A H Royal

সঠিক ব্রোকার নির্বাচনের বিভিন্ন দিক বা নির্দেশনাসমুহ।

7 posts in this topic

একজন ট্রেডার হিসেবে আমরা সবাই চাই ভালো একটি ব্রোকার ট্রেড করতে, যে ব্রোকার কোনো প্রকার দুর্নীতি থাকবেনা, কিন্তু বেশীরভাগ ট্রেডার- যাচাই না করে পরিচিত জনের কথায় বা যেকোনো মাধ্যেমে হুট করেই লাইভ একাউন্ট করে ট্রেড শুরু করে এবং যে কোনো এক সময় এসে সে ব্রোকারের যাবতীয় দুর্নীতির খপ্পরে পড়ে নিঃস্ব হয়ে যায় বা যাবতীয় সমস্যার সম্মুখীন হয়এক্ষেত্রে আমি বলবো এটা সম্পূর্ণই আপনার দোষ, কারণ যে কোনো ব্রোকার ট্রেড করার আগে আপনাকে অবশ্যই সে ব্রোকারকে যাচাই করে নেওয়া উচিৎ হ্যাঁ বন্ধুরা আজকে আপনাদের সাথে কিভাবে একটি সঠিক ব্রোকার নির্বাচন করবেন তা নিয়েই আলোচনা করবো, যাতে করে কেউ কোনো দুর্নীতিগ্রস্থ  ব্রোকারের খপ্পরে না পড়েন

 

post-1088-0-78987100-1395687116_thumb.jp

 

তাহলে আসুন জেনে নেই কিভাবে সঠিক ব্রোকার নির্বাচন করবেনঃ

 

১. ব্রোকারটি রেগুলেটেড কি নাঃ ফরেক্স এ ট্রেড করার আগে আপনার পছন্দের ব্রোকারটি কোনো নিয়ন্ত্রন সংস্থা দ্বারা নিবন্ধিত কিনা সর্বপ্রথম অবশ্যই সেটা যাচাই করা উচিৎ। যেমন- যুক্তরাষ্ট ভিত্তিক National Futures Association (NFA), U.S. Commodity Futures Trading Commission (CFTC) বা United Kingdom এর  Financial Service Authority (FSA) দ্বারা নিয়ন্ত্রিত কিনা তা দেখে নিবেন। এই নিয়ন্ত্রন সংস্থাগুলো ছাড়াও অনেক ব্রোকার Hong Kong: SFC, Japan: FFAJ, Spain: CNMV, Sweden: FI, Switzerland: ARIF, FDF, GSCGI দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে। যদি আপানর পছন্দের ব্রোকারটি উপরোক্ত একটি সংস্থা দ্বারাও নিবন্ধিত না হয় তাহলে উক্ত ব্রোকার থেকে দূরে থাকুন। কারণ এ ধরণের ব্রোকার যে কোনো সময় আপনাকে নিঃস্ব করে দিতে পারে আর আপনার মূলধন এদের কাছে মোটেও নিরাপদ নয়।

 

আপনার ব্রোকারকে যাচাই করার জন্য এই লিংকগুলোতে যানঃ

NFA- National Futures Association www.nfa.futures.org/

CFTC- U.S. Commodity Futures Trading Commission  www.cftc.gov/

FSA- Financial Service Authority www.fsa.gov.uk/

 

২. লিভারেজ/লোনঃ ফরেক্স এ ট্রেড করার জন্য প্রতিটি ব্রোকার-ই লিভারেজ/লোন দিয়ে থাকে। যার পরিমাণ ১ঃ৫০-১ঃ১০০০ পর্যন্ত হয়ে থাকে। আপনার বাছাইকৃত ব্রোকারটি লিভারেজ/লোন সুবিধা দিচ্ছে কিনা এবং দিলে তা কি পরিমাণ তা জেনে নিন। তবে মনে রাখবেন যত বেশী লিভারেজ/লোন নিবেন ততোই আপনার জন্য খারাপ। কারণ লিভারেজ হলো দু-দিকে ধার যুক্ত তলোয়ারের ন্যায়।  

 

৩. স্প্রেড ও কমিশনঃ প্রতিটি ব্রোকার-ই ট্রেড এর বিনিময়ে তার গ্রাহক থেকে স্প্রেড বা কমিশন নিয়ে থাকে কারণ এটাই তাদের ইনকাম। তবে আপনাকে যাচাই করতে হবে যে আপনার নির্বাচিত ব্রোকারটি প্রতি লট ট্রেড এ কি পরিমাণ স্প্রেড/কমিশন নিয়ে থাকেন। আমরা জানি যে মেজর পেয়ার এ বেশীরভাগ ব্রোকার-ই ২-৩পিপ্স স্প্রেড নিয়ে থাকে। আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে ব্রোকার স্প্রেড যত কম হবে আপনার জন্য ততই ভাল হবে।

 

৪. সহজ বিনিয়োগ ও উত্তোলনের সুযোগঃ অর্থ বিনিয়োগ ও উত্তোলনের বেপারে প্রতিটি ব্রোকারের কিছু নির্দিষ্ট পথ ও নীতিমালা থাকে। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে আপনাকে অবশ্যই সেদিক বিবেচনা করে ব্রোকার নির্বাচন করতে হবে।

যেমনঃ

  • যে কোনো সময় সহজেই যেন ইলেক্ট্রোনিক মিডিয়ার মাধ্যেমে বিনিয়োগ ও উত্তোলন করা যায়।
  • ইন্টারন্যাশেনাল মাস্টার, ভিসা, ও ক্রেডিট কার্ড দিয়ে যেন বিনিয়োগ ও উত্তোলন করা যায়।
  • আমাদের দেশীয় ব্যাংকের মাধ্যেমে বিনিয়োগ ও উত্তোলন থাকলেও ভালো।
  • এবং দৈনিক উত্তোলনের পরিমাণ কত।

ব্রোকার নির্বাচনে এ সকল বিষয় অত্যন্ত জরুরী ভুমিকা রাখে।

 

৫. গ্রাহক সেবাঃ ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে অবশ্যই যাচাই করবেন যে, আপনার পছন্দের ব্রোকারটি সঠিক সময়ে সঠিক গ্রাহক সেবা দিচ্ছে কিনা। কারণ অনেক ট্রেডার তার সমস্যার কথা ব্রোকারকে জানালে তার উত্তর পেতে পেতে হয়ত কয়েকদিন লেগে যায়। যা একজন ট্রেডারের জন্য বিপদজনক কারণ আপনি হয়ত তার উত্তর পেতে পেতে অনেকটা সময় (ট্রেডেবল) বা অর্থ হারিয়ে পেলেছেন। 

 

৬. ট্রেডিং প্লাটফর্মঃ ফরেক্স মার্কেট এ ট্রেড করার জন্য প্রত্যেকটি ব্রোকারের ট্রেডিং প্লাটফর্ম থাকে, যে প্লাটফর্ম এর মাধ্যেমে ট্রেডার বাই, সেল, পেন্ডিং অর্ডার, অর্ডারগুলোকে মডিফাই ও ক্লোজ করতে পারে। এক্ষেত্রে আপনার পছন্দের ব্রোকারটি কোন ট্রেডিং প্লাটফর্ম এ ট্রেড করার সুযোগ দিচ্ছে তা যাচাই করে নিন।  

 

৭. হেজিং ও নিউজ ট্রেডঃ পৃথিবীর সকল ট্রেডার-ই হেজিং ও নিউজ ট্রেড করে থাকেন। এ ধরণের ট্রেড এর ক্ষেত্রে অনেক ব্রোকার নিয়ম জুড়ে দেয়। ব্রোকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে অবশ্যই এ ধরণের ট্রেড এর উপর কোনো প্রকার নিয়ম বা নিষেধাজ্ঞা আছে কিনা তা দেখে নিবেন। নতুবা আপনি পরে ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন।

 

৮. ডেমো একাউন্ট এ ট্রেডঃ প্রতিটি ব্রোকার-ই গ্রাহকদের চর্চার জন্য ডেমো একাউন্ট এ ট্রেড করার সুবিধা রেখেছে, আপনি আপনার পছন্দের ব্রোকার এ লাইভ ট্রেড করার পূর্বে ডেমোতে চর্চা করে যাচাই করে নিন বা আপনার পছন্দের ব্রোকার ও অন্য একটি ব্রোকার এ একই সাথে ট্রেড করে যাচাই করে নিন যে আপনার পছন্দের ব্রোকারটির সাথে অন্য ব্রোকারের মুভমেন্ট ও পিপ্স মুল্যে একই কিনা।

 

৯. বিভিন্ন ধরণের একাউন্টঃ ফরেক্স মার্কেট এর ব্রোকারগুলো তাদের গ্রাহকদের সুবিধার জন্য বিভিন্ন ধরণের ৪ও৫ ডিজিট এর একাউন্ট রেখেছেন। যেমনঃ স্ট্যান্ডার্ড একাউন্ট, মিনি একাউন্ট ও মাইক্রো একাউন্ট। আপনার পছন্দের ব্রোকার এ আপনার পছন্দের একাউন্ট টাইপ বা একাধিক ধরণের একাউন্ট পলিসি আছে কিনা তা জেনে নিন। যেন পরবর্তীতে আপনি চাইলে আপনার পছন্দমত একাউন্ট এ ট্রেড করতে পারেন। 

 

১০. অন্যান্যঃ সঠিক ব্রোকার নির্বাচন এর জন্য উপরোক্ত পয়েন্টগুলো ছাড়াও আরো কিছু পয়েন্ট আছে সেগুলো হলঃ

  • আপনার পছন্দের ব্রোকারটি কত বছর ধরে ব্যবসা করছে।
  • এই ব্রোকারটি কোন দেশের এবং কে বা কারা পরিচালনা করে ও তাদের অভিজ্ঞতাই বা কেমন।
  • উক্ত ব্রোকারটির সাথে কোন কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও ব্যাংকের ভাল ব্যবসায়িক সম্পর্ক আছে কিনা।
  • আপনার পছন্দের ব্রোকারে কি পরিমাণ ট্রেডার ট্রেড করে ও উক্ত ব্রোকারে মাসে কত ভলিউম ট্রেড হয়ে থাকে।
  • আপনি যদি আপনার ট্রেডটি একদিনের বেশী বা কয়েকদিন রেখে দিতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার পছন্দের ব্রোকারটির রোলওভার নীতি কি?
  • আপনার পছন্দের ব্রোকারটি মাল্টি ট্রেড করার সুবিধা রেখেছে কিনা। যেমন- একই পেয়ার এ একই সময়ে একাধিক বাই ও সেল এর সুযোগ আছে কিনা।

 

post-1088-0-75449600-1395687231_thumb.jp

 

ফরেক্স ট্রেড করার ক্ষেত্রে একটি ব্রোকার নির্বাচনের জন্য উপরোক্ত বিষয়গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। উপরোক্ত বিষয়গুলো যাচাই করে যদি দেখেন যে আপনার পছন্দের ব্রোকারটি সবদিক দিয়ে ঠিক আছে তবেই আপনি সে ব্রোকার এ ট্রেড করতে পারেন। আর একাউন্ট ওপেন করার সময় ঐই ব্রোকার এর নীতিমালাগুলো অবশ্যই পড়ে নিবেন যেন কোনো লুকানো নিয়ম নীতি আপনাকে পরবর্তীতে ঠকাতে বা ঠেকাতে না পারে।

 

ধন্যবাদ সবাইকে।

 


 

 

A H Royal and InstaForex SUSH like this

Share this post


Link to post
Share on other sites

প্রিয় সদস্য পোস্টের ক্ষেত্রে তথ্যবহুল হউন, অযথা লিঙ্ক ব্যাবহার থেকে বিরত থাকুন। ধন্যবাদ। 

InstaForex SUSH likes this

Share this post


Link to post
Share on other sites

সব ব্রোকারের থেকে ইন্সটা ফরেক্স ব্রোকারের সুযোগ-সুবিধা বেশি.............

regulation na thakle to sujog subidha beshi dibei aitai normal.amar liberty reserve dia deposit kora dollar insta theke r tulte dilona..aita akta chor broker.

Share this post


Link to post
Share on other sites

প্রিয় সদস্য পোস্টের ক্ষেত্রে তথ্যবহুল হউন, অযথা লিঙ্ক ব্যাবহার থেকে বিরত থাকুন। ধন্যবাদ। 

ভাই দুঃখিত, এই পোস্টটি পুনরায় দিচ্ছি..

প্রিয় ট্রেডারগণ,  সব ব্রোকারের থেকে ইন্সটা ফরেক্স ব্রোকারের সুযোগ-সুবিধা বেশি.........

আমার মনে হয় সবাই এক বাক্যে এটা মেনে নিবে

সুযোগ-সুবিধাগুলো নিচে দেওয়া হল।

০১-  রেগুলেশন:  রাশিয়ান ফেডারেল ফাইন্যান্সিয়াল মার্কেটস সার্ভিস দ্বারা রেগুলেটেড। 

০২-  লিভারেজ:  আপনি ১:১ থেকে ১:১০০০ যেকোন লিভারেজ নির্বাচন করতে পারেন। 

০৩-  স্প্রেড ছাড়া ফরেক্স ট্রেডিং: অর্থ বাজারে কাজ করার জন্য এখন আপনার আর স্প্রেড প্রয়োজন হবে না! 

০৪-  নির্দিষ্ট স্প্রেড: খবর প্রকাশের সাথে আমরা স্প্রেড বাড়ে না, তাই ব্যবসায়ীরা সম্পূর্ণরুপে নিশ্চিত হতে পারে যে হঠাৎ স্পাইক কোন অস্থিতিস্থাপক মুনাফা তৈরি করে না।

০৫-  ট্রেডিং প্লাটফর্ম: কোম্পানির প্রত্যেক গ্রাহক মোবাইল প্লাটফর্ম, ওয়েব প্লাটফর্ম, মেটাট্রেডার ৪ এবং মেটাট্রেডার ৫ প্লাটফর্ম ডাইনলোড করতে পারবে। এটাও মনে রাখা  উচিত যে,  এমটি৫ লাইভ ট্রেডিং অ্যাকাউন্ট প্রবর্তনের ক্ষেত্রে ইন্সটাফরেক্স বিশ্বের প্রথম কোম্পানি।

০৬- ফরেক্স ট্রেডিং এর উপকরণসমূহ: ১০৭ টি মুদ্রা জোড়ার সাথে কাজ করা, আমেরিকার শেয়ারের উপর ৩৪ টি সিএফডি এবং স্বর্ণ লেনদেনের পাশাপশি  কোম্পানিটি ইসিএন ব্রোকার সেবা প্রদান করছে।

০৭-  ট্রেডিং সার্ভার: ৮ টি ট্রেডিং সার্ভার এবং ৫০ টি তথ্য কেন্দ্রের মালিক, যা ট্রেডিং লোড বণ্টন করে দেয়, ফলে দ্রুত কাজ হয়। 

০৮-  সেগরিগেটেড অ্যাকাউন্ট: গ্রাহকদের অ্যাকাউন্টকে সুরক্ষা প্রদান করার জন্য সেগরিগেটেড অ্যাকাউন্ট। 

০৯-  অ্যাকাউন্টে অর্থ জমাকরণ: গ্রাহকদের তাদের অ্যাকাউন্টে অর্থ জমা করার বিভিন্ন পদ্ধতির সুযোগ দিচ্ছি - ইলেক্ট্রনিক পেমেন্ট পদ্ধতি থেকে শুরু করে ওয়্যার ট্রান্সফার।

১০-  মূলধনের পরিমাণ: আপনি যেকোন পরিমাণ তহবিল নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারেন - ১ ইউএসডি অথবা ১০০,০০০ ইউএসডি।

১১- ফরেক্সকপি পদ্ধতি: এই পদ্ধতিতে একজন ফরেক্স ব্যবসায়ী অন্য একজন ফরেক্স ব্যবসায়ীর ব্যবসা যথাসময়ে অনুসরণ করে।

১২- পি.এ.এম.এম পদ্ধতি: পিএএমএম অ্যাকাউন্ট হচ্ছে সমষ্টিগত বিনিয়োগ যার ফলে ইন্সটাফরেক্স কোম্পানির প্রত্যেক গ্রাহক অন্য ব্যবসায়ীর কাছ থেকে বিনিয়োগ গ্রহণ করতে পারে অথবা অন্যজনের অ্যাকাউন্টে তহবিল বিনিয়োগ করে অ্যাকাউন্টের অংশীদার হতে পারে।

১৩- ফরেক্স অপশন পদ্ধতিআপনার ঝুঁকি অপশন মূল্য দ্বারা সীমাবদ্ধ। মুনাফাও বেশি কেননা মুনাফা গণনা করা হয় অপশন মূল্যকে ১.৮ দ্বারা গুন করে। 

১৪- সবচেয়ে ভাল সোয়াপ: মুনাফা অর্জনের গতানুগতিক পদ্ধতি বাদ দিয়ে গ্রাহকদেরকে প্রতিযোগিতামূলক সোয়াপ এর সুবিধা প্রদান করছে। ক্রয় লেনদেনের সোয়াপ এবং বিক্রয় লেনদেনের সোয়াপ সমপরিমাণ।কোম্পানি সোয়াপের জন্য কোন কমিশন গ্রহণ করে না, তাই, গ্রাহক লেনদেন কয়েক ঘন্টা বেশি খোলা রাখলেও অতিরিক্ত অর্থ পরিশোধ করে না- বিশেষকরে, যখন মুদ্রা উপকরণের উপর খোলা পজিশন মধ্য রাতে খোলা থাকে।

১৫- ইন্সটাফরেক্স মাস্টারকার্ড: পৃথিবীর যেকোন ক্যাশ ডিসপেনসারে গ্রাহকগণ তাদের অ্যাকাউন্ট হতে ইন্সটাফরেক্স মাস্টারকার্ডে অর্থ উত্তোলন করতে পারে।

১৬- ট্রেডারদের নিরাপত্তা: ট্রেডারদের সুরক্ষার জন্য ইন্সটাফরেক্স তার সকল গ্রাহকদের পরামর্শ প্রদান করে এবং সম্পদ সুরক্ষার লক্ষ্যে একটি বিশ্লেষন কার্যক্রম পরিচালনা করে।

১৭- ৫% বার্ষিক সুদ: ৫% বার্ষিক সুদ সকল অ্যাকাউন্টকে দেওয়া হয়।

১৮- ইসলামিক অ্যাকাউন্ট:  ইসলাম ধর্মে সুদ গ্রহন করা নিষেধ। তাই ঐ সব ব্যবসায়ীদের জন্য যাদের ট্রেডিং পদ্ধতির মধ্যে সুদ বিবেচ্য নয়। এক্ষেত্রে, সুদ-মুক্ত অ্যাকাউন্টকে ইসলামিক অ্যাকাউন্ট বলা হয়।

১৯- ইন্সটাফরেক্স বোনাস: ইন্সটাফরেক্স কোম্পানি এর গ্রাহকদেরকে তাদের অ্যাকাউন্টে ৩০% ওয়েলকাম বোনাস সহ সবসময়ই বিভিন্ন ধরনের বোনাস গ্রহণের সুবিধা দেয়। নো ডিপোজিট বোনাসও...

২০- প্রতিযেগিতা ও পুরুস্কার: ইন্সটাফরেক্স কোম্পানি নিয়মিতভাবে মাসিক এবং সাপ্তাহিক অসংখ্য প্রতিযোগিতা এবং প্রচারাভিজান পরিচালনা করে, বলে শেষ করা যাবে না।

২১- আর্থিক প্রদর্শনীসমূহ: ইন্সটাফরেক্স কোম্পানি সারা বিশ্বের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীগুলোতে অংশগ্রহণ করে। বিভিন্ন দেশের রাজধানীতে অনুষ্ঠিত হওয়া প্রদর্শনীগুলোতে ইন্সটাফরেক্সের প্রতিনিধিদের সাথে আপনার সাক্ষাৎ করার সুযোগ রয়েছে।

২২- ইন্সটাফরেক্স বোনাস পয়েন্ট: ইন্সটাফরেক্স ব্রান্ড স্টোরে ইন্সটাফরেক্স গ্রাহকগণ তাদের ক্রয় খরচের সর্বোচ্চ ৫০% ইন্সটাফরেক্স বোনাস পয়েন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারে।

২৩- ফরেক্স বিশ্লেষণ: পর্যালোচনা, দিনপঞ্জিকা, সংবাদ এবং ফরেক্স টিভির মাধ্যমে ফরেক্স বাজারের তথ্য এবং ভবিষ্যৎ বাজার পরিস্থিতি সম্পর্কে পেশাদারী পূর্বাভাস থাকার কারনে, আপনি সবসময়েই বাজারের সর্বশেষ অবস্থার  সাথে যুক্ত থাকবেন।

২৪- ইন্সটাফরেক্স ফিউচার: মৌলিক সম্পদের  ঝুঁকি কমানোর লক্ষ্যে ফিউচার লেনদেন তৈরি করা হয়েছে।  প্রতিদিন হাজারো ট্রেডাররা  পণ্য কিনছে কম দামে এবং বিক্রি করছে বেশি দামে । 

২৫-  গ্রাহক সেবার মান: আপনি একটি ডেমো অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করলেও আপনার সকল প্রশ্নের বিশেষজ্ঞ পরামর্শ পেতে পারেন যতক্ষণ না পর্যন্ত আপনি লাইভ অ্যাকাউন্টে কাজ করার জন্য যথেষ্ট অভিজ্ঞ হন। তাই বলা চলে গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ করার সময় সবধরনের সহায়তা বা সেবা  অত্যান্ত  ভদ্রতার সাথে পরিবেশন করে। 

২৬- ইন্সটাফরেক্স অফিসসমূহ: সারা বিশ্বব্যাপী এখন ইন্সটাফরেক্স কোম্পানির ২২০ টি অফিস রয়েছে। আপনার প্রত্যাশিত অফিস, হাতের নাগালেই পাবেন।

২৭-  এমটি৫.কম পোর্টাল: এমটি৫ হল একটি আন্তর্জাতিক অনলাইন প্লাটফর্ম, যা সকল ব্যবসায়ীদের জন্য প্রদানকৃত বিভিন্ন ধরণের সেবা, বিভিন্ন উপকরণ সুবিধা এবং ফরেক্স  অন্যান্য অর্থ বাজারের ব্যবসায়ীদের ব্যবসা সম্পর্কিত সমসাময়িক তথ্য প্রদানের মাধ্যমে প্রত্যেক ব্যবসায়ীকে উচ্চতর পেশাদারী স্তরে পৌছে দেওয়া।

২৮-  ট্রেডিং অ্যাকাউন্টে ব্যাংক-স্তরের নিরাপত্তা: এসএমএস পাসওয়ার্ড সেবা সক্ষম করার মাধ্যমে প্রত্যেক গ্রাহক তার ট্রেডিং অ্যাকাউন্টকে হ্যাকিং থেকে নিরাপত্তা দিতে পারবে।

 

২৯-  ভিআইপি এফিলিয়েট কার্যক্রম: ইন্সটাফরেক্সের প্রত্যেক অংশীদার ভিআইপি এফিলিয়েট কার্যক্রমে আবেদন করতে পারে এবং গতানুগতিক এফিলিয়েট কার্যক্রমের তুলনায় অধিক সুবিধা গ্রহণ করতে পারে

বিশ্বাস না হলে, অনুগ্রহ করে এই লিংকটি দেখুন 

সবাইকে ধন্যবাদ

Mhafiz™ likes this

Share this post


Link to post
Share on other sites

ব্রোকার নির্বাচন খুব গুরুত্বপূর্ন একটা ব্যাপার । ট্রেড শুরু করার আগে অবশ্যআপনাকে বিশ্বস্ত নির্ভরযোগ্য ভালো ব্রোকার বেছে নিয়ে সেই ব্রোকারে ট্রেড করতে হবে । সঠিক ব্রোকার নির্বাচনের কিছু দিক আছে যেমন- ব্রোকারটি ই. ইউ রেগুলেটেড কিনা, ব্রোকারের বয়স কত, স্প্রেড কম, ডিপেজিট ও অর্থ উত্তোলনে সময় নেয় কত ও কমিশন বেশি কাটে কিনা, ব্রোকারের খারাপ দিকগুলো কি জানতে হবে , ব্রোকারের জনপ্রিয়তা কেমন ও এর সদস্য সংখ্যা কত, MT4 ট্রেডিং সার্ভারের গতি কেমন, যে কোনো সমস্যাতে ব্রোকারের রিপ্রেজিনটিভরা দ্রুত সেবা দেয় কিনা এই সমস্ত বিষয়গুলি দেখতে হবে তারপর সিদ্ধান্ত নিতে হবে কোন ব্রোকার এ ট্রেড করবেন ।

Share this post


Link to post
Share on other sites

ফরেক্স মার্কেট ইনভেষ্ট করার আগে অবশ্যয় দেখতে হবে যে ব্রোকার নির্ভর যোগ্য কি না ? নির্ভর যোগ্যাটা নির্ভর করে ক্লাইন্ট কে কেমন সেবা দিচ্ছে এবং পেমেন্ট ভাল ভাবে করে কি না ? সেবার মান ভাল থাকলে সেই ব্রোকারকে আমি ভাল মনে করি। তাছাড়া দেখতে হবে  রেগুলেটেড কি না? আমি এই সর্ত গুলা দেখে সেই ব্রোকার একাউ্ন্ট ওপেন করবআমি মনে করি সকল ট্রেডারের জন্য ব্রোকার নির্বাচন বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ প্রত্যেকটি ট্রেডারের মূলধনই জমা থাকে ব্রোকারগুলোতে। আর আমার মতে ভালো ব্রোকার খুজে বের করা তেমন একটা কঠিন কাজ নয় কারণ ব্রোকার নির্বাচন করতে হলে আপনাকে গুগলে সার্চ করলেই আপনার কাঙিক্ষত ব্রোকারগুলো লিস্ট পেয়ে যাবেন। কোনটা নকল ব্রোকার আর কোনটা আসল ব্রোকার তা নিজেই বুঝতে পারবেনফরেক্স ব্রোকার নির্বাচন খুব গুরুত্বপূর্ণ কাজ। আপনাকে অবশ্যই একটা ভাল ব্রোকার নির্বাচন না করতে পারলে আপনার অনেক ক্ষতি হতে পারে। ব্রোকার এর regulation , registration reputation এই গুলো ভাল করে দেখে তারপর তাকে নির্বাচন করা উচিত আমি মনে করি ব্রোকার নির্বাচন বিষয়টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কারণ আপনি যদি ভালো ব্রোকার নির্বাচন না করতে পারেন তাহলে আপনি যখন তখন টাকা উত্তোলন করার সময় বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে তাই আমি এই বিষয়টাকে খুবই গুরুত্বসহকারে দেখি। যেহেতু এখানে মূলধনের বিনিয়োগের বিষয় তাই সতকর্তার সাথে ব্রোকার নির্বাচন করা উচিত। তবে আপনি ইচ্ছা করলে অনলাইনে খোজ করলে বিশ্বের একনম্বর ব্রোকারগুলোর নাম পাবেন আপনি সেইগুলোতে বিনিয়োগ করতে পারেন আমি মনে করিআমার সকল টাকা আমি ইনভেষ্ট করতে যাচ্ছি আমার আগে জানা দরকার তারা কি রেগুলেটেড ব্রোকার নাকি কারন ইদানীং কিছু বেঙের ছাতার মত ব্রোকার গজিয়ে উঠেছে যারা শুধু মার্কেটিং আর তাদের ক্লায়েন্ট দের টাকা নিয়ে নেয় আমরা ফরেক্স ইনভেস্ট করব ব্রোকারের মাধ্যমে।সুতারাং ব্রোকার যদি ঠিক না হয়,তাহলে আমাদের সব ইনভেস্ট পানিতে যাবে।ভালো ব্রোকার আপনার ফান্ডের নিশ্চয়তা অনেকখানি বাড়িয়ে দেয়আমার জীবনের শেষ সম্বলটুকু আমি সেচ্ছায় নষ্ট হতে দিতে পারিনা। আমাকে অবশ্যই দেখতে হবে কোন ব্রোকার কি কি সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। বিশেষ করে কাদের লেনদেন কি রকম। টাকা ইন আউটে কি কি নিয়মকানুন মেনে চলতে হয়। কত টাকা চার্জ কাটেব্রোকার সিলেকশন করার ক্ষেত্রে আমাদের কে গুরুত্বপুর্ন ভাবে দেখতে হবে কারন এখন অনেক ব্রোকার আছে যারা ক্লায়েন্টদের সাথে প্রতারণা করছ । তাই এসব দিক থেকে বিবেচনা করলে দেখা যায় আমি দেখেছি যে Exness Broker খুব ভালো সেবা দেয় সপ্তাহে 7 দিন 24 ঘন্টা তারা তাদের ক্লায়েন্টদের দ্রুত সেবা দেয় ও Instant Withdraw and Deposit এ কোনো কমিশন কাটেনা তারা অনেক বছর সুনামের সাথে ব্যাবসা করে আসছে । তারা সম্পূর্ন রেগুলেটেড ব্রোকার । খুবই বিশ্বস্ত ও আস্হাশীল । তাই আমি শুধু এই Exness Broker সাথেই দীর্ঘ অনেক বছর আছি ।আমি 100% সন্তুষ্ট এই ব্রোকারের বিষয়ে ।

Share this post


Link to post
Share on other sites

টপিকটিতে মন্তব্য করতে সাইন ইন করুন অথবা নতুন একাউন্ট করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই মেম্বার হতে হবে

একাউন্ট করুন

খুব সহজে একাউন্ট করুন


নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

সাইন ইন

ইতিমধ্যে একাউন্ট করেছেন ? সাইন ইন করুন


এখনি সাইন ইন করুন

  • Similar Content

    • By A H Royal
      বন্ধুরা, স্ক্যাল্পিং সম্পর্কে সবাই কম বেশী জানেন, তারপর ও আর একটু ধারনা দিই- স্বল্প সময়ে একাধিক বার স্বল্প পিপস প্রফিট/লস এ ট্রেড করার মানেই হল স্ক্যাল্পিং। স্ক্যাল্পিং ট্রেড এ প্রফিট/লস খুব কম হলেও এটা সারা বিশ্ব জুড়েই জনপ্রিয় এবং এজন্যই বিশ্বের অনেক ট্রেডারই স্ক্যাল্পিং করতে ভালোবাসেন। তবে অনেক নতুন ট্রেডার অভিজ্ঞতার অভাবে স্ক্যাল্পিং করতে গিয়ে সর্বস্বান্ত হয়। তাই আজকে আপনাদের সাথে স্ক্যাল্পিং ট্রেড নিয়ে কিছু আলোচনা শেয়ার করবো।
       
      স্ক্যাল্পিং এর সুবিধাসমূহঃ
      স্বল্প টাইম ফ্রেম এ প্রত্যেক ক্যান্ডেল পর পর ট্রেড ওপেন করে প্রফিট নেয়া যায়।   স্বল্প সময়ে লাভ/লস নির্ধারণ হয় বলে লাভ/লস এর জন্য অধিক সময় বা দিন অপেক্ষা করতে হয়না। মার্কেট এ বিশাল মুবমেন্ট না থাকলেও একাধিক বার স্ক্যাল্পিং করে দৈনিক মোটামুটি ভালো পিপস লাভ করা যায়। একাধিক বার ট্রেড করে লাভ শূন্যতে (ব্রোকার স্প্রেড দিয়ে) আসলে ট্রেড ক্লোজ করে নিজের এ্যাপিলিয়েট এ ভাল কমিশন নেয়া যায়। নরমাল ট্রেডিং স্টাইল এ যা সম্ভব নয়। উদাহরণস্বরূপ-আপনি আপনার ১০০০$ এর একাউন্ট এ নরমালি দৈনিক ১-৩ভলিউম ট্রেড ওপেন এবং ক্লোজ করেন আর যদি স্ক্যাল্পিং করেন তাহলে ১০-২০ভলিউম করতে পারবেন কারণ আপনি যখন স্ক্যাল্পিং করবেন তখন আপনি ৩-৫পিপস এর বেশী লাভের চিন্তা করবেন না। স্ক্যাল্পিং করলে আপনাকে সারাদিন ট্রেড এ সময় দিতে হবে না। এ রকম আরো সুবিধা আছে যা এখন হয়তো আমার নলেজ এ আসছে না।
       
      স্ক্যাল্পিং এর অসুবিধাঃ
      আমার দেখামতে, স্ক্যাল্পিং এর সবচেয়ে বড় অসুবিধা হল-স্টফ লস ছাড়া যারা স্ক্যাল্পিং করেন তারা হুট করে বিশাল লস এর সম্মুখীন হন। দু-একটি ট্রেড এ প্রফিট নেয়ার পর ট্রেড এর প্রতি ওভার-কনফিডেন্স চলে আসা। যা একাধিক ট্রেডার এর ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে। যার ফলাফল পরবর্তীতে খারাপ হয়। নিজের এ্যাপিলিয়েট এ কমিশন নেয়ার জন্য একসাথে অনেক বড় ভলিউম এ ট্রেড ওপেন করে নিজের একাউন্টকে ঝুঁকির দিকে নিয়ে যাওয়া। উপরের সুবিধা ও অসুবিধাগুলো পড়ে এতক্ষণে অবশ্যই বুঝতে আপনার কষ্ট হয়নি যে, স্ক্যাল্পিং এ অসুবিধাগুলো আমরা নিজেরাই তৈরি করি যা আমাদের করা উচিৎ নয়। তাহলে বুঝতেই পারছেন যে স্ক্যাল্পিং এ সুবিধাই বেশী।
       
      যেহেতু স্ক্যাল্পিং এ সুবিধা বেশী সেহেতু আপনারা কিভাবে স্ক্যাল্পিং করবেন আমার এ ছোট্ট অভিজ্ঞতা থেকে তাই বলিঃ
      ১৫/৩০ মিনিট টাইম ফ্রেম বাঁচাই করুন। বা আরো স্বল্প ও নির্দিষ্ট একটি টাইম ফ্রেম বাছাই করুন যে টাইম ফ্রেম এ আপনি সহজেই এনালাইসিস করে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।   ব্রোকার স্প্রেড কম এমন যেকোনো একটি (মেজর) পেয়ার বাঁচাই করুন। পেয়ারটিতে যেন সারাদিনে গড়ে অন্তত ৩০পিপস মুভমেন্ট থাকে। যেমনঃ EURUSD, GBPUSD. চার্ট পরিস্কার রাখুন, যেন সব কিছু পরিস্কার দেখতে পান। তবে এজন্য আপনি ফ্রেক্টাল, প্যারাবলিক এ ধরনের ইন্ডিকেটর ব্যবহার করতে পারেন। তবে সব সময় আগে নিজের এনালাইসিসকে গুরুত্ব দিন। আপনার বাছাইকৃত টাইম ফ্রেম এ একটি ক্যান্ডেল শেষ হলেই ট্রেড এর সিদ্ধান্ত নিন। ট্রেড ওপেন করার আগে লক্ষ রাখবেন যে বিগত ক্যান্ডেল্-টির আঁকার যেন নুন্যতম ৫পিপস হয়। টেক-প্রফিটঃ ৩-১০ পিপস টেক প্রফিট দিন। বা আপনি আপনার এনালাইসিস মতে দিন।  তবে আমার মতে, স্ক্যাল্পিং এর ক্ষেত্রে ৩-৫পিপস প্রফিট আসলে আরো প্রফিট এর অপেক্ষা না করাই ভালো। স্টফ লসঃ আপনি যে ক্যান্ডেল এ ট্রেড ওপেন করেছেন বাই এর ক্ষেত্রে তার আগের ক্যান্ডেল লো এর ৩পিপস নিচে ও সেল এর ক্ষেত্রে  আগের ক্যান্ডেল হাই এর ৩পিপস উপরে দিন। আর যদি কেউ স্টফ লস ছাড়া স্ক্যাল্পিং ট্রেড করে থাকেন তাহলে ট্রেন্ড লাইন কে বেশী গুরুত্ব দিয়ে ট্রেড ওপেন করবেন। নতুবা দুর্ভাগ্যবশতঃ একাউন্ট এর অকাল মৃত্যুই আপনার প্রাপ্য হতে পারে। যেকোনো নিউজ পাবলিশ আওয়ার এ স্ক্যাল্পিং ট্রেড থেকে বিরত থাকা ভালো। আর অবশ্যই মানি ম্যানেজমেন্ট করে স্ক্যাল্পিং ট্রেড করবেন তা না হলে  ৫টি ট্রেড করে যা আয় করবেন ১ট্রেডেই হয়তো তার বেশী লস দিবেন। স্ক্যাল্পিং ট্রেড এর একটি চিত্র দেওয়া হলঃ
       

       
       
      ট্রেডপ্রিয় বন্ধুরা, স্ক্যাল্পিং সম্পর্কে আমি যতটুকু জানি চেষ্টা করেছি আপনাদের সাথে ভালোভাবে ততটুকু শেয়ার করার, তবে হয়তো ভালো করে গুচিয়ে বলতে পারিনি। ভুল হলে কমেন্ট এর মাধ্যমে জানাবেন শুধরাবার চেষ্টা করবো আর স্ক্যাল্পিং ট্রেড সম্পর্কে আপনার আইডিয়া গুলো আমাদের সাথে শেয়ার করবেন। মনে রাখবেন আপনার ছোট্ট আইডিয়া থেকে হয়তো কারো অনেক বড় উপকার হতে পারে।
       
      ধন্যবাদ সবাইকে।
    • By Mhafiz™
      যারা ফরেক্স প্রফেশনালি ব্যবসা করতে চাইছেন এবং একটা প্ল্যাটফর্ম তৈরির কথা ভাবছেন;
      ********************* তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি ************************
      বাংলাদেশের জনপ্রিয় এবং Established ফরেক্স প্রফেশনাল ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম www.bdforexpro.com’ তার সমস্থ এসেট তথা কনটেন্ট Copyright সত্ত্ব সহ সকল সোশ্যাল Presence বিক্রয় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে; তাই ব্যবসা করতে আগ্রহি নিম্নলিখিত সুবিধায় যারা উক্ত রেডি প্ল্যাটফর্মটি ক্রয় করতে আগ্রহি শুধুমাত্র তারাই যোগাযোগ করুন;

      ************* বিডিফরেক্সপ্রো’র বর্তমান Line up *******************
      ১। কমার্শিয়াল লাইসেন্স প্ল্যাটফর্ম তাই সম্পুর্ন নিরাপদ; 
      ২। প্লাটফর্মে ব্যবহারিত সকল প্লাগিন,এক্সটেনশন Genuine Core Purchase. 
      ৩। বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ফরেক্স লার্নিং কোর্স 'ফরেক্স বিগেনার টু প্রো' বই বিশাল কনটেন্ট সত্ত্ব;
      ৪। ৪০০০ ইউনিক ফরেক্স কন্টেন্ট।
      ৫। ৪৩০০+  রেজিস্টার মেম্বার মোবাইল নাম্বার সহ।
      ৬। বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ফরেক্স লার্নিং সম্পুর্ন বই কন্টেন্ট সত্ত্ব।
      ৭। Facebook, Google,YouTube, Skype & Twitter এর ব্র্যান্ডিং Existence;
      ------- https://www.facebook.com/bdforexpro/
      ------- https://www.facebook.com/groups/bdforexpro/
      ------- https://plus.google.com/+bdforexpro
      ------- https://www.youtube.com/c/bdforexpro
      ------- https://twitter.com/bdforexpro & Skype: bdforexpro (a large number of contacts)
      ৮। ৬ বছর লাইভ মার্কেটে পরিচালিত.
      ৯। Google, Bing, Yahoo ইন্ডেক্স - পেইজ # ১ 
      ১০। 9K+ Organic Facebook Fan page
      ১১। Bdforexpro এর আরেকটি কনসার্ন banglaforexacademy.com ও দেওয়া হবে;
      ------ https://www.facebook.com/banglaforexacademy/
      ১২। এবং অন্যান্য;
      পর্যাপ্ত সময়ের অভাবে পরিচালনায় অপারগ তাই প্ল্যাটফর্মটি বিক্রির সিদ্ধান্ত; যারা এই ফিল্ডে আছেন তারা জানেন এই রকম একটি প্ল্যাটফর্ম থেকে কি ব্যবসা হতে পারে; তারপর ও সুবিধার জন্য বলছি পর্যাপ্ত সময় এবং মেধার ব্যবহারে প্রতিমাসে ন্যূনত্বম ১০০০+ ডলার এবং সর্বচ্চ আনলিমিটেড ব্যবসার সুযোগ রয়েছে; প্রয়োজনে আর্নিং সম্পর্কে বিস্তারিত গাইড করা হবে;
      প্রাইস এইখানে বলব না, ভালো বাজেটের একটা প্রফেশনাল প্রডাক্ট হিসেবে যারা আগ্রহি শুধুমাত্র তারাই যোগাযোগ করুন; 01625343040
      ধন্যবাদ;
    • By MohabbatElahi

      ফরেক্স উম্মাদনা বনাম বাংলাদেশী ট্রেডারদের ভবিষ্যৎ শংকা
      ডাক-ঢোল পিটিয়ে দেশের বিভিন্ন শহরের নামীদামী হোটেল ও রেস্টুরেন্ট গুলোতে চলছে ফরেক্স ট্রেডিংয়ের উপর ব্যাপক সভা সেমিনার।এসব সভা সেমিনারের আয়োজক,আলোচক ও অতিথিবৃন্দ কে লক্ষ্য করে দুএকটি কথা বলার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছি।তবে আমার ব্যাক্তিগত দৃষ্টিভঙ্গির সাথে আপনি একাত্মতা পোষণ নাও করতে পারেন।কিন্তু একজন ফরেক্স ট্রেডার হিসেবে নিজের অনুভূতি ও আশংকাটি শেয়ার করলাম।

      ফরেক্স বিশ্বের সর্ববৃহৎ ট্রেডিং মার্কেট এটি আমরা সবাই জানি। কিন্তু কয়জন ব্যাক্তি এ মার্কেট প্লেসে সফলতা পেয়েছে, এ প্রশ্নের উত্তরে আমরা দেখতে পাই মাত্র ৫ থেকে ১০% ব্যাক্তিই এখানে সফল, বাকি ৯০-৯৫% লোকই ব্যর্থ।আশ্চর্যজনক বিষয় হচ্ছে এত বৃহৎ মার্কেট প্লেস হিসেবে এখানে ট্রেডারদের সফলতার পরিমাণ বেশি হওয়ার কথা। কিন্তু হয়েছে উল্টো । অর্থাৎ মার্কেটপরিধি আর ট্রেডারদের অবস্থান সম্পূর্ন বিপরীতমুখী।সে যাইহোক এখন প্রশ্ন হচ্ছে কেন বৃহৎ অংশ ফরেক্স মার্কেটে ব্যর্থ হচ্ছে? অবশ্যই এর পিছনে ভিন্ন ভিন্ন মূল্যায়ন থাকলেও আমার দীর্ঘ ৮ বছরের ট্রেডিং অভিজ্ঞতা থেকে কিছু বিষয়  পয়েন্ট আউট করেছি যা আপনাদের জন্য শেয়ার করলাম।
      ০১। ভাল কোন ট্রেনিং ইনস্টিটিউট না থাকা। যেখান থেকে একজন নবীন যথাযথ প্রস্তুতি নিতে পারে। ০২। ডিপোজিট উত্তেজনাঃ অর্থাৎ ট্রেডিং কনসেপ্ট ভাল করে আয়ত্ত করার পূর্বে নিজের সঞ্চয়,ব্যবসায়িক পুঁজি বা হেল্প লাইন থেকে ধার-দেনার মাধ্যমে ডিপোজিট করে নিজের ভাগ্য পরীক্ষায় নেমে পড়া। ৩। নিজেকে সর্বজ্ঞ ভাবাঃ অর্থাৎ দুয়েকটি বিষয় জেনে বা দুই তিন মাসের ডেমো প্রেক্টিস কিংবা দু’একটি একাউন্ট জিরো হওয়ার পর নিজেকে অনেক বড় জ্ঞানী ভাবতে শুরু করা। ৪।  একাকিত্বঃ আত্মঅহমিকা বা সংকীর্ণ মনোভাব। যদি ট্রেডিং জগতে আপনি ব্যর্থ হয়ে থাকেন তবে নিজেকে জিজ্ঞাসা করুন, আপনি কোন স্তরে ছিলেন বা এখনো আছেন।
      যাইহোক আসল প্রসঙ্গে আসি।“ফরেক্স ট্রেডিং” বাক্যটি কারো কাছে টাকা কামানোর মেশিন আবার কারো জন্য নিঃস্ব হওয়ার ফাঁদ।এখন টাকা কামানোর মেশিন কার জন্য ? হুম, মেশিন হচ্ছে তাদের জন্য যারা বিচক্ষণতার সাথে শত প্রতিকুলতা পেরিয়ে নিজেদের অবস্থান তৈরিতে সক্ষম হয়েছে এবং ট্রেডিং মার্কেটের প্রকৃত চরিত্র ধরতে পেরেছ।
      অপর দিকে নিঃস্ব হওয়ার ফাঁদ হচ্ছে তাদের জন্য, যারা প্রাপ্ত বয়স্ক,শিক্ষিত ও মেচুয়েট হওয়া সত্ত্বেও এ মার্কেটে বাচ্চা সুলভ আচরণ করেন। বর্তমানে যারা ডাক-ঢোল পিটিয়ে সভা সেমিনার নিয়ে ফরেক্স উম্মাদনায় মেতে উঠেছে এরা সে দলেরই অংশ বিশেষ।এদের উল্লেখযোগ্য অংশই ঝরে পড়বে এতে কোন সন্দেহ নেই। ফরেক্স হচ্ছে অতি সুন্দরী,সুসজ্জিত রমণীর মত, যার নেশা আপনার সর্বশ্য কেড়ে নিবে। নিঃসন্দেহে এটি সেসব লোকদের জন্য নিঃস্ব হওয়ার ফাঁদ যারা টাকার নেশায় বিভোর।ফরেক্স সাধনার বিষয়,এখানে অধ্যবসায় প্রয়োজন।এটি ততটা সহজ নয় যতটা আপনি ভাবছেন।এর লুকিং এবং রিয়েলিটি ভিন্ন।
      সুতরাং দুএকটি সেমিনার,ওয়েবিনার বা দিন কয়েক  ডেমো প্রেক্টিসের পর যদি কেউ ভাবে,তার মার্কেট বুঝা হয়েগেছে তবে নিঃসন্দেহে সে নিঃস্ব হওয়ার পথেই এগোচ্ছে।এখানে নিজেকে সংযত রাখা অনেক দুরূহ বেপার।টিকে থাকার জন্য নির্দিষ্ট নিয়মনীতির বাইরেও উপস্থিত সিদ্ধান্ত নেয়ার যোগ্যতা থাকতে হয়।
      তবে খুব কম সংখ্যক মানুষ আছে যাদের উম্মাদনা ও উত্তেজনা বিবেকের উপর প্রাধান্য বিস্তার করতে পারেনা।তারা এ বিজনেসের পজিটিভ নেগেটিভ উভয় দিক বিশ্লেষণ করেই অগ্রসর হয় । আর পরিকল্পিত পদক্ষেপগুলো সময়ের ব্যবধানে ঠিকই তাদেরকে একটি  নির্ভরযোগ্য অর্জন এনে দেয়। সূতরাং প্রতিটি নবীনের প্রতি অনুরোধ কারো প্ররোচনায় এসব দৌড়ঝাঁপ থেকে বিরত থাকুন। আর নিজেকে জিজ্ঞাসা করুন ট্রেডিং মার্কেটের চাপ সহ্য করার সামর্থ আপনার আছে কিনা। কারন ট্রেডিং পেশা মানেই মানসিক চাপের বিজনেস যা সবার জন্য নয়।
      আপনাকে একটি বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। আর তা হচ্ছে আপনার দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে আপনাকে মোটিভেট করে এক শ্রেনীর লোক নিজেদের স্বার্থ হাসিল করার প্রয়াস চালাবে। হয়তো আপনি কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই ঝড়ে পড়বেন। এতে করে ৯০% ক্ষতিগ্রস্ত লোকের পাল্লাই ভারী হবে। বর্তমানে কিছুকিছু ফরেক্স ব্রোকার এমনও আছে যারা আইবি হোল্ডার(ব্যবসায়িক প্রতিনিধি)-দের মার্জিন কলের বিপরীতে ৪০%  পর্যন্ত ফেরত  দেয়ার প্রস্তাব করে থাকে। ফলে রেডিসন ব্লু-তে ৫০ হাজার টাকা খরচ করে প্রোগ্রাম করলেও মাত্র ১০০০ ডলারের একজন ক্লায়েন্টের লুজিং ফান্ড থেকেই সেটা তারা পুষিয়ে নিবে। এখন নিজে কে জিজ্ঞাসা করুন আপনিই সেই হতভাগ্য ব্যাক্তি কিনা যে মার্কেট বুঝার আগেই বিনিয়োগে চলে গেছে ?

      উপরোক্ত আলোচনা তে অনেকেই হয়তো মনক্ষুন্ন হচ্ছেন। কিন্তু আন্তরিক ভাবে দুঃখিত। আমি কারো প্রতিপক্ষ নয় বরং দীর্ঘ ট্রেডিং জীবনের অভিজ্ঞতা ও নীতি আদর্শ থকেই নতুনদের সতর্ক করছি। কারন নবীন ট্রেডারগন কোন লাইনে কিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সেটা আমি ভাল করেই জানি। আপনারা সহপাঠী,পরিবার বা বন্ধু-বান্ধবের আর্থিক ক্ষতি না করে তাদের কে সঠিক দিক নির্দেশনা প্রদান করুন।নিজেদের অর্জন দিয়ে কথা বলুন।সেটা উভয়ের জন্য মঙ্গল।
      আমি জানি ব্রোকারের তুলনায় আপনাদের লাভের পরিমান অতি নগণ্য।কিন্তু তাই বলে আপনারা অন্যকে পথে বসিয়ে দেয়ার বুদ্ধি দিতে পারেন না।ড্রাইভিং পেশা যেমন সবার জন্য নয় ঠিক তদ্রুপ ফরেক্সও সবার জন্য নয় এটা আপনাদের বুঝতে হবে। ওয়ারেন্ট বাফেট আর বিল গেটসের ব্যবসা বলে আপনিও ঝাঁপ দিতে পারেন না। এখানে অবশ্যই কিছু নিয়মনীতি আছে। বেসিক কন্সেপ্ট, টেকনিক্যাল,ফান্ডামেন্টাল,সেন্টিমেন্টাল,রিস্ক মেনেজমেন্ট, কারেন্সি এনালাইসেস,কো-রিলেশন, ইম্পেক্ট এনালাইসিস,পলিটিকেল ইস্যু,গোল সেটাপ,ট্রেডিং প্লান ও স্ট্রটিজির মত অতি আবশ্যক স্টেপগুলো সম্পন্ন করেই সামনে এগুতে হয়। এজন্য সময় প্রয়োজন। একজন নবীন ফরেক্স ট্রেডার কখনো এসব বুঝবেনা ? আর আপনারাও সে বোঝা উঠাবেন না  ? কারন এত দীর্ঘ চিন্তা করলে আপনাদের স্বার্থ ক্ষুন্ন হবে।
      তাছাড়া আপনাদের যে বিষয়টি সবচেয়ে বেশি ভাবা উচিত, তা হচ্ছে বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় ভাবে এখনো ফরেক্স স্বীকৃত নয়।আজ যে ফ্রিল্যান্সিং সেক্টর নিয়ে সরকার মিলিয়ন ডলার আয়ের স্বপ্ন দেখছে এর চেয়ে বৃহৎ সম্ভাবনা হচ্ছে ফরেক্স মার্কেট। কিন্তু দুর্ভাগ্য যে রাষ্ট্রের এসব নিয়ে চিন্তা করাতো দুরের কথা এদের অধিকাংশই এসব বুঝে না।সুতরাং প্রতিকূল পরিবেশে এমন ডাক-ঢোল না পিটিয়ে আত্মকেন্দ্রিক চিন্তা করুন। যেদিন স্বীকৃতি আসবে, যেদিন বাংলাদেশী ফরেক্স ব্রোকারে ট্রেড করার সুযোগ তৈরি হবে সেদিন ডাক-ঢোল পিটালেও সমস্যা নেয়।

      আমাদের এটা মনে রাখা উচিত যে এদেশের জনগণ বিগত ১০ বছরে শেয়ার বাজার সহ বিভিন্ন এমএলএম কোম্পানির ব্যানারে নিঃস্ব হয়েছে। তাছাড়া ব্যাংকিং খাতেও ব্যাপক হরিলুট হয়েছে,হচ্ছে। নীতিনির্ধারকদের অধিকাংশই  নিজেদের সুন্দর ও সুরক্ষিত ভবিষ্যৎ প্রত্যাশায় উন্নত বিশ্বে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করে স্বর্গরাজ্য তৈরি করছে।আর এসব কিছু এখন নিত্যদিনের ঘটনা। আজ রাষ্ট্রীয় চোর আর অর্থআত্মসাৎকারী ভিআইপিদের গাড়ির বহর জনতার পথচলা আটকিয়ে দেয়।হাজার কোটি টাকা পাচারকারীদের দুর্নীতির প্রমান থাকলেও কোন আইনী নোটিশ নেই। কারন তাদের রয়েছে রাজনৈতিক পরিচয়,শিল্পপতির পরিচয়, আরো রয়েছে মামার পরিচয়।কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও  সত্য যে আইনি নোটিশ হচ্ছে সেসব লোকদের জন্য, যাদের এসব পরিচয় নেই।যারা বেকারত্বের অভিশাপ থেকে বের হতে না পেরে সর্বশেষ অনলাইন ট্রেডিংয়ে মনোনিবেশ করেছে, যারা ঘরে বসে, কাউকে না ঠকিয়ে,অনৈতিক কাজে না জড়িয়ে নিজের মেধাশক্তি ও শিক্ষা যোগ্যতা কে কাজে লাগিয়ে নামমাত্র পুঁজি ব্যবহার করে পরিবারের ভরণপোষণ যোগাচ্ছে এবং সুন্দর আগামীর স্বপ্ন বুনছে। সুতরাং নীতিনির্ধারকদের চিন্তা-ভাবনা,দৃষ্টিভঙ্গি এবং দেশের আইন যে সকলের উপর সমান প্রয়োগ হয় না এটা এদেশের নাগরিক হলে এত দিনে বুঝার কথা।
      তাই প্রতিকূল পরিবেশে ফরেক্স বিষয়ে অতিরঞ্জন প্রত্যাশা করি না। ফরেক্স কে কলঙ্ক মুক্ত রাখতে সংযমী হোন। দধি কে চুন বানাবেন না। আপনাদের অতিরঞ্জনের ফলে যারা ফরেক্স নিয়ে বেচে আছে এবং যারা সুন্দর আগামীর স্বপ্ন দেখছে তাদের সবকিছু ধুলোয় মিষে যাবে। এমনিতেই চাকরির বাজারে হাহাকার। তার উপর ভাল কোন ব্যবসার জন্য প্রয়োজন বৃহৎ পুঁজি। এমতবস্থায় যারা নামমাত্র পুঁজি নিয়ে নিরবে নিবৃত্তে সাচ্ছন্দে ফরেক্স নিয়ে জীবন পার করছে আপনাদের মত আগাছা,উম্মাদ,অপরিণামদর্শী, স্বার্থান্বেষী মহলের বাড়াবাড়ি হয়তো তাদের জীবন প্রবাহ কে থামিয়ে দিবে।আপনাদের করণীয় হচ্ছে ব্যাক্তিগত অর্জন ও  অবস্থান শক্ত করা। তাহলে অধিকার নিয়ে কখনো সামনে দাড়াতে পারবেন। অন্যথায় উভয় সংকটে নিজেও ক্ষতিগ্রস্ত হবেন এবং অন্যের পথও রুদ্ধ হয়ে যাবে। একজন ট্রেডার হিসেবে নিজের শংকাটি তুলে ধরলাম । আশা করি বিচারকের ভূমিকায় নিরপেক্ষ ভাবে বিষয়টি অনুধাবন করবেন। 

      ------------------------------------------------
      Md Mohabbat E Elahi
      Admin: Forex online training academy
    • By MohabbatElahi

      ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন বনাম ইউরোর ভবিষ্যৎ
      আগামী ০৭ই মে রবিবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের চুড়ান্ত লড়াই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।প্রতিযোগিতায় শীর্ষে থাকা ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ও মেরিন লা পেন এ দুই প্রার্থীর মধ্য থেকে একজনই হতে যাচ্ছেন ফ্রান্সের ভবিষ্যত প্রেসিডেন্ট।আর এ নির্বাচন কে কেন্দ্র করেই চরম অস্থিতিশীলতা বিরাজ করছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ মুদ্রা বাজার ফরেক্স মার্কেটে। বিশেষ করে EUR/USD, USD/CHF,GBP/USD উক্ত তিনটি মূদ্রা জোড়ে প্রথম দফা নির্বাচন থেকে শুরু করে এপর্যন্ত অস্থিরতা বিরাজ করছে।তবে আগামী ৭ই মে এঅস্থিরতার অবসান ঘটতে চলেছে । সূতরাং নির্বাচনের প্রভাবে কি ঘটতে পারে সেটায় এখন দেখার বিষয়।তবে ক্ষুদ্র জ্ঞানের উপলব্ধি থেকে ব্যাক্তিগত মূল্যায়নটি আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।

      ফান্ডামেন্টাল মূল্যায়ন
      উভয় প্রাথীর নির্বাচনী বক্তব্য,প্রতিশ্রুতি ও ব্যাক্তিগত জীবন মূল্যায়ন করলে এটা প্রতিয়মান হয়ে যে ইউরোপীয়পন্থী ম্যাক্রোঁ নির্বাচিত হলে সেটা হবে ইউরোপের জন্য কল্যানকর।কারন ব্যাক্তিগত জীবনে তিনি ছিলেন একজন অর্থমন্ত্রী। তিনি নির্বাচিত হলে বর্তমান ইউরোজোনের অভিবাসন,অর্থনীতি ও ফরাসি নাগরিকদের ভবিষ্যত ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ন রাজনৈতিক ইস্যুগুলোর সমাধান হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

      আপর দিকে ৪৮ বছর বয়সী ন্যাশনাল ফ্রন্ট পার্টির নেতা লা পেন নির্বাচিত হলে ইউরোপ চরম সংকটে পড়বে বলে ধারনা করছেন অনেকেই। কারন তিনি হচ্ছেন কট্টর ডানপন্থী নেতা। তিনি বর্তমানে ইউরোজোনের অনেক রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের কট্টর বিরোধী।তার মতাদর্শ হচ্ছে সংস্কার বা নতুন করে সাজাও।যা ইউরোপের চলমান রাজনৈতিক ইস্যু সহ বিভিন্ন সেক্টরে বিরাজমান অস্থিতিশীলতাকে আরো উস্কে দিতে পারে।তবে আশ্চর্য জনক বিষয় হচ্ছে প্রথম দফার নির্বাচনে ম্যাক্রোঁ ২৩.৫৪ শতাংশ ভোট পেয়ে প্রথম স্থানে এবং লা পেন ২২.৩ শতাংশ ভোট পেয়ে ২য় স্থানে অবস্থান করছেন ।এক কথায় হাড্ডাহাড্ডি লড়াই যাকে বলে এখানে কোন পক্ষ কে এগিয়ে দেয়া যাচ্ছে না।

      ফান্ডামেন্টালের এপিঠ ওপিঠ
      বিগত দিনে ঘটে যাওয়া দুই দুইটি রাজনৈতিক ইস্যুর দিকে যদি আমরা তাকাই তবে একথা প্রতিয়মান হয় যে নির্বাচনী বিশ্লেষন ততটা প্রতিফলিত হয়না যেমনটি আমরা দেখেছি ব্রেক্সিট ও আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে। কারন অনেক বিশ্লেষকের ব্রেক্সিট মূল্যায়ন ছিল পজিটিভ এমন কি ব্রেক্সিটের জন্য আন্দোলনকারীগনও এটা প্রত্যাশা করেনি যা পাউন্ডের ইতিহাসে ঘটে গেছে।ঠিক একই ভাবে আমেরিকা প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্প কে অর্থনীতির জন্য আশনি সংকেত হিসাবে তুলে ধরা হয়েছেল। কিন্তু পরবর্তিতে যা ঘটেছে তা সবারই জানা আছে। সূতরাং ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ম্যাক্রোঁ ও লা পেন কে নিয়ে আমাদের যে কোন মূল্যায়ন মুদ্রা বাজারে প্রতিফলিত নাও হতে পারে।সূতরাং নির্বাচন পরবর্তিতে মার্কেট গেপ দিয়ে ওপেন হবে এই প্রত্যাশায় কারো প্ররোচনায় পড়ে উদ্ভট চিন্তা ভাবনা ও উত্তেজনা পরিহার করতে হবে।

      ফ্রান্সের নির্বাচনে আমাদের ট্রেডিং কৌশল কেমন হতে পারে? ********************************************************* হুম,আমরা অবশ্যই একটি রক্ষণাত্মক কৌশলে মার্কেটে প্রবেশ করতে পারি। যা তুলনা মূলক ভাবে অনেক বেশি নিরাপদ ও লাভজনক।তবে এটি লং টার্ম ট্রেডারদের জন্য প্রয়োজ্য । প্রথম ধাপঃ ট্রেডিং কৌশল টি বুঝতে প্রথমে আপনার মেটা ট্রেডার সফটওয়্যার টি ওপেন করুন। অতপর EUR/USD (D1) চার্টের দিকে তাকান। উক্ত মুদ্রা জোড়ে আপনি তিনটি প্রাইজে হরিজ্যান্টাল লাইন বাসান। প্রথম প্রাইজঃ 1.13000 (স্ট্রং সাপ্লাইজোন) দিত্বীয় প্রাইজঃ 1.0870 (বর্তমান অবস্থান) তৃতীয় প্রাইজঃ 1.0370 (স্ট্রং ডিমান্ড জোন)   দ্বিতীয় ধাপঃ এক্সচেঞ্জ রেট যদি 1.0870 (দ্বিতীয় প্রাইজ)এর নিচে নেমে আসে তবে মূল্য পতনের সম্ভাবনা বেশি থাকবে।অর্থাৎ মার্কেট ডিমান্ড লেভেল কে টার্গেট করতে পারে।বিপরিতে সাপ্লাইজোন কে টার্গেট করতে পারে।তাই এনএফপি প্রভাব চলাকালীন আপনি রক্ষনাত্তক অবস্থানে ট্রেড করবেন এবং প্রাইজ মনিটরিং করবেন। তৃতীয় ধাপঃ আপনি ইউএস সেশন ক্লোজ হওয়ার আধা ঘন্টা পূর্বে অর্থাৎ মার্কেট অফ হওয়ার অধা ঘন্টা বা ২০ মিনিট পূর্বে প্রাইজ মূল্যায়ন করে ২/১ হেজিংয়ে যেতে পারেন। অর্থাৎ যদি মার্কেট 1.0870 থেকে 1.0950 এই রেঞ্জে উর্ধমুখী প্রভাবে থাকে তাহলে আপনি ০.০২ ভলিয়মে লং পজিশন গ্রহন করতে পারেন। এক্ষেত্রে মার্কেট গেপ হলে ১.১৩০০ পর্যন্ত প্রথামিক ভাবে গেফ হতে পারে। পাপাশাপাশি ০.০১ এ একটি শর্ট পজিশনও কার্যকর করতে হবে।যেন বিপরিত কিছু হলে অন্তত ৫০% বেকাপ থাকে।আর যদি প্রাইজ 1.0870-র নিচে পড়ে যায় তাহলে একই নিয়মে ২/১ এ শর্ট পজিশন গ্রহন করবেন।পাশাপাশি একটি লং পজিশনও। চতুর্থ ধাপঃ এক্সচেঞ্জ রেট গেপ আপ বা ডাউন যাইহোক না কেন উক্ত দুটি লেভেলের ভিতরেই থাকার সম্ভাবনা বেশি। সূতরাং যদি এক্সচেঞ্জ রেট ১.১৩০০ পর্যন্ত চলে যায় এবং আর উঠার সম্ভাবনা দেখা না যায় তবে আপনি লং পজিশন ক্লোজ করে দিতে পারেন এবং ১.১৩০০ বা ১.১৪০০ রেঞ্জ থেকে প্রাইজ অ্যাকশন ফলো করে চলমান থাকা লস ট্রেডের ভলিয়ম অনুযায়ী একটি রিভাঞ্জ নিতে পারেন। পঞ্চম ধাপঃ যদি ২/১ ভলিয়মের মধ্যে ২ লসে চলে যায় তাহলে প্রাইজ এ্যাকশান ফলো করে ১ ক্লোজ করে দেয়ার পর মার্কেট মূল্যায়ন করে পুনরায় একটি রিভাঞ্জ নিতে হবে সেইম ভলিয়মে (০.০১) এক্ষেত্রে ভলিয়ম বাড়ানো যাবেনা কারন যদি মার্কেট আপনার বিপরিতে চলে যায় তখন আপনি কোন প্রকার লাভবান হচ্ছেন না। তখন রিস্কের পরিমান বেড়ে যাবে।কিন্তু যদি আপনি সেইম ভলিয়মে কন্টিনিউ করেন তবে আপনি লং টাইম ট্রেডটি ধরে রাখতে পারবেন। প্রশ্নঃ 1.0870 এ প্রাইজ রিকভারের সম্ভাবনা কতটুকু ? উত্তরঃ যারা ১০০০ ডলারে ১% রিস্কে ট্রেড করেন তাদের জন্য এখানে ঝুঁকির কিছুই নেই। আর 1.0870 এ প্রাইজটি আগে পরে রিটেস্ট হবে এতে কোন সন্দেহ নেই। কারন এটি ইউরোর জন্য বর্তমানে একটি মিডেল পয়েন্ট।যা হেজিংয়ের জন্য উপযু্ক্ত। উল্লেখ্য যে এই কৌশলে ট্রেড কেবল তারাই করবেন যারা ফ্রান্সের নির্বাচনে কিছু রিস্ক নিতে চান। তবে যাদের স্বল্প বেলেন্স তারা নির্বাচন পরবর্তিতে মার্কেট ওপেনিং দেখে ট্রেডে প্রবেশ করবেন। তবে যদি সোমবারের মার্কেটে কোন গেপ না হয় তবে উচিত হবে মার্কেট ওপেন হওয়ার পর উভয় পজিশন ক্লোজ করে আপনার স্বাভাবিক স্ট্রাটিজিতে ট্রেড করা। নিরাপদ হোক সবার ট্রেডিং ------------------------------------------------- Md Mohabbat E Elahi
      Analytical Expert: Global Forex Market
    • By MohabbatElahi

      সম্মানিত পাঠক, Forex business guide উক্ত টপিকে আজকে আমি আপনাদের সাথে ফরেক্স ক্যারিয়ার ও বিজনেস গাইড বিষয়ক একটি আলোচনা শেয়ার করছি।তবে এটি হচ্ছে আমার ব্যাক্তিগত অভিব্যক্তি যা আপনার কাছে গ্রহণযোগ্য নাও হতে পারে। চলুন তাহলে আমরা আলোচনা শুরু করি।
      ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কে আমরা যারা পূর্বে থেকে আবগত আছি তারা অবশ্যই বেসিক বিষয়গুলোর সাথে পরিচিত।সূতরাং বেসিক আলোচনা দিয়ে অযথা আপনাদের গুরুত্বপূর্ণ সময় নষ্ট করতে চাই না। অতএব কথা না বাড়িয়ে কয়েকটি প্রশ্নের মাধ্যমে আলোচনা শুরু করা যাক।
      প্রশ্নঃ১. ফরেক্স মার্কেট ও ফ্রিল্যান্সিং (আউটসোর্সিং) কি একই বিষয় নাকি এখানে ভিন্নতা আছে
      উত্তরঃ ইন্টারনেট ভিত্তিক যে কোন স্বাধীন কর্ম কে ফ্রিল্যান্সিং বলে। ফ্রিল্যান্সিং শুধু মাত্র বিদেশী কোন  ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রিক কর্মের মাঝে সীমাবদ্ধ নয়। অতএব যদি আপনি ঘরে বা অফিসে বসে দেশিও কোন ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের হয়েও কাজ করেন তবে সেটাও ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং)হিসেবে বিবেচিত হবে।
      তবে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেস গুলোতে কাজ পেতে কোন বিনিয়োগের প্রয়োজন হয়না। প্রয়োজন হয় শুধুমাত্র অতীতের কিছু সফলতার প্রমান বা দক্ষতার প্রুফ।যার কারনে নবগতদের জন্য এটি খুবই চ্যালেঞ্জিং মার্কেট প্লেস। পক্ষান্তরে ফরেক্স হচ্ছে বিনিয়োগ নির্ভর ট্রেডিং প্লেস। এটি বিজনেস, যাকে বলা হয় ট্রেডিং অর্থাৎ যেখানে ক্রয়-বিক্রয় বিদ্যমান।
      সূতরাং স্বাধীন কর্মক্ষেত্র হিসেবে ফরেক্স ফ্রিল্যান্সিং শব্দের আওতাভুক্ত হলেও বস্তুত উভয়ের মাঝে বিশাল ফারাক বিদ্যমান।
      প্রশ্নঃ২. ফরেক্স ক্যারিয়ার কি শুধু মাত্র সফটওয়্যার কেন্দ্রিক, ফরেক্স মার্কেট প্লেস কি ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার হতে পারে?
      উত্তরঃ এ প্রশ্নের উত্তরে ব্যাক্তিগত ভাবে আমি ফরেক্স মার্কেটের বিশালতা নিয়ে আমাদের যুব সমাজ কে ভাবতে অনুরোধ করব।কারন আমাদের মাঝে একটি ভুল ধারনা প্রচলিত আছে যে “ফরেক্স মার্কেটে ট্রেডিং ছাড়া উপার্জনের ভিন্ন কোন সুযোগ নেই” ।
      আমার ব্যাক্তিগত অভিব্যক্তি হচ্ছে এ ধারনাটি শুধু মাত্র অজ্ঞতার পরিচয় বাহক।কারন ফাইভ ট্রিলিয়ন মার্কেট কে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা বহুমুখী আয়ের উৎস সম্পর্কে আমাদের সঠিক ধারনা না থাকার ফলে এমনটি ধারনা পোষণ করা লোকের সংখ্যা প্রায় ৯৮% । অথচ ফরেক্স মার্কেট কেন্দ্রিক গড়ে ওঠা এসব আয়ের উৎস সম্পর্কে যদি আমাদের পর্যাপ্ত পরিমান জ্ঞান থাকতো তবে শুধু মাত্র ট্রেডিং কেন্দ্রিক চিন্তার জগতকে সীমিত না রেখে আমরা সে সব উৎস নিয়েও কাজ করে প্রচুর বৈদেশিক মূদ্রা আয় করতে পারি। অথচ সে দিকে অমাদের কোন দৃষ্টি নেই। আমরা ফরেক্স বলতে শুধু মাত্র মেটাট্রেডার সফটওয়ারের দিকে তাকিয়ে থাকাকেই বুঝি। আমাদের ট্রেডারগন এর বাইরে চিন্তাই করতে পারছেনা। এটা অবশ্যই হতাশাজনক।
      প্রশ্নঃ-৩. ফাইভ ট্রিলিয়ন ডলারের মার্কেট প্লেসে একজন ট্রেডারের শুরু কি ভাবে হওয়া উচিত
      ব্যাক্তিগত ভাবে আমার পরামর্শ হচ্ছে, যারা ফরেক্স কেন্দ্রিক ক্যারিয়ার গড়ার কথা ভাবছেন তাদের প্রথম কাজ হচ্ছে কোন অভিজ্ঞ ট্রেডারের শরণাপন্ন হওয়া এবং তার নিবিড় পরিচর্যার মাধ্যমে নিজেকে তৈরি করা।এজন্যে যারা অভিজ্ঞ ও প্রফেশনাল ট্রেডার, ট্রেডিং জীবনে যারা পিছিয়ে যায়নি, যাদের সফলতার স্বাক্ষর আছে, তাদের হাতে নিজেকে অর্পণ করা। অন্যথায় ফরেক্স মার্কেটে ক্যারিয়ার গড়তে ইচ্ছুক ব্যাক্তি কে অথৈ সাগরে বৈঠা বিহীন নাবিকের ভাগ্য বরণের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।
       

      প্রশ্নঃ-৪. অধিকাংশ ফরেক্স ট্রেডার ঝরে যাওয়ার পেছনে কারন কি ?
      উত্তর: শুধু ফরেক্স মার্কেট নয় বরং ফ্রিল্যান্সিং জগতেও বিশাল একটি অংশ ঝড়ে পড়ছে। তবে যেসব কারনে ফরেক্স ট্রেডারগন ট্রেডিং মার্কেট থেকে ঝড়ে যায় তা নিম্মে উল্লেখ করছি।
      ০১) সমন্বয়ের অভাব।
      অর্থাৎ পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নে ব্যর্থ হওয়া ।ফলে নিজের মত চলতে গিয়ে অধিকাংশ নবীন এ মার্কেট থেকে ঝড়ে পরে।
      ০২) আত্মঅহমিকা বা অহংকার। অর্থাৎ “আমি কি কম বুঝি” “অনলাইনে সব কিছুই আছে সূতরাং অন্যের শরণাপন্ন হতে হবে কেন”?
      ০৩) ট্রেডিং সিগনাল বা রোবটের পিছনে দৌড়ানো।
      বর্তমানে আমাদের মাঝে অনেক ভাই এমন আছেন, যারা এসবের পিছনে দৌড়ান। আবার কেউ কেউ নাকি বিদেশ থেকে সিগনাল হায়ার করে আনেন …! অবাক হচ্ছেন ? অবাক হওয়ার কিছু নেই এমন লোকও আমাদের মাঝে আছেন। আশ্চর্যজনক বিষয় হচ্ছে, যে সব লোকের সিগনালে তারা ট্রেড করেন, মাইএফএক্সবুক বা ফরেক্স ফ্যাক্টরিতে এসব ট্রেডারের ব্যাক্তিগত কোন প্রোফাইলই নেই । আছে শুধু একটি ফেইক ফেইসবুক  আইডি ও ছবি। যা দেখলে মনে হবে বিশাল ফরেক্স গুরু। বস্তুত এটা শুধু মাত্র নিছক ছলনা।
      এছাড়া আমাদের বড় একটি সমস্যা হচ্ছে আমরা মনে করি আমাদের দেশে ভাল কোন ট্রেডার নেই। সবায় ভুয়া,ট্রেড বুঝেনা। ফলে একটু বিদেশী কারো নাম শুনলে হুমড়ি খেয়ে পড়তে আর দেরি হয়না। অনেকটা এনার্জি ড্রিংক স্পীড কোম্পানীর বিজ্ঞাপনের মত। দে দৈড়…….
      ৪) সঠিক বিজনেস কন্সেপটের অভাব। অর্থাৎ মার্কেট গভীরতা বুঝতে ব্যর্থ হওয়া।
      এজন্য ব্যাক্তিগত ভাবে আমি সকল ফরেক্স ট্রেডার কে সাজেস্ট করি তারা যেন নিজেদের মধ্যে একটি গ্রুপ তৈরি করে নেয়। অথবা কোন প্রফেশনাল ট্রেডারের সহচর্য গ্রহন করে। কারন সহচর্য ছাড়া ভাল কিছু অর্জন করতে অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে যা অনেকের জন্য দুষ্কর।
      এখন প্রশ্ন করতে পারেন তাহলে আপনি কি কারো সহচর্য গ্রহন করেছেন বা করেছিলেন ?
      উত্তর: না, কারন ২০০৯ বা ১০-এ যারা ফরেক্স ট্রডিং শুরু করেছিল তাদের কে সাপোর্ট দেয়ার মত কোন লোকই ছিলনা, যারা এ বিষয়ে গভীর জ্ঞান রাখতো। বরং তখনকার সময়টা এমনই ছিল যে, একটি ডেমো একাউন্ট খোলার নিয়ম যে জানত অথবা নো-ডিপোজিট বোনাস নিয়ে দেয়ার সিস্টেম যে জানত, সেও টাকা চেয়ে বসে থাকতো।অর্থাৎ সে সময়টি ছিল অজ্ঞতার রাজত্ব। অনেকটা আদিম যুগের মত, যে যার মত করেই বাচ ।এজন্যই ট্রেডিং জীবনে অধিক ত্যাগ শিকার করতে হয়েছে। এবং অপ্রত্যাশিত অনেক জটিলতার মুখোমুখি হয়েছি।কোন হেল্পলাইন ছিল না।
      ?প্রশ্নঃ-৫. ফরেক্স ক্যারিয়ারের পূর্ণাঙ্গ সাজেশন কিভাবে পাওয়া যেতে পারে
      উত্তর: বর্তমানে বাংলাদেশে অনেকেই ফরেক্স ট্রেডিং শিখিয়ে থাকেন । তারা অবশ্যই নির্দিষ্ট একটি ফরমেট বা সিলেবাসে ট্রেনিং অফার করে থাকবে। সূতরাং যদি সার্বিক বিবেচনায় তার ট্রেনিং ফরমেট টি আপনার কাছে গ্রহণযোগ্য হয় তবে আপনি তার হাত ধরেই এজগতে প্রবেশ করতে পারেন। তিনি অবশ্যই আপনাকে সার্বিক বিষয়ে সাজেষ্ট করবে। কারন তিনি এজগতে ক্যারিয়ার গড়েছেন।
      প্রশ্নঃ-৬. ফরেক্স মার্কেট থেকে বাংলাদেশের প্রাপ্তি কি এবং এটি কতটুকু সম্ভাবনাময়
      উত্তর: ফরেক্স হচ্ছে ডি সেন্ট্রালাইজড মার্কেট। এ বিজনেসের ব্যাপ্তি বিশ্বব্যাপী। ইউরোপ, আমেরিকা অস্ট্রেলিয়া,আরব বিশ্ব,চীন সহ সমগ্র বিশ্বের উন্নত দেশে এটি উম্মোক্ত।এমনকি টোকিও,লন্ডন,নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ ট্রেডারগন পর্যন্ত ফরেক্স ট্রেডিং এর সুবিধাগুলো বিবেচনা করে ট্রেডিং পেশা হিসাবে ফরেক্স মার্কেট কেই প্রাধান্য দিয়ে থাকেন।ফলে ব্যাংক ডিপোজিট সহ সার্বিক কার্যক্রম তারা উম্মোক্ত ভাবে করতে কোন প্রকার অসুবিধার সম্মুক্ষীণ হচ্ছেনা। যদিও কোন দেশে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার মাধ্যমে এ বিজনেসের বৈধতা দেয়া হয়নি।তথাপি ডি সেন্ট্রালাইজড মার্কেট হিসাবে এটি বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় একটি ট্রেডিং মার্কেট।যার জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বি।
      সে দৃষ্টিকোন থেকে আমরা বাংলাদেশী ফরেক্স ট্রেডারগন পিছিয়ে আছি। কারন বাংলাদেশী ফরেক্স ট্রেডারগন এখনো ডিপোজিট এবং উইথড্রর ক্ষেত্রে ব্যাংকিং সুবিধা বঞ্চিত।ফলে বাংলাদেশী ফরেক্স ট্রেডারদের ই-ওয়ালেট হিসেবে পরিচিত স্ক্রীল,নেটেলার ও পে-অনারের মত পেমেন্ট মেথড ব্যাবহার করে লেনদেন করতে হচ্ছে।
      কিন্তু বাংলাদেশী ফরেক্স ট্রেডারদের জন্য যদি ব্যাংকিং সেবাটি চালু করা যেত তবে এ সেক্টর থেকে উপার্জিত ফরেন কারেন্সির নির্দিষ্ট হিসাব করা যেত। যা দেশের অর্থনীতিতে অকল্পনীয় অবদান রাখতে পারে বলে আমি বিশ্বাস করি। এ বক্তব্যের যৌক্তিকতা হিসাবে ফরেক্স মার্কেটে আমি আমার ব্যাক্তিগত অবস্থানের কথা উল্লেখ করতে পারি।
      যেমন ২০১৫ থেকে ২০১৬ অর্থ বছরে শুধুমাত্র ট্রেডিং সেক্টর থেকে সর্বমোট আয়ের পরিমান ছিল প্রায় ১৬,০০০/= মার্কিন ডলার। যদিও ট্রেডিং ক্যারিয়ারে আমি পকেট থেকে কোন অর্থ বিনিয়োগ করিনি এবং সে সামর্থ্যও ছিলনা।এটি হচ্ছে হাজার হাজার ফরেক্স ট্রেডারের মাঝে একজন সিঙ্গেল ফরেক্স ট্রেডারের অর্জন। বর্তমানে ফরেক্স নিয়েই আমার ক্যারিয়ার । ২০০৯ সাল থেকে আজ পর্যন্ত ১ মাস ,১ সাপ্তাহ,১ দিন বা এক ঘন্টার জন্যও কোথাও চাকুরি করতে যায়নি এবং আজ পর্যন্তও না । সূতরাং চিন্তা করে দেখা উচিত, ফ্রিল্যান্সিং ক্যরিয়ার আমাদের কি দিতে পারে ? এবং সার্বিক ভাবে কত ডলার এ সেক্টর থেকে বাংলাদেশী ফরেক্স ট্রেডারগন আয় করার সুযোগ রয়েছে?

      http://www.myfxbook.com/members/Mohabbatelahi
      এজন্য আমি ব্যাক্তিগত ভাবে বিশ্বাস করি যদি বাংলাদেশী ফরেক্স ট্রেডারদের জন্য নিজস্ব একটি ব্রোকার প্রতিষ্ঠিত করে ব্যাংক সুবিধা দেয়া হয়। তাহলে শেয়ার মার্কেটের চেয়েও এ সেক্টরে মানুষ অনেক বেশি উপকৃত হতে পারবে। কারন ফরেক্স মার্কেট হচ্ছে একটি স্বচ্ছ ও নির্ভেজাল ট্রেডিং প্লাটফর্ম।যা হতে পারে হতাশাগ্রস্ত স্টক মার্কেট ট্রেডারদের জন্য বিশাল প্রাপ্তি।
      পাশাপাশি গ্লোবাল ফরেক্স ট্রেডাদেরও আমরা আমাদের দেশীয় ব্রোকারে ট্রেডিং সুবিধা দিতে পারি।এতে করে বৈদেশিক বিনিয়োগ সংগ্রহের বিশাল সম্ভাবনা তৈরি হবে তাতে কোন সন্দেহ নেই। এর জন্য আমি মনে করি উন্নত রাষ্ট্রগুলো থেকে পরিচালিত ব্রোকার গুলোর সার্বিক কার্যক্রম অনুসরণ করা বা তাদের পরামর্শ গ্রহনের মাধ্যমে বৃহৎ এ জনগোষ্ঠীর জন্য একটি সম্ভাবনার দ্বার উম্মোক্ত করা। পাশাপাশি একটি নীতিমালা তৈরি করে বিষয়টির স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা।
      ?প্রশ্নঃ-৭. বাংলাদেশে ফরেক্স মার্কেটের জন্য অশুভ শক্তি কারা এবং পরিত্রাণের উপায় কি
      উত্তর: বাংলাদেশে ফরেক্স মার্কেট কে বিতর্কিত করতে কিছু অসাধু ব্যাক্তি ফরেক্স মার্কেট কে এমএলএম বানানোর চেষ্টায় লিপ্ত আছে । এরা প্রকৃত পক্ষে অনলাইনে হাইপ,বেটিং সহ বিভিন্ন অধিক ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ প্রজেক্টগুলো নিয়ে কাজ করে। যখন যেটা পায় তখন সেটা নিয়ে তারা মাঠে নামে। সূতরাং এ বিষয়ে ট্রেডারদের এগিয়ে আসা উচিত এবং সচেতনতা বৃদ্ধি করা উচিত। যেন অনলাইন ইনকামের নামে মানুষ চুন কে দধি না ভাবে, আর দধি কে চুন না ভাবে।
      আজ এপর্যন্ত, দীর্ঘ সময় নিয়ে পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। আল্লাহ হাফেজ।