10 posts in this topic

ফরেক্স অনলাইন ট্রেনিং একাডেমী চিটাগং , ফরেক্স ট্রেডিং মার্কেটের মৌলিক বিষয় সমূহের সমন্নয়ে একটি অতুলনিয় প্রশিক্ষন কোর্স বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ফরেক্স ট্রেডারদের কে অফার করছে,যা প্রতিটি ফরেক্স ট্রেডার কে বিশ্বের সর্ব বৃহৎ এই ট্রেডিং মার্কেটে একজন সফল দক্ষ ফরেক্স ট্রেডার হওয়ার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখবে উল্লেখ্য যে ফরেক্স অনলাইন ট্রেনিং একাডেমী চিটাগং পূর্বের ট্রেনিং ফরমেট টি আর উন্নত করে নিম্মের সিলেবাসে প্রোগ্রাম টি অফার করছে  বর্তমানে ফরেক্স অনলাইন ট্রেনিং একাডেমী চিটাগং এর তৈরিকৃত উক্ত ট্রেনিং কোর্সটির মাধ্যমে USA,CA,UK,UAE মালশিয়া সহ বিশ্বের প্রায় টি দেশে প্রশিক্ষন ব্যবস্থা চালু রয়েছে আশা করব আপনারাও উক্ত ট্রেনিং কোর্সের সুফল ভোগ করবেন উল্লেখ্য যে নিম্মোক্ত ট্রেনিং কোর্স টি বর্তমানে অনেকেই নকল করে বিভিন্ন উপায়ে অনলাইনে মার্কেটিং করছে, বিষয়ে যথেষ্ট প্রমান রয়েছে, কিন্তু প্রশিক্ষনের নামে যেন কোন নবীন ফরেক্স ট্রেডার প্রতারিত না হয় সে বিষয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান রইল

FOREX PROFESSIONAL TRAINING COURSE
----------------------------------------------------
অধ্যায় ০১: ফরেক্স মার্কেট,ট্রেডিং প্লেটফর্ম ব্রোকার
ক্লাস সমূহ
01) Introducing Forex Market
02) Exchange & Forex language-P1
03) Exchange & Forex Language-P2
04) Trading Platform-P1.
05) Trading Platfrom-Part-02.
06) Trading Platfrom-Part-03
07) All about the broker.
08) Accounts & Finance.
-------------------------------------------------------
অধ্যায় ০২: মার্কেট মূল্যায়ন প্রস্তুতি (Technical analysis)
ক্লাস সমূহ
01) Introducing Forex Market analysis
02) Candle sticks Pattern
03) Chart Pattern Basic.
04) Indicators Activity.
05) Forex price Action.
06) Forex advance price action.
07) Summary of technical analysis.
------------------------------------------------------------
অধ্যায় ০৩: মার্কেট মূল্যায়ন প্রস্তুতি (Fundamental analysis)
ক্লাস সমূহ
01) Forex Economy & E-Indicators.
02) Forex Supply & demand.
03) Currency analysis.
04) Technical vs Fundamental.
05) Summary of Fundamental analysis.
------------------------------------------------------------
অধ্যায় ০৪: মার্কেট মূল্যায়ন প্রস্তুতি (সেন্টিমেন্টাল এনালাইসিস)
ক্লাস সমূহ
01) Trade sentiment & view.
02) Forex journal & Mistake.
03) Fx study tools & Skill test.
------------------------------------------------------------
অধ্যায় ০৫: লেনদেন/ক্রয়-বিক্রয়
ক্লাস সমূহ
01) Risk management & Trading plan.
02) Multi Time Frame analysis & Trading Format.
03) Forex dealing system & styles.
04) Analysis before long and short position.
--------------------------------------------------------
অধ্যায় ০৬: ফরেক্স ক্যারিয়ার গাইড
ক্লাস সমূহ
01| Forex Advantage.
02| Solve your capital Problem.
03| Exam & notice.

----------------------------------------------------------------------------------------

Md Mohabbat E-Elahi
Analytical Expert : Fx & CFD Market.
Writer: The insider secret of global Forex Market.
Phone: +880-1936236148
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন (Test my Trading skill) : forex-ctg.blogspot.com

Share this post


Link to post
Share on other sites

Forex trading business যেমন রিস্কি তেমন লাভজনক তবে ফরেক্স ব্যাবসা শুরু করার আগে অবশ্যই আপনাকে ফরেক্স সম্পর্কে ভালোভাবে শিক্ষা গ্রহন করতে হবে । আপনি কোথাও বা কারো কাছ থেকে ফরেক্স প্রশিক্ষন নিতে পারেন । একটা ব্যাপার মনে রাখবেন ফরেক্স এ সফলতার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন দিক হলো Technical and Fundamental analysis, Candlestick, all indicators, Money management, Chart Pattern Basic, Price action Basic & Strategy এই সব গুলোই গুরুত্বপূর্ন ফরেক্স এর জন্য । আপনার প্রশিক্ষন কোর্সে এই সবগুলির উপর বেশি করে জোর দিবেন ।

Share this post


Link to post
Share on other sites

Forex trading business যেমন রিস্কি তেমন লাভজনক তবে ফরেক্স ব্যাবসা শুরু করার আগে অবশ্যই আপনাকে ফরেক্স সম্পর্কে ভালোভাবে শিক্ষা গ্রহন করতে হবে । আপনি কোথাও বা কারো কাছ থেকে ফরেক্স প্রশিক্ষন নিতে পারেন । একটা ব্যাপার মনে রাখবেন ফরেক্স এ সফলতার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন দিক হলো Technical and Fundamental analysis, Candlestick, all indicators, Money management, Chart Pattern Basic, Price action Basic & Strategy এই সব গুলোই গুরুত্বপূর্ন ফরেক্স এর জন্য । আপনার প্রশিক্ষন কোর্সে এই সবগুলির উপর বেশি করে জোর দিবেন ।

​রাইহান ভাই আপনাকে ধন্যবাদ ৤

আমি ফরেক্স ট্রেডিং এর যে সব ক্লাস সমুহ offer  করছি তার মাঝে অন্যতম অংশ হল Technical ও Fundamental Analysis.

(01) Technical Analysis এর মাঝে রয়েছে নিম্মোক্ত ক্লাস ‍সমুহ ৤
01) Candle stick pattern
02) Chart pattern basic.
03) Price Action Basic & strategy.
04) Practical pattern & analysis.
05) Trend vs Indicators activity.

(02)এবং Fundamental analysis এর মাঝে রয়েছে ৤
01) The power of Economy & Market sentiment.
02) Forex supply & Demand.
03) Economy vs Technical.

Share this post


Link to post
Share on other sites

MohabbatElahi, আপনার The insider secret of global Forex market ( Forex learning book) বইটি PDF ভার্সনটি bdforexpro তে পাবলিশ করতে পারেন, তথা ট্রেডারদের সহায়ক হবে ভালো ট্রেডিং এর ক্ষেত্রে। এবং আপনার ফরেক্স প্রশিক্ষন কোর্সটি Bdforexpro তে চালু করতে পারেন। ধন্যবাদ;

MohabbatElahi likes this

Share this post


Link to post
Share on other sites

Is The insider secret of global Forex market in Bengali?

আবু মুনসুর ভাই আপনাকে ধন্যবাদ ৤

The insider secret of global Forex Market বই টি বাংলা, ইংলিশ ,অরবি , ঊর্দু ৪ টি version এ আপনি পাবেন ৤ এবং ৪টি  Version ই আমার লেখা ,আপনি বাংলা version টি আমার কাছে পাবেন ৤ এবং এর ফি হল ২০০০/= টাকা,( এটি PDF নয় ) , Others version  ফি $25 USD ( এগুলো PDF) এবং এগুলো বিভিন্ন way তে Global Marketing হচ্ছে ৤

বিঃদ্রঃ প্রাথমিক অবস্থায় আমি আমার ছাত্রদের বইটি class শেষে ফ্রি দিয়েছিলাম কিন্তু কিছু অসাধু ব্যক্তি আমার অজান্তে বইটি ফরেক্স ট্রেডারদের কাছে মাকেটিং করে৤ যা সত্যিই ক্ষমার অযোগ্য ৤ এবং বিষয়টি আমি অবগত হওয়ার পর পূর্বের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করি ৤  এছাড়া আমাদের সম্মানিত জয় ভাই আমাকে বইটি bdforexpro তে আপলোড করতে বলেছিল, এবং এতে আমার কোন আপত্তি ছিলনা তবে দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যে কিছু অসাধু ব্যক্তির কারনে Professional Trader-দের কিছু করার আগ্রহ থাকলে ও তারা এখন অন্যদের নিয়ে ভাবতে আগ্রহি নন ,এর অন্যতম কারন হল আমরা Internet জগতে সব কিছুকেই ব্যবসার দৃষ্টিতে দেখি ৤ এতে করে নতুন ট্রেডারগন বেশি  ক্ষতিগ্রস্থ হন ৤ তাই জয় ভাই, আপনার কাছে আমি লজ্জিত, আপনার request আমি রাখতে পারলাম না ৤

Edited by MohabbatElahi

Share this post


Link to post
Share on other sites

ফরেক্স-প্রশিক্ষন-কোর্স আসলে খুব গুরুত্বপূর্ন ফরেক্স খুব রিস্কি ব্যাবসা আপনি যদি না বুঝে ফরেক্স ব্যাবসা শুরু করেন অল্পতেই সব শেষ হবার সম্ভাবনা থাকে । এই ফরেক্স-প্রশিক্ষন-কোর্স আপনি নিজেও করতে পারেন অথবা দেখুন আপনার শহরের আশে পাশে কোনো ফরেক্স ট্রেনিং সেন্টার আছে কিনা । আমার জানা মতে খুলনা, ঢাকা, চিটাগাং এ সব জায়গাতে ফরেক্স-প্রশিক্ষন-কোর্স ট্রেনিং সেন্টার আছে । আর আপনার জেলাতে যদি ফরেক্স-প্রশিক্ষন-কোর্স ট্রেনিং সেন্টার যদি না থাকে তাহলে অবশ্যই কোনো না কোনো স্নিয়ার ফরেক্স ট্রেডার আপনার শহরে একজন অবশ্যই পাবেন । কারন ফরেক্স এখন এত জনপ্রিয় যে বাংলাদেশের সব জেলাতেই কিছু না কিছু অল্প হলেও স্নিয়ার ফরেক্স ট্রেডার পাবেন তাদের কাছ থেকে সাহায্য নিতে পারেন ফরেক্স-প্রশিক্ষন-কোর্স তাদের কাছ থেকে করতে পারেন ।

Share this post


Link to post
Share on other sites

ফরেক্স ট্রেডিং করতে হলে আগে শেখার কোন বিকল্প নেই, যেভাবেই বলেন না কেন কথা একটাই আগে শিখুন। ইতিমদ্ধো বাংলাদেশে ফরেক্স ট্রেডিং এর উপর বেশ কিছু সাইট হয়ে গেছে যা নিঃসন্দেহে ভালো, তবে এটাও সত্যি সব গুলো সোর্স সঠিক মানের নয়। তাই শুরু করার ক্ষেত্রে আপনাকে বেছে নিতে হবে সঠিক এবং মান সম্মত একটি কোর্স। আপনার অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে বাংলাদেশের প্রথম অধ্যায় ভিত্তিক ফরেক্স ট্রেডিং কোর্সটি আরো উন্নত করে উপযুক্ত লেসন এর মাধ্যমে সাজানো হয়েছে। যা নিশ্চিত করা বলা যেতে পারে বাংলা ভাষায় ফরেক্স ট্রেডিং শেখার ক্ষেত্রে সেরা এবং প্রথম পছন্দ হবে। কোর্সটির অধ্যায় গুলো শেষ করার সাথে সাথে প্রতিটি অধ্যায়ে পাবেন কুইজ টেস্ট যা আপনার সেখার মান বা কতটুকু শিখতে সক্ষম হয়েছেন তা বিচার করবে।

Screenshot_1.thumb.png.687afbbb2860e4ee6

তাই নিঃসন্দেহে শুরু করুন বাংলাদেশের প্রথম, সেরা এবং পুর্নাঙ্গ ফরেক্স ট্রেডিং কোর্স বাংলা ফরেক্স একাডেমী'র সাথেঃ বাংলা ফরেক্স একাডেমী

Edited by জয়™

Share this post


Link to post
Share on other sites

টপিকটিতে মন্তব্য করতে সাইন ইন করুন অথবা নতুন একাউন্ট করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই মেম্বার হতে হবে

একাউন্ট করুন

খুব সহজে একাউন্ট করুন


নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

সাইন ইন

ইতিমধ্যে একাউন্ট করেছেন ? সাইন ইন করুন


এখনি সাইন ইন করুন

  • Similar Content

    • By habib07
      GBP/USD পেয়ারের সংক্ষিপ্ত বিবরণ। আগস্ট 13। যুক্তরাজ্য ইতিহাসের সবচেয়ে খারাপ মন্দায় পড়েছে। ট্রাম্প আমেরিকার একটি আমেরিকান ভ্যাকসিন তৈরির জন্য বাধ্য করবেন

      প্রযুক্তিগত বিবরণ:উচ্চতর লিনিয়ার রিগ্রেশন চ্যানেল: দিক -উর্ধ্বমুখী।
      নিম্ন লিনিয়ার রিগ্রেশন চ্যানেল: দিক -উর্ধ্বমুখী।
      মুভিং এভারেজ (20; স্মুটেড) - সাইডওয়ে।
      সিসিআই: -97.9586
      যদি সপ্তাহের তৃতীয় ট্রেডিং দিনে ইউরোপীয় মুদ্রা একাধারে ট্রেড করে, তবে ব্রিটিশ পাউন্ড আবার তার নিম্নগতিতে চলাচল শুরু করবে। বেশ কয়েক দিন ধরে, ব্রিটিশ মুদ্রা চলাচলের দিক নির্ধারণ করতে সক্ষম হয়নি। একটি ক্লাসিক পরিস্থিতি রয়েছে যখন "কিছু না পারে, অন্যরা চায় না"। বেয়ার এখন পারে না, তবে বুলগুলো চায় না। অধিকন্তু, পরেরটি বোঝা যায়। সকল মহামারী সংক্রান্ত উপাদানগুলো কার্যকর হয়েছে, এবং মহামারীটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে, সুতরাং এই কারণের ভিত্তিতে ডলার বিক্রি করা আর সম্ভব নয়। অধিকন্তু, রাজনৈতিক সঙ্কট রয়েছে, মহামারী সংক্রান্ত সঙ্কটের বিপরীতে এর সরাসরি প্রভাব অর্থনীতিতে পড়েনি। সামাজিক সংকটও কিছুটা স্বস্তি লাভ করেছে, যদিও আমেরিকার কয়েকটি শহরে পুলিশের সাথে দাঙ্গা এবং সংঘাত চলছে। এবং ট্রেডারেরা ইতিমধ্যে একটি প্রতিশোধ নিয়ে অর্থনৈতিক মন্দার কাজ করেছে। 15 মার্চ থেকে, পাউন্ড 16-17 সেন্ট বেড়েছে, যা বেশ কিছুটা। যেমন ইউরো মুদ্রার ক্ষেত্রে, একটি সংশোধন প্রয়োজন। তবে দেখা যাচ্ছে যে কেউ মার্কিন ডলার কিনতে চায় না। যদিও ডলারকে নীচে নামিয়ে দেওয়ার সকল কারণ ইতিমধ্যে কার্যকর করা হয়েছে, তবুও ট্রেডারেরা মার্কিন মুদ্রায় বিনিয়োগ করতে ভয় পান। কেউই জানে না যে নির্দিষ্ট সঙ্কট কখন নিজেকে আবার অনুভূত করবে। অধিকন্তু, বেশিরভাগ বিশেষজ্ঞ ভবিষ্যতের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রায় সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ বলে অভিহিত করেছেন। এটিকে যথাসম্ভব সহজভাবে বলতে গেলে, আগামী চার বছরের জন্য দেশের রাজনৈতিক ও বৈদেশিক অর্থনৈতিক গতি নির্ভর করে কে ক্ষমতায় থাকবে, ডোনাল্ড ট্রাম্প বা জো বিডেন এর উপর নির্ভর করে। ট্রাম্পের অধীনে আমেরিকা যতটা সম্ভব তার সাথে সম্পর্ক আরও খারাপ করেছে। বিশেষত, চীন এবং রাশিয়ার সাথে পাশাপাশি বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থা (উদাহরণস্বরূপ, ডাব্লুএইচও) থেকে সরে এসেছিল। এছাড়াও, ওয়াশিংটন ইতোমধ্যে কয়েকটি দেশের বিরুদ্ধে ট্রেড যুদ্ধের অংশ হিসাবে নিষেধাজ্ঞা এবং শুল্ক আরোপ করেছেন। জো বিডেন যদি ক্ষমতায় আসে তবে অবশ্যই অনেক বেশি হালকা হবে বলে আশা করা হচ্ছে, অন্য আন্তর্জাতিক অংশগ্রহণকারীর সাথে নিয়মিত লড়াই, অভিযোগ ও দ্বন্দ্ব নয় এবং সর্বাগ্রে গুরুত্বপূর্ণ, বিডেন চীনের সাথে সম্পর্ক সুসংহত করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এটি স্পষ্ট যে কোনও পুরো যুদ্ধ-বিগ্রহ প্রশ্নবিদ্ধ নয়, তবে বিডেন কমপক্ষে ট্রেড চুক্তিকে কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছে দিতে পারে। সুতরাং, নির্বাচনের আগ পর্যন্ত মার্কিন মুদ্রা বাজারের চাপের মধ্যে থেকে যেতে পারে, যদিও প্রযুক্তিগত কারণগুলো এর শক্তিশালীকরণের পক্ষে কথা বলে। ডলার শক্তিশালী করা = পাউন্ডের পতন। লন্ডন এবং ব্রাসেলসের মধ্যে আলোচনার অগ্রগতি সম্পর্কে ইতিবাচক কোনও খবর না পাওয়ায় পাউন্ডের পতন এখন খুব যৌক্তিকও হবে।

       বুধবার, 12 আগস্ট, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ইউকে এর জিডিপি প্রকাশিত হয়েছিল। আমরা এই প্রতিবেদনটি প্রায় দেড় সপ্তাহ আগে বলেছিলাম, একে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে আখ্যায়িত করেছি। দেখা গেছে যে দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে ব্রিটিশ অর্থনীতির পতন ঘটে 20.4%, যা মাত্র 0.1%, যা বিশেষজ্ঞদের পূর্বাভাসের সাথে মেলে না। জুনের শেষে জিডিপির প্রবৃদ্ধি প্রত্যাশার তুলনায় কিছুটা বেশি ছিল, + +8.7% m/m। শিল্প উত্পাদনও ট্রেডারদের প্রত্যাশার তুলনায় কিছুটা বেড়েছে, যা + 9.3% m/m। যাইহোক, জিডিপির 20.4% হারানোর একেবারে সত্যটি ব্রিটিশ মুদ্রার বিক্রয়-কারণের কারণ হতে পারে নি। প্রশ্ন, পাউন্ডের পতন কতটা শক্তিশালী হবে?

      এদিকে আমেরিকান পত্রিকা নিউইয়র্ক টাইমস বিশ্বাস করে যে ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রে যে কোনও ভ্যাকসিন ব্যবহারের অনুমতি দেবেন। স্মরণ করুন যে মাত্র কয়েক দিন আগে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাডিমির পুতিন "করোনভাইরাস" এর বিরুদ্ধে বিশ্বের প্রথম টিকা তৈরি
      GBP/USD পেয়ারের সংক্ষিপ্ত বিবরণ। আগস্ট 13। যুক্তরাজ্য ইতিহাসের সবচেয়ে খারাপ মন্দায় পড়েছে। ট্রাম্প আমেরিকার একটি আমেরিকান ভ্যাকসিন তৈরির জন্য বাধ্য করবেন
      প্রযুক্তিগত বিবরণ:উচ্চতর লিনিয়ার রিগ্রেশন চ্যানেল: দিক -উর্ধ্বমুখী।
      নিম্ন লিনিয়ার রিগ্রেশন চ্যানেল: দিক -উর্ধ্বমুখী।
      মুভিং এভারেজ (20; স্মুটেড) - সাইডওয়ে।
      সিসিআই: -97.9586
      যদি সপ্তাহের তৃতীয় ট্রেডিং দিনে ইউরোপীয় মুদ্রা একাধারে ট্রেড করে, তবে ব্রিটিশ পাউন্ড আবার তার নিম্নগতিতে চলাচল শুরু করবে। বেশ কয়েক দিন ধরে, ব্রিটিশ মুদ্রা চলাচলের দিক নির্ধারণ করতে সক্ষম হয়নি। একটি ক্লাসিক পরিস্থিতি রয়েছে যখন "কিছু না পারে, অন্যরা চায় না"। বেয়ার এখন পারে না, তবে বুলগুলো চায় না। অধিকন্তু, পরেরটি বোঝা যায়। সকল মহামারী সংক্রান্ত উপাদানগুলো কার্যকর হয়েছে, এবং মহামারীটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে, সুতরাং এই কারণের ভিত্তিতে ডলার বিক্রি করা আর সম্ভব নয়। অধিকন্তু, রাজনৈতিক সঙ্কট রয়েছে, মহামারী সংক্রান্ত সঙ্কটের বিপরীতে এর সরাসরি প্রভাব অর্থনীতিতে পড়েনি। সামাজিক সংকটও কিছুটা স্বস্তি লাভ করেছে, যদিও আমেরিকার কয়েকটি শহরে পুলিশের সাথে দাঙ্গা এবং সংঘাত চলছে। এবং ট্রেডারেরা ইতিমধ্যে একটি প্রতিশোধ নিয়ে অর্থনৈতিক মন্দার কাজ করেছে। 15 মার্চ থেকে, পাউন্ড 16-17 সেন্ট বেড়েছে, যা বেশ কিছুটা। যেমন ইউরো মুদ্রার ক্ষেত্রে, একটি সংশোধন প্রয়োজন। তবে দেখা যাচ্ছে যে কেউ মার্কিন ডলার কিনতে চায় না। যদিও ডলারকে নীচে নামিয়ে দেওয়ার সকল কারণ ইতিমধ্যে কার্যকর করা হয়েছে, তবুও ট্রেডারেরা মার্কিন মুদ্রায় বিনিয়োগ করতে ভয় পান। কেউই জানে না যে নির্দিষ্ট সঙ্কট কখন নিজেকে আবার অনুভূত করবে। অধিকন্তু, বেশিরভাগ বিশেষজ্ঞ ভবিষ্যতের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রায় সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ বলে অভিহিত করেছেন। এটিকে যথাসম্ভব সহজভাবে বলতে গেলে, আগামী চার বছরের জন্য দেশের রাজনৈতিক ও বৈদেশিক অর্থনৈতিক গতি নির্ভর করে কে ক্ষমতায় থাকবে, ডোনাল্ড ট্রাম্প বা জো বিডেন এর উপর নির্ভর করে। ট্রাম্পের অধীনে আমেরিকা যতটা সম্ভব তার সাথে সম্পর্ক আরও খারাপ করেছে। বিশেষত, চীন এবং রাশিয়ার সাথে পাশাপাশি বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থা (উদাহরণস্বরূপ, ডাব্লুএইচও) থেকে সরে এসেছিল। এছাড়াও, ওয়াশিংটন ইতোমধ্যে কয়েকটি দেশের বিরুদ্ধে ট্রেড যুদ্ধের অংশ হিসাবে নিষেধাজ্ঞা এবং শুল্ক আরোপ করেছেন। জো বিডেন যদি ক্ষমতায় আসে তবে অবশ্যই অনেক বেশি হালকা হবে বলে আশা করা হচ্ছে, অন্য আন্তর্জাতিক অংশগ্রহণকারীর সাথে নিয়মিত লড়াই, অভিযোগ ও দ্বন্দ্ব নয় এবং সর্বাগ্রে গুরুত্বপূর্ণ, বিডেন চীনের সাথে সম্পর্ক সুসংহত করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এটি স্পষ্ট যে কোনও পুরো যুদ্ধ-বিগ্রহ প্রশ্নবিদ্ধ নয়, তবে বিডেন কমপক্ষে ট্রেড চুক্তিকে কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছে দিতে পারে। সুতরাং, নির্বাচনের আগ পর্যন্ত মার্কিন মুদ্রা বাজারের চাপের মধ্যে থেকে যেতে পারে, যদিও প্রযুক্তিগত কারণগুলো এর শক্তিশালীকরণের পক্ষে কথা বলে। ডলার শক্তিশালী করা = পাউন্ডের পতন। লন্ডন এবং ব্রাসেলসের মধ্যে আলোচনার অগ্রগতি সম্পর্কে ইতিবাচক কোনও খবর না পাওয়ায় পাউন্ডের পতন এখন খুব যৌক্তিকও হবে।
       বুধবার, 12 আগস্ট, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ইউকে এর জিডিপি প্রকাশিত হয়েছিল। আমরা এই প্রতিবেদনটি প্রায় দেড় সপ্তাহ আগে বলেছিলাম, একে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে আখ্যায়িত করেছি। দেখা গেছে যে দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে ব্রিটিশ অর্থনীতির পতন ঘটে 20.4%, যা মাত্র 0.1%, যা বিশেষজ্ঞদের পূর্বাভাসের সাথে মেলে না। জুনের শেষে জিডিপির প্রবৃদ্ধি প্রত্যাশার তুলনায় কিছুটা বেশি ছিল, + +8.7% m/m। শিল্প উত্পাদনও ট্রেডারদের প্রত্যাশার তুলনায় কিছুটা বেড়েছে, যা + 9.3% m/m। যাইহোক, জিডিপির 20.4% হারানোর একেবারে সত্যটি ব্রিটিশ মুদ্রার বিক্রয়-কারণের কারণ হতে পারে নি। প্রশ্ন, পাউন্ডের পতন কতটা শক্তিশালী হবে?
      এদিকে আমেরিকান পত্রিকা নিউইয়র্ক টাইমস বিশ্বাস করে যে ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রে যে কোনও ভ্যাকসিন ব্যবহারের অনুমতি দেবেন। স্মরণ করুন যে মাত্র কয়েক দিন আগে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাডিমির পুতিন "করোনভাইরাস" এর বিরুদ্ধে বিশ্বের প্রথম টিকা তৈরির ঘোষণা করেছিলেন, যা এখন রাশিয়ায় ব্যবহৃত হবে। রাশিয়ান ভ্যাকসিনটি তাত্ক্ষণিকভাবে ইউরোপীয় দেশগুলোর নেতারা এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজে সমালোচনা করেছিলেন, পাশাপাশি অনেক ভাইরোলজিস্ট এবং মহামারী বিশেষজ্ঞরাও করেছিলেন। সমালোচনার সারমর্মটি সাধারণ: ভ্যাকসিনটি সকল প্রয়োজনীয় ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলো পাস করেনি এবং সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং 100% কার্যকর হিসাবে বিবেচনা করা যায় না। তবে নিউইয়র্ক টাইমসের মতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে বিষয়টি কিছু যায় আসে না। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল মূল প্রতিযোগীদের মধ্যে একটির ভ্যাকসিন রয়েছে তবে আমেরিকা সেটি দেয় না। সুতরাং, ট্রাম্প আমেরিকান ভ্যাকসিনের আবিষ্কারের কাজকে ত্বরান্বিত করতে চাইতে পারেন, যা অন্যায্য, ত্রুটিযুক্ত গবেষণা এবং পরীক্ষার দিকেও নিয়ে যেতে পারে। আমেরিকার গবেষকরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যে কিছু নভেম্বরের 3 মাসের পরীক্ষার সময়সূচি আগেই শেষ করা যেতে পারে, ঠিক 3 নভেম্বর নির্বাচনের জন্য। আমরা ইতিমধ্যে বলেছি যে ট্রাম্পের নির্বাচনে জয়ের প্রায় একমাত্র সুযোগ হল যুক্তরাষ্ট্রে COVID-2019 এর বিরুদ্ধে একটি ভ্যাকসিন তৈরি করা। যদি ভ্যাকসিন পাওয়া যায়, তবে ট্রাম্প অবশ্যই এর জন্য কৃতিত্ব নেবেন এবং তার রাজনৈতিক রেটিং উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়াতে পারবেন।

      যুক্তরাজ্য এবং আমেরিকাতে, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট কোনও গুরুত্বপূর্ণ সামষ্টিক অর্থনৈতিক প্রকাশনা নির্ধারিত নেই। সুতরাং, মৌলিক পটভূমির প্রভাব অনুপস্থিত থাকবে এবং মৌলিক পটভূমির প্রভাব দৃঢ় হওয়ার সম্ভাবনা কম। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে, এমন একটি পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে যেখানে এই পেয়ারটি না উর্ধ্বমুখী প্রবণতা অব্যাহত রাখতে পারে বা না নিম্নমুখী প্রবণতা শুরু করতে পারে। সাধারণত, বেয়ার কিছু সময়ের জন্য উদ্যোগ না নিলে বুল বাজারে ফিরে আসে। তবে এটির জন্য প্রযুক্তিগত সংকেত এবং নিশ্চিতকরণও প্রয়োজন। এটি সত্য যে বিক্রেতারা এখন অত্যন্ত দুর্বল তার কোনও প্রমাণের প্রয়োজন নেই। এই পেয়ারটি 1.3000 লেভেলের নীচে যেতে পারে না। লোয়ার টাইমফ্রেমগুলোও দেখায় যে মূল্য এখন ট্রেন্ডের চেয়ে পার্শ্ববর্তী পথে চলাচলে বেশি রয়েছে।সুতরাং, প্রযুক্তিগত কারণগুলো আবার প্রথম স্থানে রয়েছে। এবং পাউন্ড / মার্কিন ডলারের পেয়ার এখন "8/8" -1.3184 এবং "2/8" -1.3000 এর মারে লেভেলগুলোর মধ্যে সংকুচিত হয়েছে। সুতরাং, এখন এই পেয়ারটি ট্রেডিং এর জন্য কম টাইমফ্রেম ব্যবহার করা ভাল। GBP/USD পেয়ারের গড় ভোলাটিলিটি বর্তমানে প্রতিদিন 91 পয়েন্ট। পাউন্ড / মার্কিন ডলার পেয়ারের জন্য, এই মানটি "গড়"। বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট, এইভাবে, আমরা চ্যানেলের অভ্যন্তরে চলাচলের আশা করব, 1.2944 এবং 1.3126 মাত্রা দ্বারা সীমাবদ্ধ। হাইকেন আশিকে সূচকটি উপরের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া 1.3000 - 1.3180 এর পার্শ্ব চ্যানেলের অভ্যন্তরে উর্ধ্বমুখী চলাফেরার ইঙ্গিত দেবে। নিকটতম সাপোর্ট লেভেল:
      S1 – 1.3031
      S2 – 1.3000
      S3 – 1.2970
      নিকটতম রেসিস্ট্যান্স লেভেল:
      R1 – 1.3062
      R2 – 1.3123
      R3 – 1.3153
      ট্রেডিং পরামর্শ:
      4 ঘন্টা সময়সীমার মধ্যে GBP/USD পেয়ার পাশের চ্যানেলের অভ্যন্তরে অবস্থিত এবং বর্তমানে নীচে চলেছে। সুতরাং, এই সময়ে, হয় হয় 1.3000 - 1.3180 পাশের চ্যানেলের সীমানার মধ্যে পেয়ারটি ট্রেড করার জন্য বা ফ্ল্যাটটির শেষের জন্য অপেক্ষা করার পরামর্শ দেওয়া হয়।
       
      *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
      বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে [URL=" http://bit.ly/37CKtwI"] এই লিঙ্কটি [/URL] ভিজিট করুন
       
      র ঘোষণা করেছিলেন, যা এখন রাশিয়ায় ব্যবহৃত হবে। রাশিয়ান ভ্যাকসিনটি তাত্ক্ষণিকভাবে ইউরোপীয় দেশগুলোর নেতারা এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজে সমালোচনা করেছিলেন, পাশাপাশি অনেক ভাইরোলজিস্ট এবং মহামারী বিশেষজ্ঞরাও করেছিলেন। সমালোচনার সারমর্মটি সাধারণ: ভ্যাকসিনটি সকল প্রয়োজনীয় ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলো পাস করেনি এবং সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং 100% কার্যকর হিসাবে বিবেচনা করা যায় না। তবে নিউইয়র্ক টাইমসের মতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে বিষয়টি কিছু যায় আসে না। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল মূল প্রতিযোগীদের মধ্যে একটির ভ্যাকসিন রয়েছে তবে আমেরিকা সেটি দেয় না। সুতরাং, ট্রাম্প আমেরিকান ভ্যাকসিনের আবিষ্কারের কাজকে ত্বরান্বিত করতে চাইতে পারেন, যা অন্যায্য, ত্রুটিযুক্ত গবেষণা এবং পরীক্ষার দিকেও নিয়ে যেতে পারে। আমেরিকার গবেষকরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যে কিছু নভেম্বরের 3 মাসের পরীক্ষার সময়সূচি আগেই শেষ করা যেতে পারে, ঠিক 3 নভেম্বর নির্বাচনের জন্য। আমরা ইতিমধ্যে বলেছি যে ট্রাম্পের নির্বাচনে জয়ের প্রায় একমাত্র সুযোগ হল যুক্তরাষ্ট্রে COVID-2019 এর বিরুদ্ধে একটি ভ্যাকসিন তৈরি করা। যদি ভ্যাকসিন পাওয়া যায়, তবে ট্রাম্প অবশ্যই এর জন্য কৃতিত্ব নেবেন এবং তার রাজনৈতিক রেটিং উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়াতে পারবেন।

      যুক্তরাজ্য এবং আমেরিকাতে, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট কোনও গুরুত্বপূর্ণ সামষ্টিক অর্থনৈতিক প্রকাশনা নির্ধারিত নেই। সুতরাং, মৌলিক পটভূমির প্রভাব অনুপস্থিত থাকবে এবং মৌলিক পটভূমির প্রভাব দৃঢ় হওয়ার সম্ভাবনা কম। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে, এমন একটি পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে যেখানে এই পেয়ারটি না উর্ধ্বমুখী প্রবণতা অব্যাহত রাখতে পারে বা না নিম্নমুখী প্রবণতা শুরু করতে পারে। সাধারণত, বেয়ার কিছু সময়ের জন্য উদ্যোগ না নিলে বুল বাজারে ফিরে আসে। তবে এটির জন্য প্রযুক্তিগত সংকেত এবং নিশ্চিতকরণও প্রয়োজন। এটি সত্য যে বিক্রেতারা এখন অত্যন্ত দুর্বল তার কোনও প্রমাণের প্রয়োজন নেই। এই পেয়ারটি 1.3000 লেভেলের নীচে যেতে পারে না। লোয়ার টাইমফ্রেমগুলোও দেখায় যে মূল্য এখন ট্রেন্ডের চেয়ে পার্শ্ববর্তী পথে চলাচলে বেশি রয়েছে।সুতরাং, প্রযুক্তিগত কারণগুলো আবার প্রথম স্থানে রয়েছে। এবং পাউন্ড / মার্কিন ডলারের পেয়ার এখন "8/8" -1.3184 এবং "2/8" -1.3000 এর মারে লেভেলগুলোর মধ্যে সংকুচিত হয়েছে। সুতরাং, এখন এই পেয়ারটি ট্রেডিং এর জন্য কম টাইমফ্রেম ব্যবহার করা ভাল। GBP/USD পেয়ারের গড় ভোলাটিলিটি বর্তমানে প্রতিদিন 91 পয়েন্ট। পাউন্ড / মার্কিন ডলার পেয়ারের জন্য, এই মানটি "গড়"। বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট, এইভাবে, আমরা চ্যানেলের অভ্যন্তরে চলাচলের আশা করব, 1.2944 এবং 1.3126 মাত্রা দ্বারা সীমাবদ্ধ। হাইকেন আশিকে সূচকটি উপরের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া 1.3000 - 1.3180 এর পার্শ্ব চ্যানেলের অভ্যন্তরে উর্ধ্বমুখী চলাফেরার ইঙ্গিত দেবে। নিকটতম সাপোর্ট লেভেল:
      S1 – 1.3031
      S2 – 1.3000
      S3 – 1.2970
      নিকটতম রেসিস্ট্যান্স লেভেল:
      R1 – 1.3062
      R2 – 1.3123
      R3 – 1.3153
      ট্রেডিং পরামর্শ:
      4 ঘন্টা সময়সীমার মধ্যে GBP/USD পেয়ার পাশের চ্যানেলের অভ্যন্তরে অবস্থিত এবং বর্তমানে নীচে চলেছে। সুতরাং, এই সময়ে, হয় হয় 1.3000 - 1.3180 পাশের চ্যানেলের সীমানার মধ্যে পেয়ারটি ট্রেড করার জন্য বা ফ্ল্যাটটির শেষের জন্য অপেক্ষা করার পরামর্শ দেওয়া হয়।
       

      *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।

      বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে [URL=" http://bit.ly/37CKtwI"] এই লিঙ্কটি [/URL] ভিজিট করুন
    • By habib07
      রাশিয়াতে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন আবিস্কারের ঘোষণায় অর্থ বাজারে উদ্দীপনা বেড়েছে (ঝুঁকি গ্রহণের প্রবণতা কম থাকায় সাময়িকভাবে EUR/USD এবং AUD/USD পেয়ার হ্রাস পেতে পারে)
      প্রধান মুদ্রাগুলোর বিপরীতে খুব বেশি না হলেও মঙ্গলবার মার্কিন ডলার আবার চাপে পড়েছিল। ঝুঁকিপূর্ণ সম্পদের উচ্চ চাহিদার কারণে এটা হয়েছিলো, যা প্রতিরক্ষামূলক সম্পদ থেকে নগদ প্রবাহ বৃদ্ধি করে। আমাদের মতে, এটি রাশিয়ার করোনভাইরাস সংক্রমণের বিরুদ্ধে একটি ভ্যাকসিনের সার্টিফিকেট বা ব্যবহারিক প্রয়োগের জন্য শিল্প উত্পাদন সম্পর্কিত সংবাদের কারণ। রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে তা ঘোষণা করেছেন।
       এছাড়াও, অবশ্যই আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের সর্বশেষ সংবাদ যে আমেরিকাতে রোগব্যাধি এবং মৃত্যুর বক্ররেখা হ্রাস পেতে শুরু করেছে তা ইতিবাচক ভূমিকা নিয়েছে, যা একত্রে কোভিড-19 এর ওষুধ উত্পাদন শুরু করার সাথে একটি শক্তিশালী কারণ হিসাবে ডলার বিক্রি পুনরায় শুরু করার জন্য উৎসাহ প্রদান করবে। এটি স্মরণ করা যেতে পারে যে কেবল বাজারের মেজাজের উন্নতিই নয়, বরং মার্কিন ট্রেজারি এবং ফেডারেল রিজার্ভের আগেও নেওয়া প্রচুর উদ্দীপনা ব্যবস্থা আর্থিক ব্যবস্থায় ডলারের সরবরাহকে তাৎপর্যপূর্ণ করে তোলে এবং ফলস্বরূপ, এর দাম হ্রাস করে, যা এটাকে ফান্ডিং কারেন্সি হিসাবে রূপান্তরিত করে।
      মঙ্গলবার, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে উত্পাদন মূল্যস্ফীতি সম্পর্কিত তথ্য প্রকাশিত হয়েছিল, যা অপ্রত্যাশিতভাবে 0.3% এর পূর্বাভাসের উপরে উঠে জুলাই মাসে 0.6% হয়, যেখানে এক মাস আগে সূচকটি 0.2% হ্রাস পেয়েছিলো। বার্ষিক ভিত্তিতে, উত্পাদন মূল্যস্ফীতি এখনও নেতিবাচক অঞ্চলে রয়েছে, যদিও -0.8% থেকে -0.4% সামান্য বেড়েছে।
      এছাড়াও গতকাল, জার্মানিতে ZEW থেকে অর্থনৈতিক সেন্টিমেন্ট এবং অবস্থা সূচকের পরিসংখ্যান প্রকাশ করা হয়েছিল। অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে ক্রমবর্ধমান নেতিবাচক প্রবণতা সত্ত্বেও আগস্টে সেন্টিমেন্ট 71.5 পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে, যা এক মাস আগে 59.3 পয়েন্টের ছিলো। এখানে, সূচকটি অগস্টে 80.9 পয়েন্ট হ্রাস পেয়েছে, যদিও আশা করা হয়েছিলো যে তা -68.8 পয়েন্ট বৃদ্ধি পাবে।
       যুক্তরাজ্যের শ্রমবাজার থেকে প্রাপ্ত তথ্যও খুব খারাপ ছিল না, যেখানে জুলাই মাসে নতুন চাকরির সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে 94,400, যেখানে জুনে নেতিবাচক বৃদ্ধি ছিলো 28,100। এই তথ্য স্টার্লিং হারকেও সমর্থন করে যা একক ইউরোপীয় মুদ্রার পরিপ্রেক্ষিতে চলেছে। আজকের দিনটি নিউজিল্যান্ডের অনেক পরিসংখ্যান দ্বারা পূর্ণ থাকবে, যেখানে মুদ্রানীতি সম্পর্কিত RBNZ সভাও অনুষ্ঠিত হবে, অন্যদিকে গ্রেট ব্রিটেন দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে প্রাথমিক জিডিপি মান এবং শিল্প উত্পাদন ও বাণিজ্য ব্যালেন্সের পরিসংখ্যান প্রকাশ করবে। তবে বিনিয়োগকারীদের মনোযোগ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভোক্তা মূল্যবৃদ্ধির মান প্রকাশের দিকে নিবদ্ধ থাকবে। আমরা মনে করিয়ে দিতে চাই যে মাসিক মান 0.2% এর স্তরে এবং বার্ষিক হ্রাস পেয়ে 1.2% থেকে 1.1% এ প্রত্যাশিত।  
      ধারণা করা যেতে পারে যে পরিসংখ্যান প্রত্যাশার চেয়ে বেশি হয়ে উঠতে না পারলে ডলারের হারের জন্য এটি নেতিবাচক কারণ হতে পারে।
      আজকের পূর্বাভাস:
      ডলার সমর্থণকারী মার্কিন সরকারের বন্ড সরবরাহ ঊর্ধ্বমুখী হতে পারে এমন পরিস্থিতিতে EUR/USD কারেন্সি পেয়ার এর কনসোলিডেশন চলমান রয়েছে। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে নতুন উদ্দীপনা আসবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা ঝুঁকিপূর্ণ সম্পদের চাহিদা এবং তদনুসারে এই জুটির জন্য চাপ তৈরি করে। আমরা বিশ্বাস করি যে এই জুটিটি আপাতত 1.1700-1.1900 এর মধ্যে থাকবে, বা আরও উপরের দিকে চলে আসবে। কিন্তু রেঞ্জ ভেদ করলে তা হ্রাস পেয়ে 1.1600 লেভেলে নেমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার পাশাপাশি বাজারে ঝুঁকি গ্রহণের পরিমাণ হ্রাসের মধ্যে AUD/USD জুটি স্বল্পমেয়াদী ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা থেকে বেরিয়ে এসেছে এবং মনে হয় যে এই পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে প্রবণতা আজ 0.7070 স্তরের মুখোমুখী হবে।


      *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
      বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে [URL=" http://bit.ly/37CKtwI"] এই লিঙ্কটি [/URL] ভিজিট করুন
    • By habib07


       EUR/JPY পেয়ার বর্তমানে ওয়েভ iv এর কারেকশন তৈরি করছে। পরবর্তী মূল্য প্রবণতা 127.25 লেভেল এবং 129.26 লেভেলের দিকে চলমান থাকার আগে তা 123.78 পর্যন্ত ফিরে আসতে পারে। স্বল্পমেয়াদে সাপোর্ট লেভেলের অবস্থান 124.21 এবং 123.78, যা খুব সম্ভবত নিম্নমুখী প্রবণতাকে প্রতিহত করবে এবং ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতাকে সহায়তা করবে।
       R3: 125.82
      R2: 125.59
      R1: 125.43
      পিভট: 125.01
      S1: 124.63
      S2: 124.21
      S3: 123.78
      ট্রেডিংয়ের পরামর্শ:
      আমরা 123.85 লেভেলে ইউরো ক্রয় করব, অথবা 125.41 লেভেল ভেদ করার পর ক্রয় করব।
      *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।

      বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে [URL=" http://bit.ly/37CKtwI"] এই লিঙ্কটি [/URL] ভিজিট করুন
    • By habib07

      ট্রেডিংয়ের পরামর্শ
      এন্ট্রি লেভেল: 0.87590
      এন্ট্রি লেভেল নির্ধারণের কারণ: হরাইজন্টাল সুইং লো সাপোর্ট,  100% ফিবানচি এক্সটেনশন, 38.2% এবং 78.6% ফিবানচি রিট্রেসমেন্ট,
      টেক প্রফিট: 0.88790
      টেক প্রফিট লেভেল নির্ধারণের কারণ: হরাইজন্টাল পুলব্যাক রেসিস্টেন্স এবং  50% ফিবানচি রিট্রাসমেন্ট
      স্টপ লস: 0.87178
      স্টপ লস লেভেল নির্ধারণের কারণ: হরাইজন্টাল সুইং লো সাপোর্ট,   
      *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
      বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে [URL=" http://bit.ly/37CKtwI"] এই লিঙ্কটি [/URL] ভিজিট করুন
    • By habib07


      আমরা আশা করছি প্রবণতা 125.58 - 125.82 রেসিস্ট্যান্স অঞ্চলের দিকে প্রবণতা আসবে এবং এর ফলে ওয়েভ iii সম্পন্ন হবে ও নতুন সাময়িক সাইডওয়েস কারেকশন তৈরি হবে। এই ওয়েভ iv কারেকশন সম্পন্ন হলে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা প্রথমে 127.25 লেভেল ও পরবর্তীতে 129.26 এর দিকে চলমান থাকবে। সাপোর্টের অবস্থান 124.33 - 124.57 অঞ্চল।
      R3: 125.82
      R2: 125.58
      R1: 125.06
      পিভট: 124.57
      S1: 124.33
       S2: 124.23
      S3: 123.78
      ট্রেডিংয়ের পরামর্শ:
      আমরা 123.35 লেভেলে ইউরোতে লং পজিশনে রয়েছি এবং 124.00 তে স্টপ নির্ধারণ করেছি। আমরা 125.50 লেভেলে 50% মুনাফা গ্রহণ করব।
      *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
      বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে [URL=" http://bit.ly/37CKtwI"] এই লিঙ্কটি [/URL] ভিজিট করুন