InstaForexSubel

এখন আরো বেশি সুযোগ সুবিধা ইন্সটাফরেক্সের ফরেক্সকপি গ্রাহকদের জন্য!

3 posts in this topic

ইন্সটাফরেক্স তার গ্রাহকদের সবসময় উচ্চ গুণমান এবং চমৎকার সব সেবা প্রদান করে আসছে। এইরই ধারাবাহিকতায় ইন্সটাফরেক্স ফরেক্সকপি সিস্টেম এর জন্য অতিরিক্ত কিছু বৈশিষ্ট্য যুক্ত করেছে। এখন আপনি ফরেক্সকপি থেকে ওপেন ট্রেডারদের আনসাবস্ক্রাইব করতে পারবেন। পূর্বে আপনাকে প্রথমে মেটা ট্রেডার ৪ এর মাধ্যমে ম্যানুয়ালি সব ট্রেড বন্ধ করতে হত। এখন আর এটি করার কোন প্রয়োজন হবেনা। প্রত্যেক ক্লায়েন্ট ফরেক্সকপির ফলোওয়ার হিসাবে তাদের বর্তমান ওপেন ট্রেডারদের আনসাবস্ক্রাইব করতে পারবে। আনসাবস্ক্রাইব এর সময়, ট্রাডেরদের খোলা সব লাভ/ক্ষতির সূচকের তালিকা প্রদর্শন করবে।

এছাড়া একজন ফরেক্সকপি ফলোওয়ার বর্তমান মূল্যের ভিত্তিতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সকল খোলা ট্রেড বন্ধ এবং সাবস্ক্রিপশন বাতিল করতে পারবে। ফরেক্সকপি সিস্টেম এখন আরো ব্যবহার বান্ধব, সুবিধাজনক, এবং ট্রেড পরিচালনা জন্য আরো দ্রুততর।

Share this post


Link to post
Share on other sites

ইন্সটাফরেক্স অন্যান্য ব্রোকারের তুলনায় পদ্ধতিগত ভাবে অনেক এগিয়ে নিত্য নতুন অনেক সুবিধা নিয়ে এটা অস্বীকার করার কোন কারন নাই। কিন্তু আপনারা যারা ইন্সটাফরেক্স এর বড় বড় প্রতিনিধি আছেন তারা কিছু বিষয় ব্রোকারকে অবগত করলে আমার মনে হয় ইন্সটাফরেক্স তাদের হারানো সম্মান ফিরিয়ে আনতে পারে। যেমন তাদের কিছু বেপরোয়া সিদ্ধান্ত যা লিবার্টি নিয়ে করল। অন্য ব্রোকাররা যদি এই ইস্যুতে ক্লাইন্টদের কোন ফান্ড না কাটে তাহলে ইন্সটা কেন কেটে রাখবে এই প্রশ্নটা সবার। আপনারা হয়ত লক্ষ্য করেছেন বিশেষ করে বাংলাদেশের অনেক ট্রেডার ইন্সটার প্রতি খুবই ফেডাপ। কারন এক টাই। তাছাড়া ইদানিং তাদের আরেকটা সমস্যা অনেক পার্টনার গ্রাহক আমার সাথে শেয়ার করেছেন তা হল ইন্সটা পার্টনার ক্যাবিনেটে ন্যূনতম ৩ জন এবং প্রতি ক্লাইন্ট একাউন্টে ন্যূনতম ১০ ডলার থাকতে হবে এবং প্রতি মাসে যদি ঐ ক্লাইন্ট ১০ ভলিয়ম ট্রেড না করে তাহলে তাকে ঐ পার্টনার এর জন্য একটিভ একাউন্ট বলা যাবে না । আর স্বভাবতই যারা ২-৩ জন ক্লাইন্ট এর পার্টনার তারা সাফার করছেন এবং ডলার উইধড্র করতে পারছেন না। অথচ এই বিষয়গুলো অন্য ব্রোকারে খুবই শীতল।

salmansam likes this

Share this post


Link to post
Share on other sites

ইন্সটার নোংরামি গুলো আর ভালো লাগে না, এমনিতে জোর করে ট্রেড করাচ্ছে আকাউন্ট ব্লক করে তার উপর এখন নতুন পদ্ধতি চালু করেছে , প্রতি ২৪ ঘন্টায় ১০০ ডলার এর বেশি ওয়ালেট ট্র্যান্সফার দেয়া যাবে না। ফালতু..................... ফাক ইন্সটাফরেক্স।

Share this post


Link to post
Share on other sites

টপিকটিতে মন্তব্য করতে সাইন ইন করুন অথবা নতুন একাউন্ট করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই মেম্বার হতে হবে

একাউন্ট করুন

খুব সহজে একাউন্ট করুন


নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

সাইন ইন

ইতিমধ্যে একাউন্ট করেছেন ? সাইন ইন করুন


এখনি সাইন ইন করুন

  • Similar Content

    • By habib07
      ইন্সটাফরেক্স থেকে অতিরিক্ত বোনাস? নিশ্চিত!
      কিছু দেশে এখনও লকডাউনে রয়েছে বা পুনরায় খোলা শুরু করেছে, তবে ইন্সটাফরেক্স ট্রেডাররা বিভিন্ন ক্যাম্পেইনে অংশ নিচ্ছে এবং নিয়মিত নগদ বোনাস গ্রহণ করে চলেছে।
      কোয়ারানটাইন, ট্রেডিং ইতিহাস এবং অভিজ্ঞতা  যাই হোক না কেন, সকল ইন্সটাফরেক্সের ট্রেডারগন চ্যান্সি ডিপোজিট ক্যাম্পেইনে অংশ নিয়ে তাদের ডিপোজিটের পরিমান বাড়াতে পারবেন।
      আমরা জুনের শেষ পর্যন্ত,  বোনাসের পরিমান আরও বাড়িয়ে ৮,০০০ ডলার পর্যন্ত  করেছি!
      এই ক্যাম্পেইনে অংশ গ্রহন করতে  কমপক্ষে ৩০০০ ডলার আপনার অ্যাকাউন্টে ডিপোজিট করতে হবে। এর পরে, আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে একজন প্রতিযোগী হয়ে উঠবেন।
      বিজয়ীদের লটারি এর মাধ্যমে  নির্বাচন করা হবে। *
      জলদি করুন  এবং জুন মাস শেষ হওয়ার আগে এই ক্যাম্পেইন এ যোগ দিন।
      * চ্যান্সি ডিপোজিট ক্যাম্পেইনে সকল শর্তাবলি ওয়েবসাইটে দেখুন।
      আমরা আপনার যত্ন নিচ্ছি এবং আপনাকেও বলবো #ঘরে_থাকুন  এবং ইন্সটাফরেক্সের সাথে একসাথে আয় করুন।
      বিস্তারিতঃ

    • By ekhra
      একটা ব্রোকার সম্পর্কে ভালো একটা রিভিউ চাই, ফরেক্স টাইম ব্রোকারের সাথে  কাজ করছেন এমন কেউ কি আছেন এই প্লাটফর্মে ? থাকলে একটু অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন, লেনদেন স্বচ্ছতা , প্রসেস টাইম, ট্রাষ্ট লেভেল, ইত্যাদি যে সব বিষয় একটা ব্রোকার হিসেবে থাকা উচিৎ।

      ধন্যবাদ;
    • By Mhafiz™
      ট্রেড শুরু করার আগে অনেকেই একটি বিষয় নিয়ে খুব দুশ্চিন্তার মধ্যে পড়ে যায় তা হল কোন ব্রোকারে ট্রেড শুরু করবেন, কার ট্রান্সেকশন কত ভালো , টাকার নিরাপত্তা কি? এইগুলো ছাড়া ও আপনি অনেকভাবে স্ক্যাম এর স্বীকার হতে পারেন। যা হয়ত কখনোই আপনার চোখে পড়বে না, কিংবা আপনি বুঝতেই পারবেন না কিভাবে ব্রোকার স্ক্যাম করে। তাই বিষটি অনেক গুরুত্তের সাথেই দেখতে হবে এবং জেনে বুঝে ব্রোকার নির্বাচন করতে হবে।  
      সঠিক ব্রোকার নির্বাচন নিয়ে আগেও আমি পোস্ট করেছি, আবারো আরো কিছু তথ্য নিয়ে ব্রোকার সম্পর্কে লিখতে কারন বিষয়টি আমার কাছে খুব গুররুপুর্ন এবং ট্রেডার হিসেবে আপনিও সেটা বুঝতে পারছেন।
      ব্রোকার স্ক্যামঃ
      যে যত রকম সুবিধার কথা বলুক না কেন ভালো ব্রোকারের পাশাপাশি অনেক স্ক্যাম ব্রোকার ও রয়েছে যা প্রতিনিয়ত মনিটরিং বোর্ড নিয়ন্ত্রণ করছে এবং ব্ল্যাক লিস্টেট হচ্ছে, কিন্তু তারপর ও আপনার ব্যাক্তিগত সাবধানতার প্রয়োজন আছে। একটি বিষয় আমরা অনেক ক্ষেত্রেই ব্রোকার নির্বাচনে খুব বেশি নরজে নেই না তা হল, স্প্রেড সিস্টেম। সাধারণভাবে মেজর কারেন্সিতে স্প্রেড থাকে ২-৩ পিপস। কিন্তু স্ক্যাম ব্রোকারের প্রথম ফাঁদ হচ্ছে আস্ক/বিড স্প্রেড মেনুপুলেশন। যেখানে তারা ৭-৮ পিপস পর্যন্ত স্প্রেড সেট করে সুযোগ তৈরি করে। আর ৭-৮ পিপ্স বাদ দিয়ে আপনার প্রফিট কতটুকু আপনার অনুকুলে থাকবে তা ভালোই বুঝতে পারছেন। তবে এইসব ক্ষেত্রে রেগুলেটর বোর্ড এই রকম অনেক ব্রোকারকে ক্র্যাক করেছে।
      ব্রোকার রেগুলেশন এর ক্ষেত্রে সাধারণত দুটি বোর্ড ব্রোকারকে অথোরাইজ করে থাকে,
      U.S. Regulatory Agencies Foreign Regulatory Agencies  ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে আপনাকে উপরোক্ত অথোরিটি দ্বারা রেজিস্টার্ড ব্রোকার পছন্দ করতে হবে ট্রেডের ক্ষেত্রে। এই দুটি বোর্ড সব সময় ফ্রড এবং স্ক্যাম ব্রোকার কে খুজে বের করে তাদের কে ক্র্যাক করে থাকে। তবে, এটাও সত্যি যে আপনার পক্ষে রেগুলেটেড এবং আনরেগুলেটেড এর পার্থক্য বের করাটাও অনেক কঠিন একটা ব্যাপার। আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা হল যে রেগুলেটেড অথোরিটি সময় এবং বাজারের অবস্থার উপর ভিত্তি করে দরকার হলে কিছু নিতিমালার পরিবর্তন আনে যে গুলোর সাথে অনেক ব্রোকারই আপডেট থাকে না, আর যার কারন ব্রোকার আগের পলিসিতে কোন রকম স্ক্যাম করলে আপনার আর ক্ল্যাম করার কোন সুযোগ থাকে না।
      U.S. Regulatory Agencies
      এই রেগুলেশন বোর্ডের দুটি অথোরিটি হচ্ছে,
      Commodities Futures Trade Commission (CFTC)
      ব্রোকারের প্রথম রেগুলেশন হল CFTC এর অনুমোদ্ন। ১৯৭৪ সালে গঠিত এই বোর্ডটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, ফিউচার কমোডিটি মার্কেট তথা কারেন্সি মার্কেট সঠিকভাবে পরিচালনার নিতিনির্ধারক ফোরাম হিসেবে। এই প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য হচ্ছে ব্রোকার স্ক্যাম এবং ফ্রড থেকে ট্রেডারকে রক্ষা করা। তাই এই অথোরিটির অনুমোদনের মাধ্যমে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে আপনি সঠিক ব্রোকারে আছেন। আপনি চাইলে এই অথরিটির অফিসিয়াল অয়েব সাইটের মাধ্যমে সঠিক ব্রোকার লিস্ট দেখতে পারেনঃ  http://www.cftc.gov/index.htm

       এবং আপনার যদি কোন ব্রোকার সম্পর্কে কোন কমপ্লেন থাকে তাও জানাতে পারেনঃ http://www.cftc.gov/consumerprotection/redressreparations/index.htm
      National Futures Association (NFA)
      একই উদ্দেশ্যে এই বোর্ডটি প্রতিষ্ঠিত ১৯৮২ সালে, CFTC বোর্ডকে ব্রোকার বিগ ব্রাদার বলা হয়ে থাকে। আর NFA কে সেই হিসেবে লিটল বিগ ব্রাদার বলা হয়ে থাকে কারন CFTC এর তত্ত্বাবধানে NFA তার কার্যবিধি চালিয়ে থাকে। NFA মুলত ইন্ডাস্টি বিস্তৃত এবং ব্যাক্তিগতভাবে চালিত প্রতিষ্ঠানের রেগুলেশন নিয়ে কাজ করে। তাই এই দুটি অথরিটির রেগুলেশন আর মাধ্যমে সঠিক ব্রোকার নির্বাচনে আপনার কোন জটিলতা থাকে না।
      এই বোর্ড দ্বারা অনুমোদিত ব্রোকার সম্পর্কে জানতে পারেন আপনি তাদের অফিসিয়াল সাইট থেকেঃ http://www.nfa.futures.org/basicnet/

       USA এর বাইরের বেশিরভাগ ব্রোকার CFTC, USA রেগুলেশন নিয়ে অথোরাইড হয় না, তারা CFTC , NFA ছাড়াও অন্য কিছু  Foreign Regulatory Agencies এর মাধ্যমে রেগেলেটেড হয়ে থাকে।
      আগামি দিন আলোচনা করব ফরেন রেগুলেটরি এজেন্সি নিয়ে।
    • By Mhafiz™
      ফরেক্স ট্রেডিং এর অন্যতম গুরুত্তপুর্ন একটি বিষয় হল সঠিক একটি ব্রোকার নির্বাচন। ইতিমধ্যে অনেক ট্রেডার ব্রোকার নিয়ে অনেক সমস্যায় পড়েছেন কেউ কেউ না বুঝে ভালো ব্রোকার নির্বাচন করতে না পেরে  ইনভেস্ট নিয়ে সমস্যায় পড়ে গেছেন। আবার কাউকে দেখা গেছে ভালো ট্রেড করেও ব্রোকারের নানা রকম বেড়াজালে পড়ে টাকা উত্তোলন করতে পারছেন না ।  এই রকম উদহারন অনেক আছে।
       

       
      তাই আজকে আলোচনা করব সঠিক একটি ব্রোকার কিভাবে নির্বাচন করবেন এবং কিভাবে নিশ্চিত হবেন যে এই ব্রোকারের কাছে আপনার ইনভেস্টমেন্ট কতটুকু নিরাপদ কিংবা ইনভেস্টমেন্ট কতটুকু হওয়া উচিত ইত্যাদি ভিবিন্ন বিষয় নিয়ে।
       
      যেসব ব্রোকারে নিম্নের পয়েন্টস গুলো পাবেন সেই ব্রোকারে ট্রেড করা থেকে বিরত থাকুন।
       
      স্লিপেজঃ
      আপনি যে প্রাইসে ট্রেড ওপেন করতে চেয়েছেন এবং যে প্রাইসে ট্রেড ওপেন করতে পেরেছেন তার মধ্যবর্তী পার্থক্যই হল স্লিপেজ। এই ক্ষেত্রে আপনি কখনো ইন্সটেন্ট অর্ডারে একচুয়েল প্রাইসে ট্রেড ওপেন কিংবা ক্লোজ করতে পারবেন না। সলিড এবং নো ডিলিং ডেস্ক ব্রোকারে স্লিপেজ থাকে না।
       
      নতুন ব্রোকারঃ
      এটা বলছি না যে নতুন ব্রোকারে ট্রেড করা যাবে না, তবে অনেক নতুন ব্রোকার আছে যারা কয়েকমাস মার্কেটে একজিস্ট করে আপনার মূলধন নিয়ে গায়েব হয়ে যায় তেমনি একটি ব্রোকার হল Kiwifxbank তাই নতুন ব্রোকারে ইনভেস্টমেন্ট সচেতন হউন।
      নগদ ক্যাশ বা পণ্য ওফারঃ
      অনেক ব্রোকার নতুন লাইভ একাউন্ট খুলে কেশ পুরষ্কার সহ নানা রকম আকর্ষণীয় পণ্য যেমন আইফোন, এন্ড্রয়িড ইত্যাদি অফার করে প্রকৃতপক্ষে এইগুলো হল আপনাকে ইনভেস্ট করানোর এক একটি ফাঁদ। এই সব ব্রোকার থেকে সচেতন থাকুন।
      ফিস্কাল পেরাডাইসঃ
      যদি আপনার ব্রোকারটি ফিস্কাল পেরাডাইস টাইপের ব্রোকার হয়ে থাকে তাহলে ইনভেস্ট করার আগে কয়েকবার ভাবুন। যে আপনি যখন টাকা উত্তোলন করতে যাবেন বা  সরাসরি তাদের অফিস ভিজিট করতে যাবেন তাদের কাউকে আসলে সেখানে পাবেন তো !
      আননোউন অথোরিটিঃ
      ব্রোকার গুলো যখন মার্কেটে আসে তখন ন্যূনত্বম একটি অথোরিটি নিয়ে আসে তবে সেই ক্ষেত্রে ও কিছু বিষয় স্পষ্ট হতে হবে আপনাকে। যেমন ব্রোকারটি যে অথোরাইজড নাম্বার ব্যাবহার করছে সেটি আসলে তার কোম্পানির অথোনটিকেশন নাকি ভায়া। যেমন Kiwifxbank নামক ব্রোকারটি এই ধরনের একটি কাজ করেছিল তারা Vault Market Pvt নামক একটি প্রতিষ্ঠানের Sister Concern হয়ে Kiwifxbank নামে কাজ শুরু করেছিল কিন্তু প্রকৃতপক্ষে Kiwifxbank কোন অথোরাইজেশন ছিল না।
       
      আসুন এইবার জেনে নেয় একটি সলিড ব্রোকার কিভাবে নির্বাচন করবেন।
       রিভিউ/রেপুটেশনঃ
      একটি ব্রোকার যখন কাজ শুরু করে তখন ঐ ব্রোকারের ভালো/মন্দ, সুবিধা/অসুবিধা নিয়ে ফরেক্স বিসয়ক অনেক সাইটে লিখালিখি হয়। যেমন এই ব্রোকারটি কেমন, তার লেনদেন কতটা স্বচ্ছ, তার ভালো দিক কি এবং খারাপ দিকগুলোই কি কি , ইত্যাদি। ঐখানে ভিবিন্ন ট্রেডার উক্ত ব্রোকার সম্পর্কে তাদের নিজ নিজ মতামত লিখে যা আপনাকে সাহায্য করতে ঐ ব্রোকার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে। যখন অনেক ট্রেডার মতামত দেয় যে ব্রোকারটিতে স্লিপেজ আছে, রিকোট হয় কিংবা টাকা উত্তোলনে সমস্যা তখন ঐ ব্রোকারে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।
       
      সময়কালঃ
      সোজাভাবে ব্রোকারের বয়স যত বেশি ট্রেডিং এর ক্ষেত্রে সেই ব্রোকারে আপনার নির্ভরতা তত বেশি। প্রতি বছর অনেক ব্রোকার আসে যায়, তাই ব্রোকারটিকে স্টাডি করে দেখুন তার সময়কাল কত, মোটামুটি ৩ বছরের সময় ধরে যারা ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে তাদের ক্ষেত্রে পজেটিভ পারস্পেক্টিভে এগুতে পারেন।
       
      রেগুলেশনঃ
      আগেই বলেছি ব্রোকার রেগুলেশন খুব গুরুত্তপুর্ন একটি ফ্যাক্ট। ব্রোকার বাছাই ক্ষেত্রে দেখে নিন ন্যূনত্বম তার ঐ দেশীয় স্টক এক্সচেঞ্জ রেগুলেশন সহ ন্যাশনাল অথোরিটি আছে কি না। যেমন US ব্রোকারের ক্ষেত্রে দেখে নিন CFTC/NFA এবং UK ব্রোকারের ক্ষেত্রে FSA রেগুলেটেড কিনা।
      Virgin Islands রেগুলেটেড ব্রোকারে ট্রেড করাটা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না।
       
      হেডকোয়াটার লোকেশনঃ
      সলিড এবং রিয়েল ব্রোকার তাদের শারীরিক অস্তিত্ব নিয়ে ব্যবসা করে কারন এই প্রকার ফিনেনশিয়াল ব্যবসা ফিস্কাল পেরাডাইসে সম্ভব না। তাই ব্রোকারের অফিস লোকেশন নিশ্চিত হউন।
       
      ECN নাকি ডিলিং ডেস্ক/ মার্কেট মেকারঃ
      ব্রোকার সাধারণত দুপ্রকার, মার্কেট মেকার যারা আপনার প্রতিটি ট্রেডের বিপরীতে আরেকটি ট্রেড ওপেন করে এবং নিজেরা একটি মার্কেট তৈরি করে আপনাকে মুল মার্কেট বায়ার সেলার থেকে দূরে রেখে নিজেরা লাভবান হয়।
      আর ECN – Electronic Communication Network ব্রোকার হল রিয়েল ব্রোকার যারা মুলত সরাসরি বায়ার এবং সেলারকে কানেক্ট করে ট্রেড পরিচালনা করে।( ডিলিং ডেস্ক ব্রোকার এবং ECN ব্রোকার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমার এই পোস্টটি পড়ুন। )
       
      এছাড়া ও ব্রোকার স্প্রেড, কাস্টোমার সাপোর্ট সহ আরো কিছু খুটিনাটি বিষয় পরিস্কার জেনে ব্রোকার নির্বাচন করতে পারেন এবং ট্রেড শুরু করতে ।
       
    • By Fxtalha
      মেটাট্রেডার ৪ এবং ৫ এর মধ্যে মুল পার্থক্য কি ?
       
       
      Fxtalha
      Bijoynagar,Dhaka,1000