলাম, “কি সেই বিদেশি মুদ্রা যা বাচ্চা থেকে খুড়ো, সকলে চেনে ? 
আমার চোখে মুখে স্পষ্ট যে প্রশ্নের ছাপ দেখা যাচ্ছিল, হয়ত সেটা দেখেই পিপ্পিনো বাবু তার মুখ খুললেন। এরম হাড় হিম করে দেওয়া আওয়াজে কথা বলতে আমি তাকে খুব কম’ই শুনেছিলাম। আজ অব্দি আমি সেই কণ্ঠস্বর ভুলতে পারিনি। যে যাই বলুকনা কেন, আখেরে পিপ্পিনো বাবু একজন অত্যন্ত অভিজ্ঞ লোক। তাই তিনি যখন কিছু বলেন, সেটাকে পাথরে খোদাই’এর বরাবর মানা উচিত।
“ জো, সবসময় ডলার’এর মহিমায় স্তম্ভিত থাকবে। মুদ্রাজোড়ার একটি মুদ্রা যখনি ডলার হয়, তখন সেটাকে মেজর মুদ্রাজোড়া বলা হয়। পৃথিবী’তে সবচাইতে বেশী এই মুদ্রাজোড়ার ক্রয়-বিক্রয় হয়, এবং তাই সেরম নাম, মেজর জোড়া।“
মেজর জোড়া আছে যখন, মাইনর জোড়াও আছে নাকি ?
অবশ্যই ভাববার বিষয়, মেজর আছে যখন, তখন মাইনর’অ তো থাকা উচিত।
এক্কেবারে সঠিক ভেবেছেন। মাইনর হল সেই মুদ্রা জোড়া যার কোনওদিকে ডলার নেই। অনেকসময় এদেরকে ক্রস জোড়া বলেও ডাকা হয়। 
প্রমুখ যে ডলার বাদে মুদ্রাগুলি আছে, সেগুলি দিয়েই মাইনর জোড়া তৈরি হয়। ইউরো, পাউন্ড, ইয়েন ইত্যাদি। এক্সতিক মুদ্রা জোড়া।
সমুদ্র, ফলে সাজানো থালা, সূর্যের আলো, রৌদ্রস্নান, এইসব মনে পরছে কি ?
দুঃখের খবর, আপনি এখনো জঙ্গলেই থাকবেন, কিন্তু চিন্তা করবেন না, এক শিকারির জীবন আপনাকে অবশ্যই সেখানে নিয়ে যাবে।
ওপরে যার যার কথা মনে পড়ছিল, সব কিছুই ব্রাজিল’এ পাওয়া যায়, তাই না ?
মোটামুটি এক্সতিক জোড়াও সেরমি বলতে পারেন। মুদ্রা জোড়ার একদিকে যদি উদয়ান্ত অর্থনীতি’র কোন দেশ থাকে, যেমন হাঙ্গারি, মেক্সিকো বা ব্রাজিল, সে ক্ষেত্রে তাদেরকে এক্সতিক মুদ্রা জোড়া বলা হয়।
গুপ্তধনটি লোকানো কোথায় ?
অফিস’এর কথা ভাবলেই মাথায় আগে একটা টেবিল, কয়েকটা চেয়ার, একটা বড় ডেস্ক, এইসব ভাবনা চিন্তা আসে। কিন্তু পিপ্পিনো বাবু আমার চিন্তাধারা ভঙ্গ করলেন। ঊনি বোঝালেন যে #Forex মার্কেট’এর কোনো স্থিতিশীল ঠিকানা বা কোনো নির্দিষ্ট বাড়ি নেই। একদিক দিয়ে ভেবে দেখলে এটাই #Forex’ এর সেরা সুবিধে। কেন ভাবছেন ? পুরো ব্যাবসা’টাই বিদ্যুতিন মাধ্যমে একটা নেটওয়ার্ক’এর ওপরে চলে। ব্যাঙ্ক’এর সাহায্যে সম্পূর্ণ নেটওয়ার্ক’টা চলে ২৪ ঘণ্টা ধরে। যার ফলে কোনো একটি নির্দিষ্ট স্থান’এর ওপরে এটি নির্ভরশীল নয়। ব্যাপক না ? তাই, আপনি যতই জঙ্গলে ঘুরে বেরান না কেনো, কোথাও’ই আপনি “এক্স” নিশানি’টা খুঁজে পাবেন না।
“এক্স” নিশানি সবসময় গুপ্তধন’এর ঠিকানা’টা জানান দিয়ে দেয়, এই ক্ষেত্রে তবে ব্যাপারটা আলাদা
ডলার পৃথিবী’র সবথেকে দামী ধন। আমি আমার গুরু’কে জিগ্যেস করেছিলাম যে ডলার এত মূল্যবান কেন ? আমার মনে একটা খচখচানি ছিল যে ডলার এত সম্মান পায় কেনো ?
“ ডলার অধিকাংশ লেনদেনে জড়িত থাকে। মেজর মুদ্রা জোড়া সমস্ত লেনদেনের ৭৫% দখল করে আছে। অধিকাংশ আন্তর্জাতিক লেনদেন’অ ডলার’এ তেই হয়। আমেরিকা’র মজবুত অর্থনৈতিক পরিকাঠামোর জোরে, মুদ্রার রাজা ধরা হয় ডলার’কে।“ ঘোষণা রাখলেন পিপ্পিনো বাবু।
এতো জঙ্গল থাকতে #Forex জঙ্গলেই ঢুকতে যাব কেন ?
1. এই মার্কেট ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে এবং তার ফলে নতুন কোন আকস্মিক খবর এলে, আপনি সঙ্গে সঙ্গে তার ফায়দা তুলে ট্রেড করতে পারবেন।
2. একুইটী মার্কেট’এর তুলনায় এখানে ১০০ গুন বেশী পরিমাণ’এর ব্যাবসা হয়।
3. রোজকার লেনদেন’এর পরিমাণ $ ১.৫ ট্রিলিয়ন। ধারে কাছেও আর কোনো মার্কেট আসে না।
4. অধিকাংশ #Forex লেনদেন’এর ওয়েবসাইট আপনাকে বিনামুল্যে ব্যাবসা করতে দেয়।
5. অত্যন্ত সোজা সাপটা হিসেবনিকেশ।
6. অন্যান্য মার্কেট’এর তুলনায় অনেক বেশী লিভারেজ দেওয়া হয়, যার ফলে আপনার লাভ’এর পরিমাণ’টাও বেড়ে যায়।
7. এই মার্কেট যখন নিম্নমুখী, আপনি তখনো লাভ করতে পারেন। 
বাবুমশাই’রা, আপনাদের মধ্যে কেউ কম্পাস ব্যাবহার করবে আবার কেউ করবে জিপিএস। সবারি নিজস্ব পদ্ধতি থাকে, কোনটাই ভুল নয়। জরুরি ব্যাপারটা হল যে জানতে হবে গুপ্তধন’টা কোথায় লোকানো এবং সেটাকে খুঁজে বের করা।

 

_________________
The disclaimer:

CFD এবং সাধারণভাবে লিভারেজকৃত পণ্যে অনেকটা ঝুঁকি থাকে এবং আপনার
বিনিয়োগকৃত সব মূলধন হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে৷

https://goo.gl/T3pHGT  

WHAT ID FOREX-1.jpg

Share this post


Link to post
Share on other sites

টপিকটিতে মন্তব্য করতে সাইন ইন করুন অথবা নতুন একাউন্ট করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই মেম্বার হতে হবে

একাউন্ট করুন

খুব সহজে একাউন্ট করুন


নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

সাইন ইন

ইতিমধ্যে একাউন্ট করেছেন ? সাইন ইন করুন


এখনি সাইন ইন করুন